অ্যাপল এ১২

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
অ্যাপল এ১২ বায়োনিক
Apple A12.jpg
সাধারণ তথ্য
উদ্বোধন১২ সেপ্টেম্বর ২০১৮; ২ বছর আগে (2018-09-12)
নকশাকরণেঅ্যাপল
প্রচলিত প্রস্তুতকারক
পণ্য কোডAPL1W81[২]
কর্মক্ষমতা
সর্বোচ্চ সিপিইউ ক্লক রেট২.৪৯ গিগাহার্জ[৩]
ক্যাশ
L1 cache128 KB instruction, 128 KB data
L2 cache8 MB
আর্কিটেকচার এবং শ্রেণিবিভাগ
অ্যাপ্লিকেশনমোবাইল
ন্যূনতম বৈশিষ্ট্য আকার৭ ন্যানোমিটার[৪][৫]
মাইক্রোআর্কিটেকচার"ভোর্টেক্স" এবং "টেম্পেস্ট"
নির্দেশনা সেটAarch64; ARMv8.3-A
ফিজিক্যাল স্পেসিফিকেশন
ট্রানজিস্টর
  • ৬.৯ বিলিয়ন
কোর
  • ৬ (ARM Big.LITTLE: ২× বড় ভোর্টেক্স + ৪× ছোট টেম্পেস্ট)[৪][৬]
জিপিইউApple-designed 4 core "Apple G11P"[৪][৬]
পণ্য, মডেল, প্রকরণ
প্রকরণঅ্যাপল এ১২এক্স, অ্যাপল এ১২জেড
ইতিহাস
পূর্বসূরিঅ্যাপল এ১১
উত্তরাধিকারীঅ্যাপল এ১৩

অ্যাপল এ১২ বায়োনিক হলো অ্যাপল দ্বারা ডিজাইন করা ৬৪-বিট এআরএম-ভিত্তিক সিস্টেম অন চিপ (SoC)।[৭] এটি আইফোন এক্সএস, এক্সএস ম্যাক্স, আইফোন এক্সআর এবং আইপ্যাড এয়ার, আইপ্যাড মিনি, আইপ্যাড (২০২০) এর ২০১৯ সালের সংস্করণগুলোতে ব্যবহার করা হয়েছে।[৫][৭] অ্যাপলের মতে উচ্চ-পারফরম্যান্স কোর দুটি অ্যাপল এ১১ এর তুলনায় ১৫% দ্রুত ও ৫০% বেশি শক্তি-সাশ্রয়ী, এবং উচ্চ-দক্ষতার চারটি কোর এ১১ এর তুলনায় ৫০% কম শক্তি ব্যবহার করে।[৬][৭] ভোক্তা বাজারে প্রকাশিত ৭ ন্যানোমিটার নোডে নির্মিত চিপের মধ্যে এটিই প্রথম।[৮]

ডিজাইন[সম্পাদনা]

অ্যাপল এ১২ বায়োনিক অ্যাপলের ডিজাইন করা একটি ৬৪-বিট হেক্সা-কোর সিপিইউ, যেখানে ARMv8.3-A আর্কিটেকচার বাস্তবায়ন করা হয়েছে। এটিতে ২.৪৯ গিগাহার্জের ভোর্টেক্স নামে দুটি উচ্চ-ক্ষমতাসম্পন্ন (high-performance) কোর এবং টেম্পেস্ট নামে চারটি শক্তি-সাশ্রয়ী (energy-efficient) কোর রয়েছে।[৪][৫] ভোর্টেক্স কোরগুলি হলো ৭-প্রশস্ত ডিকোড আউট-অফ-অর্ডার সুপারস্কেলার ডিজাইন, যেখানে টেম্পেস্ট কোরগুলি ৩-প্রশস্ত ডিকোড আউট-এর-অর্ড সুপারস্কেলার ডিজাইন। মিস্ট্রাল কোরগুলির মতো টেম্পেস্ট কোরগুলিও অ্যাপলের এ৬ এর সুইফ্ট কোরগুলির উপর ভিত্তি করে তৈরি।[৯]

এছাড়াও এ১২ তে অ্যাপলের ডিজাইন করা চার-কোরের একটি গ্রাফিক্স প্রসেসিং ইউনিট (GPU) সংযুক্ত করা হয়েছে যা এ১১ এর তুলনায় ৫০% দ্রুত গ্রাফিক্স কর্মক্ষমতা সম্পন্ন।[৪][৭] এ১২-তে ডেডিকেটেড নিউরাল নেটওয়ার্ক হার্ডওয়্যার অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে যা অ্যাপল "নেক্সট-জেনারেশন নিউরাল ইঞ্জিন" বলে সম্বোধন করছে।[১০] এই নিউরাল নেটওয়ার্কটির আটটি কোর রয়েছে[৬] এবং প্রতি সেকেন্ডে ৫ ট্রিলিয়ন ৮-বিট অপারেশন করতে পারে। [৫][১১] এ১২ এর নিউরাল ইঞ্জিন এ১১ এর নিউরাল ইঞ্জিনের মতো নয়, একারনে তৃতীয় পক্ষের অ্যাপ্লিকেশনগুলি এটিকে অ্যাক্সেস করতে পারে।[১২]

এ১২ চিপটি টিএসএমসি[১] ৭ ন্যানোমিটার[৫] ফিনফেট প্রক্রিয়া ব্যবহার করে তৈরি করেছে যা প্রথমবার কোনও ভোগ্য পণ্যে ব্যবহার করা হয়েছিল।[১][১৩] এটিতে ৬.৯ বিলিয়ন ট্রানজিস্টর রয়েছে।[১] এ১২ এর ডাই আকার ৮৩.২৭ mm2, যা এ১১ এর চেয়ে ৫% ছোট।[১৪]

Die Block Comparison (mm²)[১৫]
SoC এ১২ (৭ ন্যানোমিটার) এ১১ (১০ ন্যানোমিটার)
মোট ডাই ৮৩.২৭ ৮৭.৬৬
বড় কোর ২.০৭ ২.৬৮
ছোট কোর ০.৪৩ ০.৫৩
সিপিইউ কমপ্লেক্স (কোর সহ) ১১.৯০ ১৪.৪৮
জিপিইউ কোর ৩.২৩ ৪.৪৩
জিপিইউ মোট ১৪.৮৮ ১৫.২৮
এনপিইউ ৫.৭৯ ১.৮৩

অ্যাপল এ১২ বায়োনিক ব্যবহার করে এমন পণ্য[সম্পাদনা]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূুত্র[সম্পাদনা]

  1. Summers, Nick (সেপ্টেম্বর ১২, ২০১৮)। "Apple's A12 Bionic is the first 7-nanometer smartphone chip"Engadget। সংগ্রহের তারিখ সেপ্টেম্বর ১২, ২০১৮ 
  2. "iPhone XS and XS Max Teardown"iFixit। সেপ্টেম্বর ২১, ২০১৮। সংগ্রহের তারিখ সেপ্টেম্বর ২১, ২০১৮ 
  3. "iPhone XS Benchmarks - Geekbench Browser"Geekbench। সংগ্রহের তারিখ সেপ্টেম্বর ২২, ২০১৮ 
  4. Smith, Ryan (সেপ্টেম্বর ১২, ২০১৮)। "Apple Announces the 2018 iPhones: iPhone XS, iPhone XS Max, & iPhone XR"AnandTech। সংগ্রহের তারিখ সেপ্টেম্বর ১২, ২০১৮ 
  5. "iPhone Xs and iPhone Xs Max bring the best and biggest displays to iPhone" (সংবাদ বিজ্ঞপ্তি)। Apple। সেপ্টেম্বর ১২, ২০১৮। সংগ্রহের তারিখ সেপ্টেম্বর ১২, ২০১৮ 
  6. "A12 Bionic"Apple। সেপ্টেম্বর ১২, ২০১৮। সংগ্রহের তারিখ সেপ্টেম্বর ১২, ২০১৮ 
  7. "Apple introduces iPhone XR" (সংবাদ বিজ্ঞপ্তি)। Apple। সেপ্টেম্বর ১২, ২০১৮। সংগ্রহের তারিখ সেপ্টেম্বর ১২, ২০১৮ 
  8. Shankland, Stephen। "Apple's A12 Bionic CPU for the new iPhone XS is ahead of the industry moving to 7nm chip manufacturing tech"CNET (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৭-০১ 
  9. Frumusanu, Andrei। "The iPhone XS & XS Max Review: Unveiling the Silicon Secrets"AnandTech। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০১-২৭ 
  10. "iPhone XS - Technical Specification"Apple Inc.। সেপ্টেম্বর ১২, ২০১৮। সংগ্রহের তারিখ সেপ্টেম্বর ১২, ২০১৮ 
  11. Smith, Ryan (সেপ্টেম্বর ১২, ২০১৮)। "Apple Announces the 2018 iPhones: iPhone XS, iPhone XS Max, & iPhone XR"AnandTech। সংগ্রহের তারিখ সেপ্টেম্বর ১২, ২০১৮ 
  12. Frumusanu, Andrei (২০১৮-১০-০৫)। "The iPhone XS & XS Max Review: Unveiling the Silicon Secrets"AnandTech। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০২-০২ 
  13. Smith, Ryan (সেপ্টেম্বর ১২, ২০১৮)। "Apple Announces the 2018 iPhones: iPhone XS, iPhone XS Max, & iPhone XR"AnandTech। সংগ্রহের তারিখ সেপ্টেম্বর ১২, ২০১৮ 
  14. Yang, Daniel; Wegner, Stacy (সেপ্টেম্বর ২১, ২০১৮)। "Apple iPhone Xs Max Teardown"TechInsights। সংগ্রহের তারিখ সেপ্টেম্বর ২১, ২০১৮ 
  15. Frumusanu, Andrei। "The iPhone XS & XS Max Review: Unveiling the Silicon Secrets"AnandTech। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০২-০২