মিরপুর সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
Jump to navigation Jump to search
মিরপুর সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়
MGHS
মিরপুর সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের নতুন ভবন
অবস্থান
মিরপুর-১, ঢাকা-১২১৬
বাংলাদেশ
তথ্য
ধরন সরকারি
প্রতিষ্ঠাকাল ১৯৬৩
প্রধান শিক্ষক মোঃ ইনসান আলী
শ্রেণী শ্রেণী ১-১০
ছাত্র সংখ্যা ৬,৫০০
ক্যাম্পাসের আকার ১১৫ একর ( বর্গমিটার)

মিরপুর সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় ঢাকার একটি ঐতিহ্যবাহী স্কুল। এটি ১৯৬৩ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়।

অবস্থান[সম্পাদনা]

এই বিদ্যালয়টি ঢাকার মিরপুর-১ নাম্বার বাস স্ট্যান্ড এর সাথেই অবস্থিত। অর্থাৎ মুক্তিযোদ্ধা মার্কেট এর বিপরীতে এবং মুক্ত বাংলা শপিং কমপ্লেক্স এর পিছনে অবস্থিত, যা নিকট অতীতে বিদ্যালয়টির সম্মুখভাগে অবস্থিত মার্কেটগুলো সরকারি লিজ নেওয়ার আগ পর্যন্ত এই স্কুলের বিশাল মাঠেরই একটা অংশ ছিল।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

ঐতিহ্যবাহী এই স্কুলটি বাংলাদেশের ভাষা আন্দোলনের ইতিহাসের সাথে খুব নিবিড়ভাবে জড়িত। সেকারনেই প্রতিষ্ঠালগ্নে এর নাম ছিল [বেঙ্গলি মিডিয়াম স্কুল], যা এই লোকালয়ের বাসিন্দাদের কাছে একমাত্র শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হিসেবে বিবেচিত হত। পরবর্তীতে সময়ের বিবর্তনে স্বাধীনতার পরে ১৯৮৩ সালে এর নাম পরিবর্তিত হয়। তৎকালীন বাংলাদেশ সরকার বেঙ্গলি মিডিয়াম স্কুলকে সরকারি স্বীকৃতি দিয়ে একে সরকারিকরণ করে। ফলস্বরূপ এর নতুন নাম হয় - মিরপুর সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়। ১৯৬৩ সালে প্রতিষ্ঠিত এই বিদ্যালয়টির অনেক আগের পুরনো দুই তলা এবং প্রায় ২০ কক্ষ বিশিষ্ট লম্বা একটি ভবন রয়েছে। যা এখন অনেকটা পরিত্যাক্ত। তবে সম্প্রীতি ৫ তলা বিশিষ্ট একটি সুন্দর নতুন ভবন তৈরি করা হয়েছে। এছাড়াও এই বিদ্যালয়টির রয়েছে প্রায় ৪০ একরের অনেক বড় মাঠ।

বিভাগ সমূহ[সম্পাদনা]

এই স্কুলে তিনটি বিভাগ চালু রয়েছে। যথা- বিজ্ঞান, ব্যবসায় শিক্ষামানবিক

বিজ্ঞান বিভাগ[সম্পাদনা]

আবশ্যিক বিষয়: বাংলা, ইংরেজি, পদার্থবিজ্ঞান, রসায়ন। ঐচ্ছিক বিষয়: গণিত, জীববিজ্ঞান

ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগ[সম্পাদনা]

আবশ্যিক বিষয়: বাংলা, ইংরেজি, হিসাব বিজ্ঞান, ব্যবসায় নীতি ও প্রয়োগ। ঐচ্ছিক বিষয়: ব্যবসায় উদ্যোগ ও ব্যবহারিক ব্যবস্থাপনা, অর্থনীতি ও বাণিজ্যিক ভূগোল, পরিসংখ্যান

মানবিক বিভাগ[সম্পাদনা]

ইতিহাস, পৌরনীতি, ভূগোলবাংলাদেশ ও বিশ্ব পরিচিতি। ঐচ্ছিক বিষয়: ইসলামের ইতিহাস ও আরও অন্যান্য।

ভর্তি ও বেতন[সম্পাদনা]

মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড কর্তৃক জারীকৃত নীতিমালা অনুযায়ী ভর্তি করা হয়ে থাকে । তবে এই বিদ্যালয়ে পড়তে হলে একজন শিক্ষার্থীকে লিখিত ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে হয়। ঢাকা সিটি কর্পোরেশনের মধ্যে যে ২৪ টি সরকারি বিদ্যালয় রয়েছে এই স্কুলটি তার মাঝে গ্রেডভুক্ত। প্রতি বছরের জানুয়ারি মাসেই এই বিদ্যালয়ের ভর্তি কার্যক্রম সম্পন্ন হয়ে যায়। সরকার কর্তৃক নির্ধারিত বেতন ও ফি নেয়া হয়।

কৃতিত্ব[সম্পাদনা]

কৃতি শিক্ষার্থী[সম্পাদনা]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]