পালাউ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
(পালাউর ধর্মবিশ্বাস থেকে পুনর্নির্দেশিত)

স্থানাঙ্ক: ৭°২৮′০.০১″ উত্তর ১৩৪°৩৩′০.০০″ পূর্ব / ৭.৪৬৬৬৬৯৪° উত্তর ১৩৪.৫৫০০০০০° পূর্ব / 7.4666694; 134.5500000

পালাউ প্রজাতন্ত্র

Beluu er a Belau
পালাউয়ের জাতীয় পতাকা
পতাকা
পালাউয়ের জাতীয় মর্যাদাবাহী নকশা
জাতীয় মর্যাদাবাহী নকশা
সঙ্গীত: বেলাউ রেকিড
আমাদের পালাউ
পালাউয়ের অবস্থান
রাজধানীNgerulmud, Melekeok Statea[১]
বৃহত্তর শহরকোরোর
সরকারি ভাষাEnglish, Palauan, Japanese (in Angaur)
জাতীয়তাসূচক বিশেষণPalauan
সরকারConstitutional government
in free association with the USA
• President
Tommy Remengesau
Independence
1 October 1994
আয়তন
• মোট
৪৫৯ কিমি (১৭৭ মা) (195th)
• পানি/জল (%)
negligible
জনসংখ্যা
• 2014 আনুমানিক
18,000 (224th)
• 2012 আদমশুমারি
17,500
• ঘনত্ব
২৮.৪ /কিমি (৭৩.৬ /বর্গমাইল)
জিডিপি (পিপিপি)2008 আনুমানিক
• মোট
$164 million[২] (not ranked)
• মাথাপিছু
$8,100[২] (119th)
এইচডিআই (2013)অপরিবর্তিত 0.775[৩]
উচ্চ · 60th
মুদ্রাUnited States dollar (USD)
সময় অঞ্চলইউটিসি+9
গাড়ী চালনার দিকright
কলিং কোড+680
ইন্টারনেট টিএলডি.pw
  1. On 7 October 2006, government officials moved their offices in the former capital of Koror to Ngerulmud in Melekeok State, located ২০ কিমি (১২ মা) northeast of Koror on Babelthaup Island and ২ কিমি (১ মা) northwest of Melekeok village.

পালাউ প্রজাতন্ত্র (পালাউয়ান: Beluu er a Belau বেলুউ এর আ বেলাউ; ইংরেজি: Republic of Palau রিপাব্লিক অভ্‌ পালাউ) পশ্চিম প্রশান্ত মহাসাগরের একটি স্বাধীন প্রজাতান্ত্রিক দ্বীপরাষ্ট্র। মাইক্রোনেশিয়ার অন্তর্গত প্রায় ২০০টি দ্বীপ নিয়ে রাষ্ট্রটি গঠিত। পালাউ বিষুবরেখার কাছে, ফিলিপাইনের প্রায় ৮৫০ কিলোমিটার পূর্বে অবস্থিত।

ব্যুৎপত্তি[সম্পাদনা]

পালাউয়ান ভাষায় দেশটিকে Belau (বেলাউ) নামে ডাকা হয়। পালাউয়ান ভাষায় Belau শব্দটির অর্থ গ্রাম। ইংরেজি Palau শব্দটি এসেছে হিস্পানীয় শব্দ Los Palaos থেকে। Los একটি পদাশ্রিত নির্দেশক (যেমন ইংরেজিতে the) এবং Palaos শব্দটা পালাউয়ান Belau থেকে আগত।

অনেকে মনে করেন Belau শব্দটি মালয় ভাষার Pulau থেকে এসেছে, যার অর্থ দ্বীপ।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

১৫০০ সাল নাগাদ স্পেনীয় সাম্রাজ্য পালাউ অধিকার করে একে স্পেনীয় ইস্ট ইন্ডিজের অংশ হিসাবে শাসন করতে থাকে। এর পুর্বে পালাউ স্থানীয় আদিবাসীদের দ্বারা শাসিত হতো। ১৮৯৯ সালে স্পেন-মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র যুদ্ধের সময় জার্মান সাম্রাজ্য স্পেনের দুর্বলতার সুযোগ নিয়ে পালাউ দখল করে নেয় এবং একে জার্মান নিউ গিনির অংশ হিসাবে শাসন করতে থাকে। অবশ্য পরে স্পেনের সঙ্গে জার্মানি এই ব্যাপারে চুক্তিতে আবদ্ধ হয়ে ছিল। প্রথম বিশ্বযুদ্ধের সময় জাপান সাম্রাজ্য পালাউ অধিকার করে নেয়। ১৯১৯ সালে জাতিপুঞ্জের অনুমতিক্রমে জাপান সাম্রাজ্য পালাউ, মাইক্রোনেশিয়া, উত্তর মারিয়ানা দ্বীপপুঞ্জসহ আরো কয়েকটি অঞ্চল নিয়ে একটি অভিভাবকত্ব প্রতিষ্ঠা করে, যা "দক্ষিণ সাগরে জাপানের অভিভাবকত্ব" নামে পরিচিত হয়।

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে জাপানের আত্মসমর্পণ এর পরে এটি প্রশান্ত মহাসাগরীয় দ্বীপপুঞ্জের জাতিসংঘ ট্রাস্ট এলাকার অন্তর্ভুক্ত হয় এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের শাসনাধীনে আসে। ১৯৯৪ সালের অক্টোবর মাসে পালাউ একটি স্বশাসিত রাষ্ট্রে পরিণত হয় এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সাথে এ ব্যাপারে একটি চুক্তিতে পৌঁছে।

রাজনীতি[সম্পাদনা]

পালাউয়ে রাষ্ট্রপতি-শাসিত সরকারব্যবস্থা বিদ্যমান। পালাউ একটি যুক্তরাষ্ট্রীয় দেশ। দেশটির সংখ্যাগরিষ্ঠ ভোটে কেন্দ্রীয়ভাবে রাষ্ট্রপতি নির্বাচিত হলেও মূল ক্ষমতা প্রদেশসমূহের হাতেই রয়েছে। পালাউ একটি নির্দলীয় গণতন্ত্রের দেশ। দেশটির সকল নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থীরাই অংশগ্রহণ করে। মূলত পালাউয়ে আজ অবধি কোনো রাজনৈতিক দল গড়েই ওঠে নি।

প্রশাসনিক অঞ্চলসমূহ[সম্পাদনা]

পালাউ দ্বীপপুঞ্জের কোরোর দ্বীপে অবস্থিত কোরোর শহর দেশটির বৃহত্তম শহর এবং রাজধানী। বাবেলথুয়াপ নামের দ্বীপে নতুন একটি রাজধানী গড়ে তোলা হচ্ছে।

ভূগোল[সম্পাদনা]

পালাউ পশ্চিম প্রশান্ত মহাসাগরের ওশেনিয়া (Ocenia) মহাদেশের পশ্চিমপ্রান্তে মাইক্রোনেশিয়া (Micronesia) অঞ্চলে অবস্থিত।

অর্থনীতি[সম্পাদনা]

দেশটির অর্থনীতির মূল চালিকা শক্তি হচ্ছে পর্যটনশিল্প, কৃষি ও সামুদ্রিক মৎস্যশিকার। মাথাপিছু আয় প্রায় ১৬ হাজার ৭০০ ডলার।[৪]

জনসংখ্যা[সম্পাদনা]

সংস্কৃতি[সম্পাদনা]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Government offices moved to a new National Capitol Building complex located at Ngerulmud, Melekeok State" US Department of State. Palau (02/09). Retrieved 24 February 2013.
  2. 2008 estimate. "Palau"CIA World Factbook। CIA। সংগ্রহের তারিখ ৯ আগস্ট ২০০৯ 
  3. "2014 Human Development Report Summary" (PDF)। United Nations Development Programme। ২০১৪। পৃষ্ঠা 21–25। সংগ্রহের তারিখ ২৭ জুলাই ২০১৪ 
  4. "ছোট দেশ শক্তিশালী অর্থনীতি"। ২০১৯-০৭-২৬। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৭-২৬ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]