শীষ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন

শীষ,[ক] শীছ, বা শেথ হলেন ইসলাম ধর্ম, ইহুদী ধর্ম এবং খ্রীষ্ট ধর্মের একজন নবী, যিনি আদম এবং হাওয়ার তৃতীয় পুত্র ছিলেন। শীষ (שת) শব্দটি মূলত হিব্রু। এর ইংরেজি রূপ Seth, Sheth এবং আরবী রূপ (شيث) অর্থ “আল্লাহর দান”। হযরত আদম (আ)-এর দ্বিতীয় পুত্র হাবীলের মর্মান্তিকভাবে নিহত হওয়ার পাঁচ বছর পর তিনি জন্মগ্রহণ করেন। সেজন্য হযরত আদম (আ) তাকে আল্লাহর দানরূপে গণ্য করে এই নামকরণ করেন।[১]

বাইবেলে শীষ[সম্পাদনা]

আদি পুস্তক অনুযায়ী, আদম (আ)-এর ১৩০ বৎসর বয়সকালে তিনি জন্মগ্রহণ করেন। [২] বাইবেলে শীষ -এর জন্ম, সন্তান লাভ ও মৃত্যু সম্পর্কে সংক্ষিপ্ত বিবরণ প্রদান করা হয়েছে যাহ নিম্নরূপ ঃ “আর আদম পুনর্বার আপন স্ত্রীর পরিচয় লইলে তিনি পুত্র প্রসব করিলেন ও তাহার নাম শেথ রাখিলেন, (কেননা তিনি কহিলেন), কয়িন কর্তৃক হত হেবলের পরিবর্তে সদাপ্রভু আমাকে আর এক সন্তান দিলেন। পরে শেথেও পুত্র জন্মিল, আর তিনি তাহার নাম ইনােশ রাখিলেন (বাইবেলের আদি পুস্তক, পৃ. ৬)

আর আদম তাঁর ৯৩০ বয়সে মারা যান। আদি পুস্তক অনুযায়ী শীষ ৯১২ বছর বয়স পর্যন্ত বেঁচে ছিলেন। [৩]

বাসস্থান[সম্পাদনা]

Encyclopaedia of Islam-এর নিবন্ধকার CL, Huart-এর বর্ণনামতে তিনি জীবনের অধিকাংশ সময় সিরিয়ায় কাটান। সেখানেই তিনি জন্মগ্রহণ করেন।[৪] কিন্তু এই বর্ণনা ইবনে কাসির একেবারেই অমূলক ও ভিত্তিহীন বলেন। কারণ শীছ (আ) তার পিতার প্রিয়তম পুত্র ছিলেন। তাই তিনি সর্বদা আদম (আ)-এর সান্নিধ্যে থেকে তাঁর খিদমত করেন বলে প্রমাণ পাওয়া যায়। যেমন উত্তর কালের বর্ণনামতে, একবার হযরত আদম (আ)-এর অসুখের সময় জান্নাতের তৈল ও যায়তুন ফল খাওয়ার জন্য তাঁর বাসনা জাগে। তিনি স্বীয় পুত্র শীছকে সায়না পর্বতে আল্লাহর নিকট হইতে তা চেয়ে আনবার জন্য প্রেরণ করলেন। সেখানে আল্লাহ তাঁকে বললেন, তােমার পাত্র আগাইয়া ধরো। অতঃপর মুহূর্তের মধ্যে তা আদম (আ)-এর কাঙ্খিত জিনিসে পূর্ণ হয়ে গেল। পরে আদম (আ) নিজের শরীরে উক্ত তৈল মালিশ করিলেন এবং কয়েকটি যায়তুন ফল খাইলেন। সঙ্গে সঙ্গে তিনি সুস্থ হয়ে গেলেন। এই ঘটনাই প্রমাণ করে যে, শীছ (আ) স্বীয় পিতা আদম (আ)-এর সান্নিধ্যে থাকতেন। আর আদম (আ) মক্কা শরীফে বসবাস করেন, সেখানেই ইনতিকাল করেন এবং আবু কুবায়স পর্বতের পাদদেশে তাঁকে দাফন করা হয়।[১]

প্রতি বৎসর তিনি হজ্জ পালন করতেন, তিনি মক্কায় বসবাস করতেন এবং উমরাও পালন করতেন।[৫]

বিবাহ[সম্পাদনা]

ইবন ইসহাক-এর বর্ণনামতে, স্বীয় ভগ্নী হাযুরার সাথে হযরত শীছ (আ)-এর বিবাহ হয়। তখনকার নিয়ম ছিল হাওয়া একসঙ্গে একটি পুত্র ও একটি কন্যা সন্তান জন্ম দিতেন। তাই এক গর্ভের পুত্রের সহিত অন্য গর্ভের কন্যার বিবাহ হত।[৬]

মৃত্যু[সম্পাদনা]

শেষ জীবনে হযরত শীষ (আ) রােগাক্রান্ত হয়ে পড়লে তার স্বীয় পুত্র আনূশকে ডেকে তিনি ওসিয়ত করেন। অতঃপর মক্কায়ই ৯১২ বৎসর বয়সে তিনি ইনতিকাল করেন এবং আবু কুবায়স পর্বতের গুহায় স্বীয় পিতা-মাতার পাশেই তাকে দাফন করা হয়।[৫] তিনি ইসলামের একজন সম্মানিত নবী

টীকা[সম্পাদনা]

  1. (হিব্রু: שֵׁת, আধুনিক: Šēt, টিবেরীয়: Šēṯ; আরবি: شِيث‎, প্রতিবর্ণী. Šīṯ‎; গ্রিক: Σήθ Sḗth; আইপিএ: [ˈʃiːθ]; "placed", "appointed")

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. (ইবন কাছীর, আল-বিদায়া ওয়ান-নিহায়া, ১খন্ড, ৯৮) 
  2. Genesis 5:3
  3. Genesis 5:8
  4. E. J. Brills, First Encyclopaedia of Islam, vol. vii, 358 
  5. ইবনুল আছীর, আল-কামিল, ১খ, ৪৭ 
  6. আছ-ছা'লাবী, কাসাসুল-আম্বিয়া, পৃ. ৪৪-৪৫