বার্লো কারকিক

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
(Barlow Carkeek থেকে পুনর্নির্দেশিত)
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
বার্লো কারকিক
Barlow Carkeek 1906.jpg
আনুমানিক ১৯০৬ সালের অঙ্কিত প্রতিকৃতিতে বার্লো কারকিক
জন্ম
উইলিয়াম কারকিক

(১৮৭৮-১০-১৭)১৭ অক্টোবর ১৮৭৮
ওয়ালহাল্লা, ভিক্টোরিয়া, অস্ট্রেলিয়া
মৃত্যু২০ ফেব্রুয়ারি ১৯৩৭(1937-02-20) (বয়স ৫৮)
প্রাহরান, ভিক্টোরিয়া, অস্ট্রেলিয়া
অন্য নামবার্লো
ক্রিকেট তথ্য
ব্যাটিংয়ের ধরনবামহাতি
ভূমিকাউইকেট-রক্ষক
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
টেস্ট অভিষেক
(ক্যাপ ১০১)
২৭ মে ১৯১২ বনাম দক্ষিণ আফ্রিকা
শেষ টেস্ট১৯ আগস্ট ১৯১২ বনাম ইংল্যান্ড
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট এফসি
ম্যাচ সংখ্যা ৯৫
রানের সংখ্যা ১৬ ১৩৮৮
ব্যাটিং গড় ৫.৩৩ ১২.১৭
১০০/৫০ ০/০ ০/২
সর্বোচ্চ রান ৬* ৬৮
বল করেছে
উইকেট
বোলিং গড়
ইনিংসে ৫ উইকেট
ম্যাচে ১০ উইকেট
সেরা বোলিং
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ৬/০ ১১৪/৪৬
উৎস: ইএসপিএনক্রিকইনফো.কম, ১৯ জুন ২০১৯

অস্ট্রেলীয় রুলস ফুটবল তথ্য
খেলোয়াড়ী জীবন
বছর ক্লাব খেলা (গোল)
১৮৯৯-১৯০২; ১৯০৫-১৯০৭ রিচমন্ড (ভিএফএ) ৭৩ (৪৮)
১৯০৩-১৯০৫ এসেনডন ২৬ 0(৮)
১৯০৭ শেষে খেলোয়াড়ী পরিসংখ্যান সঠিক
উৎস: এএফএল ছক, অস্ট্রেলিয়ানফুটবল.কম

উইলিয়াম বার্লো কারকিক (ইংরেজি: Barlow Carkeek; জন্ম: ১৭ অক্টোবর, ১৮৭৮ - মৃত্যু: ২০ ফেব্রুয়ারি, ১৯৩৭) ভিক্টোরিয়ার ওয়ালহাল্লা এলাকায় জন্মগ্রহণকারী প্রথিতযশা অস্ট্রেলীয় আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার ও রাগবি ফুটবলার ছিলেন।[১] অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন তিনি। ১৯১২ সালে সংক্ষিপ্ত সময়ের জন্যে অস্ট্রেলিয়ার পক্ষে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অংশগ্রহণ করেছিলেন।

ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে ভিক্টোরিয়া বুশর‍্যাঞ্জার্স দলে প্রতিনিধিত্ব করেছেন। দলে তিনি মূলতঃ উইকেট-রক্ষক হিসেবে খেলতেন। এছাড়াও, বামহাতে কার্যকরী ব্যাটিংশৈলী উপস্থাপন করেছেন ‘বার্লো’ ডাকনামে পরিচিত বার্লো কারকিক

১৯০৩-০৪ মৌসুম থেকে ১৯১৪-১৫ মৌসুম পর্যন্ত বার্লো কারকিকের প্রথম-শ্রেণীর খেলোয়াড়ী জীবন চলমান ছিল। এ সময়কালে ভিক্টোরিয়ার পক্ষে প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে অংশ নিয়েছেন। রাজ্য পর্যায়ের ক্রিকেটে ১৩.২৮ গড়ে ১,০৬৩ রান তুলেন। ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ করেন ৬৮ রান।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট[সম্পাদনা]

সমগ্র খেলোয়াড়ী জীবনে ছয়টিমাত্র টেস্টে অংশগ্রহণ করার সুযোগ পেয়েছিলেন বার্লো কারকিক। ২৭ মে, ১৯১২ তারিখে ম্যানচেস্টারে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে টেস্ট ক্রিকেটে অভিষেক পর্ব সম্পন্ন হয় তার। ১৯ আগস্ট, ১৯১২ তারিখে ওভালে স্বাগতিক ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সর্বশেষ টেস্টে অংশ নেন।

১৯০৯ সালে অস্ট্রেলিয়া দলের সদস্যরূপে ইংল্যান্ড গমন করেন। নিয়মিত উইকেট-রক্ষক স্যামি কার্টারকে সহযোগিতা করতেই মূলতঃ দলে তার অন্তর্ভূক্তি ছিল। ইংল্যান্ডে অনুষ্ঠিত ১৯১২ সালের ত্রি-দেশীয় প্রতিযোগিতায় অংশ নেন। তবে, ঐ সফর শেষে দেশের প্রথম পছন্দের উইকেট-রক্ষক হিসেবে দেশে প্রত্যাবর্তন করেন। অস্ট্রেলিয়ান কন্ট্রোল বোর্ড ও অস্ট্রেলিয়ার শীর্ষস্থানীয় টেস্ট খেলোয়াড়দের সাথে আর্থিক মতানৈক্যের কারণেই খেলায় অংশ নিতে পেরেছিলেন। এরপূর্বে তিনি কোন টেস্ট খেলায় অংশ নেননি। পূর্ণাঙ্গ দায়িত্বপ্রাপ্ত হবার পর নিজেকে মেলে ধরতে ব্যর্থ হন ও ঐ প্রতিযোগিতায় স্বাগতিক দল শিরোপা জয় পায়।

অংশগ্রহণকৃত ছয়টি টেস্টের মধ্যে তিনটি করে ইংল্যান্ড ও দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে খেলেন। তবে, ব্যাট হাতে আহামরি কিছু দেখাতে পারেননি। ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ করেন মাত্র অপরাজিত ছয় রান। মাত্র ১৬ রান ও ছয়টি ক্যাচ গ্লাভসবন্দী করেছিলেন।

ব্যক্তিগত জীবন[সম্পাদনা]

তুলনামূলকভাবে খাঁটো গড়নের অধিকারী ছিলেন। তবে বেশ শক্ত মজবুত শারীরিক গড়ন ছিল তার। ক্রিকেট খেলার পাশাপাশি অস্ট্রেলীয় রুলস ফুটবলেও তার সমান দক্ষতা ছিল। পেশায় তিনি কর্মকার ছিলেন।

অস্ট্রেলীয় রুলস ফুটবলের ২৬টি খেলায় অংশ নিয়ে ৮ গোল করেন। এ পর্যায়ে তিনি ১৯০৩ থেকে ১৯০৫ সময়কালে ভিক্টোরিয়ান ফুটবল লীগে (ভিএফএল) এসেনডনের পক্ষে খেলতেন। এসেনডনের সাথে যুক্ত হবার পূর্বে ও পরে রিচমন্ডের সদস্য হন। ১৯০৫ সালের ভিএফএল মৌসুমে চারটি খেলায় অংশগ্রহণের পর এসেনডন ত্যাগ করেন। এরপর তিনি রিচমন্ডে খেলতে থাকেন ও ১৯০৫ সালে রিচমন্ডকে ভিএফএ গ্র্যান্ড ফাইনাল টিম জয় করেন। এছাড়াও, ১৯০২ সালের ভিএফএ প্রিমিয়ারশীপের শিরোপা বিজয়ী রিচমন্ড দলের নিয়মিত সদস্য ছিলেন।[২]

২০ ফেব্রুয়ারি, ১৯৩৭ তারিখে ৫৯ বছর বয়সে ভিক্টোরিয়ার প্রাহরান এলাকায় বার্লো কারকিকের দেহাবসান ঘটে। ২২ ফেব্রুয়ারি, ১৯৩৭ তারিখে চেল্টেনহাম মেমোরিয়াল পার্কে (ওয়াঙ্গারা রোড) তাকে সমাহিত করা হয়।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Australia – Test Batting Averages"। ESPNCricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১৫ ডিসেম্বর ২০১৮ 
  2. He was also a regular member of the Richmond Team that won the VFA Premiership in 1902; however, in 1902, the premiership was simply awarded to the team at the top of the ladder at the end of the season — thus, no "Grand Final" match was played in 1902.

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]

আরও পড়ুন[সম্পাদনা]