মরুভূমির যুদ্ধ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন

মরুভূমি যুদ্ধ হচ্ছে সেই সকল যুদ্ধ যা মরুভূমিতে হয়। মরুভূমিতে ব্যবহৃত যুদ্ধ উপাদান কখনও কখনও আরো বেশী বিপজ্জনক হতে পারে।সৈন্যদলের কাছে মরুভূমি ভূখণ্ড একটি ঠান্ডা পরিবেশের থেকে দ্বিতীয় সবচেয়ে আতিথেয়তাশূণ্য পরিবেশ হয় । কম আর্দ্রতা, চরম গরম/ঠান্ডা এবং প্রতিবন্ধকতার অভাব আর বন্য-জীবন এই সকল কারনে ইলেক্ট্রনিক ডিভাইস, নজরদারি এবং আক্রমণের জন্য জনহীন বিমান বর্ধিত হারে ব্যবহার হয়।

মরুভূমি যুদ্ধের বৈশিষ্ট্য এবং কৌশল[সম্পাদনা]

মরুভূমির অনুর্বরতার জন্য শহরগুলি লুন্ঠন অপরিহার্য হয়ে দাঁড়ায় বিশেষ করে গুরুত্বপূর্ণ সম্পদের ওপর নিয়ন্ত্রণ বজায় রাখার জন্য, ক্ষমতা নিশ্চিত করার জন্য (প্রাথমিকভাবে পরিষ্কার পানি) এবং ভাল সামরিক সরবরাহ করা জন্য। এমন প্রচলিত যুদ্ধবিগ্রহে এই শহরগুলি প্রায় নিজেদের প্রতিরোধ ব্যবস্থার জন্য প্রস্তুত থাকতো।

ছদ্মবেশ ও আচ্ছাদন[সম্পাদনা]

অনেক মরুভূমি আছে যা লক্ষণীয়ভাবে চেনার উপায় খুব কম, তাই চাল চালার মত কৌশলের মাধ্যমে একটি মরুভূমি দুঃস্বপ্নে পরিণত করতো সেনাদল। সেই সময়ে সেনাবাহিনী বিস্তার ভ্রমণ করার জন্য অশ্বারোহী বাহিনীর ঘোড়া প্রায়ই ব্যবহার করতো কারণ কঠোর মরুভূমিতে উদ্যম যোদ্ধা বা সৈনিক, যারা ইতিমধ্যে একটি উচ্চ জলবিয়োজন ঝুঁকিতে থাকতো উচ্চ তাপমাত্রা দিনগুলির কারণে।

গতিশীলতা[সম্পাদনা]

গতিশীলতা অপরিহার্য ছিল একটি সফল মরুভূমি যুদ্ধের জন্য। এটা ব্যাখ্যা করে যুদ্ধে ভারী বর্ম ব্যবহারের , যেমন El Alamein দ্বিতীয় বিশ্ব যুদ্ধে । এটা উল্লেখ করা হয়েছে যে, গতিশীলতা খুব গুরুত্বপূর্ণ মরুভূমি যুদ্ধে জন্য। যুদ্ধে কখনও কখনও নৌ ব্যস্ততা অনুরূপ যুদ্ধ শুরু হতে পারে, যেখানে প্রকৃত অঞ্চল দখল করা একজনের ট্যাংক (বা জাহাজ) এর অবস্থানের থেকে কম গুরুত্বপূর্ণ ভাবে দেখা হয়।

অনেক শত্রু আছে মরুভূমি যোদ্ধাদের। এরা অন্তর্ভুক্ত করে বিমান এবং ট্যাংক গুলোকে , যা অত্যন্ত ভয়প্রদর্শনকারী অস্ত্র হতে পারে মরুভূমি গেরিলাদের নিকট, কারণ এটাই হচ্ছে সামান্য তম উপায় তাদের সন্য দলের সমান বল তৈরি করতে। উপরন্তু,খুব সামান্য কয়েক জায়গা আছে মরুভূমি পরিবেশে যা এইসকল অস্ত্র থেকে নিজেদের আড়াল করার জন্য।

আরেকটি সমস্যা হল বালিয়াড়ি বা বালির পাহাড়, গতিশীলতা ৬০% হ্রাস করে।

পানি ঘাটতি[সম্পাদনা]

পানির অভাব এবং চরম তাপ সৃষ্টি করতে পারে জটিলতা যখন মরুভূমি যুদ্ধ চলে। আরেকটি প্রাণঘাতী শত্রু হচ্ছে স্থলমাইন। এটি একটি মারাত্মক ডিভাইস এবং তার গুরুত্ব কম করে দেখা হয় (আন্ডাররেটেড)। এটা সনাক্ত করা কঠিন এবং গতিশীলতা কে অস্বীকার করতে পারেনা। পানির অভাবে ঘাঁটি পরিবর্তন হতে পারে,এক অবস্থান থেকে আরেক অবস্থানে খোঁজা হয় পানির উৎস।

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

গুরুত্বপূর্ণ যুদ্ধসমূহ জড়িত মরুভূমি যুদ্ধ[সম্পাদনা]

  • যুক্তরাজ্যনাৎসি জার্মানিইতালির রাজত্ব (১৮৬১–১৯৪৬) Battle of Gazala (1942)
  • যুক্তরাজ্যনাৎসি জার্মানিইতালির রাজত্ব (১৮৬১–১৯৪৬) First Battle of El Alamein (1942)
  • যুক্তরাজ্যনাৎসি জার্মানিইতালির রাজত্ব (১৮৬১–১৯৪৬) Second Battle of El Alamein (1942)
  • ভারতপাকিস্তান Battle of Asal Uttar (1965)
  • ভারতপাকিস্তান Battle of Longewala (1971)

গুরুত্বপূর্ণ যুদ্ধ জড়িত মরুভূমি যুদ্ধ[সম্পাদনা]

চলমান মরুভূমি যুদ্ধ, দ্বন্দ্ব[সম্পাদনা]

  • সোমালিয়া সোমালি গৃহযুদ্ধের (1991–বর্তমান)
  • মালি 2012 উত্তর মালি দ্বন্দ্ব (2012–বর্তমান)

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  • ইংরেজী উইকিপিডিয়া [১]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]