সৌরেনী

স্থানাঙ্ক: ২৬°৫১′২৭″ উত্তর ৮৮°১২′১৩″ পূর্ব / ২৬.৮৫৭৪° উত্তর ৮৮.২০৩৭° পূর্ব / 26.8574; 88.2037
উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সৌরেনী
গ্রাম
সৌরেনী পশ্চিমবঙ্গ-এ অবস্থিত
সৌরেনী
সৌরেনী
সৌরেনী ভারত-এ অবস্থিত
সৌরেনী
সৌরেনী
পশ্চিমবঙ্গ তথা ভারতে সৌরেনীর অবস্থান
স্থানাঙ্ক: ২৬°৫১′২৭″ উত্তর ৮৮°১২′১৩″ পূর্ব / ২৬.৮৫৭৪° উত্তর ৮৮.২০৩৭° পূর্ব / 26.8574; 88.2037
রাষ্ট্র ভারত
রাজ্যপশ্চিমবঙ্গ
জেলাদার্জিলিঙ
আয়তন
 • মোট৪.৫৯ বর্গকিমি (১.৭৭ বর্গমাইল)
উচ্চতা১,৩৩০ মিটার (৪,৩৬০ ফুট)
জনসংখ্যা (২০১১)
 • মোট৩,৯০১
 • জনঘনত্ব৮৫০/বর্গকিমি (২,২০০/বর্গমাইল)
ভাষা
 • সরকারীনেপালি, বাংলা, ইংরেজি[১][২]
সময় অঞ্চলআইএসটি (ইউটিসি+০৫:৩০)
পিন৭৩৪২২৭
টেলিফোন কোড৯১ ৩৫৪২২

সৌরেনী হলো পূর্ব ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের জলপাইগুড়ি বিভাগের অন্তর্গত দার্জিলিং জেলার মিরিক মহকুমায় অবস্থিত একটি গ্রাম। এটি মিরিক শহরের নিকটেই দক্ষিণ দিকে অবস্থিত। সৌরেনীতে অবস্থিত সৌরেনী বাজারে আশেপাশের বিভিন্ন গ্রাম থেকে বিভিন্ন ধরনের জিনিসপত্র এবং চা বাগানগুলি থেকে বিক্রয়যোগ্য চায়ের একটি বড়ো হাট বসে যা স্থানীয় মানুষের উপার্জনের প্রধান উৎস। সৌরেনী বাজারের কাছেই দুটি বিখ্যাত চা বাগান বা চায়ের তালুক রয়েছে। সেগুলি হলো - সৌরেনী চা বাগান ও মেচী চা বাগান। পর্যটকদের ক্ষেত্রে একাধিক পাহাড়ী দর্শনীয় স্থানগুলির মধ্যে সৌরেনীর গুরুত্ব রয়েছে বেশ। ফলে পর্যটকদের থাকার জন্য একাধিক অস্থায়ী হোটেলও রয়েছে। গ্রামটি দার্জিলিং-শিলিগুড়ি সড়কের ওপর মিরিক থেকে ৭ কিলোমিটার দক্ষিণে অবস্থিত।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

বিখ্যাত নেপালি সর্দার তথা জমিদার ডকমন রাই[৩] ব্রিটিশ কোম্পানীর কাছ থেকে এক বিশাল পরিমাণ ভূসম্পত্তি লাভ করেন। সেইসময়ে ব্রিটিশরা দার্জিলিঙে চা বাগান প্রতিষ্ঠিত করতে শুরু করে। তাঁর প্রাপ্ত জমিগুলির মধ্যে ছিলো যথাক্রমে সৌরেনী, ফুগুড়ি এবং সামরিপানি। ডকমন রায়ের পুত্র ভউজিৎ রায় সৌরেনীতে একটি চা বাগান প্রতিষ্ঠা করেন। তিনি তার এই ব্যক্তিগত চা বাগানে "সৌর" নামে এক প্রকার চা বীজ বপন করেন। পরবর্তীকালে তিনি এই চা বাগানটি রাজপুতানা থেকে আসা তেওয়ারী ভ্রাতৃৃৃদ্বয় রামলাল তেওয়ারী ও জালুরাম তেওয়ারীর কাছে বিক্রয় করে দেন। তেওয়ারী ভ্রাতৃদ্বয় ১৮৭০ খ্রিস্টাব্দে রাজস্থান থেকে এসে দার্জিলিং অঞ্চলে কার্শিয়াং শহরে একটি দোকান খোলেন এবং নিত্য খরিদ্দার হিসাবে ভৌজিৎ রায়ের সাক্ষাৎ পান। সম্পূর্ণরূপে সৌরেনীর চা বাগানটি তেওয়ারী ভ্রাতৃদ্বয় দ্বারা ১৯০২ খ্রিস্টাব্দে প্রতিষ্ঠিত হয় ও কোম্পানি মোহর পায়। তেওয়ারী ভ্রাতৃৃৃদ্বয়ের পরবর্তী প্রজন্ম চা বাগানটিকে ১৯৯০ খ্রিস্টাব্দে আবার বিক্রয় করে দেন। এটি বর্তমানে টিটাগড় ওয়াগনস লিমিটেডের মালিকানাধীন। সৌরেনীর সার্বিক উন্নতি সাধনে শ্রীযুক্ত লাংউডের বিশেষ অবদান রয়েছে।[৪] তিনি সৌরেনীতে সর্বপ্রথম উচ্চ বিদ্যালয়ও স্থাপন করেছিলেন।

জনতত্ত্ব[সম্পাদনা]

২০১১ সালের ভারতের জনগণনা অনুসারে সৌরেনীর মোট জনসংখ্যা ৩৯০১ জন, যার মধ্যে ১৯৯৩ জন পুরুষ এবং ১৯০৮ জন নারী। ছয় বৎসর অনূর্ধ্ব শিশু সংখ্যা ৩০৪ জন যা জনসংখ্যার ৭.৭৯ শতাংশ। মোট ছয় বৎসরোর্ধ্ব জনসংখ্যা ৩১৫১ জন তথা ৮৭.৬০ শতাংশ সাক্ষর।[৫]

দর্শনীয় স্থান[সম্পাদনা]

  • সৌরেনী-টিংলিং ভিউপয়েন্ট – এটি সমগ্র উত্তর পূর্বের অন্যতম সুন্দর ভিউপয়েন্ট। এখানকার পাহাড়ী সবুজ ঢাল বরাবর আঁকা-বাঁকা রাস্তা যেন চা বাগানের মাঝ ফুড়ে চলে গেছে।
  • হালানে – হালানে থেকে উভয় দিকেই দৃৃৃশ্য বেশ আলাদা। এই শৈলশিরা সড়কের একদিকে রয়েছে পাহাড়ী কার্শিয়াং এবং উত্তর বঙ্গের বিস্তীর্ণ সমতল ও অপরদিকে রয়েছে দুর্গম নেপালের পর্বতশ্রেণী। এটি অন্তুদারা নামেও পরিচি।[৬]
  • বানকুলং (জয়ন্তী নগর) – বালাসন নদীর তীরে অবস্থিত একটি অর্থনৈতিক উন্নতিশীল ও কৃৃৃষিপ্রধান গ্রাম হলো বানকুলং। পরিবেশবান্ধব পর্যটন ও সময় কাটানোর সুবন্দোবস্ত রয়েছে এখানে।
  • সৌরেনী বস্তি – সৌরেনীবস্তি অঞ্চলে প্রচুর কমলালেবুর বাগান রয়েছে। এটি কমলা চাষের জন্যে বিখ্যাত। এটিকে কমলার গ্রাম বলে।[৭]
  • চা বাগান – নিকটবর্তী চা বাগানগুলি হলো, সৌরেনী চা বাগান,[৮] মেচী চা বাগান, ফুগুড়ি চা বাগান,[৯] টিংলিং চা বাগান, সিঙবুল্লী চা বাগান, গয়াবাড়ী চা বাগান এবং মিলিকথং চা বাগান।[১০]
সৌরেনী টিংলিং ভিউপয়েণ্ট
অন্তুদারা থেকে সৌরেনীর দৃৃৃশ্য

শিক্ষা[সম্পাদনা]

  • গ্রীন লন স্কুল (ইংরেজি মাধ্যম)
  • পাইন হল আকাদেমি (ইংরেজি মাধ্যম)
  • টেম্পেল অব উইসডম (ইংরেজি মাধ্যম)
  • রবীন্দ্রনাথ হাই স্কুল (নেপালি মাধ্যম)

আবহাওয়া[সম্পাদনা]

সৌরেনীর আবহাওয়া শীতল ও বেশ মনোরম। গ্রীষ্মকালে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩২॰ সেন্টিগ্রেড; আবার শীতকালে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ৬॰ সেন্টিগ্রেডের কাছাকাছি থাকে।

নিকটবর্তী স্থান[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Fact and Figures"www.wb.gov.in। সংগ্রহের তারিখ ১২ মার্চ ২০১৯ 
  2. "52nd REPORT OF THE COMMISSIONER FOR LINGUISTIC MINORITIES IN INDIA" (PDF)nclm.nic.inMinistry of Minority Affairs। পৃষ্ঠা 85। ২৫ মে ২০১৭ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১২ মার্চ ২০১৯ 
  3. Darjeeling History ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ১২ নভেম্বর ২০১৯ তারিখে, Dakman Rai.
  4. "Lingwood photos"। ২৪ মে ২০১১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১২ নভেম্বর ২০১৯ 
  5. "2011 Census – Primary Census Abstract Data Tables"West Bengal – District-wise। Registrar General and Census Commissioner, India। সংগ্রহের তারিখ ২০ জুন ২০১৭ 
  6. Shree Antu ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ৩ মার্চ ২০১৬ তারিখে, Antu Dara (Danda).
  7. india9.com, Orange growing village.
  8. Jaya Tea আর্কাইভইজে আর্কাইভকৃত ৭ সেপ্টেম্বর ২০১২ তারিখে, Soureni tea.
  9. Bagaria Group ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ২৬ মে ২০০৭ তারিখে, Phuguri tea.
  10. Bagaria Group ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ২৭ মে ২০০৭ তারিখে, Ghayabaree & Millikthong tea.