আবুল মনসুর আহমেদ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
আবুল মনসুর আহমেদ
Replace this image male bn.svg
জন্ম ১৮৯৮
ধানীখোলা, ত্রিশাল, ময়মনসিংহ
মৃত্যু ১৯৭৯
জাতীয়তা বাংলাদেশী Flag of Bangladesh.svg
পেশা সাহিত্যিক, রাজনীতিবিদ, সাংবাদিক
যে জন্য পরিচিত সাহিত্য, সাংবাদিকতা, রাজনীতি

আবুল মনসুর আহমেদ (১৮৯৮-১৯৭৯) একজন বাংলাদেশী সাহিত্যিক, রাজনীতিবিদ এবং সাংবাদিক।[১][২]

জন্ম[সম্পাদনা]

তিনি ময়মনসিংহে জেলার ত্রিশাল উপজেলার ধানীখোলা গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন।

ছাত্রজীবন[সম্পাদনা]

তিনি ১৯১৭ সালে ম্যাট্রিক পরীক্ষা পাশ করেন এবং ১৯১৯ সালে উচ্চমাধ্যমিক পাশ করেন। তিনি কলকাতারিপন কলেজ থেকে আইন বিষয়ে পাশ করেন। এই সময়টা ছিল খিলাফত আন্দোলনঅসহযোগ আন্দোলনের। তিনি ৯ বছর ময়মনসিংহে আইন বিভাগে পাশ করেন। তারপর কলকাতায় পেশাদার সাংবাদিক হিসাবে কাজ করেন। তিনি বিশিষ্ট আইনজীবীও ছিলেন।[২]

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

আইনজীবি এবং সাংবাদিক হিসেবে[সম্পাদনা]

তিনি সাংবাদিক হিসেবে নানান সংবাদপত্রে কাজ করেছেন, যেমনঃ ইত্তেহাদ, সুলতান, মোহাম্মদী, নাভায়ু

রাজনীতিবিদ হিসেবে[সম্পাদনা]

আবুল মনসুর আহমেদ নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুর কংগ্রেস আন্দোলনসমূহের সাথে যুক্ত ছিলেন। ১৯৩৭ সালের নির্বাচনের পরে তিনি বাংলার মুসলীম লীগের সাথে সম্পৃক্ত হন এবং ১৯৪০ সাল থেকে পাকিস্তানের আন্দোলনসমূহের সাথে যুক্ত হন। ১৯৫৪ সালের যুক্তফ্রন্ট নির্বাচনে তিনি ত্রিশাল থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন এবং শেরে বাংলা একে ফজলুল হকের নেতৃত্বে প্রাদেশিক শিক্ষামন্ত্রী হন।[১] পরবর্তীতে ১৯৫৭ সালে তিনি হোসেন শহীদ সোহ্‌রাওয়ার্দীর নেতৃত্বে কেন্দ্রীয় বাণিজ্য ও শিল্পমন্ত্রীও ছিলেন। পূর্ববাংলার মঙ্গলের জন্য তিনি নানা পদক্ষেপ নিয়েছিলেন, বিশেষ করে শিল্পায়নে তিনি বিশেষ অবদান রাখেন। ১৯৫৪ সালে যুক্তফ্রন্টের ২১দফার অন্যতম কারিগর ছিলেন তিনি। আওয়ামী মুসলিম লীগ (পরবর্তীতে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ) এর প্রতিষ্ঠাতা-সম্পাদক ছিলেন। আইয়ুব খানের শাসনামলে তিনি বেশ কয়েকবার কারাবরণ করেন।[২]

সাহিত্যিক হিসেবে[সম্পাদনা]

আবুল মনসুর আহমেদ একজন শক্তিমান লেখক ছিলেন। তিনি ব্যঙ্গাত্মক রচনায় বিশেষ খ্যাতি অর্জন করেছিলেন। আয়নাফুড কনফারেন্স গল্পগ্রন্থদ্বয়ে তিনি মুসলিম সমাজের গোঁড়ামি, ধর্মান্ধতা, ভণ্ডামিসহ নানা কুসংস্কারের ব্যাঙ্গ করেছেন তীক্ষ্ণ দৃষ্টিভঙ্গির মাধ্যমে।[২]

গ্রন্থসমূহ[সম্পাদনা]

ব্যঙ্গরচনা[সম্পাদনা]

স্মৃতিকথা[সম্পাদনা]

  • আত্মকথা (১৯৭৮, আত্মজীবনী)
  • আমার দেখা রাজনীতির পঞ্চাশ বছর (১৯৬৯)
  • শেরে বাংলা হইতে বঙ্গবন্ধু (১৯৭২)

অন্যান্য রচনা[সম্পাদনা]

সাহিত্য পুরস্কার[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]

  1. ১.০ ১.১ ১.২ ১.৩ ১.৪ "আবুল মনসুর আহমেদ : যে কারনে আলোচিত"জননেতা.কম। সংগৃহীত ৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৪ 
  2. ২.০ ২.১ ২.২ ২.৩ "আবুল মনসুর আহমেদ"প্রিয়.কম