অ্যাপল এ১৪

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
অ্যাপল এ১৪ বায়োনিক
Apple A14.jpg
সাধারণ তথ্য
উদ্বোধন১৫ সেপ্টেম্বর ২০২০; ৭ মাস আগে (2020-09-15)
নকশাকরণেঅ্যাপল
প্রচলিত প্রস্তুতকারক
পণ্য কোডAPL1W01[১]
আর্কিটেকচার এবং শ্রেণিবিভাগ
অ্যাপ্লিকেশনমোবাইল
ন্যূনতম বৈশিষ্ট্য আকার৫ ন্যানোমিটার
মাইক্রোআর্কিটেকচার"ফায়ারস্টর্ম" এবং "আইসস্টর্ম"[২][৩]
নির্দেশনা সেটA64; ARMv8-A
ফিজিক্যাল স্পেসিফিকেশন
ট্রানজিস্টর
  • ১১.৮ বিলিয়ন
কোর
  • ৬টি (ARM big.LITTLE: ২টি "বড়" ফায়ারস্টর্ম + ৪টি "ছোট" আইসস্টর্ম)
জিপিইউApple-designed 4 core
পণ্য, মডেল, প্রকরণ
প্রকরণঅ্যাপল এম১[তথ্যসূত্র প্রয়োজন]
ইতিহাস
পূর্বসূরিঅ্যাপল এ১৩

অ্যাপল এ১৪ বায়োনিক হলো অ্যাপল কর্তৃক ডিজাইন করা ৬৪-বিট এআরএম-ভিত্তিক সিস্টেম অন এ চিপ (এসসি)। এটি চতুর্থ প্রজন্মের আইপ্যাড এয়ারের পাশাপাশি আইফোন ১২ মিনি, আইফোন ১২, আইফোন ১২ প্রো, এবং আইফোন ১২ প্রো ম্যাক্সে ব্যবহার করা হয়েছে। অ্যাপলের মতে এই সেন্ট্রাল প্রসেসিং ইউনিট (CPU) এ১২ এর তুলনায় ৪০% (এ১৩ এর তুলনায় ১৬%) দ্রুত কাজ করবে, যেখানে গ্রাফিক্স প্রসেসিং ইউনিট (GPU) এ১২ এর তুলনায় ৩০% দ্রুততর। এটিতে ১৬-কোরবিশিষ্ট নিউরাল ইঞ্জিন এবং নতুন মেশিন লার্নিং ম্যাট্রিক্স এক্সিলারেটস অন্তর্ভুক্ত রয়েছে যা যথাক্রমে দ্বিগুন এবং দশগুণ দ্রুত কাজ করে। এ১৪ এ ২টি বৃহৎ কোর (৩.১ গিগাহার্জ) এবং ৪টি ছোট কোর (১.৮ গিগাহার্জ) রয়েছে। [৪] [৫]

ডিজাইন[সম্পাদনা]

অ্যাপল এ১৪ বায়োনিক অ্যাপলের ডিজাইন করা একটি ৬৪-বিট হেক্সা-কোর সিপিইউ, যেখানে ARMv8 আইএসএ বাস্তবায়ন করা হয়েছে।[তথ্যসূত্র প্রয়োজন] এটিতে ফায়ারস্টর্ম নামে দুটি উচ্চ-ক্ষমতাসম্পন্ন কোর এবং আইসস্টর্ম নামে চারটি শক্তি-সাশ্রয়ী কোর রয়েছে । [৩]

এ১৪-তে ব্যবহার করা অ্যাপলের ডিজাইনকৃত চারটি কোরবিশিষ্ট জিপিইউর এ১২ এর তুলনায় ৩০% দ্রুত গ্রাফিক্স কর্মক্ষমতা রয়েছে। [৫] এ১৪ সিপিইউতে ডেডিকেটেড নিউরাল নেটওয়ার্ক হার্ডওয়্যার রয়েছে যাকে অ্যাপল নতুন ১৬-কোর নিউরাল ইঞ্জিন বলে অভিহিত করেছে। নিউরাল ইঞ্জিন প্রতি সেকেন্ডে ১১ ট্রিলিয়ন ক্রিয়াকলাপ করতে পারে। পৃথক নিউরাল ইঞ্জিন ছাড়াও, এ১৪ সিপিইউতে দ্বিতীয়-প্রজন্মের মেশিন লার্নিং ম্যাট্রিক্স স্ক্যালার গুণিতকরণ এক্সিলারেটরস (যাকে অ্যাপল এএমএক্স ব্লক বলে) অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। [৫][৬] এছাড়াও এ১৪ সিপিইউতে একটি নতুন ইমেজ প্রসেসর অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে যার উন্নত ফটোগ্রাফিক গণনা ক্ষমতা রয়েছে। [৭]

অ্যাপল এ১৪ বায়োনিক ব্যবহার করে এমন পণ্য[সম্পাদনা]

আরো দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "iPhone 12 and 12 Pro Teardown"iFixit (ইংরেজি ভাষায়)। ২০২০-১০-২০। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-১১-২৩ 
  2. Gurman, Mark; Wu, Debby; King, Ian (২০২০-০৪-২৩)। "Apple Aims to Sell Macs With Its Own Chips Starting in 2021"Bloomberg। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৯-১৫ 
  3. Frumusanu, Andrei। "Apple Announces new 8th gen iPad with A12, iPad Air with 5nm A14 Chip"www.anandtech.com। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-১১-২৩ 
  4. "Apple iPhone 12 - Full phone specifications"www.gsmarena.com। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-১১-২৩ 
  5. "Apple unveils all-new iPad Air with A14 Bionic, Apple's most advanced chip" (সংবাদ বিজ্ঞপ্তি)। Apple। ২০২০-০৯-১৫। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৯-১৫ 
  6. Ritchie, Rene (২০২০-০৯-২৮)। "Apple A14 Bionic Explained — From iPad Air to iPhone 12"iMore। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৯-২৯ 
  7. "Apple introduces iPhone 12 Pro and iPhone 12 Pro Max with 5G" (সংবাদ বিজ্ঞপ্তি)। Apple। ২০২০-১০-১৩। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-১০-১৩