উয়াইস করনি

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সরাসরি যাও: পরিভ্রমণ, অনুসন্ধান
উয়াইস
আরবি: أويس‎‎
পদবি: করনি আরবি: القرني‎‎
পিতা আবদুল্লাহ
জন্মস্থান ইয়েমেন (৫৯৪ খ্রিষ্টাব্দ)
জাতিসত্তা আরব
মৃত্যু ৬৫৭ খ্রিষ্টাব্দ
দাফনের স্থান রাক্কাহ, সিরিয়া[১]
মৃত্যুর কারণ সিফফিনের যুদ্ধে নিহত
ধর্ম ইসলাম
প্রভাবিত করেছেন উয়াইসি মতের সুফি
যাদের কাছে সম্মানিত সুন্নি, সুফি, ও শিয়া

উয়াইস করনি (আরবি: أويس بن انيس القرني‎‎) ছিলেন ইয়েমেনের একজন সুফি, শহীদ ও দার্শনিক। মুহাম্মদ (সা) এর জীবদ্দশায় তিনি জীবিত ছিলেন তবে তাদের কখনো দেখা হয়নি।[২] ইবনে বতুতার বর্ণনা অনুযায়ী, উয়াইস করনি সিফফিনের যুদ্ধে আলি ইবনে আবি তালিবের পক্ষে লড়াই করে মারা যান। সিরিয়ার রাক্কাহতে তাঁর মাজার ছিল। ২০১৩ সালে চরমপন্থি ইসলামি গোষ্ঠী এটি গুঁড়িয়ে দেয়।[৩] তাঁর সম্মানে তুরস্কের সির্ত প্রদেশের বায়কানে একটি মাজার নির্মাণ করা হয়েছে।[৪]

জীবন[সম্পাদনা]

উয়াইস করনির পিতা আবদুল্লাহ একজন মুসলিম ছিলেন এবং উয়াইসের অল্পবয়সে মৃত্যুবরণ করেন। জীবদ্দশায় উয়ায়েস করনি মুহাম্মদ (সাঃ) এর সমসাময়িক হলেও তাদের কখনও দেখা হয়নি কারণ উয়াইস ধর্ম সাধনায় নিয়ত রত থাকতেন এবং তাঁর অন্ধ মায়ের দেখাশোনা করতেন। [৫] আলি ইবনে আবি তালিবের এবং উমর ইবনে আল-খাত্তাবের সাথে সাক্ষাতের পর তাঁর কথা দিকে দিকে ছড়িয়ে পড়ে এবং উৎসুক জনতা তাঁকে এক নজর দেখার জন্য তাঁর আবাসস্থলে গমন করতে থাকে। এতে উয়াইস করনির ধর্ম সাধনায় ব্যঘাত সৃষ্টি হয় এবং নির্বিঘ্ন সাধনার জন্য উয়াইস করনের উদ্দেশ্যে কুফা ত্যাগ করেন। তাঁর সময়ে তাঁকে আলির একজন অনুসারী বলে ধরা হত। তিনি উট পালন করে অর্থ উপার্জন করতেন।

মাজার ধ্বংস[সম্পাদনা]

২০১৩ সালের ১১ মার্চ একটি সশস্ত্র দল উয়াইস করনি ও আম্মার ইবনে ইয়াসিরের মাজার ধ্বংস করে।

উয়াইসি[সম্পাদনা]

উয়াইসি নামক সুফি মতবাদ তার নামে নামকরণ করা হয়েছে।

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Militants Blow up Muslim Shrine in Syria's Raqqa." PressTV. N.p., 12 Mar. 2013. Web. 02 Aug. 2013. <http://www.presstv.com/detail/2013/03/12/293239/militants-destroy-muslim-shrine-in-syria/>
  2. Beale, Oriental Bibliotheca
  3. "The Moment Isis Detonated a More Than 500 Year old Shrine"। ৩০ মে ২০১৪। সংগৃহীত ২১ জুন ২০১৪ 
  4. Encyclopedia of Islam, Owais Karni
  5. তাযকিরাতুল আউলিয়া বা অলিদের জীবন কাহিনী

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]