কালপুরুষ নীহারিকা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
Jump to navigation Jump to search

ʼʼʼকালপুরুষ নীহারিকাʼʼʼ (যা মিজার ৪২বাএম ৪২ এবং এনজিসি ১৯৭৬ নামেও পরিচিত।) এটি একটি বিকীর্ণ নীহারিকা যা ছায়াপথের দক্ষিনে অবস্হিত এবং এটি একটি অন্যতম উজ্জ্বল নীহারিকা যা রাতের আকাশে খালি চোখে দেখা যায় । ʼʼএম ৪২ʼʼ এর অবস্হান ১,৩৪৪ ± ২০ আলোক বর্ষ[১][২] এবং এটি পৃথবীর নিকটবর্তী বড় তারা গঠন অন্চলে অবস্হিত . কালপুরুষ নীহারিকাটি অনুমান করা হয় ২৪ আলোক বর্ষ জুড়ে। সূর্যের তুলনায় এটার ভর প্রায় ২০০০ বার। পুরাতন গ্রন্থে অনেক বার কালপুরুষ নীহারিকাকে 'গ্রেট নীহারিকা' বা 'গ্রেট কালপুরুষ নীহারিকা' বলা হয়েছে যেমন কালপুরুষ নীহারিকা পড়ুন.[৩] কালপুরুষ নীহারিকাটি রাতের আকাশে সর্বোচ্ছ যাচাইকৃত এবং ছবি ধারনকৃত এবং সর্বাধিক অধ্যায়িত স্বর্গীয় বৈশিষ্ট্যময় নীহারিকা.[৪] এই নীহারিকাটি তারা এবং পৃর্থীবীর গঠন সম্পর্কে অনেক তথ্য প্রকাশ করতে সাহয্য করেছে। এআরওয়াই পদ্ধতি গঠিত হয়ছে মেঘ,গ্যাস,এবং ধূলিকণা দ্বারা। জ্যোতির্বিজ্ঞানীরা সরাসরি পর্যবেক্ষন করে দেখেছেন নীহারিকাটির চারপাশে তীব্র গ্যাসএবং প্রচন্ড গতিবেগ

গঠন বৈশিষ্ট্য[সম্পাদনা]

Discussing the location of the Orion Nebula, what is seen within the star-formation region, and the effects of interesteller wind in shaping the nebula.
Amateur image of the Orion Nebula taken with a DSLR camera.
The constellation of Orion with the Orion Nebula (lower middle).

এই নীহারিকাটি খালিচোখে দৃশ্যমান এবং দূষনমুক্ত জায়গা থেকেও খালিচোখে দেখা যায়। এটা কালপুরুষ কর্তৃত্ব মাঝখানে "তারকা" হিসেবে দেখা হয় ,যার তিনটি বড় তারকা দক্ষিণ কালপুরুষ বেল্ট অবস্থিত। খালি চোখে তারাগুলো অস্পষ্ট/ঝাপসা দেখায়,ছোট দূরবীন অথবা ছোট টেলিস্কোপ এর মাধ্যামে পরিষ্কার দেখা যায়। কেন্দ্রীয় অঞ্চলের শীর্ষ পৃষ্ঠ উজ্জ্বলতা হল ১৭ Mag/arcsec2 and বাইরের নীলাভ ভাস একটি শিখর পৃষ্ঠ উজ্জ্বলতা আছে যা ২১.৩ Mag/arcsec2.[৫] কালপুরুষ নীহারিকাটি বহন করে খোলা গুচ্ছ, যা অসমাস্তরাল বাহুবিশিষ্ট চতুর্ভুজ হিসেবে পরিচিত,যার কারণ তারকাগুচ্ছএর চারটি প্রধান তারা. এর মধ্যে দুটি সহজে সমাধান করা যায় রাতের আকাশে বাইনারি সিস্টেমের মাধ্যমে, যা সর্বমোট ৬ টি তারা.অসমাস্তরাল বাহুবিশিষ্ট চতুর্ভুজের তারা গুলো এখনো প্রাথিমক বছরে আছে। অসমাস্তরাল বাহুবিশিষ্ট চতুর্ভুজ এর উপাদান সম্ভবত অনেক বেশি কালপুরুষ নীহারিকা ক্লাস্টার যা সংযুক্ত বা একত্রিত হয়েছে প্রায় ২,০০০ তারা নিয়ে এবং ২০ আলোক বর্ষ জুড়ে।. সম্ভবত ২০০ মিলিয়ন বছর আগে এই কালপুরুষ নীহারিকা ক্লাস্টার ধাবিত তারা এর ঘর ছিল। যা বর্তমানে কালপুরুষ নীহারিকাটি থেকে দূরে সরে যাচ্ছে এর কারণ দ্রুতবেগ যা ১০০এনবিএসপি;কি.মি/সে থেকেও বেশি [৬]

রঙকরণ[সম্পাদনা]

পর্যবেক্ষকরা এই নীহারিকার দীর্ঘ একটি স্বতন্ত্র সবুজাভ ছোপ উল্লেখ করেছেন ,এছাড়াও এর অন্চল লাল এবং নীল বেগুনি।. এই লাল বর্ণের কারণ একটি তরঙ্গদৈর্ঘ্য যা পুনর্গঠন লাইন ৬৫৬,৩ এ বিকিরণ NM. নীল-বেগুনি রঙের কারণ বৃহদায়তন হে-বর্গ থেকে প্রতিফলিত বিকিরণ।

এই সবুজাভ ছোপ বিংশ শতাব্দীর আগে জ্যোতির্বিজ্ঞানীদের কাছে ধাধার মত ছিল কারণ যে সময়ে পরিচিত ভুতুড়ে লাইন গুলি কেউ ব্যাখ্যা করতে পারে নি। এই লাইন একটি নতুন উপাদান দ্বারা সৃষ্ট ছিল,এর নাম নেভুলিয়াম,এটি একপ্রকার রহস্যময় উপাদান সৃষ্টি করে যা নিয়ে কিছুটা রহস্য ছিল। পারমাণবিক পদার্থবিদ্যায় ভাল বুঝা,যাইহোক এটা পরে নির্ধারিত হয়েছিল যে সুভজাভ ছোপ এর কারণ হালকা প্রবাহমান বিদ্যুত্-পরমাণু এর চলন এবং ডাবল আয়ন অক্সিজেন। একটি তথাকথিত "নিষিদ্ধ রূপান্তর"এটা গভীর স্থান পাওয়া নিস্তব্ধ এবং প্রায় সংঘর্ষের মুক্ত পরিবেশের উপর নির্ভরশীল, কারণ এই বিকিরণ পরীক্ষাগার নকল করা অসম্ভব ছিল। [৭]

গ্যালারি[সম্পাদনা]

View of the ripples (Kelvin–Helmholtz instability) formed by the action of stellar winds on the cloud.

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Reid, M. J.; ও অন্যান্য (২০০৯)। "Trigonometric Parallaxes of Massive Star Forming Regions: VI. Galactic Structure, Fundamental Parameters and Non-Circular Motions"। Astrophysical Journal700: 137। arXiv:0902.3913অবাধে প্রবেশযোগ্যdoi:10.1088/0004-637X/700/1/137বিবকোড:2009ApJ...700..137R 
  2. Hirota, Tomoya; ও অন্যান্য (২০০৭)। "Distance to Orion KL Measured with VERA"। Publications of the Astronomical Society of Japan59 (5): 897–903। arXiv:0705.3792অবাধে প্রবেশযোগ্যdoi:10.1093/pasj/59.5.897বিবকোড:2007PASJ...59..897H 
  3. Wikisource-logo.svg "Nebula"। The American Cyclopædia। ১৮৭৯। 
  4. Press release, "Astronomers Spot The Great Orion Nebula's Successor", Harvard-Smithsonian Center for Astrophysics, 2006.
  5. Clark, Roger (২০০৪-০৩-২৮)। "Surface Brightness of Deep Sky Objects"। সংগ্রহের তারিখ ২০১৩-০৬-২৯ 
  6. Blaauw, A.; Morgan, W. W. (১৯৫৪)। "The Space Motions of AE Aurigae and μ Columbae with Respect to the Orion Nebula"। Astrophysical Journal119: 625। doi:10.1086/145866বিবকোড:1954ApJ...119..625B 
  7. Bowen, Ira Sprague (১৯২৭)। "The Origin of the Nebulium Spectrum"। Nature120 (3022): 473। doi:10.1038/120473a0বিবকোড:1927Natur.120..473B