জন কোচরান

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
জন কোচরান
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামজন আলেকজান্ডার কেনেডি কোচরান
জন্ম১৫ জুলাই, ১৯০৯
জোহেন্সবার্গ, ট্রান্সভাল উপনিবেশ
মৃত্যু১৫ জুন, ১৯৮৭
জোহেন্সবার্গ, ট্রান্সভাল, দক্ষিণ আফ্রিকা
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরনডানহাতি মিডিয়াম-ফাস্ট
ভূমিকাবোলার
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
একমাত্র টেস্ট
(ক্যাপ ১৩৬)
২১ ফেব্রুয়ারি ১৯৩১ বনাম ইংল্যান্ড
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট এফসি
ম্যাচ সংখ্যা
রানের সংখ্যা ২৫
ব্যাটিং গড় ৪.০০ ৪.১৬
১০০/৫০ ০/০ ০/০
সর্বোচ্চ রান ১৩
বল করেছে ১৩৮ ৯০৬
উইকেট ১৫
বোলিং গড় ২৪.০৬
ইনিংসে ৫ উইকেট
ম্যাচে ১০ উইকেট
সেরা বোলিং ৩/৩৪
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ০/- ২/-
উৎস: ইএসপিএনক্রিকইনফো.কম, ১৯ জুন ২০২০

জন আলেকজান্ডার কেনেডি কোচরান (ইংরেজি: John Cochran; জন্ম: ১৫ জুলাই, ১৯০৯ - মৃত্যু: ১৫ জুন, ১৯৮৭) তৎকালীন ট্রান্সভাল উপনিবেশের জোহেন্সবার্গ এলাকায় জন্মগ্রহণকারী দক্ষিণ আফ্রিকান আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার ছিলেন। দক্ষিণ আফ্রিকা ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন তিনি। ১৯৩০-এর দশকের শুরুতে অত্যন্ত সংক্ষিপ্ত সময়ের জন্যে দক্ষিণ আফ্রিকার পক্ষে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অংশগ্রহণ করেছেন।[১]

ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর দক্ষিণ আফ্রিকান ক্রিকেটে গ্রিকুয়াল্যান্ড ওয়েস্ট ও ট্রান্সভাল দলের প্রতিনিধিত্ব করেন। দলে তিনি মূলতঃ ডানহাতি মিডিয়াম-ফাস্ট বোলার হিসেবে খেলতেন। এছাড়াও, ডানহাতে নিচেরসারিতে ব্যাটিং করতেন জন কোচরান

প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট[সম্পাদনা]

১৯২৯-৩০ মৌসুম থেকে ১৯৩১-৩২ মৌসুম পর্যন্ত জন কোচরানের প্রথম-শ্রেণীর খেলোয়াড়ী জীবন চলমান ছিল।

দীর্ঘদেহী ও মজবুত গড়নের ফাস্ট বোলার ছিলেন তিনি। পিচের উভয়দিকেই বলকে ঘুরাতে পারতেন। তিন মৌসুমব্যাপী তার প্রথম-শ্রেণীর খেলোয়াড়ী জীবন চলমান ছিল। এ পর্যায়ে তিনি ট্রান্সভাল ও গ্রিকুয়াল্যান্ড ওয়েস্টের সদস্যরূপে খেলেন। ২৪.০৬ গড়ে পনেরো উইকেট লাভ করেন তিনি।

জন কোচরান ডানহাতি মিডিয়াম-ফাস্ট বোলার ছিলেন ও নিচেরসারির ডানহাতি ব্যাটসম্যান হিসেবে নামতেন। মাত্র চারটি প্রথম-শ্রেণীর খেলায় অংশ নেন ও কোন ইনিংসেই তিনের অধিক উইকেট লাভ না করা সত্ত্বেও ইংল্যান্ডের বিপক্ষে খেলার জন্যে তাকে দক্ষিণ আফ্রিকা দলে অন্তর্ভুক্ত করা হয়।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট[সম্পাদনা]

সমগ্র খেলোয়াড়ী জীবনে একটিমাত্র টেস্টে অংশগ্রহণ করেছেন জন কোচরান। ২১ ফেব্রুয়ারি, ১৯৩১ তারিখে ডারবানে সফরকারী ইংল্যান্ড দলের বিপক্ষে টেস্ট ক্রিকেটে অভিষেক ঘটে তার। এটিই তার একমাত্র টেস্টে অংশগ্রহণ ছিল। এরপর আর তাকে কোন টেস্টে অংশগ্রহণ করতে দেখা যায়নি।

১৯৩০-৩১ মৌসুমে ইংল্যান্ড দল দক্ষিণ আফ্রিকা গমনে আসে। সিরিজের পঞ্চম ও চূড়ান্ত টেস্টে তাকে খেলানো হয়। ডারবানে অনুষ্ঠিত ঐ টেস্টে বোলিং উদ্বোধনে নেমেছিলেন তিনি। ২৩ ওভারে ৪৭ রান খরচ করলেও কোন উইকেটের সন্ধান পাননি এবং দ্বিতীয় ইনিংসে তাকে দিয়ে বোলিং করানো হয়নি। ঐ টেস্টটি ড্র হলে সিরিজ জয়ে অগ্রসর হয় স্বাগতিক দল। কোচরান কোন উইকেট পাননি; তাসত্ত্বেও খেলাটি ড্র হয়েছিল।[২]

অবসর[সম্পাদনা]

টেস্ট ক্রিকেট থেকে প্রত্যাখ্যাত হবার পর আর একটিমাত্র প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট খেলায় অংশ নিয়েছিলেন তিনি। ১৫ জুন, ১৯৮৭ তারিখে ৭৭ বছর বয়সে ট্রান্সভালের জোহেন্সবার্গ এলাকায় জন কোচরানের দেহাবসান ঘটে।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "John Cochran"। cricketarchive.com। সংগ্রহের তারিখ ৯ জানুয়ারি ২০১২ 
  2. "Scorecard: South Africa v England"। cricketarchive.com। ২১ ফেব্রুয়ারি ১৯৩১। সংগ্রহের তারিখ ৯ জানুয়ারি ২০১২ 

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]