সুদীপ্তা দেওয়ান

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
Jump to navigation Jump to search
মাননীয় সংসদ সদস্য
সুদীপ্তা দেওয়ান
পূর্বসূরী শুরু (স্বাধীনতা লাভ)
১ম জাতীয় সংসদ-এ ৩১৫ (সংরক্ষিত নারী আসন-১৫) আসন-এর
সংসদ সদস্য
কাজের মেয়াদ
৭ মার্চ ১৯৭৩ – ১৮ ফেব্রুয়ারি ১৯৭৯
সংখ্যাগরিষ্ঠ বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ
ব্যক্তিগত বিবরণ
জন্ম সুদীপ্তা বিশ্বাস
(১৯৪৩-০১-২০)২০ জানুয়ারি ১৯৪৩
ভারত রাউজান, চট্টগ্রাম, বেঙ্গল প্রেসিডেন্সি, ব্রিটিশ ভারত
মৃত্যু ১৮ জুলাই ২০১৫(২০১৫-০৭-১৮) (৭২ বছর)
বাংলাদেশ ঢাকা, বাংলাদেশ
নাগরিকত্ব ভারত ব্রিটিশ ভারত (১৯৪৩-১৯৪৭)
পাকিস্তান পাকিস্তান (১৯৪৭-১৯৭১)
বাংলাদেশ বাংলাদেশ (১৯৭১-১৯৮৮)
জাতীয়তা বাংলাদেশী
রাজনৈতিক দল বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ
দাম্পত্য সঙ্গী এ. কে. দেওয়ান
সন্তান সঙ্গীতা দেওয়ান (মেয়ে)
অপরাজিতা দেওয়ান (মেয়ে)
নিবেদিতা দেওয়ান (মেয়ে)
অমিত দেওয়ান (ছেলে)
অদিত দেওয়ান (ছেলে)
পেশা রাজনীতি
জীবিকা সমাজসেবা
যে জন্য পরিচিত ৩১৫ (সংরক্ষিত নারী আসন-১৫) আসনের “১ম এমপি
ধর্ম বৌদ্ধ

সুদীপ্তা দেওয়ান (জন্ম: ২০ জানুয়ারি ১৯৪৩)[১] হলেন বাংলাদেশের একজন প্রখ্যাত রাজনীতিবিদ ও ১ম জাতীয় সংসদের ৩১৫ (সংরক্ষিত নারী আসন-১৫) আসন থেকে নির্বাচিত জাতীয় সংসদ সদস্য।[২] তিনি ছিলেন বাংলাদেশের প্রথম জাতীয় সংসদে চট্টগ্রাম-বৃহত্তর পার্বত্য চট্টগ্রাম-১৫ মহিলা আসনের সর্বপ্রথম সংসদ সদস্য।[৩][৪]

জন্ম ও পারিবারিক পরিচিতি[সম্পাদনা]

সুদীপ্তা দেওয়ান ১৯৪৩ সালের ২০ জানুয়ারি তৎকালীন ব্রিটিশ ভারতের বেঙ্গল প্রেসিডেন্সির চট্টগ্রামের রাউজানের সুলতানপুর গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন।[৫] তার পিতার নাম প্রসন্ন কুমার বিশ্বাস এবং মাতা সাবিত্রী বিশ্বাস।[৫] ডাক্তার এ. কে. দেওয়ানের সাথে তিনি বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন; যিনি ছিলেন রাঙ্গামাটি পৌরসভার প্রথম চেয়ারম্যান।[৬] তাদের পাঁচ সন্তান হলেন সঙ্গীতা দেওয়ান, অপরাজিতা দেওয়ান, নিবেদিতা দেওয়ান, অমিত দেওয়ান ও অদিত দেওয়ান।[৩]

শিক্ষাজীবন[সম্পাদনা]

তিনি ১৯৬৫ খ্রিস্টাব্দে এইচএসসি পাশ করেন।[১]

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

রাজনৈতিক জীবন[সম্পাদনা]

সুদীপ্তা দেওয়ান ১৯৭৩ সালের ৭ মার্চ অনুষ্ঠিত ১ম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের[৭][৮][৯] ধারাবাহিকতায় আওয়ামী লীগের মনোনয়নে নারীদের জন্য সংরক্ষিত ১৫টি আসনের অন্যতম তৎকালীন চট্টগ্রাম-বৃহত্তর পার্বত্য চট্টগ্রাম নিয়ে গঠিত ৩১৫ (সংরক্ষিত নারী আসন-১৫) আসন থেকে এমপি নির্বাচিত হন।[১][২][৬]

স্বাধীকার আন্দোলন ও মুক্তিযুদ্ধে অবদান[সম্পাদনা]

সমাজসেবামূলক কর্মকান্ড[সম্পাদনা]

তিনি রোটারী ক্লাব অব রাঙ্গামাটির প্রেসিডেন্ট ছিলেন।[১]

মুত্যু[সম্পাদনা]

সুদীপ্তা দেওয়ান ২০১৫ সালের ১৮ জুলাই ৭২ বছর বয়সে রাজধানী ঢাকার স্কয়ার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে মৃত্যুবরণ করেন।[৩][৬]

পুরস্কার, স্মারক ও সম্মাননা[সম্পাদনা]

২০০০ সালে “শ্রেষ্ঠ সমাজসেবী” হিসেবে বাংলাদেশ প্রেস ক্লাব ফেডারেশন এবং ২০০১ সালে রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ কর্তৃক তিনি সম্মাননা প্রাপ্ত হন।[১]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "রাঙ্গামাটি জেলা - বিখ্যাত ব্যক্তিত্ব : সুদীপ্তা দেওয়ান"www.rangamati.gov.bdমন্ত্রিপরিষদ বিভাগ, গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার। সংগ্রহের তারিখ ১৩ মার্চ ২০১৮ 
  2. "১ম জাতীয় সংসদ সদস্য তালিকা (বাংলা)"www.parliament.gov.bd। বাংলাদেশ জাতীয় সংসদ সচিবালয়, গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার। সংগ্রহের তারিখ ১৩ মার্চ ২০১৮ 
  3. "সুদীপ্তা দেওয়ান পরলোকে"দৈনিক ইত্তেফাক (অনলাইন ভার্সন)। ২২ জুলাই ২০১৫। সংগ্রহের তারিখ ১৩ মার্চ ২০১৮ 
  4. "সুদীপ্তা দেওয়ানের মৃত্যুতে স্পিকারের শোক"বাসস (অনলাইন ভার্সন)। ২১ জুলাই ২০১৫। সংগ্রহের তারিখ ১৩ মার্চ ২০১৮ 
  5. "স্মৃতিতে একজন সুদীপ্তা দেওয়ান"পাহাড় টুয়েন্টিফোর ডটকম অনলাইন। ২০ জুলাই ২০১৭। সংগ্রহের তারিখ ১৩ মার্চ ২০১৮ 
  6. "বঙ্গবন্ধুর সহকর্মী পার্বত্য চট্টগ্রামের নারী নেত্রী সুদীপ্তা আর নেই"দৈনিক ভোরের কাগজ (অনলাইন ভার্সন)। ২২ জুলাই ২০১৫। সংগ্রহের তারিখ ১৩ মার্চ ২০১৮ 
  7. "সংসদের সংক্ষিপ্ত ইতিহাস (১৯৩৭-২০০৯)" (PDF)www.parliament.gov.bd। বাংলাদেশ জাতীয় সংসদ সচিবালয়, গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার। সংগ্রহের তারিখ ১৩ মার্চ ২০১৮ 
  8. "বাংলাদেশের সংসদ নির্বাচনের ইতিহাস"ডয়েচ ভেল অনলাইন। ৩১ ডিসেম্বর ২০১৫। সংগ্রহের তারিখ ১৩ মার্চ ২০১৮ 
  9. "বাংলাদেশের জাতীয় সংসদ নির্বাচন ১৯৭৩-২০১৪"সিএসবি নিউজ অনলাইন। ১৪ আগস্ট ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ ১৩ মার্চ ২০১৮ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]