লেল্যান্ড হন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
লেল্যান্ড হন
আনুমানিক ১৮৭৮ সালের সংগৃহীত স্থিরচিত্রে লেল্যান্ড হন
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নাম
লেল্যান্ড হন
জন্ম(১৮৫৩-০১-৩০)৩০ জানুয়ারি ১৮৫৩
ডাবলিন, আয়ারল্যান্ড
মৃত্যু৩১ ডিসেম্বর ১৮৯৬(1896-12-31) (বয়স ৪৩)
ডাবলিন, আয়ারল্যান্ড
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
ভূমিকাব্যাটসম্যান, মাঝে-মধ্যে উইকেট-রক্ষক
সম্পর্কউইলিয়াম হন (ভ্রাতা), নাথানিয়েল হন (ভ্রাতা), উইলিয়াম (কাকাতো ভাই), টমাস জেফ্রি (কাকাতো ভাই), প্যাট হন (ভাইপো)
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় দল
একমাত্র টেস্ট
(ক্যাপ ১৪)
২ জানুয়ারি ১৮৭৯ বনাম অস্ট্রেলিয়া
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট এফসি
ম্যাচ সংখ্যা
রানের সংখ্যা ১৩ ৮৫
ব্যাটিং গড় ৬.৫০ ৭.০৮
১০০/৫০ ০/০ ০/০
সর্বোচ্চ রান ২৭
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ২/০ ৯/২
উৎস: ইএসপিএনক্রিকইনফো.কম, ১৪ নভেম্বর ২০১৯

লেল্যান্ড হন (ইংরেজি: Leland Hone; জন্ম: ৩০ জানুয়ারি, ১৮৫৩ - মৃত্যু: ৩১ ডিসেম্বর, ১৮৯৬) আয়ারল্যান্ডের ডাবলিন এলাকায় জন্মগ্রহণকারী ইংরেজ আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার ছিলেন।[১] ইংল্যান্ড ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন তিনি। ১৮৭৯ সালে সংক্ষিপ্ত সময়ের জন্যে ইংল্যান্ডের পক্ষে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অংশগ্রহণ করেছেন। আন্তর্জাতিক পর্যায়ে ইংল্যান্ড ও আয়ারল্যান্ডের পক্ষে খেলার পাশাপাশি মেরিলেবোন ক্রিকেট ক্লাবের পক্ষে প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে অংশ নিয়েছেন।[২]

ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর কোন ইংরেজ কাউন্টি ক্রিকেটে অংশগ্রহণ করেননি তিনি। দলে তিনি মূলতঃ মাঝারিসারির ডানহাতি ব্যাটসম্যান হিসেবে খেলতেন। এছাড়াও, মাঝে-মধ্যে দলের প্রয়োজনে উইকেট-রক্ষকের ভূমিকায় অবতীর্ণ হতেন তিনি।

প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট[সম্পাদনা]

১৮৭৮ সাল থেকে ১৮৮০ সাল পর্যন্ত লেল্যান্ড হনের প্রথম-শ্রেণীর খেলোয়াড়ী জীবন চলমান ছিল। রাগবি কলেজে অধ্যয়ন করেছেন লেল্যান্ড হন। ডানহাতি ব্যাটসম্যান ও উইকেট-রক্ষক ছিলেন লেল্যান্ড হন। আগস্ট, ১৮৭৫ সালে আয়ারল্যান্ডের সদস্যরূপে আই জিঙ্গারি’র বিপক্ষে অভিষেক ঘটে তার। পরবর্তী তিন বছরেও একই দলের বিপক্ষে আরও তিনটি আগস্টে মাসের খেলায় অংশ নিয়েছেন। তন্মধ্যে, ১৮৭৭ সালে অপরাজিত ৭৪ রান করেন। এ সংগ্রহটি আয়ারল্যান্ডের পক্ষে সর্বোচ্চ ছিল।[৩] ১৮৭৮ সালে এমসিসি’র সদস্যরূপে কেমব্রিজের বিপক্ষে প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে অভিষেক ঘটে তার। এরপর অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের বিপক্ষে আরও একটি খেলায় অংশ নেন।[৪]

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট[সম্পাদনা]

সমগ্র খেলোয়াড়ী জীবনে একটিমাত্র টেস্টে অংশগ্রহণ করেছেন লেল্যান্ড হন। ২ জানুয়ারি, ১৮৭৯ তারিখে মেলবোর্নে স্বাগতিক অস্ট্রেলিয়া দলের বিপক্ষে টেস্ট ক্রিকেটে অভিষেক ঘটে তার। এরপর তিনি আর কোন টেস্টে অংশগ্রহণ করেননি। এটিই তার একমাত্র টেস্টে অংশগ্রহণ ছিল।

এমসিসি’র সদস্যরূপে বিশ্ববিদ্যালয় দলের বিপক্ষে দুইটি প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট খেলায় অংশগ্রহণের পরপরই ১৮৭৮-৭৯ মৌসুমে লর্ড হ্যারিসের অধিনায়কত্বে অস্ট্রেলিয়া গমনার্থে ইংরেজ দলের সদস্যরূপে মনোনীত হন।[৫] দলটির অধিকাংশ সদস্যই শৌখিন ও প্রতিনিধিত্বমূলক খেলার বাইরে ছিলেন। এক পর্যায়ে দলের নিয়মিত উইকেট-রক্ষকের অভাব দূরীভূত হলে হনকে দলের সংরক্ষিত খেলোয়াড়ের অবস্থানে রাখা হয়। অবশ্য ঐ সফরে তাকে একটিমাত্র টেস্টে অংশগ্রহণের সুযোগ প্রদান করা হয়েছিল। জানুয়ারি, ১৮৭৯ সালে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে টেস্টে অভিষেক ঘটে তার। এরফলে প্রথম ইংরেজ ক্রিকেটার হিসেবে প্রথম-শ্রেণীর কাউন্টি ক্রিকেটে অংশগ্রহণ ব্যতিরেকেই ইংল্যান্ডের পক্ষে খেলেছেন।[৫][৬] এছাড়াও প্রথম আইরিশ খেলোয়াড় হিসেবে ইংল্যান্ডের পক্ষে প্রতিনিধিত্ব করেছিলেন।[৭] অংশগ্রহণকৃত একমাত্র টেস্টে ১৩ রান সংগ্রহসহ দুইটি ক্যাচ গ্লাভসবন্দী করেছিলেন তিনি।

নিজস্ব তৃতীয় প্রথম-শ্রেণীর খেলাটি ছিল একমাত্র টেস্টে অংশগ্রহণ। এ সফরে এমসিসি’র সদস্যরূপে তিনি আরও চারটি খেলায় অংশ নিয়েছিলেন। দুইটি নিউ সাউথ ওয়েলস ও দুইটি ভিক্টোরিয়ার বিপক্ষে খেলেন।[৪] ১৮৮০ সালের একটি খেলায় জোড়া শূন্য রানের সন্ধান পান।

ঐ গ্রীষ্মে দেশে ফিরে আয়ারল্যান্ডের সদস্যরূপে এমসিসি ও সারে দলের বিপক্ষে খেলেন।[৩] ১৮৮০ সালে লর্ডসে এমসিসির সদস্যরূপে অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের বিপক্ষে সর্বশেষ প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে অংশ নেন।[৪]

প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট থেকে অবসর নেয়ার পরও ক্লাব ক্রিকেটে খেলা চালিয়ে যেতে থাকেন। ১৮৮৩ সালে আয়ারল্যান্ডের পক্ষে দুই খেলায় অংশ নেন। এরপর, আগস্ট, ১৮৮৮সালে আই জিঙ্গারি’র বিপক্ষে চূড়ান্ত খেলায় অংশ নেন।[৩] সর্বমোট আটটি প্রথম-শ্রেণীর খেলার মধ্যে লর্ডস ও মেলবোর্নে তিনটি করে এবং সিডনিতে দুইটি খেলেন। এরপর সর্ব আয়ারল্যান্ড দলের পক্ষে খেলেছিলেন। আয়ারল্যান্ডের পক্ষে ২৪.৬৯ গড়ে ৩২১ রান তুলেছেন। পাশাপাশি ষোলো ক্যাচ ও ছয়টি স্ট্যাম্পিং করেছিলেন তিনি।[৩] প্রথম-শ্রেণীর খেলাগুলোয় ৭.০৮ গড়ে ৮৫ রান সংগ্রহ করেন। নয়টি ক্যাচ ও দুইটি স্ট্যাম্পিং করেছিলেন।[১]

ব্যক্তিগত জীবন[সম্পাদনা]

লেল্যান্ডে হন ক্রিকেটপ্রিয় পরিবার থেকে এসেছেন। উইলিয়াম হন ও নাথানিয়েল হন ভ্রাতৃদ্বয় আয়ারল্যান্ডের পক্ষে খেলেছেন। একইভাবে কাকাতো ভাই উইলিয়াম, টমাস জেফ্রি খেলেছেন। এছাড়াও, প্যাট হো নামীয় ভাইপো আয়ারল্যান্ডের পক্ষে খেলেন।[১]

৩১ ডিসেম্বর, ১৮৯৬ তারিখে ৪৩ বছর বয়সে ডাবলিনে লেল্যান্ড হনের দেহাবসান ঘটে।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Cricket Archive profile. Cricketarchive.co.uk. Retrieved on 2 May 2018.
  2. Teams played for by Leland Hone. Cricket Archive.
  3. Leland Hone. StatsZone Ireland.
  4. First-class matches played by Leland Hone. Cricket Archive.
  5. Leland Hone. Cricinfo.
  6. "Curtly's seventh heaven"ESPN Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ৩১ জানুয়ারি ২০১৭ 
  7. Lynch, Steven (11 September 2006) Made in Ireland – and England's overseas World Cup six. Ask Steven column at Cricinfo.

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]