সাইটোসল

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
Jump to navigation Jump to search
সাইটোসল এক ধরনের তরল পদার্থ যা বিভিন্ন ধরনের মলিকিঊল সমন্বয়ে পরিপূর্ন। [১]

সাইটোসল অথবা সাইটোপ্লাজমিক ম্যাট্রিক্স হল একপ্রকারের তরল পদার্থ যা কোষের মধ্যে থাকে। এটি সাধারনতঃ ইন্ট্রা সেলুলার ফ্লুইড অর্থাৎ দুটি কোষের অন্তরবর্তী জলীয় পদার্থ। এরা ঝিল্লী পর্দার দ্বারা পৃথক অবস্থায় থাকে। উদাহরণস্বরূপ মাইটোকন্ড্রিয়াল ম্যাট্রিক্সকে মাইটোকন্ড্রিয়ন বিভিন্ন ভাগে বিভক্ত করেছে।

ইউক্যারিওটিক কোষ এর ক্ষেত্রে, কোষের মধ্যবর্তী সাইটোসল, যা সাইটোপ্লাজমের অংশ এবং সাইটোসল বিভিন্ন অরগান্যালস যেমন- প্লাসটিড এবং মাইটোকন্ড্রিয়া পৃথক করেছে একে অপরের থেকে কিন্তু কখনই তাদের মধ্যেকার জলীয় পদার্থর আকৃতি অথবা গঠন নষ্ট না করে। সাইটোসল হল জলীয় অংশ যা অরগান্যালস গুলির চারপাশে বিরাজমান এবং কোষ নিউক্লিয়াসগুলি্কে পৃথক করে। প্রোক্যারিওটিক কোষের ক্ষেত্রে মেটাবলিসম এর বিভিন্ন রাসায়নিক ক্রিয়া অধিকাংশই সাইটোসলে সম্পন্ন হয়। কিছু কিছু রাসায়নিক ক্রিয়া ঝিল্লী পর্দা অথবা পেরিপ্লাজমিক অংশে হয়। ইউক্যারিওটিক কোষেও অধিকাংশ মেটাবলিক রাসায়নিক ক্রিয়া সাইটোসলেই হয়, বাকী রাসায়নিক ক্রিয়া অরগান্যালস এর মধ্যে সম্পন্ন হয়।

সাইটোসল হল জলের দ্রবনীয় বিভিন্ন পদার্থর জটিল মিশ্রন। সাইটোসলের বেশীর ভাগ অংশই জলীয়। তবে কোষের ভেতরের আকৃতি এবং বৈশিষ্ট কিরকম তা এখনও বোঝা যায়নি। সাইটোসলে প্রাপ্ত আয়নের ঘনত্ব বিশেষতঃ সোডিয়াম এবং পটাশিয়াম এক্সট্রা সেলুলার ফ্লুইড এর থেকে পৃথক হয়। আয়নের ঘনত্বের এই পার্থক্যটা খুব জরুরী ওসমোরেগুলেশন, কোষের সিগন্যাল প্রেরন ইত্যাদি পদ্ধতিগুলির জন্য। এছাড়া এন্ডোক্রাইন, নার্ভ এবং মাসল কোষের মধ্যে অ্যাকশন-পোটেনসিয়াল ক্রিয়া বজায় রাখার জন্য। সাইটোসল, জলীয় অংশ ছাড়াও অনেকটা পরিমানে ম্যাক্রো মলিকিউলস থাকে। যারা অন্যান্য মলিকিউলসের আচরনের সাথে নিজেদের সামঞ্জস্য বজায় রাখে, এই পদ্ধতিকে ম্যাক্রো মলিকিউলার ক্রাউডিং বলে।

পূর্বে সাইটোসলকে বিভিন্ন মলিকিউলসের সরল দ্রবন মনে করা হত কিন্তু সাইটোসলে বিভিন্ন প্রকার প্রক্রিয়া সম্পন্ন হয়। এখানে যেমন ক্যালসিয়াম এর মতো ছোট কনার অথবা মলিকিউলসের কনসেন্ট্রেশন গ্রেডিয়েন্ট আবার উৎসেচক এর দীর্ঘ এবং জটিল প্রক্রিয়া যা একসাথে বিভিন্ন মেটাবলিক পাথওয়েকে চালনা করে। আবার প্রোটিন কমপ্লেক্স যেমন-প্রটিওজোম এবং কার্বক্সিজোম এইগুলি সাইটোসলের পৃথক অংশ।

সংজ্ঞা[সম্পাদনা]

সাইটোসল কথাটি প্রথম ব্যবহার করা হয় ১৯৬৫ সালে এইচ এ লার্ডে র দ্বারা, আলট্রাসেন্ট্রিফিউগেশনএর ফলে কোষের অবদ্রব্য অংশ পড়ে থাকে[২][৩] এবং কোষের ভাঙ্গনের ফলে যে তরল পাওয়া যেত তাকে বোঝানো হত। কিন্তু কোষ ভাংগনের ফলে দ্রাব্য তরল এবং কোষ সাইটোপ্লাজমের দ্রাব্য অংশ একই নয়, সাধারনত একে সাইটোপ্লাসমিক ফ্রেকশন বলে। বর্তমানে সাইটোসল বলতে বোঝানো হয় কোনো সম্পূর্ন কোষের সাইটোপ্লাজমের তরল অবস্থা। [৩] সাইটোপ্লাসমের মধ্যস্থ অরগ্যানিলস ব্যতীত বাকি অংশকে সাইটোসল বলা হয়। [৪] কোনো রকম ভ্রান্ত ধারনা যাতে তৈরী না হয়, তাই সাইটোসল বোঝাতে ভগ্ন কোষের নির্যাস এবং সম্পূর্ন কোষের দ্রাব্য অংশ উভয়ই বোঝানো হয় এবং জলীয় সাইটোপ্লাজম বলতে বোঝানো হয় জীবিত সাইটোপ্লাজমের জলীয় অংশ।[২]

ধর্ম এবং উপাদান[সম্পাদনা]

মানব কোষের ইন্ট্রা সেলুলার ফ্লুইড

সাধারনতঃ কষের আয়তন অনুসারে সাইটোসল এর ধর্মের অথবা বৈশিষ্ট্যের পরিবর্তন লক্ষ্য করা যায়। উদ্ভিদ এর ক্ষেত্রে মুখ্য প্রকোষ্ঠ হল বয়োর কেন্দ্রীয় ভ্যাকুওল।[৫] সাইটোসলের প্রধান উপাদান হল জল এবং জলে দ্রাব্য বিভিন্ন আয়নস, ছোট কনা অথবা মলিকিউলস এবং জলে দ্রাব্য বৃহৎ মলিকিউলস যেমন-প্রোটিন। বেশিরভাগ প্রোটিন ব্যতীত কনাগুলির আণবিক ভর থাকে যা ৩০০ ডালটন [৬] এর কম হয়। এই ক্ষুদ্র মলিকিউল্গুলির কার্যকারিতা জটিল এবং ভিন্নধর্মী। এই ক্ষুদ্র কনাগুলি বিভিন্ন বিপাক ক্রিয়ার সাথে যুক্ত এবং বিপাকজাত কনার সাথে মিশে থাকে। যেমন-২০০০০০ রকমের ভিন্ন ভিন্ন খুদ্র কনা উদ্ভিদ কোষে পাওয়া যায়, কিন্তু কখনই তা একটি কষে অথবা একই প্রজাতির মধ্যে সব কনা পাওয়া সম্ভব নয়। [৭] একটি মাত্র কোষ যেমন- Escherichia coli অথবা Saccharomyces cerevisiae এ বিপাকজাত কনা প্রায় ১০০০ সংখ্যক উতপন্ন হয়।[৮][৯]

জল[সম্পাদনা]

আয়নস[সম্পাদনা]

স্তন্যপায়ী প্রানীদের সাইটোসল এবং রক্তে আয়নের ঘনত্ব.[৪]
আয়ন  সাইটোসলে ঘনত্ব (মিলিমোলার  রক্তে ঘনত্ব (মিলিমোলার
 পটাশিয়াম   ১৩৯   ৪ 
 সোডিয়াম   ১২   ১৪৫ 
 ক্লোরাইড   ৪   ১১৬ 
 বাইকার্বোনেট   ১২   ২৯ 
 অ্যামিনো অ্যাসিড প্রোটিন এর   ১৩৪   ৯ 
 ম্যাগিনেশিয়াম   ০.৮   ১.৫ 
 ক্যালশিয়াম   <০.০০০২   ১.৮ 

ম্যাক্রো মলিকিউলস[সম্পাদনা]

প্রোটিনের কণা কোষ পর্দার অথবা সাইটোস্কেলিটন এর সাথে যুক্ত হয় না কিন্তু এরা সাইটোসলে দ্রাব্য। কোষের মধ্যে প্রোটিনের পরিমান খুব বেশী ২০০মিগ্রা/মিলি যা সাইটসলের ২০-৩০% আয়তন পূর্ন করে।

প্রোক্যারিওটিক কোষের সাইটোসল কোষের জিনোম বহন করে এবং এই গঠনযুক্ত অংশকে নিউক্লিওড বলে। এগুলি হল ডিএনএ এর অংশ এবং এই প্রক্রিয়ায় যুক্ত প্রোটিন, যারা ব্যাকটেরিয়ার ক্রোমোজম এবং প্লাস্মিডের ট্রান্সক্রিপশন এবং রেপলিকেশন নিয়ন্ত্রন করে। ইউক্যারিওটিক্স দের ক্ষেত্রে কোষ নিউক্লিয়াসের ভেতরে জিনোমের বিভিন্ন প্রক্রিয়া ঘটে এবং কোষ নিউক্লিয়াস থেকে সাইটোসলকে পৃথক করছে নিউক্লিয়ার পোরগুলি যারা ১০ ন্যন্নোমিটার আকারের বড় মলিকিউলের মুক্ত ব্যাপন প্রক্রিয়াতে বাধার সৃষ্টি করে।[১০]

কার্যকারিতা[সম্পাদনা]

সাইটোসল কোনো একটি কার্য সম্পন্ন করেনা,কষের বিভিন্ন প্রক্রিয়ায় অংশগ্রহন করে। উদাহরণ স্বরূপ, ঝীল্লিপর্দা থেকে কোষের মধ্যবর্তী অংশ যেমন-নিউক্লিয়ার্স কোষ ট্রান্সডাকশন [১১] এ সক্রিয় ভূমিকা পালন করে। মাইটোসিস পদ্ধতিতে কোষ বিভাজনের সময় যে নিউক্লিয়ার মেমব্রেন বিভক্ত হয় অর্থাৎ সাইটোকাইনেসিস এর বিভিন্ন প্রক্রিয়া সাইটোসলে সম্পন্ন হয়।[১২] সাইটোসল এর অপর গুরুত্ব পূর্ন কাজ হল- বিপাক ক্রিয়াজাত কনা অথবা মলিকিউলগুলিকে তাদের উৎপত্তি স্থল থেকে, যে অঞ্চলে এই কনাগুলি ব্যবহৃত হবে, সেই অঞ্চলে অথবা স্থানে পৌঁছে দেওয়া। জলে দ্রাব্য কনা যেমন- অ্যামিনো অ্যাসিড দের পৌঁছে দেওয়ার কাজটি তুলনামূলক সহজ কারণ এই কনাগুলি সহজেই সাইটোসলে ব্যাপন ক্রিয়ার মাধ্যমে চালিত হয় কিন্তু জলে অদ্রাব্য মলিকিউলস যেমন- ফ্যাটি অ্যাসিড অথবা স্টেরল ইত্যাদি কনা সাইটোসল এর মধ্যে দিয়ে চালিত হতে গেলে কিছু নির্দিষ্ট বাইন্ডিং প্রোটিন এর প্র্যোজন হয়, যারা কনাগুলিকে কোষ পর্দার ভিতরে প্রবেশ করতে সাহায্য করে।[১৩][১৪]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Goodsell DS (জুন ১৯৯১)। "Inside a living cell"। Trends Biochem. Sci.16 (6): 203–6। doi:10.1016/0968-0004(91)90083-8PMID 1891800 
  2. উদ্ধৃতি ত্রুটি: অবৈধ <ref> ট্যাগ; Clegg1984 নামের সূত্রের জন্য কোন লেখা প্রদান করা হয়নি
  3. Cammack, Richard; Teresa Atwood; Attwood, Teresa K.; Campbell, Peter Scott; Parish, Howard I.; Smith, Tony; Vella, Frank; Stirling, John (২০০৬)। Oxford dictionary of biochemistry and molecular biology। Oxford [Oxfordshire]: Oxford University Press। আইএসবিএন 0-19-852917-1ওসিএলসি 225587597 
  4. Lodish, Harvey F. (১৯৯৯)। Molecular cell biology। New York: Scientific American Books। আইএসবিএন 0-7167-3136-3ওসিএলসি 174431482 
  5. Bowsher CG, Tobin AK (এপ্রিল ২০০১)। "Compartmentation of metabolism within mitochondria and plastids"J. Exp. Bot.52 (356): 513–27। doi:10.1093/jexbot/52.356.513PMID 11373301 
  6. Goodacre R, Vaidyanathan S, Dunn WB, Harrigan GG, Kell DB (মে ২০০৪)। "Metabolomics by numbers: acquiring and understanding global metabolite data" (PDF)Trends Biotechnol.22 (5): 245–52। doi:10.1016/j.tibtech.2004.03.007PMID 15109811 
  7. Weckwerth W (২০০৩)। "Metabolomics in systems biology"। Annu Rev Plant Biol54: 669–89। doi:10.1146/annurev.arplant.54.031902.135014PMID 14503007 
  8. Reed JL, Vo TD, Schilling CH, Palsson BO (২০০৩)। "An expanded genome-scale model of Escherichia coli K-12 (iJR904 GSM/GPR)"Genome Biol.4 (9): R54। doi:10.1186/gb-2003-4-9-r54PMID 12952533পিএমসি 193654অবাধে প্রবেশযোগ্য 
  9. Förster J, Famili I, Fu P, Palsson BØ, Nielsen J (ফেব্রুয়ারি ২০০৩)। "Genome-Scale Reconstruction of the Saccharomyces cerevisiae Metabolic Network"Genome Res.13 (2): 244–53। doi:10.1101/gr.234503PMID 12566402পিএমসি 420374অবাধে প্রবেশযোগ্য 
  10. Peters R (২০০৬)। "Introduction to nucleocytoplasmic transport: molecules and mechanisms"। Methods Mol. Biol.। Methods in Molecular Biology™। 322: 235–58। doi:10.1007/978-1-59745-000-3_17PMID 16739728আইএসবিএন 978-1-58829-362-6 
  11. Kholodenko BN (জুন ২০০৩)। "Four-dimensional organization of protein kinase signaling cascades: the roles of diffusion, endocytosis and molecular motors"। J. Exp. Biol.206 (Pt 12): 2073–82। doi:10.1242/jeb.00298PMID 12756289 
  12. Winey M, Mamay CL, O'Toole ET (জুন ১৯৯৫)। "Three-dimensional ultrastructural analysis of the Saccharomyces cerevisiae mitotic spindle"J. Cell Biol.129 (6): 1601–15। doi:10.1083/jcb.129.6.1601PMID 7790357পিএমসি 2291174অবাধে প্রবেশযোগ্য 
  13. Weisiger RA (অক্টোবর ২০০২)। "Cytosolic fatty acid binding proteins catalyze two distinct steps in intracellular transport of their ligands"। Mol. Cell. Biochem.239 (1–2): 35–43। doi:10.1023/A:1020550405578PMID 12479566 
  14. Maxfield FR, Mondal M (জুন ২০০৬)। "Sterol and lipid trafficking in mammalian cells"। Biochem. Soc. Trans.34 (Pt 3): 335–9। doi:10.1042/BST0340335PMID 16709155