বানৌজা অতন্দ্র

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
ইতিহাস
বাংলাদেশ
নাম: বানৌজা অতন্দ্র
নির্মাণাদেশ: ২ মে ২০১০
নির্মাতা: খুলনা শিপইয়ার্ড লিমিটেড
অর্জন: ১৫ই ডিসেম্বর ২০১৩
কমিশন লাভ: ২৩ ডিসেম্বর ২০১৩[১]
মাতৃ বন্দর: খুলনা
শনাক্তকরণ: পরিচিতি সংখ্যা: পি ২৬৩
অবস্থা: সক্রিয়
সাধারণ বৈশিষ্ট্য
প্রকার ও শ্রেণী: পদ্মা ক্লাস টহল জাহাজ
ওজন: ৩৫০ টন
দৈর্ঘ্য: ৫০.৪ মিটার (১৬৫ ফু)
প্রস্থ: ৭.৫ মিটার (২৫ ফু)
Draught: ৪.১ মিটার (১৩ ফু)
প্রচালনশক্তি: ২ শ্যাফট, ২ ডিজেল
গতিবেগ: ২৩ নট (৪৩ কিমি/ঘ)
সহনশীলতা: ৭ দিন
লোকবল: ৪৫ জন
রণসজ্জা:
  • ২ × ৩৭ মিমি কামান;
  • ২ × ২০ মিমি বিমান বিধ্বংসী কামান
  • সামুদ্রিক মাইন

বানৌজা অতন্দ্র হচ্ছে বাংলাদেশ নৌবাহিনীর পদ্মা ক্লাসের একটি টহল জাহাজ। এটি বাংলাদেশ নৌবাহিনীতে ২০১৩ সাল থেকে যুক্ত আছে।

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

২০১০ সালের ২ মে, এই জাহাজটির নির্মাণাদেশ দেয়া হয়। ১৫ই ডিসেম্বর ২০১৩ সালে জাহাজটি বাংলাদেশ নৌবাহিনীর নিকট হস্তান্তর করা হয়। ২৩ ডিসেম্বর ২০১৩-তে বানৌজা অতন্দ্র বাংলাদেশ নৌবাহিনীতে কমিশন পায়।[১]

ডিজাইন[সম্পাদনা]

বানৌজা অতন্দ্র ৫০.৪ মিটার (১৬৫ ফু) দীর্ঘ, ৭.৫ মিটার (২৫ ফু) প্রশস্থ এবং ৪.১ মিটার (১৩ ফু) গভীরতা বিশিষ্ট। এই টহল জাহাজটির ওজন ৩৫০ টন। এর সর্বোচ্চ গতি ২৩ নট (৪৩ কিমি/ঘ)। নৌযানটি ৪৫ জনকে নিয়ে একনাগাড়ে এক সপ্তাহ মিশন পরিচালনা করতে পারে।

রণসজ্জা[সম্পাদনা]

এই জাহাজটি একজোড়া ২০ মিমি বিমান-বিধ্বংসী কামান এবং একজোড়া ৩৭ মিমি কামান দ্বারা সজ্জিত। অতন্দ্র সামুদ্রিক মাইন এবং কাধে বহনযোগ্য বিমান-বিধ্বংসী ক্ষেপণাস্ত্র ও বহন করতে পারে।[২]

আরো দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "4 warships including Somoudra Joy commissioned"bdnews24.com। ২৩ ডিসেম্বর ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ১৩ মে ২০১৫ 
  2. "Bangladesh still aiming for sub purchases"upi.com। United Press International, Inc। সংগ্রহের তারিখ ২৬ জুন ২০১৫