স্নানযাত্রা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
নবকলেবরের পর জগন্নাথের প্রথম স্নানযাত্রা উৎসব, জগন্নাথ মন্দির, পুরী, ২০১৬।

স্নানযাত্রা (ওড়িয়া: ସ୍ନାନ ଯାତ୍ରା) হল হিন্দু পঞ্জিকা অনুসারে জ্যৈষ্ঠ মাসের পূর্ণিমা তিথিতে আয়োজিত একটি উৎসব।[১] হিন্দু দেবতা জগন্নাথের ভক্তদের কাছে এটি একটি গুরুত্বপূর্ণ উৎসব। এই দিনটিকে জগন্নাথের জন্মতিথি মনে করা হয়। পুরীতে স্নানযাত্রা উপলক্ষ্যে জগন্নাথ, বলভদ্র, সুভদ্রা, সুদর্শন চক্রমদনমোহন বিগ্রহকে জগন্নাথ মন্দির থেকে স্নানবেদীতে বের করে আনা হয়। সেখানে তাঁদের প্রথাগতভাবে স্নান করানো হয় এবং ভক্তদের দর্শনের জন্য সুন্দর বেশভূষায় সজ্জিত করা হয়।[২]

ধর্মীয় গুরুত্ব[সম্পাদনা]

জগন্নাথের ভক্তদের বিশ্বাস, সেদিন যদি তাঁরা পুরীর জগন্নাথ মন্দিরে দেবতাকে দর্শন করতে যান, তবে তাঁদের সকল পাপ থেকে মুক্ত হতে পারবেন। এই জন্য অসংখ্য ভক্ত স্নানযাত্রা উপলক্ষ্যে পুরীর মন্দির দর্শনে যান।[৩] স্কন্দপুরাণম্‌ বলা হয়েছে, পুরীর মন্দিরে বিগ্রহ প্রতিষ্ঠার পরেই প্রথম বার রাজা ইন্দ্রদ্যুম্ন এই অনুষ্ঠান আয়োজন করেছিলেন।

অনুষ্ঠান পদ্ধতি[সম্পাদনা]

জগন্নাথ ও বলভদ্রের গজানন বেশ

স্নানযাত্রার পূর্বসন্ধ্যায় জগন্নাথ, বলভদ্র, সুভদ্রা, সুদর্শন চক্র ও মদনমোহনের বিগ্রহ একটি বিশাল শোভাযাত্রা সহকারে মন্দিরের গর্ভগৃহ থেকে বার করে স্নানবেদীতে এনে রাখা হয়। ভক্তেরা এই সময় জগন্নাথকে দর্শন করতে আসেন।

স্নানযাত্রার দিন মন্দিরের উত্তর দিকের কূপ থেকে জল এনে মন্ত্রোচ্চারণের মাধ্যমে তার শুদ্ধিকরণ করা হয়। তারপর ১০৮টি কলসে সেই জল নিয়ে বিগ্রহগুলিকে স্নান করানো হয়।[৪]

সেই দিন সন্ধ্যাবেলা স্নানপর্বের সমাপ্তির পর জগন্নাথ ও বলভদ্রকে গণেশের রূপে সাজানোর জন্য হস্তীমুখ-বিশিষ্ট মস্তকাবরণী পরানো হয়। জগন্নাথের এই রূপটিকে বলা হয় 'গজবেশ'।

প্রথাগত বিশ্বাস অনুসারে, স্নানযাত্রার পর জগন্নাথ অসুস্থ হয়ে পড়েন। এই সময় তাঁকে রাজবৈদ্যের চিকিৎসাধীনে গোপনে একটি সংরক্ষিত কক্ষে রাখা হয়।[৫] জগন্নাথের এই অসুস্থতার পর্যায়টি 'অনসর' নামে পরিচিত। এই সময় ভক্তেরা দেবতার দর্শন পান না। তাঁদের দর্শনের জন্য বিগ্রহের পরিবর্তে মূল মন্দিরে তিনটি পটচিত্র রাখা হয়। এই সময় ভক্তেরা ব্রহ্মগিরিতে অলরনাথ মন্দিরে যান। তাঁরা বিশ্বাস করেন, অনসর পর্যায়ে জগন্নাথ অলরনাথ রূপে অবস্থান করেন। কথিত আছে, রাজবৈদ্যের আয়ুর্বৈদিক 'পাঁচন' খেয়ে এক পক্ষকালের মধ্যে সুস্থ হয়ে ওঠেন। তারপর ভক্তেরা আবার তাঁকে আবার দর্শন করতে পারেন।[৬]

চিত্রমালা[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Lavish bath before sickroom stay"telegraphindia.com। ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ২৫ জুন ২০১৩The festival is observed on the full moon day of the Oriya month of Jyestha 
  2. The official website of the Puri Jagannath temple [১].
  3. "Lakhs witness deities' bathing ritual in Puri"Hindustan Times, Delhi  – via HighBeam Research (সদস্যতা প্রয়োজনীয়)। ১৫ জুন ২০১১। ৮ মার্চ ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২ সেপ্টেম্বর ২০১২ 
  4. Mohanty, Rajkumar (২০১৩)। "Ceremonial bath over, lords retire to Anasar Ghar - The New Indian Express"newindianexpress.com। সংগ্রহের তারিখ ২৫ জুন ২০১৩they were bathed with 108 pitchers of aromatic and herbal water 
  5. Mohapatra, Debabrata (২০১১)। "The skies rain down for divine bath - Times Of India"indiatimes.com। সংগ্রহের তারিখ ২৫ জুন ২০১৩would undergo treatment by the shrine vaidyas (ayurveda doctors) for 15 days, 
  6. Details of the ceremony