করাচি ইন্টারন্যাশনাল কন্টেইনার টার্মিনাল

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
করাচি ইন্টারন্যাশনাল কন্টেইনার টার্মিনাল
অবস্থান
দেশ পাকিস্তান
অবস্থানকরাচি, সিন্ধি
বিস্তারিত
চালু১৯৯৫
মালিকপাকিস্তান সরকার
পোতাশ্রয়ের ধরনপ্রকৃতিক সমুদ্র বন্দর
উপলব্ধ নোঙরের স্থান
জেটি
গভীরতা১১.৬ মিটার (৩৮ ফু)
পরিসংখ্যান
বার্ষিক কন্টেইনারের আয়তন০.৩ মিলিয়ন টিইইউএস

করাচি বন্দর[১][২] হল পাকিস্তানের বৃহত্তম সমুদ্র বন্দর। এই বন্দরটি পাকিস্তানের সিন্ধি প্রদেশের বৃহত্তম শহর করাচিতে অবস্থিত। বন্দরটি দেশের ৬০% এর বেশি পণ্য দ্রব্য পরিবহন করে। এই বন্দরের প্রধান কন্টেইনার টার্মিনাল হল করাচি ইন্টারন্যাশনাল কন্টেইনার টার্মিনাল। বন্দরের এই টার্মিনালটি করাচি শহরের কেন্দ্রীয় অংশ ও শিল্পাঞ্চলের খুব কাছেই অবস্থিত।বন্দরের টার্মিনালটির জলের গড় গভীরতা ১১.৬ মিটারের বেশি। ফলে বন্দরটি বছরের সমস্ত সময়ে সচল থাকে। বন্দরটি আরব সাগরের তীরে অবস্থিত। এই বন্দরটি এক সময় ব্রিটিশ ভারতের অন্তর্গত ছিল। এই সময়েই বন্দরটির দ্রুত বিকাশ ও শ্রীবৃদ্ধি ঘটে। বর্তমানে বন্দরটি দক্ষিণ এশিয়া তথা পৃথিবীর প্রধান বন্দর গুলির একটি। এই বন্দরকে কেন্দ্র করে করাচি শহর তথা করাচি মহানগরীর বিকাশ ঘটেছিল। এখনও এই বন্দরটি করাচি শহরের অর্থনীতির মূল চালিকা শক্তি। করাচি ইন্টারন্যাশনাল কন্টেইনার টার্মিনাল দ্বারাই করাচি বন্দরের বেশির ভাগ কন্টেইনার পরিবহন করা হয়।

অবস্থান[সম্পাদনা]

করাচি ইন্টারন্যাশনাল কন্টেইনার টার্মিনালটি আরব সাগরের তীরে করাচি শহরে অবস্থিত। বন্দরটি পাকিস্তানের দক্ষিণে সিন্ধু নদের ব-দ্বীপ ভূমিতে অবস্থিত। এটি সমুদ্র সমতল থেকে প্রায় ৮ মিটার উচ্চতায় অবস্থিত। এই করাচি বন্দরের টার্মিনালটি ২৪.৫৪ উত্তর ও ৬১.১৬ দক্ষিণে অবস্থিত। এই বন্দর থেকে গদর বন্দর প্রায় ৩৪০ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত। এছাড়া এই টার্মিনাল বন্দরটি থেকে দেশের রাজধানী শহর ইসলামাবাদ ৪০০ কিলোমিটারের অধিক দূরত্বে ও লাহোর ৩৫০ কিলোমিটার দূরত্বে অবস্থিত। এখান থেকে ভারতের মুম্বাই বন্দর প্রায় ১০০০ হাজার কিলোমিটার দূরত্বে অবস্থিত। করাচি বন্দর থেকে গুরুত্বপূর্ণ সমুদ্রপথ যেটি আরব সাগর হয়ে, পূর্ব এশিয়া হয়ে চীন, জাপান পর্যন্ত চলে গেছে, সেই পথের খুব বন্দরটি কাছেই অবস্থিত। আবার বন্দরটি বিখ্যাত হরমুজ প্রণালীর খুব কাছেই অবস্থিত।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

পশ্চাৎভূমি[সম্পাদনা]

করাচি বন্দরের পশ্চাৎভূমি ব্রিটিশ শাসন কাল থেকেই খুবই উন্নত। ব্রিটিশ ভারতে এই বন্দরের পশ্চাৎভূমির অন্তর্গত ছিল বর্তমানের ভারতের দিল্লি, পাঞ্জাব, হরিয়ানা, রাজস্থান এবং সমগ্র পাকিস্তান। কিন্ত দেশ ভাগের পর এর পশ্চাৎ ভূমি ছোট হয়ে যায়। কিন্তু এখনও বন্দরটির পশ্চাৎভূমি উন্নত ও শিল্পাঞ্চলযুক্ত। এই বন্দরের পশ্চাৎভূমিতে রয়েছে লাহোরকরাচির মত শিল্পাঞ্চল ও পাঞ্জাবসিন্ধুর মত কৃষিক্ষেত্র। ফলে করাচি বন্দরে টার্মিনালটি অবস্থিত হওয়ায় টার্মিনালটির পশ্চাৎ ভূমিও উন্নত।

পোতাশ্রয়[সম্পাদনা]

করাচি বন্দরের পোতাশ্রয় প্রাকৃতিকভাবে গড়ে উঠেছে। এটি আরব সাগরের থেকে মূল ভূভাগের দিকে প্রসারিত। প্রতাশ্রয়টি ১১ কিলোমিটার চ্যানেল দ্বারা আরব সাগরের সঙ্গে যুক্ত। পোতাশ্রয়ের গড় গভীরতা হল ১০-১১ মিটার। বন্দরটিতে ৩০টি জেটি রয়েছে। এছাড়া তিনটি কন্টেইনার টার্মিনাল রয়েছে।

পণ্য আমদানি-রপ্তানি[সম্পাদনা]

বন্দরটি দেশের অধিকাংশ পণ্য আমদানি ও রপ্তানি করে। বন্দরটি ৬৫ মিলিয়ন টন কার্গো ও ১.৫৩ মিলিয়ন টিইইউএস কন্টেইনার পরিবহন করেছে ২০১৫ সালে। করাচি বন্দরের করাচি ইন্টারন্যাশনাল কন্টেইনার টার্মিনাল দিয়ে প্রতি বছর প্রায় ৩ লক্ষ কন্টেইনার পরিবাহিত হয়।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]