গুমা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
গুমা
গুমা
স্থানাঙ্ক: ৩১°৫৮′ উত্তর ৭৬°৫১′ পূর্ব / ৩১.৯৭° উত্তর ৭৬.৮৫° পূর্ব / 31.97; 76.85
জনসংখ্যা (২০০১)
 • মোট৯,২৯৭

গুমা ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের উত্তর ২৪ পরগণা জেলার একটি শহর।

ভৌগোলিক উপাত্ত[সম্পাদনা]

শহরটির অবস্থানের অক্ষাংশ ও দ্রাঘিমাংশ হল ৩১°৫৮′ উত্তর ৭৬°৫১′ পূর্ব / ৩১.৯৭° উত্তর ৭৬.৮৫° পূর্ব / 31.97; 76.85[১] সমুদ্র সমতল হতে এর গড় উচ্চতা হল ১৫১৭ মিটার (৪৯৭৭ ফুট)।

জনসংখ্যার উপাত্ত[সম্পাদনা]

ভারতের ২০০১ সালের আদমশুমারি অনুসারে গুমা শহরের জনসংখ্যা হল ৯২৯৭ জন।[২] এর মধ্যে পুরুষ ৫১% এবং নারী ৪৯%।

এখানে সাক্ষরতার হার ৭২%। পুরুষদের মধ্যে সাক্ষরতার হার ৭৮% এবং নারীদের মধ্যে এই হার ৬৫%। সারা ভারতের সাক্ষরতার হার ৫৯.৫%, তার চাইতে গুমা এর সাক্ষরতার হার বেশি।

এই শহরের জনসংখ্যার ১৩% হল ৬ বছর বা তার কম বয়সী।


চিকিৎসা[সম্পাদনা]

উত্তর 24 পরগণা জেলাকে এমন একটি এলাকা হিসাবে চিহ্নিত করা হয়েছে যেখানে ভূগর্ভস্থ জল আর্সেনিক দূষণ দ্বারা প্রভাবিত হয়। স্থানীয় ক্লাবগুলি কখনও কখনও স্বাস্থ্য বিভাগ এবং গ্রাম পঞ্চায়েতগুলির সহায়তায় স্বাস্থ্য সচেতনতা প্রোগ্রাম পরিচালনা করে।

গুমা উপ-স্বাস্থ্য কেন্দ্রটি গুমা-রাজিবপুর রোড এবং কামারপুর রোডের সংযোগস্থলে অবস্থিত। এছাড়াও এখানে এখন গুমা 1 নং পঞ্চায়েত ছাড়াও নতুন স্বাস্থ্য কেন্দ্র রয়েছে|


শিক্ষা[সম্পাদনা]

গুমায় দুটি উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয় রয়েছে। মাধ্যমিক শিক্ষায় এগিয়ে যেতে ইচ্ছুক ছাত্র-ছাত্রীদের মাঝে মাঝে সেই উদ্দেশ্যে কাছাকাছি শহর বা গ্রামে যেতে হয়। তা ছাড়া ছোট বামোনিয়া ও খোসদেলপুরে দুটি মাদ্রাসা রয়েছে। গুমায় কোন কলেজ নেই। হাবরা II সিডি ব্লকের সাব-ইন্সপেক্টর অফ স্কুলের অফিসও গুমাতে রয়েছে।


সংস্কৃতি[সম্পাদনা]

গুমায় অনেক হিন্দু মন্দির আছে। রথযাত্রার পাশাপাশি দুর্গা পূজার প্রধান আকর্ষণ। উৎসবের সময় বিভিন্ন মাঠে মেলা শুরু হয়। হোলির সময় সবাই নিজেদের মতো করে উদযাপন করে।


যাতায়াত[সম্পাদনা]

এটি শিয়ালদহ স্টেশন থেকে 38 কিমি এবং পূর্ব রেলের শিয়ালদহ-বনগাঁও শাখা লাইনে বারাসাত থেকে 15 কিমি দূরে অবস্থিত। এটি কলকাতা শহরতলির রেল ব্যবস্থার অংশ। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের 2009 সালের রেল বাজেটে গুমা রেলওয়ে স্টেশনটিকে একটি মডেল স্টেশন হিসেবে নির্মাণের জন্য নির্বাচিত করা হয়েছে। হাবড়া লোকাল, গোবরডাঙ্গা লোকাল, ঠাকুরনগর লোকাল, বনগাঁ লোকাল গুমা থেকে শিয়ালদহ, বনগাঁ এবং শিয়ালদহ-বনগাঁ শাখা লাইনের অন্যান্য স্টেশনগুলিকে সংযুক্ত করে।



ব্যাঙ্ক[সম্পাদনা]

পাঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাংক,


ব্যবসা[সম্পাদনা]

গুমা বিখ্যাত কাঠ এর দোকান, মাটির জিনিস, নার্সারী এর জন্য | তাছাড়া উইকেট কারখানা এর জন্য ও প্রসিদ্ধ , এখন থেকে দেশ এর বিভিন্ন জায়গায় রপ্তানি করা হয় |

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Guma"Falling Rain Genomics, Inc (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ অক্টোবর ৭, ২০০৬ 
  2. "ভারতের ২০০১ সালের আদমশুমারি" (ইংরেজি ভাষায়)। Archived from the original on ১৬ জুন ২০০৪। সংগ্রহের তারিখ অক্টোবর ৭, ২০০৬ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]