খয়েরিমাথা শুমচা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন

খয়েরিমাথা শুমচা
Hoodedpitta3.jpg
বৈজ্ঞানিক শ্রেণীবিন্যাস
জগৎ: Animalia
পর্ব: কর্ডাটা
শ্রেণী: পক্ষী
বর্গ: Passeriformes
পরিবার: Pittidae
গণ: Pitta
প্রজাতি: P. sordida
দ্বিপদী নাম
Pitta sordida
(Müller, 1776)
প্রতিশব্দ

Turdus sordius

খয়েরিমাথা শুমচা (বৈজ্ঞানিক নাম: Pitta sordida) (ইংরেজি: Blue Pitta), সবুজাভ সুমচা বা নীলফক্কি Pittidae (পিট্টিডি) গোত্র বা পরিবারের অন্তর্গত Pitta (পিট্টা) গণের এক প্রজাতির ছোট রঙচঙে বনচর পাখি।[১][২] বাংলাদেশের বাগেরহাট অঞ্চলে এদের নাম ছোট হালতি। এটি দক্ষিণদক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার একটি সাধারণ পাখি। খয়েরিমাথা শুমচার বৈজ্ঞানিক নামের অর্থ মলিন শুমচা (তেলেগু: pitta = আদুরে; ল্যাটিন: sordida = মলিন)।[২] সারা পৃথিবীতে প্রায় ২১ লাখ বর্গ কিলোমিটার জায়গা জুড়ে এদের আবাস।[৩] বিগত কয়েক দশক ধরে এদের সংখ্যা কমে গেলেও আশঙ্কাজনক পর্যায়ে যেয়ে পৌঁছেনি। সেকারণে আই. ইউ. সি. এন. এই প্রজাতিটিকে ন্যূনতম বিপদগ্রস্ত বলে ঘোষণা করেছে।[৪] বাংলাদেশের বন্যপ্রাণী আইনে এ প্রজাতিটি সংরক্ষিত।[২] পৃথিবীতে এদের সংখ্যা সম্বন্ধে তেমন কিছু জানা যায় নি।[৩]

বিস্তৃতি[সম্পাদনা]

খয়েরিমাথা শুমচার মূল আবাস দক্ষিণদক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার বিভিন্ন দেশে। বাংলাদেশ, ভারত, নেপাল, ভুটান, মায়ানমার, চীন, থাইল্যান্ড, লাওস, কম্বোডিয়া, মালয়েশিয়া, সিঙ্গাপুর, ইন্দোনেশিয়া, ব্রুনাই, ফিলিপাইন, পাপুয়া নিউগিনিভিয়েতনাম জুড়ে এদের বিস্তৃতি। জাপানে এরা অনিয়মিত[৪]

গ্যালারি[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. রেজা খান, বাংলাদেশের পাখি (ঢাকা: বাংলা একাডেমী, ২০০৮), পৃ. ৮৪।
  2. জিয়া উদ্দিন আহমেদ (সম্পা.), বাংলাদেশ উদ্ভিদ ও প্রাণী জ্ঞানকোষ: পাখি, খণ্ড: ২৬ (ঢাকা: বাংলাদেশ এশিয়াটিক সোসাইটি, ২০০৯), পৃ. ৩১১।
  3. Pitta sordida, BirdLife International এ খয়েরিমাথা শুমচা বিষয়ক পাতা।
  4. Pitta sordida, The IUCN Red List of Threatened Species এ খয়েরিমাথা শুমচা বিষয়ক পাতা।