ভূস্বামী

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে

ভূস্বামী এই শব্দের উৎপত্তি দুইটি শব্দ থেকে ভূ বলতে ভূখন্ড, ভূমি বোঝায় আর স্বামী বলতে অধিপতি,মনিব মূলত এই দুইটা শব্দের মিশ্রনে ভূস্বামী শব্দের উৎপত্তি । মোঘল ও বৃটিশ আমলে এই শব্দটি ব্যবহার শুরু হয়। ভূস্বামীদের চেনার উপায় ভূস্বামীদের পদবী দুই শব্দে বিভক্ত ছিল প্রথম অংশে সরকারের বিভিন্ন অঞ্চলের নামের সাথে ওই অঞ্চলের শাসক বোঝাতে "দার" যুক্ত হত দার শব্দের অর্থ দাস্তান, মালিকানা, রক্ষক বোঝায়।  মোঘল আমলে সরকার ব্যবস্থা প্রদেশ, অঞ্চল, পরগনা, তালুকা, মৌজা, তরফ এই অঞ্চল গুলো শাসন করার জন্য মোঘল সাম্রাজ্যে বিশ্বস্ত কর্মচারী ও সেনাপ্রধানদের এই অঞ্চল গুলোর শাসক নিয়োগ করা হতো। তারা সাম্রাজ্যের অধীনে কমিশন ভিত্তিক খাজনা আদায় করতো। সাম্রাজ্যে চাইলে যে কোন সময় বিভিন্ন সরকার বিভাগের শাসকদের পরিবর্তন করতে পারতেন। প্রয়োজনে তাদের উপর বলপ্রয়োগ করতো। মোঘল সাম্রাজ্যে দূর্বল হতে শুরু করলে প্রদেশের শাসকদের অধীনে সবকিছু নিয়ন্ত্রণ চলে আসে। নিচে সরকার ব্যবস্থার বিভিন্ন অঞ্চলের শাসকদের তালিকা :-

  • একটি প্রদেশে বিশ থেকে তিরিশটি অঞ্চলে বিভক্ত অঞ্চলের শাসক জয়গীরদার
  • একটি অঞ্চল ৮০ থেকে ১০০ এরও বেশি পরগনা নিয়ে গঠিত পরগনার শাসক শিকদার
  • একটি পরগনা কয়েকটা তালুকা বা গ্রাম নিয়ে গঠিত তালুকার শাসক তালুকদার
  • একটি তালুকা কয়েকটি মৌজা নিয়ে গঠিত মৌজার শাসক মজুমদার
  • একটি মৌজা কয়েকটি তরফ নিয়ে গঠিত তরফের শাসক তরফদার


এই সকল অঞ্চলের নিরাপত্তা জন্য সাম্রাজ্যে সরকার ব্যবস্থার শাসকদের অধীনে ১০ থেকে শুরু করে ৫০০০ পর্যায়ক্রমে সৈন্য দিয়ে থাকতেন । ১৭৫৭ পলাশীর যুদ্ধে নবাব সিরাজউদ্দৌলার পরাজয়ের পর থেকে ইংরেজ কোম্পানি  বিভিন্ন ভাবে বাংলায় তাদের শাসন কায়েম করতে থাকে । ১৭৯৩ সালে সুবেদার পদবী বিলুপ্তি করে পুরোপুরি শাসন ব্যবস্থা  ইংরেজ কোম্পানি  নিয়ে নেয় । ইংরেজ কোম্পানি জয়গীরদার পদটি বিলুপ্তি করে জমিদারি প্রথা চালু করে ।  কর বৃদ্ধি সহ জমিদার, শিকদার, তালুকদার, মজুমদার, তরফদার এইসকল সকল ব্যবস্থাকে চিরস্থায়ী বন্দোবস্ত আইনের আওতায় নিয়ে আসা হয় । এই সকল শাসক গোষ্ঠীর কাছ থেকে সৈন্য রাখার ক্ষমতাও নিয়ে । সকল ক্ষমতা চলে যায় ইংরেজ কোম্পানির কাছে । এই দিকে কর বৃদ্ধির কারণে অনেক ভূস্বামী দেউলীয়া হয়ে যায় । তখনি সমাজে নতুন নতুন ভূস্বামীদের আবির্ভাব ঘটে । কিছু ভূস্বামী দূরদর্শিতার কারণে তারা দেউলীয়া হাওয়া হাতে বেঁচে যায় । ১৯৪৭ভারত বিভাজন বৃটিশরা ভারতবর্ষ ছেড়ে গেলে ভারত ও পাকিস্তান সরকার ধারা ১৯৫০ সালে ভূস্বামী প্রথার বিলুপ্তি ঘটানো হয় ‌।

মোঘল সাম্রাজ্যে ও বৃটিশদের কাছ থেকে পাওয়া ভূস্বামীদের উপাধি[সম্পাদনা]

তথ্য সূত্র[সম্পাদনা]

মুঘল সাম্রাজ্য

জায়গীর জমিদার

বর্ধমান রাজ

মোঘল সরকার ব্যবস্থা পরগনা

সুবেদার

বাংলার ইতিহাস

বাংলাদেশ

বাংলার শাসকগণ

ভূস্বামী