আলাপ:বুদাপেস্ট

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন

বুদাপেস্টের নাম দন্ত্য "দ" আর মূর্ধন্য "ট" দিয়ে লেখা কেন? ইংরেজী নামটা "বুডাপেস্ট", হাঙ্গেরীয় নামটা "বুদাপেশ্ত" - এটা মনে হচ্ছে একটা অদ্ভূত compromise, তাই না? --সামীরুদ্দৌলা ০৮:৪৯, ২০ সেপ্টেম্বর ২০০৬ (UTC)

হ্যাঁ, অদ্ভুত হলেও সত্য। Unfortunately, বুদাপেস্ট-ই বাংলায়, বিশেষত বাংলাদেশের অধিকাংশ বই ও পত্রপত্রিকায় ব্যবহৃত বানান (পশ্চিমবঙ্গে কোন্‌ বানানের প্রচলন বেশি জানি না)। এটায় সম্ভবত কিছু করার নেই, sociological process-এর ফল। তবে compromise হিসেবে আমরা নিবন্ধটার শুরুতে সঠিক উচ্চারণ ব্র‌্যাকেটে দেখিয়ে দিতে পারি।
কয়েক মাস আগে এখানে Jules Verne-এর বাংলা বানান নিয়ে বেশ তর্ক হচ্ছিল। এখানকার অনেক ব্যবহারকারী "জুল ভার্ন"-এর সাথে বেশি পরিচিত। কারণ বাংলাদেশের বেশির ভাগ অনুবাদ বইতে এই বানানটা ব্যবহার করা হয়েছে। এখানেও লক্ষ্য করুন এক অদ্ভুত compromise: Jules ঠিকই "জুল" করা হয়েছে (ভুল করে জুল্‌স্‌ করা হয়নি), কিন্তু Verne-কে ভের্ন করা হয়নি।
আমার কাছে এগুলো আসলে আমাদের বাঙালি শিক্ষিত সমাজের reality-র বেশ faithful reflection বলেই মনে হয়। তবে সব ভাষার মানুষই মনে হয় এরকম, "বন্দোপাধ্যায়", "মুখোপাধ্যায়" কোন্‌ অদ্ভুত নিয়মে Bannerji, Mukherji হয়েছিল, তা হয়ত একমাত্র ইংরেজরাই বলতে পারবে। :-)
I think we, the Bangla-speakers, are spoiled with a very nice and elaborate alphabet that can represent quite a lot of phonemes in their aspirated/non aspirated, voiced/unvoiced forms. And the purists among us can actually find ways, with the existing alphabet of ours, to spell a foreign word using a spelling that can almost faithfully capture the original foreign pronunciation of that word. Contrast this with the case of the Western Europeans, who use almost identical alphabets (Roman/Latin) in various languages, but more often than not pronounce the same name differently according to their language-specific speaking habits. For example, an English person will see Budapest and pronounce it "বুডাপেস্‌ট্‌" with a slightly aspirated প, and the "এ" sounding more like "অ্যা" and probably won't think twice about mispronouncing the word. The actual Hungarian pronunciation cannot be captured by the Roman alphabet, if we consider the way the alphabet is perceived by a English speaker, and that's the end of the story for him. :-) --অর্ণব (আলাপ | অবদান) ১০:০৯, ২০ সেপ্টেম্বর ২০০৬ (UTC)

I agree, English speakers make very little effort to approximate foreign words, and instead have a tendency to Anglicize them. Obviously, this will be the same situation with Bengali speakers and non-Bengali words. I don't disagree that replicating the original pronunciation will never be perfect - I'm just saying that it's very strange that we're falling back on what we know to be mispronunciations of foreign words just because someone else wrote it before us in a newspaper or book, at least when a closer pronunciation is perfectly feasible. This isn't even a case of choosing the English pronunciation over the native pronunciation. Anyhow, I figure if this is going to be the case, this is going to be the case. It's just too bad that the Bengalis "in charge of" choosing the translations/transcriptions of foreign names into their books and newspapers make no effort to find out the native pronunciation, and always assume that adding English-like sounds will make everything sound better. It's just another way English is influencing the way even non-native-English speakers perceive the world. Anyhow my rant is over :) I'll accept it. --সামীরুদ্দৌলা ১৯:৫৯, ২০ সেপ্টেম্বর ২০০৬ (UTC)

I think I remember reading বুদাপেস্ট in West bengal based magazines.. --সপ্তর্ষি(আলাপ | অবদান) ০৬:০৩, ২২ সেপ্টেম্বর ২০০৬ (UTC)