ইহুদি ধর্ম

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
(ইহুদিধর্ম থেকে পুনর্নির্দেশিত)
ইহুদি ধর্ম
ইয়াহুদি ধর্ম
হিব্রু ভাষায়: יַהֲדוּת
Judaica.jpg
ধরননৃতাত্ত্বিক[১]
প্রকারভেদইব্রাহিমীয়
ধর্মগ্রন্থতরাহ, তানাখতালমুদ
ধর্মতত্ত্বএকেশ্বরবাদ
নেতৃবৃন্দইহুদি নেতৃত্ব
আন্দোলনইহুদি ধর্মীয় আন্দোলন
অঞ্চলইসরাইলের প্রধান ধর্ম এবং সারা বিশ্বে সংখ্যালঘু ধর্ম হিসাবে ব্যাপ্ত
ভাষাতাওরাতীয় হিব্রু[২]
সদর দপ্তরযিরূশালেম (জিয়ন)
প্রতিষ্ঠাতাঅব্রাহাম[৩][৪]
উৎপত্তিখ্রীষ্টপূর্ব ১৮শ শতাব্দী[৩]
মেসোপটেমিয়া[৩]
সদস্যআনু. ১৪ মিলিয়ন – ১৭ মিলিয়ন[৫]

ইহুদি ধর্ম (হিব্রু ভাষায়: יְהוּדִיםয়েহুদীম্) একটি প্রাচীন ইব্রাহিমীয় একেশ্বরবাদী ধর্ম। ধারণাগত সমিলতা থেকে ধর্মতাত্ত্বিকগণ মনে করেন যে, ইহুদিধর্মের ধারাবাহিকতায় গড়ে উঠেছে খ্রিস্টধর্ম, ইসলাম ও দ্রুজ, বাহা'ইধর্ম প্রভৃতি অব্রাহামীয় ধর্ম। এই ধর্মের মূল ধর্মগ্রন্থ হিসেবে পুরাতন নিয়ম-এর প্রথম পাঁচটি বইকে গণ্য করা হয়: আদিপুস্তক, যাত্রাপুস্তক, লেবীয় পুস্তক, গণনাপুস্তক, এবং দ্বিতীয় বিবরণ। এই পাঁচটি বইকে একত্রে "তোরাহ" বলা হয়ে থাকে। 'তোরাহ' শব্দটির অর্থ ' আইন '।

ইহুদি বিশ্বাসমতে ঈশ্বর এক, আর তাঁকে যিহোভাহ (Jehovah, YHWH) নামে আখ্যায়িত করা হয়। মোশি হলেন ঈশ্বরের একজন বাণীবাহক। ইসলাম ও খ্রিস্টধর্মের মতোই ইহুদিগণ পূর্বতন সকল বাণীবাহককে বিশ্বাস করে, এবং মনে করে মালাখি সর্বশেষ[তথ্যসূত্র প্রয়োজন] বাণীবাহক। ইহুদিগণ যিশুকে ঈশ্বরের বাণীবাহক হিসেবে অস্বীকার করলেও, খ্রিস্টানগণ ইহুদিদের সবগুলো ধর্মগ্রন্থ নিজেদের ধর্মগ্রন্থ হিসেবে মান্য করে থাকেন এবং পুরাতন নিয়ম হিসাবে অভিহিত করে।

'ইহুদি' শব্দটি এসেছে শব্দ 'ইয়াহুদা' থেকে যিনি ছিলেন নবী মোশির পূর্বপুরুষ ও ইয়াকুব এর পুত্র ও নবী ইউসুফ এর বড় ভাই ৷ তবে ইহুদি শব্দের শাব্দিক অর্থ হয় ‘প্রশংসাকারী’, এখানে ঈশ্বরের প্রশংসাকারী। যদিও এ ধর্মের প্রবর্তক মুসা কিন্তু ইহুদিরা বলেন এ ধর্মের প্রবর্তক আব্রাহাম ৷ ইহুদি ধর্মের বয়স প্রায় ৪০০০ বছর । ইহুদীদের ধর্মযাজককে ‘রাব্বাই' (গুরু) বলা হয়। ইহুদিধর্মকে সেমেটিক ধর্ম হিসেবেও অভিহিত করা হয়।

ইতিহাস

প্রায় ২০০০ বছরের ইতিহাসে ইহুদি জনগণ এবং ইহুদি ধর্মের সবচেয়ে লক্ষ্যণীয় দিক ছিল এর অভিযোজন এবং অবিচ্ছিন্নতা। প্রাচীন মিশর বা ব্যাবিলনিয়া সাম্রাজ্য থেকে শুরু করে আধুনিক পশ্চিমা খ্রিস্টান জনগোষ্ঠী এবং আধুনিক ধর্মনিরপেক্ষ গোষ্ঠীর সাথে মিথস্ক্রিয়ায় জড়িয়ে পড়তে হয়েছে ইহুদিবাদকে। প্রতিটি গোষ্ঠী এবং মতাদর্শ থেকে বেশ কিছু জিনিস ইহুদি সমাজ-ধর্মীয় কাঠামোতে যুক্ত হয়েছে, কিন্তু তাদের প্রাচীন ঐতিহ্যও কখনও ক্ষূণ্ন হয় নি। এভাবেই একদিকে অভিযোজিত হয়েছে এই ধর্মটি এবং অন্যদিকে তার মৌলিক ঐতিহ্যকে অটুট রেখেছে। এ কারণে যেকোন সময়ের ইহুদি ঐতিহ্য তার পূর্বের সকল ইহুদি ঐতিহ্যের সমন্বয় হিসেবে দেখা দিয়েছে। কোন এক যুগে যত অভিনবত্ব বা বিবর্তনই আসুক না কেন ঐতিহ্যগত দিক দিয়ে সবসময়ই প্রাচীনত্ব বজায় রেখেছে ইহুদিরা।

ইহুদি ধর্মের মূল শিক্ষা প্রায় সবসময়ই একেশ্বরবাদকে করে আবর্তিত হয়েছে। ইহুদিদের মধ্যে অনেক শ্রেণী-উপশ্রেণী থাকলেও এই একটি বিষয়ে কারও মধ্যে দ্বিমত নেই। সবাই এক বাক্যে কেবল এক ঈশ্বরকে মেনে নেয়। একেশ্বরবাদ প্রকৃতপক্ষে সার্বজনীন ধর্মের ধারণা দেয় যদিও এর সাথে কিছুটা স্বাতন্ত্র্যবাদ (particularism) যুক্ত রয়েছে। প্রাচীন ইসরায়েলে এই স্বাতন্ত্র্যবাদ নির্বাচনের রূপ নিয়েছিল। নির্বাচন বলতে ঈশ্বর কর্তৃক মানুষের মধ্য থেকে কাউকে নিজের প্রতিনিধি হিসেবে মনোনীত করাকে বোঝায়। সেই তখন থেকেই ইহুদিরা মনে করতো, ঈশ্বর ও মানুষের মধ্যে একটি পূর্বপরিকল্পিত চুক্তিপত্র (কোভেন্যান্ট) থাকতে বাধ্য; সবাইকে এই চুক্তিপত্র মেনে চলতে হবে; না চললে পরকালে কঠোর শাস্তির সম্মুখীন হতে হবে। ইহুদিদের এই চিন্তাধারার সাথে মশীহবাদ এর সুন্দর সমন্বয় ঘটেছিল।

তথ্যসূত্র

  1. Jacobs 2007, পৃ. 511 quote: "Judaism, the religion, philosophy, and way of life of the Jews."।
  2. Sotah 7:2 with vowelized commentary (হিব্রু ভাষায়)। New York। ১৯৭৯। সংগ্রহের তারিখ জুলাই ২৬, ২০১৭ 
  3. Mendes-Flohr 2005
  4. Levenson 2012, পৃ. 3।
  5. Dashefsky, Arnold; Della Pergola, Sergio; Sheskin, Ira, সম্পাদকগণ (২০১৮)। World Jewish Population (PDF) (প্রতিবেদন)। Berman Jewish DataBank। সংগ্রহের তারিখ ২২ জুন ২০১৯ 

বহিঃসংযোগ