সুলেমান হোসেন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
সুলেমান হোসেন
জন্ম(১৯৫০-০২-০১)১ ফেব্রুয়ারি ১৯৫০
মৃত্যু১৪ ডিসেম্বর ১৯৭১(1971-12-14) (বয়স ২১)
জাতীয়তাবাংলাদেশী
জাতিসত্তাবাঙালি
নাগরিকত্ব পাকিস্তান (১৯৭১ সালের পূর্বে)
 বাংলাদেশ (১৯৭১ সালের পর)

শহীদ সুলেমান হোসেন (জন্ম: ১লা ফেব্রুয়ারি, ১৯৫০ - মৃত্যু: ১৪ই ডিসেম্বর, ১৯৭১) বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধে প্রাণ উৎসর্গকারী একজন বীর মুক্তিযোদ্ধাগেরিলা। সিলেট অঞ্চলের শহীদ মুক্তিযোদ্ধাদের মধ্যে তিনি অন্যতম।

জন্ম ও পারিবারিক পরিচয়[সম্পাদনা]

শহীদ সুলেমান ১৯৫০ সালের ১লা ফেব্রুয়ারি তারিখে বাংলাদেশের সিলেট জেলার বিশ্বনাথ উপজেলার খাজাঞ্চী ইউনিয়নের তৎকালীন ছোটদিঘলী (বর্তমান: শহীদ সুলেমান নগর) গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। আব্দুল ওহাব ও খয়রুন নেছা খাতুনের আট সন্তানের মধ্যে তিনি ২য়। তার পিতা সিলেট শহরের রসময় উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক ছিলেন।

শিক্ষা[সম্পাদনা]

শহীদ সুলেমান বিশ্বনাথ উপজেলার তালিবপুর প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনের পর তার পিতা দুষ্কৃতকারীদের হাতে নিহত[১] হলে কিছুদিন পড়াশোনা বন্ধ থাকে তার। পরবর্তীতে তিনি তার মাতুলালয় মৌলভীবাজার জেলার কুলাইড়া উপজেলার বরমচালের বরমচাল উচ্চ বিদ্যালয়ে ভর্তি হন এবং সেখান থেকে ১৯৬৬ সালে ১ম বিভাগে মাধ্যমিক পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হন। এরপর তিনি সিলেটের এম. সি. কলেজ থেকে ১৯৬৮ সারে উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়ে মদন মোহন কলেজে স্নাতক শ্রেণীতে ভর্তি হন।

সম্মননা[সম্পাদনা]

  • স্বাধীনতা লাভের পর সিলেটের কেন্দ্রীয় মুসলিম সাহিত্য সংসদ-এর মূল সভাকক্ষটির নাম "জিন্নাহ হল" থেকে পরিবর্তন করে "শহীদ সুলেমান হল" রাখা হয়।[২]
  • স্বাধীনতা লাভের পর শহীদ সুলেমানের সম্মানে তার জন্মস্থানের নাম "ছোটদিঘলী" পরিবর্তন করে "শহীদ সুলেমান নগর" রাখা হয়।
  • শহীদ সুলেমানের স্মরণে প্রতি বছর শিশু-কিশোরদের সংগঠন আনন্দ খেলাঘর আসর বৃত্তি পরীক্ষার আয়োজন করে থাকে।[৩][৪]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]