কোয়েটা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
কোয়েটা
  • کویته  
  •   کوئٹہ  
  •   کوټه
শহর
বিকেলের আলোয় কোয়েটা নগরী
বিকেলের আলোয় কোয়েটা নগরী
কোয়েটা পাকিস্তান-এ অবস্থিত
কোয়েটা
কোয়েটা
পাকিস্তানে অবস্থান
স্থানাঙ্ক: ৩০°১১′ উত্তর ৬৭°০০′ পূর্ব / ৩০.১৮৩° উত্তর ৬৭.০০০° পূর্ব / 30.183; 67.000স্থানাঙ্ক: ৩০°১১′ উত্তর ৬৭°০০′ পূর্ব / ৩০.১৮৩° উত্তর ৬৭.০০০° পূর্ব / 30.183; 67.000
দেশপাকিস্তান
অঞ্চলবেলুচিস্তান
জেলাকোয়েটা
Autonomous towns2
Union councils66[১]
সরকার
 • ধরননগরী
 • MayorKarar Khan Bazai [২]
 • CommissionerKambar Dashti
 • Deputy CommissionerAbdul Hadi Kakar
আয়তন
 • মোট২৬৫৬ কিমি (১০২৫ বর্গমাইল)
উচ্চতা১৬৮০ মিটার (৫৫১০ ফুট)
জনসংখ্যা (2010)[৩]
 • মোট২০,০০,০০০
সময় অঞ্চলPKT (ইউটিসি+5)
এলাকা কোড+9281

কোয়েটা (উর্দু: کوئٹہ‎‎, পশতু: کوټه‎, বেলুচি: کویته এই শব্দ সম্পর্কে উচ্চারণ ) পাকিস্তানের একটি প্রধান শহর। এটি বেলুচিস্তান প্রদেশের রাজধানী। কোয়েটা পাকিস্তানের ফলের বাগান হিসাবে প্রসিদ্ধ। নয়নাভিরাম প্রাকৃতিক দৃশ্যের জন্য একসময়ে কোয়েটা খুদে প্যারিস হিসাবে পরিচিতি পেয়েছিল।[৪] শহরটি পাকিস্তানের উত্তর-পশ্চিম সীমান্তে অবস্থিত হওয়ায় পাকিস্তান ও আফগানিস্তান এই দুই দেশের বাণিজ্যের প্রধান কেন্দ্র হিসাবে গড়ে উঠেছে। কোয়েটা পাকিস্তানের সর্ব্বোচ্চ শহর। সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে শহরটির গড় উচ্চতা ১৬৮০ মিটার বা ৫৫১০ ফুট।[৫] শহরটির আনুমানিক জনসংখ্যা বিশ লক্ষ।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

ধরনা করা হয় যে কাসি উপজাতির মানুষেরা কোয়েটার সবচেয়ে পুরাতন অধিবাসী। কোয়েটার ইতিহাসে সবচেয়ে প্রাচীন যে ঘটনার বর্ণনা পাওয়া যায় তা হল গজনির সুলতান মাহামুদের দ্বার আক্রান্ত ও বিজিত হওয়া। ১৮৮৬ সালে কোয়েটা ব্রিটিশ সম্রাজ্যের অন্তর্ভুক্ত হয়। গুরুত্বপূর্ণ ভৌগোলিক অবস্থানের বিবেচনায় ব্রিটিশরা এখানে সামরিক স্থাপনা নির্মাণ করে। ১৯৩৫ সালের ৩১ মে সংগঠিত ভূমিকম্পে শহরটির ব্যাপক ক্ষতি সাধিত হয় এবং ৪০,০০০ মানুষ নিহত হয়।[৪]

ব্রিটিশ বিরোধী স্বাধীনতা আন্দোলনের সময় মুসলিম প্রধান কোয়েটা মুসলীম লীগকে সমর্থন জানায় এবং পাকিস্তান আন্দোলনে সামিল হয়। পাকিস্তানের জন্মের পর কোয়েটা নতুন প্রদেশ বেলুচিস্তানের রাজধানী হিসাবে স্বীকৃতি পায়। জেনারেল আইয়ুব খানের আমলে ১৯৫৯ সারে প্রাদেশিক শাসন ব্যবস্থা রোহিত করা হয়। ১৯৭১ সালে বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধের পর পাকিস্তানে প্রাদেশিক স্বাশন পুনঃপ্রতিষ্ঠিত হয় ও কোয়েটা রাজধানীর মর্যাদা ফিরে পায়।

পাকিস্তানের বর্তমান শাসন ব্যবস্থা ‍অনুসারে (২০০১ সালের হালনাগাদ),[৬] কোয়েটাকে একটি নগর-জিলার মর্যাদা দেয়া হয়েছে। যা দুইটি শহরে বিভক্ত।[৭][৮]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. National Reconstruction Bureau of Pakistan, list of Zila, Tehsil & Town Councils Membership for Balochistan আর্কাইভকৃত ৫ জানুয়ারি ২০০৮ ওয়েব্যাক মেশিনে.. URL accessed 5 April 2006
  2. "PkMAP candidate nominated for Quetta mayor" 
  3. "সংরক্ষণাগারভুক্ত অনুলিপি"। ১৬ ডিসেম্বর ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১২ মার্চ ২০১৬ 
  4. ڈان اردو। "پاکستانی شہروں کی تاریخ"dawnnews.tv। সংগ্রহের তারিখ ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৬ 
  5. "Mongabay -environmental science and conservation news"। ৪ মার্চ ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১২ মার্চ ২০১৬ 
  6. "The Local Government System 2001"। National Reconstruction Bureau, Government of Pakistan। ১৪ আগস্ট ২০০১। ২৫ জানুয়ারি ২০০৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০০৯ 
  7. "City District Governments"। National Reconstruction Bureau, Government of Pakistan। ৫ অক্টোবর ২০০৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০০৯ 
  8. "Official City District Government Quetta Website"। ৬ ডিসেম্বর ২০০৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১২ মার্চ ২০১৬ 


  1. "Pakistan: Largest cities and towns and statistics of their population"। সংগ্রহের তারিখ ২০১১-০২-১০