বড়োল্যান্ড ক্ষেত্রীয় পরিষদ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
বড়োল্যান্ড ক্ষেত্রীয় পরিষদ
তৃতীয় পরিষদ
ধরন
ধরন
একসদনীয়
মেয়াদসীমা৫ বছর
নেতৃত্ব
অধ্যক্ষত্রিদীপ দৈমারী
উপাধ্যক্ষনেরশন বড়ো
প্রমুখহাগ্রামা মহিলারী
উপ প্রমুখকেম্পা বরগয়ারী
গঠন
আসন৪০ (৩০ টি অনুসূচীত জনজাতির জন্য সংরক্ষিত, ৫ টি অ-জনজাতীয়, ৫ টি অসংরক্ষিত এবং ৬ টি অপ্রতিনিধি সম্প্রদায় থেকে আসামের রাজ্যপাল দ্বারা মনোনীত)
রাজনৈতিক দলসরকার (২০)

বিপক্ষ (২০)

নির্বাচন
ভোটদান ব্যবস্থাফার্ষ্ট পাষ্ট দা পোষ্ট
সর্বশেষ নির্বাচন৮ এপ্রিল ২০১৫
পরবর্তী নির্বাচন২০২০
সভাস্থল
বড়োল্যান্ড সচিবালয়
বড়োফা নগর, কোকরাঝাড়
ওয়েবসাইট
http://www.bodoland.gov.in

বড়োল্যান্ড ক্ষেত্রীয় পরিষদ (অসমীয়া: বড়োলেণ্ড ক্ষেত্ৰীয় পৰিষদ; সংক্ষেপে বিটিসি) আসামের এক স্বায়ত্বশাসিত অঞ্চলের পরিষদ। আসামের বড়োল্যান্ড অঞ্চলে শাসন কার্য সম্পাদন করার জন্য এই পরিষদের গঠন করা হয়েছিল। ২০০৩ সালের ১০ ফেব্রুয়ারী তারিখে এই পরিষদ স্থাপন করা হয়েছিল। এতে মোট ৪৬ জন কার্যকরী সদস্য আছে এবং প্রত্যেকের নিজ কেন্দ্র আছে। বড়োল্যান্ড ক্ষেত্রীয় পরিষদের অন্তর্গত অঞ্চলকে সরকারীভাবে বড়োল্যান্ড ক্ষেত্রীয় জেলাসমূহ বা বড়োল্যান্ড টেরিটোরিয়াল এরিয়া ডিষ্ট্রিক্টস সংক্ষেপে বিটিএডি বলে। বড়োল্যান্ড ক্ষেত্রীয় পরিষদের প্রমুখ হচ্ছে হাগ্রামা মহিলারী এবং উপপ্রমুখ কেম্পা বরগয়ারী। এর মুখ্য কার্যালয় কোকরাঝাড়ের বড়োফা শহরে অবস্থিত।

বড়োল্যান্ড ক্ষেত্রীয় জেলাসমূহে মোট চারটি জেলা আছে। সেগুলি হল, কোকরাঝাড় জেলা, বাক্সা জেলা, ওদালগুড়ি জেলা এবং চিরাং জেলা। এই জেলাসমূহ পূর্বের কোকরাঝাড় জেলা, বঙাইগাঁও জেলা, বরপেটা জেলা, নলবারী জেলা, কামরূপ জেলা, দরং জেলা এবং শোণিতপুর জেলার কিছু কিছু অংশ নিয়ে গঠিত। এই অঞ্চলের মোট ক্ষেত্রফল ৮,৮২২ বর্গ কিঃমিঃ অর্থাৎ আসামের মোট ক্ষেত্রফলের ১১%। এই অঞ্চলে বহু সংরক্ষিত জনজাতীয় অঞ্চল আছে। ভারতের সংবিধানের ষষ্ঠ অনুসূচীত সংশোধনের মাধ্যমে এটির স্থাপনা করা হয়েছিল।[১]

এই অঞ্চল ভারতের অন্য অঞ্চলের তুলনায় অল্প অনগ্রসর। অঞ্চলটির মূল অর্থনীতি কৃষিভিত্তিক।

ধর্ম এবং ভাষা[সম্পাদনা]

বড়োল্যান্ড ক্ষেত্রীয় জেলাসমূহে ধর্ম (২০১১ সালের জনগণনা মতে)
ধর্ম শতাংশ
হিন্দু ধর্ম
  
৭১.২৫%
ইসলাম ধর্ম
  
১৯.১২%
খ্রীষ্টান ধর্ম
  
৯.১৪%
বৌদ্ধ ধর্ম
  
০.১৬%
অন্যান্য
  
০.২৪%
বড়োল্যান্ড ক্ষেত্রীয় জেলাসমূহে ভাষা (২০১১ সালের জনগণনা মতে)
ভাষা শতাংশ
বড়ো ভাষা
  
৩০.৫%
অসামীয়া ভাষা
  
২৬.৮%
বাংলা ভাষা
  
২৩.৭%
সাঁওতালি ভাষা
  
৫.৪%
হিন্দী ভাষা
  
৪.৭%
নেপালী ভাষা
  
৩.৪%
কুরুষ ভাষা
  
১.৫%
রাভা ভাষা
  
১.১%
অন্যান্য
  
২.৫%

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "BTC Accord"। ১ জানুয়ারি ২০১৮। ১৯ এপ্রিল ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা।