ভূতের ভবিষ্যৎ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সরাসরি যাও: পরিভ্রমণ, অনুসন্ধান
ভূতের ভবিষ্যৎ
ভূতের ভবিষ্যৎ.jpg
ভূতের ভবিষ্যৎ চলচ্চিত্র এর বাণিজ্যিক পোস্টার
পরিচালক অনীক দত্ত
প্রযোজক জয় গাঙ্গুলী
চিত্রনাট্যকার অনীক দত্ত
গল্পকার অনীক দত্ত
অভিনেতা পরমব্রত চট্টোপাধ্যায়
সুরকার রাজা নারায়ণ েদব
মুক্তি ১৬ই মার্চ ২০১২
দৈর্ঘ্য ১২০ মিনিট
দেশ ভারত
ভাষা বাংলা

ভূতের ভবিষ্যৎ ভারতীয় পরিচালক অনীক দত্তের পরিচালিত প্রথম বাংলা চলচ্চিত্র। ২০১২ সালের একটি হিট ছবি।[১] চলচ্চিত্রটি শ্রীরামপুর রাজবাটী-তে স্যুটিং হয়।

কাহিনী[সম্পাদনা]

নবীন পরিচালক শুটিং এর জন্যে লোকেশন দেখতে আসেন একটি পরিত্যক্ত বাড়িতে। হঠাৎ তার আলাপ হয় বাড়িরই একজন ব্যক্তির সংগে যিনি নাকি ওখানেই থাকেন। তার কাছে থেকে সেই বাড়িতে থাকা কতিপয় ভুতেদের কাহিনী শোনেন পরিচালক। যে গল্পের উপজীব্য বিষয় হল প্রমোটারি আর দখলদারীর ভিড়ে পুরোনো ভুতেরা কিভাবে স্বার্থান্বেষী মানুষদের সাথে লড়াই করে বাড়ির অধিকার অর্জন করলো। তারা প্রথমে আস্তানার খোঁজে আসে পরিত্যক্ত চৌধুরী বাড়িতে। সকলেই অপঘাতে মারা গেছিল। র‍্যামসে সাহেব এবং রায় বাহাদুর এই দুজনে বাড়ির কর্তা হিসেবে থাকতে দেন বিভিন্ন জায়গা থেকে আসা জাতি, ধর্ম, পেশা, লিঙ্গ নির্বিশেষে ভুতেদের। একসময় প্রমোটারী চক্র বাড়ি দখল করতে এলে তারা বাধা দেয়। একাজে বিভিন্ন পেশার ভুতেরা একযোগে মতলব কষে হটিয়ে দেয় অসাধু ব্যবসায়ীদের। গল্পের শেষে জানা যায় যিনি এর কথক তিনিও একজন ভুত এবং বাকিদের সাথী। শেষ পর্যন্ত পরিচালক তন্দ্রা ভেঙে দেখেন পুরোটাই স্বপ্ন, কিন্তু যা দিয়ে তৈরী হতে পারে ভুতের ভবিষ্যৎ এর মত সিনেমা।

অভিনয়ে[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "কলকাতার ভূতের ভবিষ্যৎ ওদের বিটলজুস"। সংগৃহীত ৭ আগস্ট ২০১৬ 

ইন্টারনেট মুভি ডেটাবেজে ভূতের ভবিষ্যৎ উইকিউপাত্তে এটি সম্পাদনা করুন (ইংরেজি)