পাঠান (চলচ্চিত্র)

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পাঠান
পাঠান ২০২৩ চলচ্চিত্র পোস্টার.jpg
থিয়েটার রিলিজ পোস্টার
পরিচালকসিদ্ধার্থ আনন্দ
প্রযোজকআদিত্য চোপড়া
রচয়িতাশ্রীদার রাঘবন আব্বাস টায়ারওয়ালা
কাহিনিকারসিদ্ধার্থ আনন্দ
শ্রেষ্ঠাংশে
সুরকার
চিত্রগ্রাহকসচিথ পলোস
সম্পাদকআরিফ শেখ
প্রযোজনা
কোম্পানি
পরিবেশকযশ রাজ ফিল্মস
মুক্তি
  • ২৫ জানুয়ারি ২০২৩ (2023-01-25)
দেশভারত
ভাষাহিন্দি
নির্মাণব্যয়₹২৫০ কোটি
আয়প্রা. ৫৪৫.৪৪ কোটি (৫ দিনে) [১]

পাঠান ২০২৩ সালের ভারতীয় হিন্দি -ভাষা অ্যাকশন থ্রিলার চলচ্চিত্র।[২] এটি আদিত্য চোপড়া রচিত ও যশ রাজ ফিল্মস দ্বারা প্রযোজিত এবং সিদ্ধার্থ আনন্দ পরিচালিত[৩] একটি চলচিত্র। চলচ্চিত্রটিতে প্রধান চরিত্রে আছেন শাহরুখ খান, জন আব্রাহাম এবং দীপিকা পাড়ুকোন[৩] এটি এক থা টাইগার (২০১২), টাইগার জিন্দা হ্যায় (২০১৭) এবং ওয়ার (২০১৯) এর পর ওয়াইআরএফ স্পাই ইউনিভার্সের চতুর্থ কিস্তি।

কাহিনি[সম্পাদনা]

২০১৯ সালে ভারত সরকার জম্মু ও কাশ্মীরকে বিশেষ মর্যাদা প্রদানকারী সংবিধানের ৩৭০ অনুচ্ছেদ বাতিল করে। এই খবরটি ক্যান্সারে আক্রান্ত পাকিস্তানি সেনাবাহিনীর জেনারেল কাদিরকে প্রভাবিত করে ও তিনি ভারতের বিরুদ্ধে প্রতিশোধ নেওয়ার সিদ্ধান্ত নেন। তিনি একটি বেসরকারী সন্ত্রাসী সংগঠন "আউটফিট এক্স"-এর নেতৃত্ব দানকারী জিমের সাথে একটি চুক্তি স্বাক্ষর করেন। এদিকে, প্রাক্তন এজেন্ট পাঠান এবং তার সিনিয়র অফিসার নন্দিনী "জয়েন্ট অপারেশন অ্যান্ড কোভার্ট রিসার্চ" (জেওসিআর) নামে একটি ইউনিট খোলেন ও ট্রমা বা আঘাতের কারণে অবসর নিতে বাধ্য হওয়া এজেন্টদের নিয়োগ দেন।

কর্নেল সুনীল লুথরার পাঠানের অনুরোধ গ্রহণ করেন এবং একটি বৈজ্ঞানিক সম্মেলনে ভারতের রাষ্ট্রপতিকে আক্রমণ করার আউটফিট এক্সের পরিকল্পনা বন্ধ করতে তার দল দুবাই চলে যায়। তবে তারা বুঝতে পারে যে সন্ত্রাসীদের মূল পরিকল্পনা ছিল দুই বিজ্ঞানীকে অপহরণ করা। জিম বিজ্ঞানীদের গাড়িবহরে আক্রমণ করে এবং পাঠান তাকে থামানোর চেষ্টা করে। ফলে একটি লড়াই শুরু হয়, তবে পরে জিম একজন বিজ্ঞানীর সাথে পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়। লুথরা জানায় যে জিম হচ্ছে একজন প্রাক্তন র এজেন্ট, যাকে কয়েক বছর আগে মৃত ঘোষণা করা হয়েছিল। সোমালীয় সন্ত্রাসীরা জিমের স্ত্রী এবং অনাগত সন্তানকে হত্যা করেছিল, এই ঘটনা ঘটতে দেয়ার জিম তার দেশের বিরুদ্ধে প্রতিশোধ নেওয়ার জন্য তার মৃত্যুর মিথ্যা কথা প্রচার করে।

এদিকে, পাঠান "রক্তবীজ" নামক কোডওয়ার্ড সম্পর্কে জানতে পারে এবং আরও জানতে পারে যে দুবাইয়ে হত্যা করা ব্যক্তিরা প্রাক্তন এজেন্ট ছিল এবং তাদের অর্থকড়ি স্পেনে রুবিনা মহসিন নামের একজন পাকিস্তানি ডাক্তারের কাছে স্থানান্তরিত হয়েছে। এটি জানার পর পাঠান স্পেনভ্রমণ করে, তবে সে জিমের লোকদের কাছে ধরা পড়ে যায়, সেখানে সে আরও জানতে পারে যে রুবিনা হচ্ছে একজন প্রাক্তন আইএসআই এজেন্ট। জিম যখন তার আস্তানা ছেড়ে যায়, রুবিনা জিমের লোকদের আক্রমণ করে এবং পাঠানের সাথে পালিয়ে যায়। রুবিনা জানায় যে রক্তবিজ মস্কোতে রয়েছে ও জিমের আগে এটি তাদের হস্তগত করতে তারা মস্কোতে যায়। তবে রুবিনা পাঠানের সাথে বিশ্বাসঘাতকতা করে এবং তাকে পুলিশে ধরিয়ে দেয়। পরে জানা যায় যে রক্তবীজ চুরি করতে জিম রুবিনাকে ব্যবহার করে পাঠানকে বাধ্য করেছিল। পাঠানকে বন্দী করে কারাগারে নিয়ে যাওয়া হয়, তবে টাইগার এসে তাকে উদ্ধার করে।

তিন বছর পর, পাঠান আফ্রিকায় যায় এবং জিমের সহযোগী রাফিকে ধরে ফেলে। তারপর সে নন্দিনীর সাথে দেখা করে এবং জিম যে দুটি সাবের ক্ষেপণাস্ত্র কিনেছে তা নন্দিনীর কাছে প্রকাশ করে, অন্যদিকে নন্দিনী প্যারিসে রুবিনার অবস্থানের কথা প্রকাশ করে। পাঠান রুবিনার সাথে দেখা করে, রুবিনা জানায় যে রক্তবীজ হল গুটিবসন্তের মতো নকশা করা রূপান্তরিত প্রাণঘাতী ভাইরাস, জিম যে বিজ্ঞানীকে বন্দী করেছিল এটি তার তৈরি। তার দেশ এই ধরনের হামলার পরিকল্পনা করবে তা না জেনেই পাঠানের সাথে বিশ্বাসঘাতকতা করার জন্য রুবিনা পাঠানের কাছে ক্ষমা চায়। তারা জিমের ল্যাবে হানা দেয়, জিম অন্যদের সাথে পালিয়ে যান তবে তারা ভাইরাসযুক্ত একটি অরব পুনরুদ্ধার করতে সক্ষম হয়। তারপর পাঠান এবং তার দল ভাইরাসের জন্য ভ্যাকসিন প্রস্তুত করতে একটি ল্যাবে যায়।

শ্রেষ্ঠাংশে[সম্পাদনা]

নির্মান[সম্পাদনা]

প্রিয়ম দত্ত, শাহরুখ খান, দীপিকা পাদুকুন, জন আব্রাহাম প্রমুখ

চিত্রগ্রহণ[সম্পাদনা]

সংগীত[সম্পাদনা]

গানের তালিকা
নং.শিরোনামগীতিকারসুরকারশিল্পীদৈর্ঘ্য
১."বেশারম রং"কুমার, বিশাল দাদলানি (স্পেনীয় গানের কথা)বিশাল-শেখরশিল্পা রাও, কারালিসা মন্তেইরো, বিশাল দাদলানি, শেখর রাভজিয়ানি৪:১৮
২."ঝুমে জো পাঠান"কুমারবিশাল-শেখরঅরিজিৎ সিং, সুকৃতি কক্কর, বিশাল দাদলানি, শেখর রাভজিয়ানি৩:২৮
৩."পাঠানের থিম"কিট বিসঞ্চিত বালহারা, অঙ্কিত বালহারামাগডালেনা সুপেল২:৩৭
৪."জিমের থিম"যন্ত্রসঙ্গীতসঞ্চিত বলহারা, অঙ্কিত বলহারামান্য নারাং, রিয়া দুগ্গাল১:১১
মোট দৈর্ঘ্য:১১:৩৪

প্রচারণা[সম্পাদনা]

শাহরুখ খানের ৫৭ তম জন্মদিনের সাথে মিলে ২ নভেম্বর ২০২২-এ চলচ্চিত্রটির টিজার প্রকাশিত হয়েছিল।[৪]

মুক্তি[সম্পাদনা]

১.৫ বছরেরও বেশি সময় ধরে চিত্রগ্রহণের পর, পাঠান ২৫ জানুয়ারী ২০২৩ তারিখে প্রজাতন্ত্র দিবসের সাথে মানক এবং IMAX সংস্করণে একটি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তির জন্য নির্ধারিত হয়েছে।[৫]

আরো দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Pathan Day 4 Box Office Collection – World Wide Box Office Earning"DNA। সংগ্রহের তারিখ ২৯ জানুয়ারি ২০২৩ 
  2. "Pathaan teaser: Shah Rukh Khan finally announces comeback film, Deepika Padukone and John Abraham introduce him"Hindustan Times। ১৩ অক্টোবর ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১২ অক্টোবর ২০২২ 
  3. "Deepika Padukone starts shooting for Pathan with Shah Rukh Khan in Mumbai"India Today। ৪ জুলাই ২০২১। ৫ অক্টোবর ২০২১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৫ অক্টোবর ২০২১ 
  4. Hungama, Bollywood (২০২২-১১-০২)। "Pathaan Teaser: Shah Rukh Khan unveils slick avatar as a suave spy in upcoming action-entertainer; rings in 57th birthday with comeback movie teaser : Bollywood News - Bollywood Hungama" (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-১১-০৫ 
  5. "Netizens Celebrate the Return of King as Shah Rukh Khan Announces Pathaan's Release Date"News18 (ইংরেজি ভাষায়)। ২০২২-০৩-০২। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-১১-০৫ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]