কেনেথ বার্ন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
কেনেথ বার্ন
কেনেথ বার্ন.jpg
১৮৯২ সালের সংগৃহীত স্থিরচিত্রে কেনথ বার্ন
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামএডউইন জেমস কেনেথ বার্ন
জন্ম(১৮৬২-০৯-১৭)১৭ সেপ্টেম্বর ১৮৬২
রিচমন্ড, তাসমানিয়া, অস্ট্রেলিয়া
মৃত্যু২০ জুলাই ১৯৫৬(1956-07-20) (বয়স ৯৩)
হোবার্ট, তাসমানিয়া, অস্ট্রেলিয়া
ডাকনামকেনি, দ্য স্কটসম্যান
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরনডানহাতি মিডিয়াম
ভূমিকাঅল-রাউন্ডার
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
টেস্ট অভিষেক
(ক্যাপ ৫৬)
২১ জুলাই ১৮৯০ বনাম ইংল্যান্ড
শেষ টেস্ট১১ আগস্ট ১৮৯০ বনাম ইংল্যান্ড
ঘরোয়া দলের তথ্য
বছরদল
১৮৮৩/৮৪ - ১৯০৯/১০তাসমানিয়া
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট এফসি
ম্যাচ সংখ্যা ৪৮
রানের সংখ্যা ৪১ ১,৭৫০
ব্যাটিং গড় ১০.২৫ ২১.৬০
১০০/৫০ ০/০ ২/৫
সর্বোচ্চ রান ১৯ ১১৯
বল করেছে ?
উইকেট ১৪
বোলিং গড় ২২.৮৫
ইনিংসে ৫ উইকেট
ম্যাচে ১০ উইকেট
সেরা বোলিং –/– ৩/১৫
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ০/০ ৩১/০
উৎস: ইএসপিএনক্রিকইনফো.কম, ৩০ মার্চ ২০২০

এডউইন জেমস কেনেথ কেনি বার্ন (ইংরেজি: Kenneth Burn; জন্ম: ১৭ সেপ্টেম্বর, ১৮৬২ - মৃত্যু: ২০ জুলাই, ১৯৫৬) তাসমানিয়ার রিচমন্ড এলাকায় জন্মগ্রহণকারী অস্ট্রেলীয় আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার ছিলেন। অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন তিনি। ১৮৯০ সালে সংক্ষিপ্ত সময়ের জন্যে অস্ট্রেলিয়ার পক্ষে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অংশগ্রহণ করেছেন।

ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর অস্ট্রেলীয় ক্রিকেটে তাসমানিয়া দলের প্রতিনিধিত্ব করেন। দলে তিনি মূলতঃ অল-রাউন্ডার হিসেবে খেলতেন। ডানহাতে ব্যাটিংয়ের পাশাপাশি ডানহাতে মিডিয়াম বোলিংয়ে পারদর্শী ছিলেন কেনি বার্ন নামে পরিচিত কেনেথ বার্ন

ক্লাব ক্রিকেটে অংশগ্রহণ[সম্পাদনা]

তাসমানীয় ক্রিকেটে অনেকগুলো বছর অত্যন্ত কার্যকরী ব্যাটসম্যান হিসেবে খেলেছেন। নিজ শহরের দল রিচমন্ড ক্রিকেট ক্লাবে প্রথম খেলতে নামেন। এরপর, ওয়েলিংটন ক্রিকেট ক্লাবে খেলেন। ক্রিকেটের সকল স্তরে ৪১টি সেঞ্চুরি হাঁকিয়েছেন। তন্মধ্যে, দুইটি খেলায় ৩৫০ রানের অধিক তুলেন। ছয়টি সেঞ্চুরি ১৮৯৫-৯৬ মৌসুমে একাধারে সংগ্রহ করেন। তার সমকক্ষ কেউ না থাকায় সন্দেহাতীতভাবেই ১৮৯০-এর দশকে ক্লাব ও প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট পর্যায়ে তাসমানিয়ার সেরা ব্যাটসম্যানের মর্যাদা পেয়েছিলেন।

সমগ্র খেলোয়াড়ী জীবনে এগারোবার ব্যাটিং গড়ে তাসমানিয়ার গ্রেড ক্রিকেটে শীর্ষস্থান অধিকার করেন। দীর্ঘদিন ধরে অস্ট্রেলীয় ক্লাব ক্রিকেটে তার সৃষ্ট রেকর্ড বহাল তবিয়তে টিকে রয়েছে। ১৮৮৯-৯০ মৌসুমে ১৩৩.০০ গড়ে ১,২০০ রান তুলেন। ১৮৯৫-৯৬ মৌসুমে ওয়েলিংটনের সদস্যরূপে ব্রেক ও’ডে দলের বিপক্ষে অপরাজিত ১২৩ ও অপরাজিত ২১৩ রান তুলেন। এরফলে, অস্ট্রেলিয়ায় একই খেলায় প্রথম খেলোয়াড় হিসেবে শতরান ও দ্বি-শতরানের ইনিংস খেলেন।

ক্লাব ক্রিকেট খেলা থেকে অবসর গ্রহণকালীন ১২,১৬৩ রান সংগ্রহ করেন। অদ্যাবধি প্রতিযোগিতার ইতিহাসে দ্বিতীয় সর্বাধিক সংগ্রহের মর্যাদা পেয়ে আসছে। কেবলমাত্র ১৯৫০-এর দশকে রোনাল্ড মরিসবি তারচেয়ে এগিয়ে রয়েছেন। এছাড়াও, ক্লাব ক্রিকেটে ৩৬২ উইকেট পেয়েছেন তিনি।

প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট[সম্পাদনা]

১৮৮৩-৮৪ মৌসুম থেকে ১৯০৯-১০ মৌসুম পর্যন্ত কেনেথ বার্নের প্রথম-শ্রেণীর খেলোয়াড়ী জীবন চলমান ছিল। রিচমন্ড সিসি, ওয়েলিংটন সিসি ও তাসমানিয়ার পক্ষে অনেকগুলো সুন্দর ইনিংস খেলার স্বীকৃতিস্বরূপ ‘দ্য স্কটসম্যান’ ডাকনামে পরিচিতি লাভ করেন।

১৮৮৩-৮৪ মৌসুম থেকে ১৯০৯-১০ মৌসুম পর্যন্ত কেনেথ বার্নের প্রথম-শ্রেণীর খেলোয়াড়ী জীবন স্থায়িত্ব পেয়েছিল। এ পর্যায়ে দুইটি শতরানের ইনিংস খেলতে সমর্থ হন। ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ করেন ১১৯ রান। এছাড়াও, ডানহাতে মিডিয়াম পেস বোলিং করে ২২.৮৫ গড়ে ১৪ উইকেট লাভে সক্ষমতা দেখান। তাসমানিয়ার প্রথম সফলতম প্রথম-শ্রেণীর অধিনায়কের মর্যাদা পেয়েছেন। ১৪টি প্রথম-শ্রেণীর খেলায় অংশ নিয়ে ছয়টি জয়ে কৃতিত্ব প্রদর্শন করেন। অধিনায়ক হিসেবে ৪২.৮৫% জয়ের পরিসংখ্যান আজও টিকে আছে।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট[সম্পাদনা]

সমগ্র খেলোয়াড়ী জীবনে দুইটিমাত্র টেস্টে অংশগ্রহণ করেছেন কেনেথ বার্ন। ২১ জুলাই, ১৮৯০ তারিখে লর্ডসে স্বাগতিক ইংল্যান্ড দলের বিপক্ষে টেস্ট ক্রিকেটে অভিষেক ঘটে তার। এরপর, ১১ আগস্ট, ১৮৯০ তারিখে ওভালে একই দলের বিপক্ষে সর্বশেষ টেস্টে অংশ নেন তিনি।

১৮৯০ সালে ইংল্যান্ড গমনার্থে হাস্যকরভাবে অস্ট্রেলিয়া দলের সদস্যরূপে তাকে অন্তর্ভূক্ত করা হয়েছিল। উইকেট-রক্ষক হিসেবে তার এ অন্তর্ভূক্তিকে উইজডেনে দলের অন্যতম গুরুতর ভুল হিসেবে তুলে ধরা হয়। কেবলমাত্র অ্যাডিলেড থেকে জাহাজযোগে ইংল্যান্ডে যাত্রাকালে জানা যায় যে, তিনি কখনো উইকেট-রক্ষক হিসেবে খেলায় অংশ নেননি।[১] এ সফরের প্রথম দুই টেস্টে অংশ নেন। তবে, উভয় খেলাতেই তার দল পরাজয়বরণ করে। প্রথম টেস্টে ১০ ও ১১ নম্বরে ব্যাটিংয়ে নামেন। তবে, দ্বিতীয় টেস্টে তাকে প্রথম ইনিংসে ছয় নম্বর ও দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাটিং উদ্বোধনে নেমেছিলেন। খেলাগুলো থেকে সর্বমোট ৪১ রান সংগ্রহ করেন।

অবসর[সম্পাদনা]

টেস্ট ক্রিকেট অঙ্গন থেকে প্রত্যাখ্যাত হলে ঘরোয়া পর্যায়ের ক্রিকেটে অন্যতম সেরা ব্যাটসম্যান হিসেবে পরিচিতি লাভ করেন। ঊনবিংশ শতাব্দীতে তাসমানিয়ায় ক্লাব পর্যায়ের ক্রিকেটে দূর্দান্ত ক্রীড়াশৈলী প্রদর্শন করেছিলেন তিনি।

২০ জুলাই, ১৯৫৬ তারিখে ৯৩ বছর বয়সে তাসমানিয়ার হোবার্ট এলাকায় কেনেথ বার্নের দেহাবসান ঘটে। ৯৩ বছর ৩০৭ দিন বয়সে মৃত্যুবরণ করেন। এ পর্যায়ে মৃত্যু পূর্বকালীন বয়োজ্যেষ্ঠ জীবিত টেস্ট ক্রিকেটারের মর্যাদার অধিকারী হন। ১৯৫৭ সালে উইজডেনে প্রকাশিত শোকসংবাদে তাকে কেনেথ এডওয়ার্ড বার্ন নামে উল্লেখ করে। হোবার্টের টিসিএ গ্রাউন্ডের লোয়ার ডোমেইন রোড ফটকটি তার স্মরণার্থে কে. ই. বার্ন মেমোরিয়াল গেটস নামে নামাঙ্কিত করা হয়।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Lynch, S. "Where'd he come from", Cricinfo, http://www.espncricinfo.com/ci/content/story/493063.html?CMP=NLC-DLY Accessed 22 December 2010.

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]

পূর্বসূরী
নরম্যান রক
তাসমানীয় প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট অধিনায়ক
১৮৯৩/৯৪ - ১৯০৯/১০
উত্তরসূরী
রেজিনাল্ড হসন
পূর্বসূরী
রেজিনাল্ড অ্যালেন
বয়োজ্যেষ্ঠ জীবিত টেস্ট ক্রিকেটার
২ মে, ১৯৫২ - ২০ জুলাই, ১৯৫৬
উত্তরসূরী
হ্যারি ডোনান