লব (রামায়ণ)

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন

লব (সংস্কৃত: लव)[১] এবং তাঁর যমজ ভাই কুশ ছিলেন রামসীতার সন্তান। তাদের গল্পটি হিন্দু মহাকাব্য, রামায়ণ এবং এটির অন্যান্য সংস্করণে বর্ণিত রয়েছে।  কথিত আছে যে,লবের গাত্রবর্ণ ছিল তার মায়ের মতন হরিদ্রাভ স্বর্ণালী ও কুশের গাত্রবর্ণ ছিল তার পিতার মতন সামান্য কৃষ্ণাভ বর্ণের।

লব
Lava, one of Rāma’s sons..jpg
লব,রামসীতার দুই যমজ পুত্রের মধ্যে একজন
দেবনাগরীलव
সহোদরকুশ (ভ্রাতা)
Textsরামায়ণ ও তার অন্যান্য সংস্করণ
অঞ্চলবাল্মীকি আশ্রম,ব্রহ্মভার্ত,কোশল,(বর্তমান বীথুর,উত্তরপ্রদেশ,ভারত)
মাতাপিতা

কথিত আছে যে,লব নিজের নামে তার রাজ্যের নাম রাখেন লবপুরী । বলা হয়ে থাকে যে,এই লবপুরীই হল বর্তমান পাকিস্তানের লাহোর[২][৩][৪]

জন্ম ও শৈশব[সম্পাদনা]

গুরু বাল্মীকি লব-কুশ কে অস্ত্রবিদ্যার শিক্ষা দিচ্ছেন
গুরু বাল্মীকি লব-কুশ কে রামায়ণ পাঠ করাচ্ছেন

রামায়ণের প্রথম অধ্যায বালকান্ডে বর্ণিত আছে যে মহর্ষি বাল্মীকি দুুই ভাই লব-কুশকে রামায়ণ বর্ণনা করছেন। তাদের জন্ম ও শৈশবের কথা বর্ণিত আছে শেষ অধ্যায় উত্তরকান্ডে কিন্তু মনে করা হয় যে উত্তরকান্ডের এই বর্ণনাগুলো বাল্মীকির নিজের মুুখনিঃসৃত নয়।[৫][৬] কিংবদন্তি অনুযায়ী, রাজ্যে সীতার সতীত্ব নিয়ে নানান নেতিবাচক কথা শোনা গেলে তিনি স্বেচ্ছায় রাজ্য থেকে নির্বাসিত হন।নির্বাসিত হবার পর তিনি তমসা নদীর তীরে মহর্ষি বাল্মীকির আশ্রমে শান্তিতে দিন অতিবাহিত করতে থাকেন। [৭] লবকুশ এই আশ্রমেই জন্মগ্রহণ করেন ও মহর্ষি বাল্মীকির অভিভাবকত্বে অস্ত্রবিদ্যায় পারদর্শী হয়ে ওঠেন। তারা এখানে ভগবান রামের সম্পর্কেও অবগত হন।

রামের রাজসভায় লব-কুশ রামায়ণ জপ করছেন

অশ্বমেধ যজ্ঞ[সম্পাদনা]

সীতা ও কুশীলবসহ মহর্ষি বাল্মীকি ছদ্মবেশে রামের আয়োজিত অশ্বমেধ যজ্ঞে অংশ নেন।

লব-কুশ, রামের উপস্থিতিতে বহু মানুষের সামনে রামায়ণ জপ করেছিলেন। দুই ভাই যখন মা সীতার নির্বাসনের কথা পিতা রামকে জানালেন,তখন তিনি শোকাহত হয়ে পড়েছিলেন এবং বাল্মীকি তখন সীতাকে সেখানে নিয়ে আসেন। তখন বিহ্বল ও অত্যন্ত শোকগ্রস্ত হয়ে সীতা তাঁর মা(ভূমি) কে তাকে গ্রহণের জন্য আহ্বান জানালেন এবং নীচের জমি ফাঁক হয়ে যাওয়ার সাথে সাথে তিনি সেখানে অদৃশ্য হয়ে গেলেন। রাম তখন জানতে পারল যে লবকুশ তাঁরই সন্তান

কিছু গ্রন্থে এমন নিদর্শনও পাওয়া গেছে যে, অশ্বমেধ যজ্ঞের ঘোড়াটিকে লব-কুশ ধরে ফেলেছিলেন এবং রামের ভাইদের ও তাদের সেনাবাহিনীকে পরাজিত করে ফেলেন। তখন অজ্ঞাতসারে স্বয়ং রাম তাদের সাথে যুদ্ধ করতে আসলে, সীতা হস্তক্ষেপ করেন ও পিতা-পুত্রদের একীভূত করেন।

পরবর্তী ইতিহাস[সম্পাদনা]

পিতা রামের পরে লব-কুশ রাজা হন এবং 'লবপুরী' ও কাসুর নগরী প্রতিষ্ঠা করেন। এই লবপুরীই হল বর্তমান পাকিস্তানের লাহোরকোশল রাজ্যের রাজা রাঘবরাম তাঁর পুত্র লবকে শ্রাবস্তীকুশকে কুশবতী নগরে নিয়ে আসেন।.[৮]

লাহোরের শাহী কিলার ভিতরে লবের একটি মন্দির রয়েছে। [৯]

আরো দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Lohana History"। ৪ অক্টোবর ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৪ নভেম্বর ২০১০ 
  2. Bombay Historical Society (১৯৪৬)। Annual bibliography of Indian history and Indology, Volume 4। পৃষ্ঠা 257। 
  3. Baqir, Muhammad (১৯৮৫)। Lahore, past and present। B.R. Pub. Corp। পৃষ্ঠা 19–20। সংগ্রহের তারিখ ২০০৯-০৫-২৯ 
  4. Masudul Hasan (১৯৭৮)। Guide to Lahore। Ferozsons। 
  5. "Uttara Kanda of Ramayana was edited during 5th century BCE - Puranas"BooksFact - Ancient Knowledge & Wisdom (ইংরেজি ভাষায়)। ২০২০-০৪-২৬। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৭-০৭ 
  6. Rao, T. S. Sha ma; Litent (২০১৪-০১-০১)। Lava Kusha (ইংরেজি ভাষায়)। Litent। 
  7. Vishvanath Limaye (১৯৮৪)। Historic Rama of Valmiki। Gyan Ganga Prakashan। 
  8. Nadiem, Ihsan N (২০০৫)। Punjab: land, history, people। Al-Faisal Nashran। পৃষ্ঠা 111। আইএসবিএন 9789695034347। সংগ্রহের তারিখ ২০০৯-০৫-২৯ 
  9. Ahmed, Shoaib. "Lahore Fort dungeons to re-open after more than a century." Daily Times. 3 November 2004.