আইফোন ৬এস

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
আইফোন ৬এস এবং আইফোন ৬এস প্লাস
IPhone 6s Logo.svg
ব্র্যান্ডঅ্যাপল
স্লোগান"The only thing that's changed is everything"
সামঞ্জস্যপূর্ণ নেটওয়ার্কGSM, CDMA, ৩জি, EVDO, বিবর্ধিত এইচএসপিএ, এলটিই, উন্নত এলটিই
সর্বপ্রথম মুক্তি২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৫; ৩ বছর আগে (2015-09-25)
পূর্বসূরীআইফোন ৬ এবং আইফোন ৬ প্লাস
ধরন
মাত্রা৬এস:
১৩৮.৩ মিমি (৫.৪৪ ইঞ্চি) উচ্চতা
৬৭.১ মিমি (২.৬৪ ইঞ্চি) প্রস্থ
৭.১ মিমি (০.২৮ ইঞ্চি) মাত্রা
৬এস প্লাস:
১৫৮.২ মিমি (৬.২৩ ইঞ্চি) উচ্চতা
৭৭.৯ মিমি (৩.০৭ ইঞ্চি) প্রস্থ
৭.৩ মিমি (০.২৯ ইঞ্চি) মাত্রা
ওজন৬এস: ১৪৩ গ্রাম (৫.০ আউন্স)
৬এস প্লাস: ১৯২ গ্রাম (৬.৮ আউন্স)
অপারেটিং সিস্টেমমুক্তি: আইওএস ৯
বর্তমান: আইওএস ৯.০.১, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৫ (2015-09-23)
চিপে সিস্টেমঅ্যাপল এ৯ , অ্যাপল এম৯ সচল কোপ্রসেসর
সিপিইউ১.৮ GHz ডুয়াল কোর ৬৪-বিট ARMv8-A
মেমোরি২ গিবা LPDDR4 রাম
সংরক্ষণাগার১৬, ৬৪, ও ১২৮ গিবা
ব্যাটারি৬এস: ৩.৮২V ৬.৫৫ W·h (১,৭১৫ mA·h) Li-Po
৬এস প্লাস: ৩.৮ V ১০.৪৫ W·h (২,৭৫০ mA·h) Li-Po
প্রদর্শন৬এস: ৪.৭ ইঞ্চি (১২০ মিমি) অক্ষিপট প্রদর্শন, LED-backlit IPS LCD, ৭৫০ x ১৩৩৪ পিক্সেল প্রদর্শন (৩২৬ পিক্সেল প্রতি ইঞ্চি), দ্বৈত আয়ন বিনিময় শক্তিশালী কাচ এবং ত্রিমাত্রিক স্পর্শ
৬এস প্লাস: ৫.৫ ইঞ্চি (১৪০ মিমি) অক্ষিপট প্রদর্শন, LED-backlit IPS LCD, ১৯২০ x ১০৮০ পিক্সেল প্রদর্শন (৪০১ পিক্সেল প্রতি ইঞ্চি), দ্বৈত আয়ন বিনিময় শক্তিশালী কাচ এবং ত্রিমাত্রিক স্পর্শ
পিছন ক্যামেরা১২ মেগাপিক্সেল (১.২২ μm), ফ্ল্যাশ, অটোফোকাস, ইনফ্রা কর্তক পরিশোধক, বিস্ফোরিত ছবি, f/২.২ এফ-নম্বর, 4K ভিশিও রেকর্ডিং, ধীর গতি ভিডিও, টাইমলেপ্স, পরিদৃশ্য, চেহারা শনাক্তকরণ, ডিজিটাল ছবি স্থিতিশীলতা
সম্মুখ ক্যামেরা৫ মেগাপিক্সেল, বিস্ফোরিত ছবি, f/২.২ এফ-নম্বর, উন্মুক্ততা নিয়ন্ত্রণ, চেহারা শনাক্তকরণ, স্বয়ংক্রিয়-উচ্চ-গতিশীল-পরিসীমা চিত্রগ্রহণ, ৭২০ পিক্সেল ভিশিও রেকর্ডিং, "রেটিনা ফ্ল্যাশ"
শব্দমনো স্পিকার, ৩.৫ মিলিমিটার অডিও জ্যাক
সংযোগ
শ্রবণ যন্ত্রের উপযুক্ততাM3, T4
ওয়েবসাইটwww.apple.com/asia/iphone-6s

আইফোন ৬এস এবং আইফোন ৬এস প্লাস (বাজারে iPhone 6s এবং iPhone 6s Plus বানানে ব্যবসায়ীচিহ্ন) হল অ্যাপল দ্বারা পরিকল্পিত স্মার্টফোন, ২০১৫ সেপ্টেম্বরে প্রকাশিত, আইফোন ধারাবাহিকের ৯তম পণ্য।[১] আইফোন ৬এস এবং আইফোন ৬এস প্লাস তাদের পূর্বসুরীদের তুলনায় বিবর্তন করা, যেমন উন্নত হার্ডওয়্যার বৈশিষ্ট্যযুক্ত, ত্রিমাত্রিক স্পর্শ-সহ, সংবেদনশীল স্পর্শতাযুক্ত টাচস্ক্রিন, উন্নীত ক্যামেরা; দ্রুত প্রসেসর এবং উন্নত এলটিইওয়াই-ফাই সংযোগ।

বৈশিষ্ট্য[সম্পাদনা]

আইফোন ৬এস-র হার্ডওয়্যার পরিকল্পনা আইফোন ৬-র চেয়ে প্রায় অভিন্ন। আইফোন ৬এস-র শরীর শক্তিশালী ৭০০০ সিরিজের অ্যালুমিনিয়াম দিয়ে তৈরি করা। এটি স্বর্ণ, রৌপ্য, মহাকাশীয় ধূসর এবং গোলাপি রঙে উপলব্ধ। আইফোন ৬এস হল অ্যাপল এ৯ চিপ দ্বারা চালিত, যেটি আগের অ্যাপল এ৮ থেকে ৭০% দ্রুত এবং ৯০% বেশি ভাল গ্রাফিক্স কর্মক্ষমতা।[২] আইফোন ৬এস -এ ২ গিবা বাম রয়েছে, যেটি আগের সমস্ত আইফোন থেকে বেশি, এবং উন্নত এলটিইর সমর্থন রয়েছে।

আইফোন ৬এস-র প্রদর্শন ৪.৭-ইঞ্চি ৭৫০-পিক্সেল এবং ৬এস প্লাস-র ৫.৫-ইঞ্চি ১০৮০-পিক্সেল। আইফোন ৬এস এবং ৬এস প্লাস-এ রয়েছে নতুন ত্রিমাত্রিক স্পর্শ প্রযুক্তি, যেখানে স্ক্রীন পর্দার স্তরে সেন্সর গ্রথীত করা আছে, যা স্ক্রীন পর্দা এবং কাচের মধ্যে দূরত্ব দ্বারা ব্যবহারকারীর স্পর্শের অপরিবর্তন পরিমাপ করে, যা দিয়ে আইফোন স্বাভাবিক এবং জবরদস্ত ছোঁয়ার মধ্যে পার্থক্য বুঝতে সক্ষম। আইফোন ৬এস এবং ৬এস প্লাস-এ ১২ মেগাপিক্সেল এবং সামনে ৮ মেগাপিক্সেল উন্নত ক্যামেরা, এবং রয়েছে ৪০০০ পিক্সেল ভিডিও রেকর্ড করার ক্ষমতা।

সফটওয়্যার[সম্পাদনা]

আইফোন ৬এস ও ৬এস প্লাস আইওএস ৯-র মুক্তির সাথে প্রকাশিত। ক্যামেরা অ্যাপে আছে "অক্ষিপট ফ্ল্যাশ" বা "রেটিনা ফ্ল্যাশ", নিজস্বী তোলার সময় স্ক্রীনের প্রদর্শন নিজে নিজেই অধিক উজ্জ্বল হয়ে উঠে ফ্ল্যাশের মতন।[৩] আইফোন ৬এস ও ৬এস প্লাস-র মুক্তির সাথে চলন্ত ছবি তোলার প্রযুক্তিটাও মুক্তি নিল।

মুক্তি[সম্পাদনা]

আইফোন ৬এস ও ৬এস প্লাস, ২০১৫ সেপ্টেম্বর ২৫শে, অস্ট্রেলিয়া, কানাডা, গণচীন, ফ্রান্স, জার্মানি, হংকং, জাপান, নিউজিল্যান্ড, পুয়ের্তো রিকো, সিঙ্গাপুর, যুক্তরাজ্যমার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে মুক্তি পেল।[৪]

বাংলাদেশে, ২০১৫ ডিসেম্বর ১১ তারিখ হতে আইফোন ৬এস গ্রামীণফোন[৫], রবি[৬]বাংলালিংক[৭] দ্বারা মাসিক কিস্তি ও প্যাক-সহ পাওয়া যাচ্ছে ।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. নতুন আইফোন ৬এস ও ৬এস প্লাস লঞ্চ করল অ্যাপল -বাংলাটেক২৪.কম
  2. "যা থাকছে আইফোন ৬এস ও আইফোন ৬এস প্লাসে"প্রিয়.কম। ১০ সেপ্টেম্বর ২০১৫। সংগ্রহের তারিখ ১০ সেপ্টেম্বর ২০১৫ 
  3. "আইফোন ৬ ও ৬ প্লাস বনাম আইফোন ৬এস ও ৬এস প্লাস"। ৪ মার্চ ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩১ জানুয়ারি ২০১৯ 
  4. আইফোন ৬এস পেতে দীর্ঘ লাইন - বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
  5. আইফোন ৬এসএবং ৬এস প্লাস অফার: গ্রামীণফোন
  6. "রবি আইফোন 6s"। ৫ জানুয়ারি ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৮ নভেম্বর ২০১৫ 
  7. IPHONE 6S & 6S PLUS - বাংলালিংক

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]

পূর্বসূরী
আইফোন ৬ / আইফোন ৬ প্লাস
আইফোন ৬এস / আইফোন ৬এস প্লাস
৯তম পণ্য
উত্তরসূরী
শায়িত্ব