২০১৬-১৭ লা লিগা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
লা লিগা
মৌসুম২০১৬-১৭
চ্যাম্পিয়নরিয়াল মাদ্রিদ
(৩৩ তম শিরোপা)
অবনমনস্পোর্টিং গিহন
ওসাসুনা
গ্রানাডা
চ্যাম্পিয়নস লীগরিয়াল মাদ্রিদ
বার্সেলোনা
আতলেটিকো মাদ্রিদ
সেভিয়া
ইউরোপা লীগভিয়ারিয়াল
রিয়াল সোসিয়েদাদ
আথলেটিকো বিলবাও
মোট খেলা৩৮০
মোট গোলসংখ্যা১১১৮ (ম্যাচ প্রতি ২.৯৪টি)
শীর্ষ গোলদাতালিওনেল মেসি
(৩৭ টি গোল)
সেরা গোলরক্ষকজান অবলাক
(০.৭২ টি গোল/ম্যাচ)
সবচেয়ে বড় হোম জয়আতলেটিকো মাদ্রিদ ৭-১ গ্রানাডা
(১৫ অক্টোবর ২০১৬)
বার্সেলোনা ৭–১ ওসাসুনা
(২৬ এপ্রিল ২০১৭)
সবচেয়ে বড় এওয়ে জয়আলাভেজ ০–৬ বার্সেলোনা
(১১ ফেব্রুয়ারি ২০১১)
সর্বোচ্চ স্কোরিংসেভিয়া ৬–৪ এস্পানিওল
(২০ আগস্ট ২০১৬)
দীর্ঘতম টানা জয়৭টি ম্যাচ[১]
বার্সেলোনা
দীর্ঘতম টানা অপরাজিত১৯ টি ম্যাচ[১]
বার্সেলোনা
দীর্ঘতম টানা জয়বিহীন২১ টি ম্যাচ[১]
ওসাসুনা
দীর্ঘতম টানা পরাজয়৮ টি ম্যাচ[১]
গ্রানাডা
সর্বোচ্চ উপস্থিতি৯৫,৯৬১
বার্সেলোনা ১–১ রিয়াল মাদ্রিদ
(৩ ডিসেম্বর ২০১৬)[১]
সর্বনিম্ন উপস্থিতি৩,৫৭৬
এইবার ১–০ ভ্যালেন্সিয়া
(২৭ আগস্ট ২০১৬)
মোট উপস্থিতি১০,৫৫৭,৭৮২
গড় উপস্থিতি২৭,৮৫৬

'২০১৬-১৭ লা লিগা' (স্পন্সরজনিত কারণে লা লিগা সানতান্দের নামেও পরিচিত) লা লিগার ৮৬ তম আসর।[২] লীগটি ১৯ আগস্ট ২০১৬ এ শুরু হয় এবং ২১ মে ২০১৭ তে শেষ হয়।

রিয়াল মাদ্রিদ ৫ বছর পর বিজয়ী হয় এবং সর্বোচ্চ ৩৩ বার শিরোপা অর্জন করে। প্রথম কোনো ক্লাব হিসেবে তারা লীগের সবগুলো ম্যাচে গোল করতে সক্ষম হয়।[৩][৪]

প্রাক মৌসুম[সম্পাদনা]

গত আসরের চ্যাম্পিয়ন ছিলো বার্সেলোনা। গত আসর থেকে গেতাফে, রায়ো ভায়োকানোলেভান্তে তিনটি দলের অবনমন ঘটে। তাদের বদলে সেগুন্দা ডিভিশন থেকে আলাভেস, লেগানেসক্লাব ওসাসুনা এই তিনটি দলের উত্তরন ঘটে।

অংশগ্রহনকারী দলসমূহ[সম্পাদনা]

দল স্থান মাঠ ধারণক্ষমতা
আলাভেস ভিক্টোরিয়া গেসতেইজ মেন্ডিযোরোতজা ১৯,৮৪০[৫]
আথলেটিকো বিলবাও বিলবাও সেন মামেস ৫৩,২৮৯[৬]
আতলেটিকো মাদ্রিদ মাদ্রিদ ভিসেন্তে ক্যালদেরন ৫৪,৯০৭[৭]
বার্সেলোনা বার্সেলোনা ন্যু ক্যাম্প ৯৯,৩৫৪[৮]
সেল্টা ভিগো ভিগো বালাইদোজ ২৯,০০০[৯]
দেপরতিভো লা করুনা এ করুনা রিয়াযর ৩২,৯১২[১০]
এইবার এইবার ইপুরুয়া ৭,০৮৩[১১]
এস্পানিওল বার্সেলোনা আরসিডিই স্টেডিয়াম ৪০,৫০০[১২]
গ্রানাডা গ্রানাডা Nuevo Los Cármenes ২২,০৯৪[১৩]
লাস পালমাস লাস পালমাস গ্রেন ক্যানেরিয়া ৩৩,১১১[১৪]
লেগানেজ লেগানেজ Butarque ১০,৯২২[১৫]
মালাগা মালাগা লা রোজালেডা ৩০,০৪৪[১৬]
ওসাসুনা পাম্পলোনা এল সাদার ১৮,৭৬১[১৭]
রিয়াল বেটিস সেভিয় বেনিতো ভিয়ামারিন ৫১,৭০০[১৮]
রিয়াল মাদ্রিদ মাদ্রিদ সান্তিয়াগো বার্নাব্যু ৮৫,৪৫৪[১৯]
রিয়াল সোসিয়েদাদ সেন্ট সেবাস্টেন এনোয়েতা ৩২,০০০[২০]
সেভিয়া সেভিয় এমন সানচেজ ৪২,৭১৪[২১]
স্পোর্টিং গিহন গিহন এল মলিনন ২৯,০২৯[২২]
ভ্যালেন্সিয়া ভ্যালেন্সিয়া ম্যাস্তেলা স্টেডিয়াম ৫৫,০০০[২৩]
ভিয়ারিয়াল ভিয়ারিয়াল এস্তাদিও দে লা কেরামিকা ২৪,৮৯০[২৪]

ফলাফল[সম্পাদনা]

অব দল খে ড্র হা স্বগো বিগো গোপা পয়েন্ট যোগ্যতা অর্জন বা অবনমন
রিয়াল মাদ্রিদ (C) ৩৮ ২৯ ১০৬ ৪১ +৬৫ ৯৩ চ্যাম্পিয়নস লীগ গ্রুপ পর্বের জন্য উন্নীত
বার্সেলোনা ৩৮ ২৮ ১১৬ ৩৭ +৭৯ ৯০
আতলেতিকো মাদ্রিদ ৩৮ ২৩ ৭০ ২৭ +৪৩ ৭৮
সেভিয়া ৩৮ ২১ ৬৯ ৪৯ +২০ ৭২ চ্যাম্পিয়নস লীগ প্লে-অফ পর্বের জন্য উন্নীত
ভিয়ারিয়াল ৩৮ ১৯ ১০ ৫৬ ৩৩ +২৩ ৬৭ ইউরোপা লীগ গ্রুপ পর্বের জন্য উন্নীত[ক]
রিয়াল সোসিয়েদাদ ৩৮ ১৯ ১২ ৫৯ ৫৩ +৬ ৬৪
অ্যাথলেতিক বিলবাও ৩৮ ১৯ ১৩ ৫৩ ৪৩ +১০ ৬৩ ইউরোপা লীগ তৃতীয় কোয়ালিফাইং পর্বের জন্য উন্নীত
এস্পানিওল ৩৮ ১৫ ১১ ১২ ৪৯ ৫০ −১ ৫৬
আলাভেস ৩৮ ১৪ ১৩ ১১ ৪১ ৪৩ −২ ৫৫
১০ এইবার ৩৮ ১৫ ১৪ ৫৬ ৫১ +৫ ৫৪
১১ মালাগা ৩৮ ১২ ১০ ১৬ ৪৯ ৫৫ −৬ ৪৬[খ]
১২ ভ্যালেন্সিয়া ৩৮ ১৩ ১৮ ৫৬ ৬৫ −৯ ৪৬[খ]
১৩ সেল্টা ভিগো ৩৮ ১৩ ১৯ ৫৩ ৬৯ −১৬ ৪৫
১৪ লাস পালমাস ৩৮ ১০ ১৯ ৫৩ ৭৪ −২১ ৩৯[গ]
১৫ রিয়াল বেটিস ৩৮ ১০ ১৯ ৪১ ৬৪ −২৩ ৩৯[গ]
১৬ দেপর্তিভো লা করুনা ৩৮ ১২ ১৮ ৪৩ ৬১ −১৮ ৩৬
১৭ লেগানেস ৩৮ ১১ ১৯ ৩৬ ৫৫ −১৯ ৩৫
১৮ স্পোর্টিং গিজন (R) ৩৮ ১০ ২১ ৪২ ৭২ −৩০ ৩১ সেগুন্দা ডিভিশনের জন্য অবনমিত
১৯ ওসাসুনা (R) ৩৮ ১০ ২৪ ৪০ ৯৪ −৫৪ ২২
২০ গ্রানাদা (R) ৩৮ ২৬ ৩০ ৮২ −৫২ ২০
উৎস: লা লিগা, সকারওয়ে
শ্রেণীবিভাগের নিয়মাবলী: ১) পয়েন্ট; ২) হেড-টু-হেড পয়েন্ট; ৩) হেড-টু-হেড গোল পার্থক্য; ৪) গোল পার্থক্য; ৫) স্বপক্ষে গোল; ৬) ফেয়ার-প্লে পয়েন্ট; ৭) প্লে-অফ।[২৫]
(C) চ্যাম্পিয়ন; (R) অবনমন।
টীকা:
  1. বার্সেলোনা ২০১৬-১৭ কোপা দেল রে জয়ের ফলে ইউরোপা লীগ গ্রুপ পর্বের জন্য উন্নীত হয়েছে, কিন্তু তারা ইউরোপের অন্য প্রতিযোগিতা ২০১৭-১৮ উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লীগের জন্য উন্নীত হওয়ায় তাদের স্থানটি অন্য দলকে দেওয়া হয়েছে।
  2. হেড-টু-হেড পয়েন্টে মালাগা ভ্যালেন্সিয়া হতে এগিয়ে: ভ্যালেন্সিয়া–মালাগা ২–২, মালাগা–ভ্যালেন্সিয়া ২–০
  3. হেড-টু-হেড গোল পার্থক্যে লাস পালমাস রিয়াল বেটিস হতে এগিয়ে: লাস পালমাস–রিয়াল বেটিস ৪–১, রিয়াল বেটিস–লাস পালমাস ২–০

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "La Liga Statistics – 2016–17"ESPN FC। Entertainment and Sports Programming Network (ESPN)। সংগ্রহের তারিখ ২৫ আগস্ট ২০১৬ 
  2. https://en.m.wikipedia.org/w/index.php?title=Special:ZeroRatedMobileAccess&from=2016%E2%80%9317_La_Liga&to=http://www.laliga.es/en/news/laliga-and-santander-strike-title-sponsorship-deal
  3. http://www.bbc.com/sport/football/39926301
  4. http://www.marca.com/en/football/real-madrid/2017/05/21/5921e215e5fdea41798b4607.html
  5. "Instalaciones" (স্পেনীয় ভাষায়)। Deportivo Alavés। সংগ্রহের তারিখ ২৯ মে ২০১৬ 
  6. "Athletic Club - San Mamés (2013)"। Athletic Club। ১৩ মার্চ ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১০ এপ্রিল ২০১৬ 
  7. "Club Atlético de Madrid - Facilities"। Club Atlético de Madrid। সংগ্রহের তারিখ ৪ মার্চ ২০১৬ 
  8. "Camp Nou - FC Barcelona"। FC Barcelona। সংগ্রহের তারিখ ৪ মার্চ ২০১৬ 
  9. "Celta de Vigo - CLUB"। Real Club Celta de Vigo। ৪ নভেম্বর ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৮ এপ্রিল ২০১৬ 
  10. "Riazor"। Deportivo de La Coruña। সংগ্রহের তারিখ ১৮ মে ২০১৭ 
  11. "Capacity of Ipurua stands at 7,083"। SD Eibar। ৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৭। 
  12. "RCDE Stadium - Ficha Técnica"। RCD Espanyol। সংগ্রহের তারিখ ৯ মে ২০১৬ 
  13. "DATOS DEL CLUB"। Granada CF। সংগ্রহের তারিখ ৯ মে ২০১৬ 
  14. "Estadio de Gran Canaria"। UD Las Palmas। ১০ মে ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৫ এপ্রিল ২০১৬ 
  15. "Instalaciones - Leganés - web oficial" (স্পেনীয় ভাষায়)। CD Leganés। সংগ্রহের তারিখ ২ এপ্রিল ২০১৭ 
  16. "ESTADIO LA ROSALEDA"। Málaga CF। সংগ্রহের তারিখ ২৫ এপ্রিল ২০১৬ 
  17. "El Club. Datos Generales." (স্পেনীয় ভাষায়)। CA Osasuna। সংগ্রহের তারিখ ২৩ জুন ২০১৬ 
  18. "Real Betis Balompié - Estadio Benito Villamarín"। Real Betis। ২ মে ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৯ মে ২০১৬ 
  19. "Santiago Bernabéu Stadium"। Real Madrid C.F.। সংগ্রহের তারিখ ৭ মার্চ ২০১৬ 
  20. "El estadio - Real Sociedad de Fútbol"। Real Sociedad। সংগ্রহের তারিখ ২৫ এপ্রিল ২০১৬ 
  21. "Sevilla Fútbol Club - La entidad"। Sevilla FC। সংগ্রহের তারিখ ১০ এপ্রিল ২০১৬ 
  22. Podcast Gijón Ser Deportivos; 9 March 2015
  23. "Valencia Club de Fútbol - Camp de Mestalla"। সংগ্রহের তারিখ ২৫ এপ্রিল ২০১৬ 
  24. "2011/12 UEFA Champions League statistics handbook - Clubs continued" (PDF)। UEFA। 
  25. "Primera División 2016/2017 - Season rules"। Scoresway। সংগ্রহের তারিখ ১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৬