আল ফারুক ওমর বিন আল খাত্তাব মসজিদ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
আল ফারুক ওমর বিন আল খাত্তাব মসজিদ
আল ফারুক ওমর বিন আল খাত্তাব মসজিদ সংযুক্ত আরব আমিরাত-এ অবস্থিত
আল ফারুক ওমর বিন আল খাত্তাব মসজিদ
আল ফারুক ওমর বিন আল খাত্তাব মসজিদ
সংযুক্ত আরব আমিরাতে অবস্থান
স্থানাঙ্ক: ২৫°১০′১৬″ উত্তর ৫৫°১৩′৫৯″ পূর্ব / ২৫.১৭১° উত্তর ৫৫.২৩৩° পূর্ব / 25.171; 55.233স্থানাঙ্ক: ২৫°১০′১৬″ উত্তর ৫৫°১৩′৫৯″ পূর্ব / ২৫.১৭১° উত্তর ৫৫.২৩৩° পূর্ব / 25.171; 55.233
অবস্থান দুবাই, সংযুক্ত আরব আমিরাত
স্থাপত্য তথ্য
ধারণক্ষমতা ২,০০০ এর বেশি
আয়তন ৯৩৪০০ বর্গ মিটার
গম্বুজ ২১টি গম্বুজ
মিনার
মিনারের উচ্চতা ৬০ মি (১৯৭ ফু)

ওয়েবসাইট: www.alfarooqcentre.com

আল ফারুক ওমর বিন আল খাত্তাব মসজিদ (আরবি: مسجد ومركز الفاروق عمر بن الخطاب‎‎) সংযুক্ত আরব আমিরাতের দুবাইয়ে অবস্থিত একটি মসজিদ। মসজিদটি ইসলামের দ্বিতীয় খলিফা উমর ইবনুল খাত্তাবের নামে নামকরণ করা হয়েছে। মূল আল ফারুক ওমর বিন আল খাত্তাব মসজদটি একই জায়গায় ১৯৮৬ সালে স্থাপন করা হয়।

২০০৩ এবং ২০১১ এ খালাফ আহমেদ আল হাবতুর এর নির্দেশে মসজিদটির দুইবার সংস্কার কাজ করা হয়। এটি জনসাধারণের জন্য ২৯ অক্টোবর ২০১১ খোলে দেয়া হয়।[১][২]

আল ফারুক ওমর বিন আল খাত্তাব মসজিদে ২০০০ জন মুসল্রি একসাথে সালাত আদায় করতে পারে এবং মসজিদটিকে সংযুক্ত আরব আমিরাতে বৃহত্তম মসজিদ হিসেবে বিবেচনা করা হয়। জুমেইরাহ শাহী মসজিদ এবং দুবাইয়ের প্রয়াত শেখ যায়েদ বিন সুলতান আল নাহিয়ান মসজিদের পর তৃতীয় মসজিদ হিসেবে এই মসজিদের দরজা অমুসলিমদেরও প্রবেশের অনুমতি রয়েছে। [৩]

আল ফারুক ওমর বিন আল খাত্তাব মসজিদ এবং কেন্দ্র ইসলামি বিশিষ্ট ব্যক্তিত্ব শেখ আহমদ আল নাহাস, হারাম আল মাকি মসজিদের মোয়াজ্জেনকে উষ্ণ অর্ভ্যথনা জানায়।[৪]

নকশা[সম্পাদনা]

মসজিদের দেয়ালে খোদিত নকশা ইস্তানবুলের সুলতান আহমেদ মসজিদের নকশায় অণুপ্রাণিত হয়ে অঙ্কন করা হয়েছে এবং এই নকশায় আন্দালুশীয় বৈশিষ্ট্য রয়েছে। আন্দালুশীয় শিল্প একটি ইসলামি শিল্পকর্ম। ৭১১ খ্রিষ্টাব্দে মুর মুসলিমরা প্রথমবারের মতে দক্ষিণ স্পেনে জয় করেন। এটির প্রভাব মসজিদের ভিতর এবং বাহির উভয় স্থানে সুস্পষ্ট। ঐ নকশাগুলো ৬০ জন মরক্কেীয় কারিগর কর্তৃক খোদিত হয়েছে।

মসজিদটির ভিতরের নকশায় বিভিন্ন প্রকারের বৈশিষ্ট্য রয়েছে। মসজিদের গালিচা বিশেষভাবে জার্মানীতে তৈরী করা হয়েছে; নতুন প্রযুক্তির শীতাতপ নিয়ন্ত্রণ যন্ত্রের ব্যবস্থা করা হয়েছে। মূল গম্বুজটির উচ্চতা প্রায় ৩০ মিটার। মসজিদটিতে ছোট বড় আরো ১৫টি গম্বুজসহ ৪টি অতিরিক্ত ছোট গম্বুজ রয়েছে যেগুলো মূল গম্বুজটিকে ঘিরে রেখেছে।

আল ফারুক মসজিদ[সম্পাদনা]

  • মসজিদটির মোট আায়তন ৯৩,০০০ বর্গ ফুট
  • মসজিদ কমপ্লেক্সের আয়তন ৮,৭০০ বর্গ মিটার। শুধুমাত্র মসজিদের আয়তনই হচ্ছে ৪,২০০ বর্গ মিটার [৫]
  • একসাখে দুই হাজার সালত আদায়কারীর স্থান।
  • মসজিদের পাঠাগারে প্রায় ৪,০০০টি ইসলামি বিষয়কসগ অন্য ধর্মের গ্রন্থও রয়েছে।
  • তরুণ সংঘ
  • লেকচার হল
  • শ্রেণী কক্ষ
  • প্রশাসনিক কক্ষ
  • ইমাম এবং মোয়াজ্জেনের শয়ন কক্ষ।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]