মোহাম্মদ সেলিম

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
মোহাম্মদ সেলিম
ব্যক্তিগত তথ্য
জন্ম (1981-10-15) ১৫ অক্টোবর ১৯৮১ (বয়স ৩৮)
ফেরিঘাট, খুলনা
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
ভূমিকাউইকেট-রক্ষক
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
টেস্ট অভিষেক
(ক্যাপ ৩১)
২৪ এপ্রিল ২০০৩ বনাম দক্ষিণ আফ্রিকা
শেষ টেস্ট১ মে ২০০৩ বনাম দক্ষিণ আফ্রিকা
ওডিআই অভিষেক
(ক্যাপ ৬৬)
১৭ এপ্রিল ২০০৩ বনাম দক্ষিণ আফ্রিকা
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট ওডিআই
ম্যাচ সংখ্যা
রানের সংখ্যা ৪৯
ব্যাটিং গড় ১৬.৩৩ ৯.০০
১০০/৫০ -/- -/-
সর্বোচ্চ রান ২৬
বল করেছে - -
উইকেট - -
বোলিং গড় - -
ইনিংসে ৫ উইকেট - -
ম্যাচে ১০ উইকেট - -
সেরা বোলিং - -
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ৩/১ ১/-
উৎস: ইএসপিএনক্রিকইনফো.কম, ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৭

মোহাম্মদ সেলিম (জন্ম: ১৫ অক্টোবর, ১৯৮১) খুলনার ফেরিঘাট এলাকায় জন্মগ্রহণকারী বাংলাদেশের সাবেক আন্তর্জাতিক ক্রিকেটারবাংলাদেশ ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন তিনি। দলে তিনি মূলতঃ উইকেট-রক্ষকের দায়িত্ব পালন করেছেন। এছাড়াও, ডানহাতে ব্যাটিংয়ে সক্ষমতা দেখিয়েছেন তিনি। সমগ্র খেলোয়াড়ী জীবনে দুইটি টেস্ট ও একটি একদিনের আন্তর্জাতিকে অংশ নিয়েছেন।[১]

প্রারম্ভিক জীবন[সম্পাদনা]

বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ ক্রিকেট দলে খেলেছেন। ঘরোয়া ক্রিকেটে ২০০০-০১ মৌসুমে খুলনা বিভাগের প্রতিনিধিত্ব করেছেন তিনি। এ সময় দল নির্বাচকমণ্ডলীর মর্জির উপর নির্ভর করে দল গঠিত হতো। ২০০৩ সালের বিশ্বকাপ বিতর্ক এবং পরবর্তীতে দক্ষিণ আফ্রিকা ও ভারতকে নিয়ে অনুষ্ঠিত ত্রি-দেশীয় সিরিজে ব্যর্থতার বিষয়ে বিসিবি মাসুদকে দলের বাইরে রাখে। ২০০৩ সালে সাবেক জাতীয় অধিনায়ক খালেদ মাসুদের স্থলাভিষিক্ত হন তিনি। খালেদ মাসুদকে পুণরায় জাতীয় দলে নিয়ে আসা হলে তাকে বাদ দেয়া হয়। এরপর ২০০৮-০৯ মৌসুম পর্যন্ত খুলনা দলের পক্ষে খেলেন।

খেলোয়াড়ী জীবন[সম্পাদনা]

১৭ এপ্রিল, ২০০৩ তারিখে একমাত্র ওডিআইয়ে অভিষেক ঘটে তার। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ঐ খেলায় তিনি একটিমাত্র ডিসমিসাল করেন।

২৪ এপ্রিল, ২০০৩ তারিখে সফরকারী দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে তার টেস্ট অভিষেক ঘটে। চট্টগ্রামে অনুষ্ঠিত দুই টেস্ট সিরিজের প্রথম টেস্টের প্রথম ইনিংসে তিনি অপরাজিত ১৬) রান তুলেন। দ্বিতীয় ইনিংসে পল অ্যাডামসের বলে শূন্য রানে এলবিডব্লিউর শিকার হন। এরপর দক্ষিণ আফ্রিকার ইনিংসে অধিনায়ক গ্রেইম স্মিথকে তাপস বৈশ্যের বলে ১৬ রানে কট নিয়ে বিদায় করেন। ঐ টেস্টে অভিষেক ঘটা দক্ষিণ আফ্রিকান অ্যালান ডসন, চার্ল উইলোবিজ্যাক রুডল্‌ফের তোপের মুখে বাংলাদেশ দল ইনিংস ও ৬০ রানে পরাজিত হয়েছিল। এরপর ঢাকায় অনুষ্ঠিত ১ মে, ২০০৩ তারিখে একই দলের বিপক্ষে সর্বশেষ টেস্টে অংশ নেন। সিরিজে তিনি মাত্র ৪৯ রান তুলতে সক্ষম হন।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Mohammad Salim"ESPN Cricinfo 

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]