লিওন জনসন (ক্রিকেটার)

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
লিওন জনসন
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামলিওন রেয়ন জনসন
জন্ম (1987-08-08) ৮ আগস্ট ১৯৮৭ (বয়স ৩২)
জর্জটাউন, গায়ানা
ব্যাটিংয়ের ধরনবামহাতি
বোলিংয়ের ধরনস্লো লেফট-আর্ম অর্থোডক্স
ভূমিকাব্যাটসম্যান
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
টেস্ট অভিষেক
(ক্যাপ ৩০০)
১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৪ বনাম বাংলাদেশ
ওডিআই অভিষেক
(ক্যাপ ১৪২)
২০ আগস্ট ২০০৮ বনাম বারমুদা
শেষ ওডিআই২৪ আগস্ট ২০০৮ বনাম কানাডা
ওডিআই শার্ট নং২৩
ঘরোয়া দলের তথ্য
বছরদল
২০০৪-গাযানা (দল নং ২৩)
২০১৩-গায়ানা আমাজন ওয়ারিয়র্স (দল নং ২৩)
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট ওডিআই এফসি এলএ
ম্যাচ সংখ্যা ৫০ ২৯
রানের সংখ্যা ১০৭ ৭৯ ২,৭৫৪ ৮৩৪
ব্যাটিং গড় ৫৩.৫০ ২৬.৩৩ ৩৩.১৮ ২৯.৭৮
১০০/৫০ -/১ ০/১ ২/১৯ ০/৭
সর্বোচ্চ রান ৬৬ ৫১ ১৪৪ ৬৭
বল করেছে ৪০৯ ৬৫
উইকেট
বোলিং গড় ৩১.৫৭
ইনিংসে ৫ উইকেট
ম্যাচে ১০ উইকেট
সেরা বোলিং ২/২৪
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ০/– ০/– ৫৫/– ১৪/–
উৎস: CricketArchive, ১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৪

লিওন রেয়ন জনসন (জন্ম: ৮ আগস্ট, ১৯৮৭) জর্জটাউনের ডেমেরারা এলাকায় জন্মগ্রহণকারী গায়ানার ক্রিকেটার। শ্রীলঙ্কায় অনুষ্ঠিত ২০০৬ সালের আইসিসি অনূর্ধ্ব-১৯ ক্রিকেট বিশ্বকাপে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট দলের অধিনায়কত্বের দায়িত্ব পালন করেন লিওন জনসন[১]

ঘরোয়া ক্রিকেট[সম্পাদনা]

২০০৩-০৪ মৌসুমে গায়ানার পক্ষে প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে অভিষেক ঘটে তার। দুইটি প্রথম-শ্রেণীর খেলায় অংশগ্রহণ করে তিনি তিন ইনিংসে মাত্র চার রান সংগ্রহ করতে পেরেছিলেন। পরের তিন মৌসুমেও তিনি তেমন সাফল্য পাননি।[২] ২০০৭-০৮ মৌসুমে লিস্ট-এ ক্রিকেটে অভিষিক্ত হন তিনি।[৩]

২০০৭-০৮ মৌসুমে ঘরোয়া ক্রিকেটে ক্যারিব বিয়ার সিরিজের গায়ানার পক্ষে ৬ খেলায় ৪২.৭০ গড়ে ৪২৭ রান করেন।[২][৪] ৭ মার্চ, ২০০৮ তারিখে অনুষ্ঠিত খেলায় মাত্র ছয় রানের জন্য প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে প্রথম সেঞ্চুরি প্রাপ্তি থেকে বঞ্চিত হন। কম্বাইন্ড ক্যাম্পাসেস এন্ড কলেজেসের বিপক্ষে অনুষ্ঠিত খেলায় অফ-স্পিনার শার্লি ক্লার্কের ওয়াইড বলে আউট হন তিনি।[৫]

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট[সম্পাদনা]

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বড়দের দলে খেলার পূর্বে জনসন অনূর্ধ্ব-১৯ দলে খেলেন ও সাতটি যুবদের একদিনের আন্তর্জাতিকে অংশগ্রহণ করেন। ৩০.০০ গড়ে ত্রিশ রান সংগ্রহ করেন যাতে তার সর্বোচ্চ সংগ্রহ ছিল অপরাজিত ২৯। পাশাপাশি স্লো বোলিং করে ৯ উইকেট পান ২৭.৪৪ গড়ে। তন্মধ্যে সেরা বোলিং করেন ৩/২৪।[৬] ২০০৬ সালে অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপে দলের অধিনায়কত্বের দায়িত্ব পালন করেন।[৭] দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে তার সংগৃহীত ৮৩ রানের ফলে ওয়েস্ট ইন্ডিজ দল প্রতিযোগিতার পরের রাউন্ডে অগ্রসর হয়।[৮][৯]

ক্যারিব বিয়ার সিরিজে ধারাবাহিকভাবে সফলতা প্রাপ্তির ফলে বারমুদা ও কানাডা নিয়ে অনুষ্ঠিত ত্রি-দেশীয় সিরিজে তাকে অন্তর্ভুক্ত করা হয়।[৪] ব্রেন্ডন ন্যাশকেমার রোচের সাথে তারও বারমুদার বিপক্ষে একদিনের আন্তর্জাতিকে অভিষেক ঘটে। ২৮ বলে ২৭ রান করে ডেলিওয়ান বর্ডেনের বলে কট-আউট হন। ঐ খেলায় দল ছয় উইকেটে জয় পায়।[১০] ২২ আগস্ট, ২০০৮ তারিখে জনসন তার প্রথম অর্ধ-শতক করেন। জেভিয়ার মার্শালের সাথে ১২৮ রানের জুটি গড়েন ও রেকর্ডসংখ্যক ছক্কা গড়েন। কানাডা দল ৪৯ রানে পরাজিত হয়।[১১]

সেপ্টেম্বর, ২০১৪ তারিখে গ্রোস আইলেটের বিউসেজোর স্টেডিয়ামে বাংলাদেশের বিপক্ষে তার টেস্ট অভিষেক ঘটে। ঐ টেস্টের উভয় ইনিংসে তিনি ৬৬ ও ৪১ রান করেন।[১২]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Players and Officials – Leon Johnson, Cricinfo.com  Retrieved on 7 February 2007.
  2. First-class batting and fielding in each season by Leon Johnson, CricketArchive.com  Retrieved on 20 August 2008.
  3. ListA batting and fielding in each season by Leon Johnson, CricketArchive.com  Retrieved on 20 August 2008.
  4. Cricinfo staff (১২ আগস্ট ২০০৮), Nash in line for West Indies debut, Cricinfo.com  Retrieved on 20 August 2008.
  5. Cricinfo staff (৭ মার্চ ২০০৮), Chanderpaul's unbeaten 161 spurs Guyana, Cricinfo.com  Retrieved on 20 August 2008.
  6. Leon Johnson profile, CricketArchive  Retrieved on 21 August 2008.
  7. Brian Murgatroyd (২৭ জানুয়ারি ২০০৬), West Indies ready and raring, Cricinfo.com  Retrieved on 21 August 2008.
  8. Andrew McGlashan (২১ ফেব্রুয়ারি ২০০৬), The world at their feet, Cricinfo.com  Retrieved on 21 August 2008.
  9. Andrew McGlashan (১০ ফেব্রুয়ারি ২০০৬), Windies waltz as South Africa stumble, Cricinfo.com  Retrieved on 21 August 2008.
  10. Cricinfo staff (২০ আগস্ট ২০০৮), Sarwan seals West Indies success, Cricinfo.com  Retrieved on 21 August 2008.
  11. Cricinfo staff (২২ আগস্ট ২০০৮), Marshall breaks sixes record in West Indies win, Cricinfo.com  Retrieved on 23 August 2008.
  12. Bangladesh bowl, Leon Johnson debuts

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]