সৈয়দ আলী শাহ গিলানি

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সৈয়দ আলী শাহ গিলানি
Syed.jpg
২০০৯ সালে গিলানি
জম্মু ও কাশ্মীর বিধানসভার সদস্য
কাজের মেয়াদ
১৯৮৭ – ১৯৯০
কাজের মেয়াদ
১৯৭৭ – ১৯৮২
কাজের মেয়াদ
১৯৭২ – ১৯৭৭[১]
ব্যক্তিগত বিবরণ
জন্ম(১৯২৯-০৯-২৯)২৯ সেপ্টেম্বর ১৯২৯
বন্দিপুরা জেলা, জম্মু ও কাশ্মীর, ব্রিটিশ ভারত
মৃত্যু১ সেপ্টেম্বর ২০২১(2021-09-01) (বয়স ৯১)
হায়দারপাড়া, শ্রীনগর
জাতীয়তাভারতীয়
রাজনৈতিক দলজামায়াতে ইসলামী কাশ্মীর (১৯৯৩ পর্যন্ত ), তেহরিক-ই-হুরিয়াত (২০২০ পর্যন্ত)
প্রাক্তন শিক্ষার্থীপাঞ্জাব বিশ্ববিদ্যালয়
ওরিয়েন্টাল কলেজ[২]
পুরস্কারনিশান-ই-পাকিস্তান (২০২০)[৩]

সৈয়দ আলী শাহ গিলানি (২৯ সেপ্টেম্বর ১৯২৯- ১ সেপ্টেম্বর ২০২১)[৪] ছিলেন জম্মু ও কাশ্মীরের স্বাধীনতাকামী নেতা।[৫][৬][৭] তিনি আগে জামায়াতে ইসলামী কাশ্মীরের সদস্য ছিলেন কিন্তু পরে তেহরিক-ই-হুরিয়াত প্রতিষ্ঠা করেন। তিনি জম্মু ও কাশ্মীরের বিচ্ছিন্নতাবাদী দলগুলোর একটি সংগঠন অল পার্টিস হুরিয়াত কনফারেন্সের চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। তিনি ১৯৭২, ১৯৭৭ ও ১৯৮৭ সালে জম্মু ও কাশ্মীরের সোপোর আসনের একজন বিধায়ক ছিলেন।[৮][৯] তিনি ২০২০ সালের জুন মাসে হুরিয়াত ত্যাগ করেন।[১০][১১][১২]

প্রাথমিক জীবন[সম্পাদনা]

সৈয়দ আলী গিলানি ১৯২৯ সালের ২৯ সেপ্টেম্বর উত্তর কাশ্মীরের সোপোর বারামুল্লা শহরে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি সপোরে শিক্ষিত হয়েছিলেন এবং লাহোরের (বর্তমান পাকিস্তানে) ওরিয়েন্টাল কলেজে পড়াশোনা শেষ করেছিলেন।[২]

রাজনৈতিক কর্মকাণ্ড[সম্পাদনা]

গিলানিকে কাশ্মীরের একজন স্বাধীনতাকামী বা বিচ্ছিন্নতাবাদী নেতা হিসেবে দেখা হতো।[১৩] জম্মু ও কাশ্মীরের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ওমর আবদুল্লাহ কাশ্মীরে জঙ্গিবাদ ও রক্তপাতের জন্য গিলানিকে দায়ী করেছিলেন। অন্যদিকে ওমরের বাবা এবং প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী ফারুক আবদুল্লাহ গিলানিকে এমন একটি পথ অনুসরণ করার আহ্বান জানিয়েছেন যা "কাশ্মীরি মানুষকে ধ্বংস থেকে রক্ষা করবে"।[১৪][১৫] ২০১৩ সালের অক্টোবরে তিনি চতুর্থবারের মতো হুরিয়াত কনফারেন্স (জি) -এর চেয়ারম্যান হিসেবে পুনর্নির্বাচিত হন, যা সর্বদলীয় হুরিয়াত কনফারেন্সের একটি অংশ, যা ২০০৩ সালে বিভক্ত হয়ে যায়। [১৬] তিনি তেহরিক-ই-হুরিয়াত পার্টি প্রতিষ্ঠা করেন, যার জন্য সেপ্টেম্বর ২০১৩ সালে তিন বছরের মেয়াদে আলাদাভাবে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। [১৭]

কাশ্মীরে নাম না জানা সন্দেহভাজন জঙ্গি, স্থানীয় জঙ্গি এবং বেসামরিক মানুষের মৃত্যুর জবাবে গিলানি অসংখ্যবার সাধারণ ধর্মঘট বা হরতালের ডাক দিয়েছেন।[১৮][১৯]

সৈয়দ আলী শাহ গিলানি ২৭ সেপ্টেম্বর ২০১৫ থেকে নিউইয়র্কে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া ইসলামিক সহযোগিতা সংস্থা (ওআইসি) এবং কাশ্মীর যোগাযোগ গোষ্ঠীর সদস্য দেশগুলোর পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের বার্ষিক বৈঠকে অংশগ্রহণের আমন্ত্রণ পেয়েছেন [২০]

বুরহান মুজাফফর ওয়ানির মৃত্যুর পর এবং কাশ্মীরের স্বাভাবিক অবস্থা ফিরিয়ে আনার জন্য টানা পাঁচ মাস ধরে চলমান ২০১৬-২০২১৭ কাশ্মীর অশান্তি ইস্যুতে, গিলানি জাতিসংঘে একটি চিঠি পাঠিয়েছিলেন যাতে ছয়টি কনফিডেন্স বিল্ডিং ব্যবস্থা (CBMS) তালিকাভুক্ত করা হয়। [২১][২২][২৩]

নির্বাচনী রাজনীতি[সম্পাদনা]

পিপলস ডেমোক্রেটিক পার্টি এবং তৎকালীন ক্ষমতাসীন ন্যাশনাল কনফারেন্সের দেওয়া স্ব-শাসন বা স্বায়ত্তশাসনের প্রস্তাব গ্রহণ না করে গিলানি কাশ্মীরের জনগণকে ২০১৪ সালের জম্মু ও কাশ্মীর বিধানসভা নির্বাচন পুরোপুরি বর্জন করার আহ্বান করেছিলেন। [২৪][২৫] কিন্তু বারবার বয়কটের আবেদন সত্ত্বেও, ২০১৪ সালের বিধানসভা নির্বাচনে ভোটারদের পরিসংখ্যানে ৬৫% এর বেশি ভোট হয়েছে যা ছিল ২৫ বছরের ইতিহাসে সর্বোচ্চ। [২৬][২৭][২৮] কাশ্মীরে রেকর্ড পরিমাণ ভোটদানের শতাংশের পর, গিলানি, অন্যান্য বিচ্ছিন্নতাবাদীদের সাথে কাশ্মীরের জনগণকে বিভ্রান্ত করা ও কাশ্মীরি মানুষের সত্যিকারের অনুভূতির প্রতিনিধিত্ব না করার জন্য ভারতীয় গণমাধ্যম তার সমালোচনা করেছিল। [২৯][৩০][৩১]

ব্যক্তিগত জীবন[সম্পাদনা]

গিলানি শ্রীনগরের হায়দারপোরাতে থাকতেন। গিলানির ২ টি ছেলে; নাঈম ও নাসিম এবং চার মেয়ে; আনিশা, ফারহাত জাবীন, জামশিদা, এবং চামশিদা। [৩২] আনিশা এবং ফারহাত গিলানির দ্বিতীয়পক্ষের কন্যা। নাঈম এবং তার স্ত্রী দুজনই ডাক্তার, যারা পাকিস্তানের রাওয়ালপিন্ডিতে বসবাস করতেন এবং চিকিৎসা করতেন, কিন্তু তারা ২০১০ সালে ভারতে ফিরে আসেন। [৩৩] গিলানির ছোট ছেলে নাসিম শ্রীনগরের একটি কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে কাজ করে। [৩৪] গিলানির নাতি ইজহার ভারতের একটি বেসরকারি বিমান সংস্থার ক্রু সদস্য। গিলানির মেয়ে ফারহাত সৌদি আরবের জেদ্দায় একজন মাদানী শিক্ষক এবং তার স্বামী সেখানে একজন প্রকৌশলী। [৩৫][৩৬] গিলানীর অন্যান্য নাতি -নাতনী ভারতের শীর্ষস্থানীয় স্কুলে পড়াশোনা করতো। তার চাচাতো ভাই গোলাম নবী ফাই বর্তমানে লন্ডনে আছেন। [৩৭] কাশ্মীরের বিচ্ছিন্নতাবাদী আলতাফ আহমদ শাহ (এসএএস গিলানির জামাতা) কন্যা রুওয়া শাহ একজন সাংবাদিক। [৩৮][৩৯][৪০][৪১] আইএএনএস, কুইন্ট এবং দ্য ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস সহসংস্থায় ভারতে সাংবাদিক হিসেবে কাজ করেছিলেন [৪২][৪৩]

স্বাস্থ্য সমস্যা, পাসপোর্ট জব্দ ও গৃহবন্দী[সম্পাদনা]

গিলানির পাসপোর্ট ১৯৮১ সালে "ভারতবিরোধী" কার্যকলাপের অভিযোগে জব্দ করা হয়েছিল। ২০০৬ সালে তার হজযাত্রা বাদ দিয়ে তাকে ভারত ছাড়ার অনুমতি দেওয়া হয়নি। [হালনাগাদ প্রয়োজন] [৪৪] তার কিডনি ক্যান্সার ধরা পড়ে এবং একই বছর বিদেশ থেকে চিকিৎসার পরামর্শ দেওয়া হয়। তৎকালীন ভারতের প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংয়ের হস্তক্ষেপে সরকার গিলানির পাসপোর্ট তার ছেলের কাছে ফেরত দেয়। [৪৫] ২০০৭ সালে, তার অবস্থার আরও অবনতি হয়,[৪৬] যদিও ক্যান্সারের প্রাথমিক পর্যায়ে, এটি জীবন-হুমকি ছিল এবং অস্ত্রোপচারের পরামর্শ দেওয়া হয়েছিল। গিলানি যুক্তরাজ্য বা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ভ্রমণের জন্য প্রস্তুত ছিলেন। [৪৭] তবে চিকিৎসার জন্যে তার ভিসা অনুরোধটি আমেরিকান সরকার কাশ্মীর সংঘাতে তার সহিংস পন্থা উল্লেখ করে প্রত্যাখ্যান করে এবং তিনি অস্ত্রোপচারের জন্য মুম্বাই যান। তার সমর্থক এবং পরিবারের অভিযোগ, এটি একটি ‘মানবাধিকার লঙ্ঘন’। [৪৮]

মামলা[সম্পাদনা]

২০১৯ পুলওয়ামা আক্ৰমণের পর, গিলানিসহ পাকিস্তানপন্থী বিচ্ছিন্নতাবাদীদের বিরুদ্ধে আরও কঠোর পদক্ষেপ নিয়েছিল ভারত । এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট ₹ ১৪.৪০ লক্ষ ভারতীয় রুপি জরিমানা আরোপ করেছে এবং তার বিরুদ্ধে বৈদেশিক মুদ্রা অবৈধভাবে রাখার জন্য একটি বৈদেশিক মুদ্রা ব্যবস্থাপনা আইনের মামলায় প্রায় ₹৬.৮ লক্ষ ভারতীয় রুপি বাজেয়াপ্ত করার আদেশ দেয়া হয়। [৪৯]

মৃত্যুর গুজব[সম্পাদনা]

২০১৪ সালের ১২ মার্চ, গিলানির মৃত্যুর গুজব, কিছু সূত্রের মতে তার উইকিপিডিয়া নিবন্ধে মৃত্যু তারিখ এন্ট্রি, "একটি বিশেষ হিন্দি নিউজ চ্যানেল", এবং ফেসবুকে পেজগুলি সম্পাদনা করে কাশ্মীর সরকারকে ইন্টারনেট এবং ফোন পরিষেবা স্থগিত করেছিল, । [৫০][৫১][৫২] যাইহোক, তৎকালীন মুখ্যমন্ত্রী ওমর আবদুল্লাহ বলেছিলেন যে গিলানির স্বাস্থ্যের সাথে এই ব্যর্থতার কোন সম্পর্ক নেই এবং ভারী তুষারপাতের কারণে অপটিকাল ফাইবার কাটা এবং বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন হওয়ার কারণে এটি ঘটেছিল, যা উপত্যকার বেশিরভাগ অংশকে বিদ্যুৎ ছাড়াই রেখেছিল। গুরানীকে চিকিৎসার জন্য নয়াদিল্লিতে পাঠানো হবে বলে হুরিয়াতের একটি বিবৃতির কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই ইন্টারনেট পরিষেবা বন্ধ করে দেওয়া হয়। [৫৩][৫৪][৫৫]

মৃত্যু[সম্পাদনা]

গিলানি শ্বাস -প্রশ্বাসের জটিলতা তৈরি করেছেন এবং দীর্ঘদিন অসুস্থতার কারণে শ্রীনগরের হায়দার পাড়ার বাসভবনে ১ সেপ্টেম্বর ২০২১ তারিখে মারা যান। [১২][৫৬][৫৭]

দৃষ্টিভঙ্গি[সম্পাদনা]

২০১৪ সালের ফেব্রুয়ারিতে তিনি বলেছিলেন যে কাশ্মীরের বন্দীরা "হেফাজত সহিংসতার শিকার এবং ভারতীয় কারাগারে বিশেষ করে তিহার কারাগারে হয়রানির শিকার হয়" এমন একটি ঘটনার পর, যেখানে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডপ্রাপ্ত জাভেদ আহমদ খানের বাবা -মা হাজার হাজার কিলোমিটার ভ্রমণ করেছিলেন এবং বিনিয়োগ করেছিলেন তাদের কারাগারে থাকা ছেলের সাথে দেখা করতে দিল্লি পৌঁছানোর জন্য প্রচুর অর্থ কিন্তু তার সাথে দেখা করতে অস্বীকার করা হয়েছিল। তিনি বলেছিলে এটি রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাস। [৫৮]

তাকে জামায়াতে ইসলামীর প্রতি সহানুভূতিশীল হিসেবে দেখা হয়। [৫৯] মিলি ট্রাস্টকে দান করার আগে তাঁর সরকারি বাসভবনকে জামাত সম্পত্তি হিসেবে দেখা হত। [৬০]

গিলানি ইসলামপন্থী নেতা এবং জামায়াতে ইসলামীর প্রতিষ্ঠাতা আবুল আ'লা মওদুদীকে তার পরামর্শদাতা বলেছেন।

২০১১ সালের নভেম্বরে, গিলানি সামাজিক যোগাযোগের ওয়েবসাইট ফেসবুকে কথিত "আপত্তিকর ইসলাম বিরোধী" বিষয়বস্তুর বিরুদ্ধে বিক্ষোভের ডাক দিয়েছিলেন, যাকে তিনি "শয়তানের সাহস" বলে বর্ণনা করেছিলেন। তাঁর আহ্বানে কাশ্মীর উপত্যকার বিভিন্ন স্থানে বিক্ষোভের সূত্রপাত হয়, যার ফলে বিক্ষোভকারীদের এবং নিরাপত্তা বাহিনীর মধ্যে ছোটখাটো সংঘর্ষ হয়। [৬১]

গিলানি যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে ওসামা বিন লাদেনকে হত্যার নিন্দা জানান। [৬২] ২০১১ সালের মে মাসে লাদেনের মৃত্যুর পর, গিলানি বলেছিলেন যে তিনি নিহত আল-কায়েদা নেতার জন্য শ্রীনগরে অনুপস্থিতিতে গায়েবি জানাযা আদায় করবেন। [৬৩][৬৪] হাজার হাজার কাশ্মীরী মুসল্লি ও জানাযায় ওসামার জন্য প্রার্থনা করার পর, ইউরোপীয় ইউনিয়নের একটি প্রতিনিধি দল গিলানীর সাথে তার নির্ধারিত বৈঠক বাতিল করে দিয়েছিল। [৬৫][৬৬][৬৭] তিনি ২০০১ সালে ভারতীয় সংসদে জঙ্গি হামলায় অভিযুক্ত আফজাল গুরু [৬৮] এবং ২০০৮ সালে মুম্বই জঙ্গি হামলার অন্যতম মাস্টারমাইন্ড এবং লস্কর-ই-তৈয়বা প্রধান হাফিজ সায়েদকে সমর্থন করেছিলেন। [৬৯]

কাশ্মীর[সম্পাদনা]

গিলানি বলেছিলেন যে পাকিস্তান যখন "নৈতিক, কূটনৈতিক ও রাজনৈতিকভাবে জম্মু ও কাশ্মীরের জনগণের আদিবাসী সংগ্রামকে সমর্থন করেছিল, তার মানে এই নয় যে পাকিস্তান আমাদের পক্ষ থেকে সিদ্ধান্ত নিতে পারে।" [২]

গিলানি শুধুমাত্র রাজ্যের মানুষের ইচ্ছা ও আকাঙ্ক্ষা অনুযায়ী কাশ্মীর সমস্যা সমাধানের লক্ষ্যে একটি সংলাপ প্রক্রিয়াকে সমর্থন করতেন। কিন্তু তিনি বিশ্বাস করতেন যে ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে কথোপকথন শুরু হয় কূটনৈতিক বাধ্যবাধকতায়, এবং এটি কেবল একটি সময় বিলম্বিত কৌশল ছাড়া আর কিছুই নয়। তাঁর অভিমত ছিল যে কাশ্মীরিরা ভারতের শত্রু নয় বা এর অধিবাসীদের বিরুদ্ধে কোনো ক্ষোভ নেই। আমরা একটি শক্তিশালী ভারত ও পাকিস্তানের কামনা করি এবং এটি তখনই সম্ভব যখন কাশ্মীর ইস্যু সমাধান করা হবে যাতে এই অঞ্চলে শান্তি, সমৃদ্ধি এবং উন্নয়নের পথ সুগম হয়।[৭০]

তিনি বলেন, "কাশ্মীর ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে কোন সীমান্ত বিরোধ নয় যা তারা দ্বিপাক্ষিক বোঝাপড়ার মাধ্যমে সমাধান করতে পারে। এটি দেড় কোটি মানুষের ভবিষ্যতের বিষয়। হুরিয়ত নীতিগতভাবে কোনো সংলাপ প্রক্রিয়ার বিরুদ্ধে নয় কিন্তু কাশ্মীরি জনগণের সম্পৃক্ততা ছাড়া এই ধরনের প্রক্রিয়া অতীতে অর্থহীন প্রমাণিত হয়েছে। ভবিষ্যতেও এটি ফলপ্রসূ হওয়ার কোনো প্রত্যাশা আমাদের নেই। " [৭১] তিনি আরও বলেছিলেন, "ভারতের উচিত অবিলম্বে এবং নিঃশর্তভাবে রাজনৈতিক বন্দীদের মুক্তি দেওয়া, এবং যুবকদের বিরুদ্ধে মামলাগুলি প্রত্যাহার করা, যা গত ২০ বছর ধরে আদালতে বিচারাধীন রয়েছে।" [৭২]

বিচ্ছিন্নতাবাদ ও পাকিস্তানের সাথে সম্পর্ক[সম্পাদনা]

গিলানি এই অঞ্চলে সহিংসতা উস্কে দেওয়ার জন্য এবং পাকিস্তানের শাখা হিসেবে কাজ করার জন্য ভারতীয় কর্তৃপক্ষের দ্বারা বারবার সমালোচিত হয়েছেন। [২][৭৩] গিলানি খোলাখুলি বলেছিলেন যে তিনি ভারতীয় নন। "ভারতীয় পাসপোর্টে ভ্রমণ করা প্রত্যেক কাশ্মীরির বাধ্যবাধকতা কারণ ভারতীয় পাসপোর্টের জন্য আবেদন করার সময় কাশ্মীর একটি আন্তর্জাতিকভাবে গৃহীত বিতর্কিত অঞ্চল"। [৭৪][৭৫][৭৬] "আমরা পাকিস্তানি ; পাকিস্তান আমাদের," [৭৭] তিনি তার সমর্থকদের একটি বড় সমাবেশে বলেন।

জম্মু ও কাশ্মীর ন্যাশনাল কনফারেন্সের একজন সিনিয়র নেতা এবং শেখ আবদুল্লাহর ছেলে শেখ মোস্তফা কামাল পাকিস্তানের দেওয়া "ডিক্টেশন" নিয়ে কাজ করার জন্য গিলানির সমালোচনা করেছিলেন। তিনি গিলানিকে "পাকিস্তানের আইএসআই -এর বেতন -ভাতার" বিষয়ে "দ্বৈত এজেন্ট" বলে অভিযুক্ত করেছিলেন। [৭৮][৭৯][৮০]

পাকিস্তানও গিলানিকে প্রকাশ্যে সমর্থন করেছিল, আব্দুল বাসিতের নেতৃত্বে পাকিস্তান হাইকমিশনের তিন সদস্যের প্রতিনিধি দল মার্চ 2015 সালে গিলানির সাথে তার মালভিয়া নগরের বাসভবনে দেখা করেছিল। পাকিস্তানের হাইকমিশনার আবদুল বাসিত গিলানিকে পূর্ণাঙ্গ সমর্থনের আশ্বাস দিয়ে বলেছেন যে নয়াদিল্লিতে শাসন পরিবর্তন হলেও কাশ্মীর নিয়ে দেশের অবস্থান অপরিবর্তিত রয়েছে। [৭৩][৮১][৮২][৮৩] বসিত ২৩ মার্চ পাকিস্তান দিবসের অনুষ্ঠানে গিলানিকেও আমন্ত্রণ জানান। নয়াদিল্লিতে পাকিস্তান হাইকমিশন জম্মু ও কাশ্মীরের বিচ্ছিন্নতাবাদী নেতৃত্বকে আনুষ্ঠানিকভাবে আমন্ত্রণ জানায়। ১৪ আগস্ট, পাকিস্তান সরকার তাকে তার সর্বোচ্চ বেসামরিক পুরস্কার, নিশান-ই-পাকিস্তান প্রদান করে

বই[সম্পাদনা]

  • রাদ্দ-ই-কাফাস, ১৯৯৩। তার কারাবাসের লেখকের স্মৃতিকথা।
  • নাভি-ই কুড়িয়াত, ১৯৯৪। কাশ্মীর ইস্যুতে চিঠি, কলাম এবং সাক্ষাৎকার সংগ্রহ।
  • দ্য ও শুনাদ, ২০০৫। কাশ্মীর ইস্যু সম্পর্কিত বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তরের ভিত্তিতে সংকলন।
  • ভরত কে ইসতিমারি শর্বে! : কুরালাহ গুন সে যোধপুর তাক!, ২০০। কাশ্মীরের মুক্তির জন্য তার সংগ্রামের বিশেষ রেফারেন্স সহ আত্মজীবনীমূলক স্মৃতি।
  • সাদে দরদ : মজমুভাহ তাকিরার, ২০০। কাশ্মীর ইস্যুতে বক্তৃতা সংগ্রহ।
  • মিল্লাত-ই মজলুম, ২০০॥ কাশ্মীরের স্বায়ত্তশাসন এবং স্বাধীনতা আন্দোলনের বিশেষ রেফারেন্স সহ জম্মু ও কাশ্মীরের বিভিন্ন বিষয়ে নিবন্ধ এবং কলাম সংগ্রহ।
  • Safar-i Maḥmūd z̲ikr-i maẓlūm, 2007। কাশ্মীর ইস্যু সম্পর্কিত বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তরের ভিত্তিতে সংকলন।
  • মক্তল সে vāpsī : রেনসি জেল কে শব ও রোজ, ২০০।। আত্মজীবনীমূলক স্মৃতি।
  • ইকবাল রা-ই দীন কি শানাসি, ২০০॥ মুহাম্মদ ইকবালের রচনাবলীর উপর অধ্যয়ন।
  • - দিন, ২০১১ ঈদুল ফিতর, ঈদুল আযহা এবং জুমার নামাজ উপলক্ষে দেওয়া খুতবা সংগ্রহ।
  • ভালার কিনারে : īp bītī, 2012। আত্মজীবনী

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Disillusionment or Pakistan push? Story behind Syed Ali Shah Geelani's Hurriyat exit"ThePrint। ১ জুলাই ২০২০। সংগ্রহের তারিখ ৩ অক্টোবর ২০২০ 
  2. Asad Hashim। "Profile: Syed Ali Shah Geelani"। Al Jazeera English। সংগ্রহের তারিখ ২৯ মে ২০১৫ 
  3. "President Alvi confers Nishan-e-Pakistan on Kashmiri leader Syed Ali Shah Geelani"www.thenews.com.pk 
  4. Desk, News (১ সেপ্টেম্বর ২০২১)। "Syed Ali Shah Geelani passes away | Free Press Kashmir"freepresskashmir.news। সংগ্রহের তারিখ ১ সেপ্টেম্বর ২০২১ 
  5. Syed Ali Shah Geelani: Kashmir separatist leader dies at 92। "Syed Ali Shah Geelani: Kashmir separatist leader dies at 92"Al jazeera 
  6. "Syed Ali Shah Geelani emerging as most powerful separatist in Kashmir - Times of India". indiatimes.com.
  7. October 30, Kaveree Bamzai Srinagar; November 8, 2010 ISSUE DATE। "Syed Ali Shah Geelani: The Man who Hates India"India Today 
  8. "Sopore Election 2014, Results, Candidate List and winner of Sopore Assembly (Vidhan Sabha) Constituency, Jammu And Kashmir". elections.in.
  9. "Masarat Alam: Successor to Geelani with 'anti-India sentiment'"। Hindustantimes.com। ১০ মার্চ ২০১৫। ৯ মার্চ ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৯ মে ২০১৫ 
  10. "Disillusionment or Pakistan push? Story behind Syed Ali Shah Geelani's Hurriyat exit"। ThePrint। ১ জুলাই ২০২০। সংগ্রহের তারিখ ৪ জুলাই ২০২০ 
  11. "Syed Ali Geelani springs surprise, says, 'I quit from Hurriyat Forum'"5 Dariya News। সংগ্রহের তারিখ ৫ জুলাই ২০২১ 
  12. S, Ashraf Wani Kamaljit Kaur; SrinagarSeptember 1, hu। "Kashmiri separatist leader Syed Ali Shah Geelani dies in Srinagar"India Today (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১ সেপ্টেম্বর ২০২১ 
  13. Indian police arrest Syed Ali Geelani in Kashmir, Dawn, 8 September 2010.
  14. "Farooq, Omar lash out at Geelani"The Hindu। Chennai, India। ২৯ এপ্রিল ২০০৭। ১৯ ডিসেম্বর ২০০৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  15. "Farooq asks Geelani to adopt a path which can save people"The Hindu। Chennai, India। ৮ সেপ্টেম্বর ২০০৭। ১২ সেপ্টেম্বর ২০০৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  16. "All Parties Hurriyat Conference"। South Asia Terrorism Portal। ২০১৪। 
  17. "Geelani re-elected Hurriyat (G) chairman"। Rising Kashmir। ৬ অক্টোবর ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  18. "Partial shutdown in Kashmir against Lolab killings"। ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৪। ১৪ জানুয়ারি ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২ সেপ্টেম্বর ২০২১ 
  19. "Hurriyat calls for shutdown on Sunday against Naidkhai killing"। Authint Mail। ১৫ মার্চ ২০১৪। 
  20. "Syed Ali Shah Geelani decides to participate in OIC meet in New York". intoday.in.
  21. "Repeal AFSPA, release prisoners for peace and resolution, says Geelani". intoday.in.
  22. "Kashmir unrest: Syed Ali Shah Geelani lists measures for return of peace - Firstpost". firstpost.com. 17 July 2016.
  23. "Separatist leader Geelani asks UN, world to intervene over Kashmir violence". hindustantimes.com. 17 July 2016.
  24. Ishfaq Tantry (১ এপ্রিল ২০১৪)। "Kashmir: To Vote Or Not To Vote Is The Question"। Free Press Kashmir। ৬ এপ্রিল ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  25. "Syed Ali Shah Geelani's J&K election boycott call resonates in his hometown Sopore" ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ৪ ডিসেম্বর ২০১৪ তারিখে. in.com. 3 December 2014.
  26. "Jammu and Kashmir registers highest voter turnout in 25 years, Jharkhand breaks records". deccanchronicle.com.
  27. "J&K polls: 76 percent voter turnout recorded in the final phase". in.com. 20 December 2014.
  28. "Jammu and Kashmir Registers Highest Voter Turnout in 25 Years, Jharkhand Breaks Records". ndtv.com.
  29. "High Voter Turnout in Jammu & Kashmir Assembly Elections: A Debilitating Blow to Separatists and Resilient Boost for Indian Democracy" ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ২ এপ্রিল ২০১৫ তারিখে. eptoday.com. 5 December 2014.
  30. "J&K polls: Valley opts for ballot over bullet with 71 percent voting in first phase". indianexpress.com. 25 November 2014.
  31. "Ballot over bullet: Brisk voting in J&K and Jharkhand showcases faith in democracy". indiatimes.com. 26 November 2014.
  32. "NIA: 14 properties of Geelani, kin worth Rs 150 crore under NIA lens | India News — Times of India"The Times of India 
  33. "Geelani's son back from Pak after 12 yrs — Indian Express"archive.indianexpress.com 
  34. "NIA grills Geelani's sons, JKLF chief's aide in terror funding case"Hindustan Times। ২৮ আগস্ট ২০১৭। 
  35. "As Valley kids suffer, separatists' wards thrive in safe havens"The Tribune। ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১০। সংগ্রহের তারিখ ১৯ এপ্রিল ২০১৫ 
  36. "Children of Hurriyat: A life of luxury, here's the list"theweek.in। ২৬ মে ২০২০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২ সেপ্টেম্বর ২০২১ 
  37. "Separatists keep own kids away from harm's way"The New Indian Express 
  38. "Geelanis granddaughter to hold anti-India show on Jan 7"https://www.outlookindia.com/  |ওয়েবসাইট= এ বহিঃসংযোগ দেয়া (সাহায্য)
  39. Shah, Ruwa। "Kashmiri separatist leader Altaf Ahmad Shah's daughter says he is denied proper healthcare in Tihar"The Caravan 
  40. Shah, Ruwa। "I fear for my father imprisoned in pandemic-stricken India"www.aljazeera.com 
  41. "Ruwa Shah"। ২ মার্চ ২০১৪। 
  42. Shah, Ruwa (৬ অক্টোবর ২০১৬)। "Is Kashmir Safe for Women? You're Wrong, Madam Mufti"TheQuint 
  43. "Ruwa Shah"www.aljazeera.com 
  44. "Ailing Kashmiri separatist"Gulf Times। ১৪ জুন ২০০৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  45. "সংরক্ষণাগারভুক্ত অনুলিপি"। ১৬ মার্চ ২০০৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২ সেপ্টেম্বর ২০২১ 
  46. "Geelani refuses to use govt's chopper"। Kashmir Dispatch। ১২ জানুয়ারি ২০১৩। 
  47. "Cancer-hit Geelani awaits"। India News। ২৮ সেপ্টেম্বর ২০০৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  48. "US visa denial is rights violation"। India eNews। ২৭ সেপ্টেম্বর ২০০৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২ সেপ্টেম্বর ২০২১ 
  49. "ED slaps ₹14.40 lakh penalty, confiscates ₹6.8 lakh in FEMA case against Geelani — The Hindu"The Hindu। ২২ মার্চ ২০১৯। ২২ মার্চ ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  50. Peerzada Ashiq (১২ মার্চ ২০১৪)। "Wikipedia declares Geelani dead, sends Kashmir admn into tizzy"Hindustan Times। ১৩ মার্চ ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  51. "Geelani Sahab stable, Don't give heed to rumours"। KashmirWatch। ১২ মার্চ ২০১৪। ১২ মার্চ ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  52. "Wikipedia entry sparks rumors of Geelani's death; Govt responds by curtailing mobile internet"। Authint Mail। ১২ মার্চ ২০১৪। ১২ মার্চ ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২ সেপ্টেম্বর ২০২১ 
  53. Naseer Ganai (১৩ জানুয়ারি ২০১৪)। http://indiatoday.intoday.in/story/geelanis-health-sparks-conspiracy-rumours-across-kashmir/1/349288.html  |শিরোনাম= অনুপস্থিত বা খালি (সাহায্য)
  54. Bashirat Masood (১৩ মার্চ ২০১৪)। "Internet outage spurs rumour of Geelani's death"The Indian Express 
  55. "'Few Inches' Of Snow Exposed Government, Says PDP, CPI(M)"। Kashmir Life। ১২ মার্চ ২০১৪। ১৫ মার্চ ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  56. "Kashmir's Hurriyat Leader Syed Ali Shah Geelani Passes Away"The Chenab Times। ১ সেপ্টেম্বর ২০২১। সংগ্রহের তারিখ ১ সেপ্টেম্বর ২০২১ 
  57. Ashiq, Peerzada (২ সেপ্টেম্বর ২০২১)। "Separatist leader Syed Ali Shah Geelani dies after prolonged illness"The Hindu (ইংরেজি ভাষায়)। আইএসএসএন 0971-751X। সংগ্রহের তারিখ ১ সেপ্টেম্বর ২০২১ 
  58. "Geelani, Malik condemn misbehaviour of Tihar jail officials"Kashmir Times। ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৪। 
  59. Mehmood Ur Rashid (১৫ মার্চ ২০১৪)। "GEELANI: Before and Beyond" 
  60. "Hurriyat (G) says Jama'at claims unethical"। Kashmir Observer। ১৫ মার্চ ২০১৪। ১৫ মার্চ ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  61. M Saleem Pandit (১৮ নভেম্বর ২০১১)। "Protests in Kashmir against 'blasphemy' on Facebook"The Times of India। ১৭ জুলাই ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২১ নভেম্বর ২০১১ 
  62. "Archived copy"। ৮ মে ২০১১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩ মে ২০১১ 
  63. "Osama dead: Tehreek-e-Hurriyat chairman Syed Geelani to lead last rite prayers for Osama bin Laden — timesofindia-economictimes"। Articles.economictimes.indiatimes.com। ৬ মে ২০১১। সংগ্রহের তারিখ ২৯ মে ২০১৫ 
  64. "Hurriyat Conference's Syed Ali Shah Geelani calls for funeral prayers for Osama bin Laden — The Times of India"। Timesofindia.indiatimes.com। ৫ মে ২০১১। সংগ্রহের তারিখ ২৯ মে ২০১৫ 
  65. Muzaffar Raina (১৭ মে ২০১১)। "The Telegraph — Calcutta (Kolkata) | Nation | EU Osama snub to Geelani"। Telegraphindia.com। সংগ্রহের তারিখ ২৯ মে ২০১৫ 
  66. "EU delegation snubs Geelani; cancels scheduled meeting"। Hindustantimes.com। ১৫ মে ২০১১। ২ এপ্রিল ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৯ মে ২০১৫ 
  67. "'Prayers for Osama': EU delegation snubs Geelani, cancels meeting — Indian Express"। Archive.indianexpress.com। ১৫ মে ২০১১। সংগ্রহের তারিখ ২৯ মে ২০১৫ 
  68. http://www.greaterkashmir.com/news/2015/Feb/6/geelani-malik-shah-call-for-shutdown-on-feb-9-11-61.asp
  69. "Geelani expresses displeasure over ban on Hafiz Saeed's group — Latest Kashmir News & Analysis"। Kashmir Dispatch। ২৪ জানুয়ারি ২০১৫। সংগ্রহের তারিখ ২৯ মে ২০১৫ 
  70. "Will support talks if it resolves Kashmir issue: Geelani — Rediff.com India News"Rediff.com। ২০ মার্চ ২০১৫। সংগ্রহের তারিখ ২৯ মে ২০১৫ 
  71. "APHC to support dialogue if sacrifices of Kashmiris honored: Geelani"। SABAH News। ২০ জুন ২০১৪। ৩০ নভেম্বর ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৯ মে ২০১৫ 
  72. "India should accept five conditions on Kashmir: Geelani | Business Standard News"Business Standard India। Business-standard.com। ২৩ মার্চ ২০১৫। সংগ্রহের তারিখ ২৯ মে ২০১৫ 
  73. "Protests outside Pakistani high commission as separatist leaders Yasin Malik and Syed Ali Shah Geelani meet envoy Abdul Basit - Times of India". indiatimes.com.
  74. "'Not Indian by birth, passport a compulsion': Govt slams Geelani's 'separatist jargon' - Firstpost". firstpost.com. 5 June 2015.
  75. "'Not an Indian by birth', Geelani says getting Indian passport 'compulsion'"Greater Kashmir। ৫ জুন ২০১৫। 
  76. "After 'I am not an Indian by birth' comment, Geelani calls for anti-India seminar in Srinagar - Firstpost". firstpost.com. 9 June 2015.
  77. "Account Suspended". paknationalists.com.
  78. "Geelani on ISI Payroll: NC Leader". outlookindia.com.
  79. "Geelani on payroll of ISI, says NC leader". bhaskar.com.
  80. "Geelani on payroll of ISI, says NC leader". in.com. 16 July 2012.
  81. Dawn.com, (9 March 2015).
  82. "Pakistan assures Syed Ali Geelani of complete support | Latest News & Updates at Daily News & Analysis". dnaindia.com. 10 March 2015.
  83. "Archived copy"। ২ এপ্রিল ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১ এপ্রিল ২০১৫