লিডা (প্রাকৃতিক উপগ্রহ)

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
লিডা
আবিষ্কার
আবিষ্কারকচার্লস টি. কোয়াল
আবিষ্কারের তারিখ১১ সেপ্টেম্বর, ১৯৭৪[১]
বিবরণ
বিশেষণলিডিয়ান
কক্ষপথের বৈশিষ্ট্য
কক্ষপথের গড়
ব্যাসার্ধ
১১,১৬০,০০০ কিলোমিটার[২]
উৎকেন্দ্রিকতা০.১৬[২]
কক্ষীয় পর্যায়কাল২৪০.৯২ দিন (০.৬৫৪ )[২]
গড় কক্ষীয় দ্রুতি৩.৪ কিলোমিটার/সেকেন্ড
নতি২৭.৪৬° (ক্রান্তিবৃত্তের দিকে)
২৯.০১° (বৃহস্পতির বিষুবরেখার দিকে)[২]
যার উপগ্রহবৃহস্পতি
ভৌত বৈশিষ্ট্যসমূহ
গড় ব্যাসার্ধ১০ কিলোমিটার
পৃষ্ঠের ক্ষেত্রফল~১২৫০ কিলোমিটার
আয়তন~৪২০০ কিলোমিটার
ভর১.১×১০১৬ কিলোগ্রাম
গড় ঘনত্ব২.৬ গ্রাম/সেমি (অনুমিত)
বিষুবীয় পৃষ্ঠের অভিকর্ষ~০.০০৭৩ মি/সে (০.০০১ গ্রাম)
মুক্তি বেগ~০.০১২ কিলোমিটার/সেকেন্ড
প্রতিফলন অনুপাত০.০৪ (অনুমিত)
তাপমাত্রা~১২৪ কে
আপাত মান২০.২[৩]

লিডা (ইংরেজি: Leda, /ˈldə/ LEE-də; গ্রিক: Λήδα) হল বৃহস্পতির একটি অগ্রমুখী অনিয়মিত প্রাকৃতিক উপগ্রহ। এটি বৃহস্পতি ১৩ (ইংরেজি: Jupiter XIII) নামেও পরিচিত। ১৯৭৪ সালের ১৪ সেপ্টেম্বর মাউন্ট পালোমার মানমন্দিরে চার্লস টি. কোয়াল তিন রাত ধরে গৃহীত ফোটোগ্রাফিক প্লেটগুলি বিশ্লেষণ করে (১১ থেকে ১৩ সেপ্টেম্বর; প্রত্যেকটি প্লেটেই লিডার ছবি ধরা পড়ে) এই উপগ্রহটি আবিষ্কার করেন।[১][৪] এটির নামকরণ করা হয় গ্রিক পৌরাণিক চরিত্র লিডার নামানুসারে, যাঁকে জিউস (রোমান পুরাণে জুপিটার) রাজহংসের ছদ্মবেশে এসে ধর্ষণ করেছিলেন।[৫] কোয়ালই এই নামটি প্রস্তাব করেছিলেন। ১৯৭৫ সালে আইএইউ এই নামটি অনুমোদন করে।[৬]

লিডা হল হিমালিয়া গোষ্ঠীর উপগ্রহ। এই গোষ্ঠীর পাঁচটি উপগ্রহ ১১ থেকে ১৩ জিএম দূরত্ব থেকে প্রায় ২৭.৫° নতিতে বৃহস্পতিকে প্রদক্ষিণ করছে।[২] এখানে উল্লিখিত কাক্ষিক উপাদানগুলি ২০০০ সালের জানুয়ারি মাসের হিসাব অনুযায়ী দেওয়া হল। কিন্তু সৌর ও গ্রহীয় বিঘ্নগুলির জন্য এগুলি ক্রমাগত পরিবর্তিত হয়ে চলেছে।

কথাসাহিত্যে[সম্পাদনা]

  • ১৯৫৬ সালে নির্মিত ব্রিটিশ চলচ্চিত্র ফায়ার মেইডেনস ফ্রম আউটার স্পেস-এর প্রেক্ষাপট ছিল বৃহস্পতির ত্রয়োদশ উপগ্রহ। যদিও এই ছবিটি ১৯৭৪ সালে লিডা আবিষ্কারের আগেই নির্মিত হয়েছিল।
  • ব্রেন্ডা হিয়াট রচিত এবং ২০১৩ সালে প্রকাশিত কিশোর কল্পবিজ্ঞান রোম্যান্স উপন্যাস স্টারস্ট্রাক-এ দেখা যায়, নায়ক রিগেল মার্শার মনে নিজের সম্পর্কে অনুকূল ধারণা সৃষ্টির জন্য একটি দুরবিন ব্যবহার করছে এবং সেই দুরবিন দিয়ে লিডাকে স্পষ্টভাবে দেখা যাচ্ছে। মার্শা যখন জানাচ্ছে যে, এই উপগ্রহটির কথা ১৯৭৪ সালের আগে জানা ছিল না, তখন রিগেল বৃহস্পতির অস্পষ্ট উপগ্রহগুলি সম্পর্কে মার্শার জ্ঞান দেখে অভিভূত হচ্ছে।
  • লিউ সিজিন রচিত এবং ২০১০ সালে প্রকাশিত কল্পবিজ্ঞান উপন্যাস ডেথ’স এন্ড-এ দেখা যায়, প্রথম মানব-সৃষ্ট স্থায়ী কৃষ্ণগহ্বরটি বৃহস্পতি ১৩ উপগ্রহটিকে গ্রাস করে নিচ্ছে।

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Kowal, C. T.; Aksnes, K.; Marsden, B. G.; Roemer, E. (১৯৭৪)। "Thirteenth satellite of Jupiter"Astronomical Journal80: 460–464। doi:10.1086/111766বিবকোড:1975AJ.....80..460K 
  2. Jacobson, R. A. (২০০০)। "The orbits of outer Jovian satellites" (PDF)Astronomical Journal120 (5): 2679। doi:10.1086/316817বিবকোড:2000AJ....120.2679J 
  3. Calvin J. Hamilton (১৯৯৭–২০০৯)। "Leda Statistics"। Views of the Solar System। সংগ্রহের তারিখ ২০০৭-১০-০১ 
  4. Brian G. Marsden (সেপ্টেম্বর ২০, ১৯৭৪)। "IAUC 2702: Probable New Satellite of Jupiter"International Astronomical Union 
  5. Leda and the Swan
  6. Marsden, Brian G. (অক্টোবর ৭, ১৯৭৫)। "Satellites of Jupiter"। International Astronomical Union। 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]