মিয়া হ্যাম

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
(Mia Hamm থেকে পুনর্নির্দেশিত)
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
মিয়া হ্যাম
Mia Hamm signing an autograph.jpg
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নাম ম্যারিয়েল মার্গারেট হ্যাম
জন্ম (1972-03-17) ১৭ মার্চ ১৯৭২ (বয়স ৪৭)
জন্ম স্থান সেলমা, আলবামা, যুক্তরাষ্ট্র
উচ্চতা ৫ ফুট ৫ ইঞ্চি (১.৬৫ মিটার)
মাঠে অবস্থান ফরোয়ার্ড
জ্যেষ্ঠ পর্যায়ের খেলোয়াড়ী জীবন*
বছর দল উপস্থিতি
(গোল)
১৯৮৯-১৯৯৩
২০০১-২০০৩
নর্থ ক্যারোলিনা টার হিলস
ওয়াশিংটন ফ্রিডম
0১০০0 (১০৩)
0৪৯ 0(২৫)
জাতীয় দল
১৯৮৭-২০০৪ যুক্তরাষ্ট্র ২৭৫ (১৫৮)
  • পেশাদারী ক্লাবের উপস্থিতি ও গোলসংখ্যা শুধুমাত্র ঘরোয়া লিগের জন্য গণনা করা হয়েছে এবং June 28 2007 তারিখ অনুযায়ী সঠিক।

† উপস্থিতি(গোল সংখ্যা)।

‡ জাতীয় দলের হয়ে খেলার সংখ্যা এবং গোল June 28 2007 তারিখ অনুযায়ী সঠিক।
অলিম্পিক পদক রেকর্ড
 যুক্তরাষ্ট্র-এর প্রতিনিধিত্বকারী
প্রমীলা ফুটবল
স্বর্ণ পদক - প্রথম স্থান আটলান্টা ১৯৯৬ দলীয় অর্জন
রৌপ্য পদক - দ্বিতীয় স্থান সিডনি ২০০০ দলীয় অর্জন
স্বর্ণ পদক - প্রথম স্থান এথেন্স ২০০৪ দলীয় অর্জন

ম্যারিয়েল মার্গারেট মিয়া হ্যাম (ইংরেজি: Mariel Margaret "Mia" Hamm; জন্ম: মার্চ ১৭, ১৯৭২) একজন প্রাক্তন আমেরিকান ফুটবলারযুক্তরাষ্ট্রের প্রমীলা জাতীয় ফুটবল দলের স্ট্রাইকার হিসেবে তিনি অনেক বছর খেলেছেন। ২০১৩ সাল পর্যন্ত ফুটবলের ইতিহাসে পুরুষ কিংবা নারী, যে-কোন ফুটবলারের চেয়ে তিনি বেশি আন্তর্জাতিক গোলের (১৫৮টি) বিশ্বরেকর্ডের অধিকারী ছিলেন;[১] যা পরবর্তীতে নিজ দলের অ্যাবি ওয়ামব্যাচ ভঙ্গ করেছেন। পুরুষদের ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ গোলের রেকর্ড রয়েছে ইরানের আলী দায়ি’র ১০৯ গোল।

হ্যাম শেষপর্যন্ত বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় প্রমীলা অ্যাথলেট হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হন। তিনি খেলাধুলায় নারীদের প্রতীক হিসেবে বিবেচিত হয়ে আছেন। ২০০১ সালে যখন প্রথমবারের মত ফিফা বর্ষসেরা প্রমীলা ফুটবলার পুরস্কার দেয়া হয় তখন তিনিই এ পদক জেতেন। ২০০২ সালে তিনি আবার এই পুরস্কার পান। ফিফা থেকে পেলের নির্বাচন করা সেরা ১২৫ জন জীবিত খেলোয়াড়ের তালিকায় তার স্থান রয়েছে। ২০০৪ সালে তিনি খেলাধুলা থেকে অবসর নেন। ২০০৪ সালের অলিম্পিকে স্বর্ণজয়ী যুক্তরাষ্ট্র দলের সদস্য হিসেবে তিনি ক্যারিয়ারের শেষ ম্যাচ খেলেছিলেন। ২০০৭ সালে মনোনীত হবার যোগ্যতা অর্জনের পর ১৪১ ভোটের মধ্যে ১৩৭ ভোট পেয়ে তিনি ন্যাশনাল সকার হল অব ফেম নির্বাচিত হন। ২০০৯ সালে শুর হতে যাওয়া উইমেন'স প্রোফেশনাল সকার লীগের লোগোতে তার আকৃতি রয়েছে।[২]

২০০৮ সালের ১১ মার্চ হ্যাম টেক্সাস স্পোর্টস হল অব ফেম মনোনীত হন।[৩]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Mia Hamm to receive Freedom honor". Associated Press. May 1, 2009.
  2. "Hamm's imprint made on new women's soccer league"USA Today। ২০০৮-০১-১৮।  অজানা প্যারামিটার |1= উপেক্ষা করা হয়েছে (সাহায্য)
  3. "Hamm added to Texas Sports Hall of Fame class"ESPN Soccernet। ২০০৮-০২-০৬।  অজানা প্যারামিটার |1= উপেক্ষা করা হয়েছে (সাহায্য)

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]

পূর্বসূরী
new creation
ফিফা বর্ষসেরা প্রমীলা খেলোয়াড়
২০০১, ২০০২
উত্তরসূরী
ব্রিজিত প্রিঞ্জ

টেমপ্লেট:US Soccer Athlete টেমপ্লেট:SACTCW টেমপ্লেট:M.A.C. Hermann Trophy Women's Recipients