শারজাহ মসজিদ

স্থানাঙ্ক: ২৫°১৪′২৭″ উত্তর ৫৫°৩৪′১৩″ পূর্ব / ২৫.২৪০৮৩° উত্তর ৫৫.৫৭০২৮° পূর্ব / 25.24083; 55.57028
উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
শারজাহ মসজিদ
مَسْجِد ٱلشَّارقة
ধর্ম
অন্তর্ভুক্তিইসলাম
শাখা/ঐতিহ্যসুন্নি
মালিকানাশারজাহ সরকার
অবস্থান
অবস্থানসংযুক্ত আরব আমিরাত আমিরাত রাস্তা এবং মালেহা রাস্তার সংযোগ, শারজাহ, সংযুক্ত আরব আমিরাত
শারজাহ মসজিদ সংযুক্ত আরব আমিরাত-এ অবস্থিত
শারজাহ মসজিদ
সংযুক্ত আরব আমিরাতে অবস্থান
ভৌগোলিক স্থানাঙ্ক২৫°১৪′২৭″ উত্তর ৫৫°৩৪′১৩″ পূর্ব / ২৫.২৪০৮৩° উত্তর ৫৫.৫৭০২৮° পূর্ব / 25.24083; 55.57028
স্থাপত্য
ভূমি খনন২০১৪ (2014)
সম্পূর্ণ হয়২০১৯

শারজাহ মসজিদ (আরবি: مَسْجِد ٱلشَّارقة‎‎),[১][২] সংযুক্ত আরব আমিরাতের শারজাহের আমিরাতের বৃহত্তম মসজিদ।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

আরবি ফলকে মসজিদের নাম ও উদ্বোধনের তারিখ দেখাচ্ছে

২০১৪ সালে প্রায় ৩০০ মিলিয়ন দিরহাম নিয়ে নির্মাণ কাজ শুরু হয়। এটি ২০১৯ সালের ১০ই মে শারজাহের শাসক শায়খ সুলতান বিন মুহাম্মদ আল-কাসিমি উদ্বোধন করেন। [৩]

এই অনুষ্ঠানের স্মরণে সংযুক্ত আরব আমিরাতের কেন্দ্রীয় ব্যাংক কর্তৃক শারজাহ ইসলামিক ব্যাংকের নকশায়, কুরআনের আয়াত লিখিত এক স্বর্ণ ও একটি রৌপ্য প্রকাশ করে। [৪]

ভূগোল, মাত্রা এবং পরিসংখ্যান[সম্পাদনা]

এটি আমিরাত সড়ক এবং মালেহা সড়কের সংযোগস্থলে তায়ে অঞ্চলে অবস্থিত।[৫] মসজিদ, এর বাগান এবং সকল সুবিধা নিয়ে মোট ২,০০,০০০ বর্গফুট (১৯০,০০০ বর্গমিটার) এলাকা জুড়ে এটি নির্মিত। দেশের পূর্বের বৃহত্তম কিং ফয়সাল মসজিদ[৬] ১০,০০০ - ১২,০০০ বর্গমিটার (১১০,০০০-১৩০,০০০ বর্গফুট)[৭][৮] তুলনায় এটি বড় মসজিদ। শারজাহ মসজিদটি অমুসলিম দর্শনার্থীদের জন্য উন্মুক্ত। মসজিদটিতে একটি বিশাল গন্থাগার রয়েছে যেখানে অনেকগুলি ইসলামিক কর্মের আসল বই রয়েছে। মসজিদ প্রাঙ্গণে অনেকগুলো গাড়ি রাখার ব্যবস্থা রয়েছে, এতে ২,২০০ টিরও বেশি কার ও বাস রাখা যায়। মসজিদ প্রাঙ্গণের চারপাশে দর্শনার্থীদের ঘোরাঘুরি করার জন্য একটি রাবার রেললাইন মসজিদটির চতুর্দিকে রয়েছে। এটিতে একটি স্মরণিক দোকান, জাদুঘর এবং ঝর্ণা রয়েছে। এটিতে দুটি ওযুখানা এবং প্রবীণদের জন্য ১০০ টি হুইলচেয়ার রয়েছে।[৯][১০]

মসজিদের ভিতরে ৫,০০০ জনসহ মোট ২৫,০০০ জন নামাজ পড়তে পারে,[৫] যারমধ্যে ৬১০ জন মহিলা অংশগ্রহণ করতে পারে। সামনের হল এবং পাশের লবিগুলিগুলোতে ৬,০০০ জনেরও বেশি এবং বহিরঙ্গনে ১৩,৫০০ জন নামাজ পড়তে পাড়ে।[১১]

আরো দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. سلطان القاسمي يفتتح مسجد الشارقة (আরবি ভাষায়)। Sharjah: Al-Bayan। ২০১৯-০৫-১১। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৫-৩০ 
  2. سلطان القاسمي يفتتح مسجد الشارقة بتكلفة 300 مليون درهم (আরবি ভাষায়)। Sharjah: Al-Ittihad। ২০১৯-০৫-১১। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৫-৩০ 
  3. Reporter, Staff। "Sharjah Ruler opens emirate's largest mosque"Khaleej Times। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৮-১৩ 
  4. "Sharjah bank issues coins to mark mosque opening"WAMGulf News। ২০১৯-০৫-১০। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৫-১৩ 
  5. "New Sharjah mosque can accommodate 25,000 worshippers"Gulf News। ২০১৯-০৫-১১। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৫-১২ 
  6. "A look at the magnificent mosques of the UAE"Khaleej Times। ২০১৫-০৭-০১। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৮-১৫ 
  7. Kakande, Yasin (২০১১-০৮-১১)। "Sharjah's mosque where the faithful can listen and learn"Sharjah: The National। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৮-১৫ 
  8. Al Qassemi, Sultan Sooud (২০১৭-১১-১৬)। "Demystifying Sharjah's iconic King Faisal Mosque"Gulf News। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৮-১৫ 
  9. "Gallery: Sultan Al Qasimi opens largest mosque in Sharjah" (ইংরেজি ভাষায়)। Arabian Business। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৮-১৩ 
  10. "Sharjah Ruler's vision comes to life as largest mosque in emirate welcomes first worshippers" (ইংরেজি ভাষায়)। The National। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৮-১৩ 
  11. "Sharjah Ruler opens emirate's largest mosque"MSN। ২০১৯-০৮-১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৮-১৩ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]