জর্জ মাডি

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
জর্জ মাডি
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামজর্জ হোরাশিও মাডি
জন্ম২৬ নভেম্বর, ১৯১৫
স্পেনিশ টাউন, সেন্ট ক্যাথরিন, জ্যামাইকা
মৃত্যু৮ জুন, ২০০২
সেন্ট ক্যাথরিন, জ্যামাইকা
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরনস্লো লেফট-আর্ম অর্থোডক্স
ভূমিকাবোলার
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
একমাত্র টেস্ট
(ক্যাপ ৪৪)
১৪ মার্চ ১৯৩৫ বনাম ইংল্যান্ড
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট এফসি
ম্যাচ সংখ্যা ১৯
রানের সংখ্যা ৫৭৪
ব্যাটিং গড় ৫.০০ ২২.২৩
১০০/৫০ ০/০ ০/৪
সর্বোচ্চ রান ৯৪
বল করেছে ১৭৪ -
উইকেট ৪২
বোলিং গড় ১৩.৩৩ ৩৫.৪৫
ইনিংসে ৫ উইকেট
ম্যাচে ১০ উইকেট
সেরা বোলিং ২/২৩ ৫/৩২
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ০/০ ১১/০
উৎস: ইএসপিএনক্রিকইনফো.কম, ১২ মে ২০২০

জর্জ হোরাশিও মাডি (ইংরেজি: George Mudie; জন্ম: ২৬ নভেম্বর, ১৯১৫ - মৃত্যু: ৮ জুন, ২০০২) সেন্ট ক্যাথরিনের স্পেনিশ টাউন এলাকায় জন্মগ্রহণকারী জ্যামাইকীয় বংশোদ্ভূত ওয়েস্ট ইন্ডিয়ান আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার ছিলেন। ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন তিনি। ১৯৩৫ সালে সংক্ষিপ্ত সময়ের জন্যে ওয়েস্ট ইন্ডিজের পক্ষে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অংশগ্রহণ করেছেন।[১][২][৩]

ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর ওয়েস্ট ইন্ডিয়ান ক্রিকেটে জ্যামাইকা দলের প্রতিনিধিত্ব করেন। দলে তিনি মূলতঃ স্লো লেফট-আর্ম অর্থোডক্স বোলিং করতেন। এছাড়াও, নিচেরসারিতে ডানহাতে ব্যাটিং করতেন জর্জ মাডি। তবে, উইজেডেনে তাকে ‘মুদি’ নামে লিপিবদ্ধ করা রয়েছে।

প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট[সম্পাদনা]

১৯৩১-৩২ মৌসুম থেকে ১৯৫১-৫২ মৌসুম পর্যন্ত জর্জ মাডি’র প্রথম-শ্রেণীর খেলোয়াড়ী জীবন চলমান ছিল। দীর্ঘদেহী বামহাতি ব্যাটসম্যান ও বামহাতি স্পিনার হিসেবে খেলতেন। সফররত এমসিসি দলের বিপক্ষে জ্যামাইকার সদস্যরূপে ৯৪ ও অপরাজিত ৬০ রানের ইনিংস খেলেন।

১৯৩১-৩২ মৌসুমে লর্ড টেনিসনের নেতৃত্বে সফররত ইংরেজ দলের বিপক্ষে প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে জর্জ মাডি’র অভিষেক ঘটে। ১৯৫১-৫২ মৌসুম পর্যন্ত সতেরোটি খেলায় অংশ নিয়েছিলেন। এক পর্যায়ে তিনি সম্মানীয় কোচের দায়িত্ব ছিলেন ও তরুণ আল্ফ ভ্যালেন্টাইনকে প্রশিক্ষণ প্রদান করেন।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট[সম্পাদনা]

সমগ্র খেলোয়াড়ী জীবনে একটিমাত্র টেস্টে অংশগ্রহণ করেছেন জর্জ মাডি। ১৪ মার্চ, ১৯৩৫ তারিখে কিংস্টনে সফরকারী ইংল্যান্ড দলের বিপক্ষে টেস্ট ক্রিকেটে অভিষেক ঘটে তার। এটিই তার একমাত্র টেস্টে অংশগ্রহণ ছিল। এরপর আর তাকে কোন টেস্টে অংশগ্রহণ করতে দেখা যায়নি।

মার্চ, ১৯৩৫ সালে কিংস্টনে অনুষ্ঠিত ঐ টেস্টে সফরকারীদেরকে পরাজিত করার মাধ্যমে ওয়েস্ট ইন্ডিজ দল প্রথম সিরিজ জয়ের গৌরব অর্জন করে। ছয় নম্বরে ব্যাটিংয়ে নেমে তিনি মাত্র পাঁচ রান সংগ্রহ করলেও অপর প্রান্তে সতীর্থ জর্জ হ্যাডলি ২৭০ রানে অপরাজিত অবস্থায় মাঠ ছেড়েছিলেন। তবে, সফরকারী দলের লেস অ্যামেসজ্যাক ইডনের মধ্যকার ষষ্ঠ উইকেটে ১৫৭ রানের জুটি ভেঙে কৃতিত্বের পরিচয় দেন। অন্যদিকে, ফলো-অনের কবলে পড়াকালীন ইংরেজ অধিনায়ক বব ওয়াট ভাঙা চোয়ালে রিটায়ার্ড হার্ট হতে বাধ্য হন।

অবসর[সম্পাদনা]

১৯৪৮ সালে জন গডার্ডের স্থলাভিষিক্ত হয়ে ভারত গমনার্থে তাকে দলে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছিল। তবে, লন্ডনে পৌঁছার পর তাকে জানানো হয় যে তার দরকার নেই। ১৯টি প্রথম-শ্রেণীর খেলায় অংশ নিয়ে ২২.২৩ গড়ে ৫৭৮ রান তুলেন ও ৩৫.৪৫ গড়ে ৪২ উইকেট লাভ করেছিলেন তিনি। আগস্ট, ১৯৩৮ সালে জ্যামাইকায় সফররত অক্সফোর্ড ও কেমব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয় ক্রিকেট ক্লাবের বিপক্ষে মাত্র নয় ওভারে ৫/৩২ বোলিং পরিসংখ্যান গড়েন। এটিই তার সেরা বোলিং পরিসংখ্যান হিসেবে চিত্রিত হয়ে আছে।

৮ জুন, ২০০২ তারিখে ৮৬ বছর বয়সে জ্যামাইকার সেন্ট ক্যাথরিন এলাকায় জর্জ মাডি’র দেহাবসান ঘটে। মৃত্যুকালীন তিনি ওয়েস্ট ইন্ডিজের বয়োজ্যেষ্ঠ জীবিত টেস্ট ক্রিকেটারের মর্যাদা লাভ করেছিলেন। পরবর্তীতে, এসমন্ড কেন্টিশ এ সম্মাননার অধিকারী হন।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. List of West Indies Test Cricketers
  2. "West Indies – Test Batting Averages"। ESPNCricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১২ মে ২০২০ 
  3. "West Indies – Test Bowling Averages"। ESPNCricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১২ মে ২০২০ 

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]