আলাপ:বানৌজা আবু উবাইদাহ

    উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে

    বানৌজা ওমর ফারুক এবং বানৌজা আবু উবাইদা জাহাজের গতিবেগ[সম্পাদনা]

    নিচের আলোচনাটি সমাপ্ত হয়েছে। অনুগ্রহপূর্বক এটি পরিবর্তন করবেন না। পরবর্তী মন্তব্যসমূহ যথাযথ আলোচনার পাতায় করা উচিত। এই আলোচনাটিতে আর কোনও সম্পাদনা করা উচিত নয়।


    ‎বাংলাদেশ নৌবাহিনী এবং প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে প্রকাশিত ভিডিও চিত্রে স্পষ্ট করে উল্লেখ রয়েছে এই জাহাজের সর্বোচ্চ গতিবেগ ঘন্টায় 25 নটিক্যাল মাইল। এই যে তার লিংক। অসংখ্য ধন্যবাদ। [১] অপূর্ব রায়-২৩ (আলাপ) ১৩:০৪, ২৩ জুন ২০২২ (ইউটিসি)Reply[উত্তর দিন]

    @অপূর্ব রায়-২৩
    ধরুন একজন প্রকৌশলী আপনাকে ডায়াবেটিস সংক্রান্ত তথ্য দিলেন, একই সাথে একজন ডাক্তার ঐ সম্পর্কে তথ্য দিলেন। এক্ষেত্রে আপনি নিশ্চই ডাক্তারের কথা গ্রহণ করবেন। প্রধান মন্ত্রীর কার্যালয়ের চেয়ে সশস্ত্র বাহনী সংক্রান্ত যেকোন তথ্যের জন্য প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের অধীনস্থ আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তর (আইএসপিআর) বেশি নির্ভরযোগ্য। যদি যাচাইযোগ্য ও শক্তিশালি উৎসসূত্র হতে দুইধরনের তথ্য পান, সে ক্ষেত্রে যে সূত্রগুলির সাথে নিবন্ধের বিষয়ের সংশ্লিষ্টতা বেশি, সেটা গ্রহণ করবেন। আপনার উইকিবোধ কাজে লাগান।
    তথ্য সংক্রান্ত বিভ্রাট থাকলে সেটা নিয়ে সংশ্লিষ্ট নিবন্ধের আলাপ পাতায় আলোচনা করতে হয়। হুট করে তথ্য পরিবর্তন করতে হয় না। এই নিবন্ধ দুটি বানানোর সময় আমিও এই ভিডিও দেখেছি। কিন্তু ভিডিও সূত্র যাচাইযোগ্যতা কম। ভিডিও সূত্র ব্যবহারের সময় ভিডিওটি ভ্যারিফাইড চ্যানেলের কিনা দেখেতে হয়, ভিডিও'র বর্ণনায় তথ্যটি থাকতে হয়। বর্ণনায় নাথাকলে ভিডিওয়ের কোন অংশে বলা হয়েছে, সে অংশের মিনিট সেকেন্ড সহ উল্লেখ করতে হয়। আপনি এগুলোর কোন কিছুই যাচাই না করে তথ্য যোগ করেছেন, তাও আবার আলোচনা ছাড়াই। ২৪ নটিক্যাল মাইলের সপক্ষে নিবন্ধ গুলিতে ২ সূত্র দেয়া হয়েছে, সেগুলি যাচাই করেছেন? / দেখেননি কেন? তাছাড়া ২৫ নটিক্যাল মাইলের সপক্ষে সূত্র নিবন্ধে যোগ করেননি কেন? আপনার এহেন কার্যাকলাপের জন্য আপনার সম্পাদনার উপর আস্থা সংকট তৈরী হচ্ছে।~ ফায়সাল বিন দারুল (২০২২) ১৮:২৯, ২৩ জুন ২০২২ (ইউটিসি)Reply[উত্তর দিন]

    উপরের আলোচনাটি সমাপ্ত হয়েছে। অনুগ্রহপূর্বক এটি পরিবর্তন করবেন না। পরবর্তী মন্তব্যসমূহ যথাযথ আলোচনার পাতায় করা উচিত। এই আলোচনাটিতে আর কোনও সম্পাদনা করা উচিত নয়।
    1. "আরো এক ধাপ এগিয়ে গেল নৌবাহিনী- Bangladesh Navy"