খিল রাজ রেগমি

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সরাসরি যাও: পরিভ্রমণ, অনুসন্ধান
খিল রাজ রেগমি
खिलराज रेग्मी
Khilaraj regmi.jpg
মন্ত্রীপরিষদের সভাপতি
ভারপ্রাপ্ত
অধিকৃত অফিস
১৪ মার্চ, ২০১৩
রাষ্ট্রপতি রাম বরণ যাদব
পূর্বসূরী বাবুরাম ভট্টরায়
নেপালের প্রধান বিচারপতি
অধিকৃত অফিস
৬ মে, ২০১১
নিযুক্ত হয়েছে রাম বরণ যাদব
পূর্বসূরী রাম প্রসাদ শ্রেষ্ঠ
ব্যক্তিগত বিবরণ
জন্ম (১৯৪৯-০৫-৩১) ৩১ মে ১৯৪৯ (বয়স ৬৮)
পাল্পা, নেপাল
দাম্পত্য সঙ্গী শান্তা রেগমি
সন্তান
প্রাক্তন ছাত্র ত্রিভুবন বিশ্ববিদ্যালয়
ধর্ম হিন্দু

খিলরাজ রেগমি, ওজিডিবি, ওটিএসপি, (নেপালি: खिलराज रेग्मी; জন্ম: ৩১ মে, ১৯৪৯) পাল্পা জেলায় জন্মগ্রহণকারী নেপালের বর্তমান মন্ত্রী পরিষদের সভাপতি ও বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ। মার্চ, ২০১৩ সাল থেকে তিনি সমঝোতামূলক প্রার্থী হিসেবে নেপালের বর্তমান প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করছেন। ২০১৩ সালের শুরুর দিকে বৃহৎ রাজনৈতিক দলগুলো রাজী হওয়ায় স্বলমেয়াদীভিত্তিতে মন্ত্রীপরিষদের সভাপতি হিসেবে নির্বাচন তত্ত্বাবধান ও তদারকীর জন্য তাঁকে মনোনীত করা হয়। অতঃপর ১৪ মার্চ, ২০১৩ তারিখে প্রেসিডেন্ট রাম বরণ যাদব তাঁকে শপথ বাক্য পাঠ করান।[১][২]

এছাড়াও, মে, ২০১১ সাল থেকে নেপালের প্রধান বিচারপতি রামপ্রসাদ শ্রেষ্ঠা’র অবসর গ্রহণের পর প্রেসিডেন্ট যাদব কর্তৃক প্রধান বিচারপতি হিসেবে নিযুক্তি লাভ করেন।[৩]

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

নেপালের পালপা জেলায় রেগমি জন্মগ্রহণ করেন। ১৯৭২ থেকে ১৯৭৪ সালের মধ্যে সুপ্রিম কোর্টে সেকশন অফিসার হিসেবে কর্মজীবন শুরু করেন। তারপর ১৯৭৪ থেকে ১৯৮৫ সময়কালে জেলা হাকিম হিসেবে দেশের বিভিন্ন জেলায় চাকুরী করেন। প্রথম শ্রেণীর গেজেটেড কর্মকর্তা ডেপুটি রেজিস্ট্রার হিসেবে ১৯৯১ সাল পর্যন্ত সুপ্রিম কোর্টে মনোনীত হন। পাশাপাশি হাকিম ও মুখ্য হাকিমরূপে নেপালের বিভিন্ন আদালতে শুনানী কার্যক্রম পরিচালনা করেন। ২০০৩ সালে সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি হন। ৬ মে, ২০১১ তারিখে প্রধান বিচারপতি পদে নিয়োগপ্রাপ্ত হন রেগমি। বর্তমানে তিনি সরকারের ভারপ্রাপ্ত প্রধানমন্ত্রীর কার্যাবলী পালন করে যাচ্ছেন। প্রধান রাজনৈতিক দলগুলোর সম্মতিক্রমে নিরপেক্ষ সরকার গঠনকল্পে ভীতিহীন, প্রভাবমুক্ত এবং সমতাসূচক নির্বাচন আয়োজন করাই তাঁর প্রধান দায়িত্ব।[৪]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "CV Khil Raj Regmi"Supreme Court of Nepal। সংগ্রহের তারিখ ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৩ 
  2. "CJ Regmi assumes office"The Kathmandu Post। ৬ মে ২০১১। সংগ্রহের তারিখ ২৫ অক্টোবর ২০১২ 
  3. "Regmi named new Chief Justice"The Kathmandu Post। ১১ এপ্রিল ২০১১। সংগ্রহের তারিখ ২৫ অক্টোবর ২০১২ 
  4. "Hearing for new chief justice"The Kathmandu Post। ২৯ এপ্রিল ২০১১। সংগ্রহের তারিখ ২৫ অক্টোবর ২০১২