রামনাথ পার্কার

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
রামনাথ পার্কার
রামনাথ পার্কার.jpg
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামরামনাথ ধন্দু পার্কার
জন্ম৩১ অক্টোবর, ১৯৪৬
বোম্বে, ব্রিটিশ ভারত
মৃত্যু১১ আগস্ট, ১৯৯৯
মুম্বই, ভারত
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
ভূমিকাব্যাটসম্যান
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
টেস্ট অভিষেক
(ক্যাপ ১২৯)
২০ ডিসেম্বর ১৯৭২ বনাম ইংল্যান্ড
শেষ টেস্ট৩০ ডিসেম্বর ১৯৭২ বনাম ইংল্যান্ড
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট এফসি
ম্যাচ সংখ্যা ৮৫
রানের সংখ্যা ৮০ ৪৪৫৫
ব্যাটিং গড় ২০.০০ ৩৩.৭৫
১০০/৫০ -/- ৮/-
সর্বোচ্চ রান ৩৫ ১৯৭
বল করেছে - ৯৬
উইকেট -
বোলিং গড় - ৫৫.০০
ইনিংসে ৫ উইকেট - -
ম্যাচে ১০ উইকেট - -
সেরা বোলিং - ১/৪
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং -/- ৬৪/-
উৎস: ইএসপিএনক্রিকইনফো.কম, ২১ জুন ২০২০

রামনাথ ধন্দু পার্কার (এই শব্দ সম্পর্কেউচ্চারণ ; মারাঠি: रामनाथ पारकर; জন্ম: ৩১ অক্টোবর, ১৯৪৬ - মৃত্যু: ১১ আগস্ট, ১৯৯৯) তৎকালীন ব্রিটিশ ভারতের বোম্বে এলাকায় জন্মগ্রহণকারী ভারতীয় আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার ছিলেন।[১][২][৩] ভারত ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন তিনি। ১৯৭০-এর দশকের শুরুরদিকে অত্যন্ত সংক্ষিপ্ত সময়ের জন্যে ভারতের পক্ষে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অংশগ্রহণ করেছেন।

ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর ভারতীয় ক্রিকেটে বোম্বে দলের প্রতিনিধিত্ব করেন রামনাথ পার্কার। দলে তিনি মূলতঃ ডানহাতি ব্যাটসম্যান হিসেবে খেলতেন।

প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট[সম্পাদনা]

১৯৬৪-৬৫ মৌসুম থেকে ১৯৮০-৮১ মৌসুম পর্যন্ত রামনাথ পার্কারের প্রথম-শ্রেণীর খেলোয়াড়ী জীবন চলমান ছিল। রঞ্জী ট্রফিতে মুম্বই দলের প্রতিনিধিত্ব করতেন। সব মিলিয়ে তিনি তার প্রথম-শ্রেণীর খেলোয়াড়ী জীবনে ৮৫ খেলায় অংশ নিয়েছেন। বোম্বে দলে থাকা অবস্থায় অনেকগুলো বছর সুনীল গাভাস্কারে সাথে ব্যাটিং উদ্বোধনে নামতেন।

১৯৭০-৭১ মৌসুমে রঞ্জী ট্রফির শিরোপা বিজয়ে বোম্বে দলের শীর্ষস্থানীয় ভূমিকা রাখেন। এরফলে, জাতীয় পর্যায়ে তাকে খ্যাতি এনে দেয়। রঞ্জী ট্রফিতে ৫১ খেলায় অংশ নিয়ে ৩৮.২৮ গড়ে ২,৭৯৫ রান তুলেছেন। ১৯৭৪-৭৫ মৌসুমে হায়দ্রাবাদের বিপক্ষে ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ ১৯৭ রান তুলেন। বেশ দক্ষ ফিল্ডার ও আক্রমণাত্মক উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান হিসেবে তার সবিশেষ পরিচিতি ছিল।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট[সম্পাদনা]

সমগ্র খেলোয়াড়ী জীবনে দুইটিমাত্র টেস্টে অংশগ্রহণ করেছেন রামনাথ পার্কার। সবগুলো টেস্টই ইংল্যান্ডের বিপক্ষে খেলেছিলেন তিনি। ২০ ডিসেম্বর, ১৯৭২ তারিখে দিল্লিতে সফরকারী ইংল্যান্ড দলের বিপক্ষে টেস্ট ক্রিকেটে অভিষেক ঘটে তার। এরপর, ৩০ ডিসেম্বর, ১৯৭২ তারিখে কলকাতায় একই দলের বিপক্ষে সর্বশেষ টেস্টে অংশ নেন তিনি।

১৯৭২-৭৩ মৌসুমে টনি লুইসের নেতৃত্বাধীন ইংরেজ দল ভারত গমনে আসে। এ সিরিজেই অংশগ্রহণকৃত দুই টেস্ট খেলেন। সিরিজের প্রথম দুই টেস্টে সুনীল গাভাস্কারের সাথে উদ্বোধনী জুটিতে খেলার সুযোগ এনে দেয়। ৪, ৩৫, ২৬ ও ১৫ রান তুলতে সক্ষম হয়েছিলেন। সাধারণমানের খেলা উপহার দেয়ার ফলে দল নির্বাচকমণ্ডলী সুনীল গাভাস্কারের যোগ্য সঙ্গীর খোঁজ করতে থাকেন। অথচ, এ দুজনের পারস্পরিক বোঝাপড়া বোম্বে দলে থাকা অবস্থায় বেশ ভালো ছিল।

মূল্যায়ন[সম্পাদনা]

ভারতীয় ক্রিকেটে মর্মন্তুদ কয়েকটি ঘটনার সাথে স্বীয় নামকে জড়িয়ে রেখেছিলেন রামনাথ পার্কার। দল নির্বাচকমণ্ডলীর কাছ থেকে ক্রমাগত উপেক্ষার শিকারে পরিণত হয়েছিলেন। ১৯৭৫ সালে ক্রিকেট বিশ্বকাপে তিনি নিশ্চিতভাবেই খেলতে পারতেন।

ব্রিজেশ প্যাটেলের সাথে সত্তুরের দশকে অসাধারণ আউটফিল্ডার ছিলেন। জাতীয় দল থেকে প্রত্যাখ্যাত হবার পরও বোম্বে দলের পক্ষে অনেকগুলো বছর বর্ণাঢ্যময় খেলোয়াড়ী জীবন অতিবাহিত করেন। বেশ নীরবেই অবসর গ্রহণ করেন রামনাথ পার্কার।

ব্যক্তিগত জীবন[সম্পাদনা]

ব্যক্তিগত জীবনে বিবাহিত ছিলেন। কন্যা সন্তানের জনক তিনি। ১১ আগস্ট, ১৯৯৯ তারিখে ৫২ বছর বয়সে মুম্বই এলাকায় রামনাথ পার্কারের জীবনাবসান ঘটে। সম্ভ্রান্ত পরিবারের সন্তান রামনাথ পার্কার ১৯৯৫ সালে নববর্ষের প্রাক্কালে মর্মান্তিক ঘটনার শিকার হন।

ডিসেম্বর, ১৯৯৫ সালে দূর্ভাগ্যজনকভাবে মোটরসাইকেল চালানো অবস্থায় মুম্বইয়ে অপর মোটরসাইকেলের সাথে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। স্বীয় কন্যাকে রেখে ফিরে আসার পথে এ মর্মন্তুদ ঘটনার শিকার হন। বেশ কয়েকবার অস্ত্রোপচার ও থেরাপি দেয়া হলেও তার জ্ঞান ফিরিয়ে আনা যায়নি। দীর্ঘ ৪৩ মাস অচেতন থাকার পর তিনি মারা যান। অগণিত সমর্থক তার জন্যে প্রার্থনা করে ও তার পরিবারের সহায়তাকল্পে অর্থ তহবিল গঠন করে।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. List of India Test Cricketers
  2. "India – Test Batting Averages"। ESPNCricinfo। সংগ্রহের তারিখ ৪ জুলাই ২০২০ 
  3. "India – Test Bowling Averages"। ESPNCricinfo। সংগ্রহের তারিখ ৪ জুলাই ২০২০ 

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]