আইভর মেনডঙ্কা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
আইভর মেনডঙ্কা
আইভর মেনডঙ্কা.jpg
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামলিওন আইভর মেনডঙ্কা
জন্ম(১৯৩৪-০৭-১৩)১৩ জুলাই ১৯৩৪
বারটিকা, ব্রিটিশ গায়ানা
মৃত্যু১৪ জুন ২০১৪(2014-06-14) (বয়স ৭৯)
জর্জটাউন, গায়ানা
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
ভূমিকাউইকেট-রক্ষক-ব্যাটসম্যান
সম্পর্কএফইএস মেনডঙ্কা (ভ্রাতৃষ্পুত্র)
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
টেস্ট অভিষেক
(ক্যাপ ১১৬)
৭ মার্চ ১৯৬২ বনাম ভারত
শেষ টেস্ট৪ এপ্রিল ১৯৬২ বনাম ভারত
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট এফসি
ম্যাচ সংখ্যা ১০
রানের সংখ্যা ৮১ ৪০৭
ব্যাটিং গড় ৪০.৫০ ৩১.৩০
১০০/৫০ –/১ –/৩
সর্বোচ্চ রান ৭৮ ৭৮
বল করেছে
উইকেট
বোলিং গড়
ইনিংসে ৫ উইকেট
ম্যাচে ১০ উইকেট
সেরা বোলিং
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ৮/২ ২৫/৫
উৎস: ইএসপিএনক্রিকইনফো.কম, ২৩ জুন ২০২০

লিওন আইভর মেনডঙ্কা (ইংরেজি: Ivor Mendonca; জন্ম: ১৩ জুলাই, ১৯৩৪ - মৃত্যু: ১৪ জুন, ২০১৪) ব্রিটিশ গায়ানার বারটিকা এলাকায় জন্মগ্রহণকারী ওয়েস্ট ইন্ডিয়ান আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার ছিলেন। ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন তিনি। ১৯৬০-এর দশকের সূচনাকালে অত্যন্ত সংক্ষিপ্ত সময়ের জন্যে ওয়েস্ট ইন্ডিজের পক্ষে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অংশগ্রহণ করেছেন।

ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর ওয়েস্ট ইন্ডিয়ান ক্রিকেটে ব্রিটিশ গায়ানা দলের প্রতিনিধিত্ব করেন। দলে তিনি মূলতঃ উইকেট-রক্ষক হিসেবে খেলতেন। এছাড়াও, ডানহাতে নিচেরসারিতে ব্যাটিং করতেন আইভর মেনডঙ্কা

প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট[সম্পাদনা]

১৯৫৮-৫৯ মৌসুম থেকে ১৯৬১-৬২ মৌসুম পর্যন্ত আইভর মেনডঙ্কা’র প্রথম-শ্রেণীর খেলোয়াড়ী জীবন চলমান ছিল। উইকেট-রক্ষক ও কার্যকরী ব্যাটসম্যান হিসেবে খেলতেন।

আইভর মেনডঙ্কা বিশ্বস্ত উইকেট-রক্ষক-ব্যাটসম্যানের ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়েছিলেন। কিন্তু, দূর্ভাগ্যজনকভাবে তিনি তার স্বর্ণালী সময়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলে অন্তর্ভুক্তির প্রশ্নে তীব্র প্রতিদ্বন্দ্বিতার মুখোমুখি হন। ১৯৫৮-৫৯ মৌসুম থেকে ১৯৬১-৬২ মৌসুম পর্যন্ত ব্রিটিশ গায়ানা দলের পক্ষে প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে অংশ নিয়েছেন। অভিষেক প্রথম-শ্রেণীর খেলায় বার্বাডোসের বিপক্ষে ব্যাটিং উদ্বোধনে নামেন এবং ৭৪ ও ২৭ রান সংগ্রহ করেছিলেন তিনি। এরপর, নিজস্ব দ্বিতীয় খেলায় একই প্রতিপক্ষের বিপক্ষে ৫ ও ৬৯ করেন। এ পর্যায়ে অবশ্য ব্যাটিং অবস্থান পরিবর্তন করে মাঠে নেমেছিলেন তিনি।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট[সম্পাদনা]

সমগ্র খেলোয়াড়ী জীবনে দুইটিমাত্র টেস্টে অংশগ্রহণ করেছেন আইভর মেনডঙ্কা। সবগুলো টেস্টই ভারতের বিপক্ষে খেলেছিলেন তিনি। ৭ মার্চ, ১৯৬২ তারিখে কিংস্টনে সফরকারী ভারত দলের বিপক্ষে টেস্ট ক্রিকেটে অভিষেক ঘটে তার। এরপর, ৪ এপ্রিল, ১৯৬২ তারিখে পোর্ট অব স্পেনে একই দলের বিপক্ষে সর্বশেষ টেস্টে অংশ নেন তিনি।

১৯৬১-৬২ মৌসুমে ভারত দল ওয়েস্ট ইন্ডিজ গমনে আসে। ঐ সফরে কিংস্টনে অনুষ্ঠতি সিরিজের দ্বিতীয় টেস্টে তার টেস্ট অভিষেক পর্ব সম্পন্ন হয়। আট নম্বরে ব্যাটিংয়ে নেমে ৭৮ রান তুলেন। এ সংগ্রহটি পরবর্তীতে তার প্রথম-শ্রেণীর খেলোয়াড়ী জীবনে ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ রান হিসেবে রয়ে যায়। সপ্তম উইকেট জুটিতে গ্যারি সোবার্সের সাথে ১২৭ রান ও অষ্টম উইকেট জুটিতে চার্লি স্টেয়ার্সের সাথে ৭৪ রানের জুটি গড়েন।

তাসত্ত্বেও, তৃতীয় টেস্টে তার পরিবর্তে ডেভিড অ্যালানকে ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলে স্থলাভিষিক্ত করা হয়। কিন্তু, চতুর্থ টেস্টে তাকে আবারও দলে ফিরিয়ে আনা হয়। এরপর, আবারও অ্যালানকে তার পরিবর্তে দলে রেখে তাকে মাঠের বাইরে রাখা হয়। চতুর্থ টেস্টই তার সর্বশেষ প্রথম-শ্রেণীর খেলা হিসেবে চিত্রিত হয়ে যায়।

১৯৬৩ সালে ইংল্যান্ড গমনার্থে ডেরেক মারেকে অগ্রাধিকার দেয়া হলে আইভর মেনডঙ্কাকে আর দলে অন্তর্ভুক্ত করা হয়নি। দুই টেস্টে অংশগ্রহণের মাধ্যমেই তার প্রথম-শ্রেণীর খেলোয়াড়ী জীবনের সমাপণ ঘটে।

ব্যক্তিগত জীবন[সম্পাদনা]

ব্রিটিশ গায়ানার বারটিকা এলাকায় জন্মগ্রহণকারী আইভর মেনডঙ্কার পিতামাতা ছিলেন ইনিয়াস মেনডঙ্কা ও অসমন্ড মেনডঙ্কা। তিনি ১০ ভাই-বোনের মধ্যে জ্যেষ্ঠ ছিলেন। তার কাকা ক্লাইভ মেনডঙ্কা ইংরেজ ফুটবলার ছিলেন।

জীবনের শেষদিকে কণ্ঠনালী ও মূত্রনালীর ক্যান্সারে আক্রান্ত হন। অতঃপর, ১৪ জুন, ২০১৪ তারিখে ৭৯ বছর বয়সে গায়ানার জর্জটাউন এলাকায় আইভর মেনডঙ্কা’র দেহাবসান ঘটে।[১]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Former West Indies wicketkeeper Mendonca loses cancer battle | World News # 68004"। Newkerala.com। ২০১৪-০৬-১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৪-০৬-১৫ 

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]