রবীন্দ্রনাথ এখানে কখনও খেতে আসেননি

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
রবীন্দ্রনাথ এখানে কখনও খেতে আসেননি
রবীন্দ্রনাথ এখানে কখনও খেতে আসেন নি ওয়েব ধারাবাহিকের পোস্টার.jpg
ধরনরহস্য থ্রিলার
ভিত্তিমোহাম্মদ নাজিম উদ্দিন কর্তৃক 
রবীন্দ্রনাথ এখানে কখনও খেতে আসেন নি
লেখকমোহাম্মদ নাজিম উদ্দিন
পরিচালকসৃজিত মুখোপাধ্যায়
অভিনয়ে
সুরকারজয় সরকার
মূল দেশভারত
মূল ভাষাবাংলা
নির্মাণ
প্রযোজক
চিত্রগ্রাহকইন্দ্রনাথ মারিক
সম্পাদকসুজয় দত্ত রায়
নির্মাণ কোম্পানিশ্রী ভেঙ্কটেশ ফিল্মস
টিভিওয়ালা মিডিয়া
পরিবেশকহৈচৈ
মুক্তি
মূল নেটওয়ার্কহৈচৈ
প্রথম প্রকাশ১৩ আগস্ট ২০২১

রবীন্দ্রনাথ এখানে কখনও খেতে আসেননি হচ্ছে বাংলাদেশি লেখক মোহাম্মদ নাজিম উদ্দিনের লেখা একই নামের উপন্যাস অবলম্বনে নির্মিত একটি ওয়েব ধারাবাহিক[১] ভারতের পশ্চিমবঙ্গ ভিত্তিক বাংলা ওটিটি প্ল্যাটফর্ম হৈচৈয়ে সিরিজটি মুক্তি পাবে।[২][৩] শ্রী ভেঙ্কটেশ ফিল্মস[৪] ও টিভিওয়ালা মিডিয়ার যৌথ প্রযোজনায় নির্মিত এই সিরিজটি পরিচালনা করেছেন, ভারতের পশ্চিমবঙ্গের পরিচালক সৃজিত মুখার্জি। এটি সৃজিত মুখার্জির পরিচালিত দ্বিতীয় ও হৈচৈয়ে তার প্রথম ওয়েব ধারাবাহিক।[৫] শুরুতে বাংলাদেশ-ভারতের একাধিক[৬] অভিনয়শিল্পীর সমন্বয়ে দুই দেশেই শুটিং হওয়ার কথা থাকলেও করোনা মহামারির কারণে শুধু ভারতেই শুটিং করা হয়।[৭] তবে একমাত্র বাংলাদেশি হিসেবে কেন্দ্রীয় চরিত্র "মুশকান জুবেরী" হিসেবে অভিনয় করছেন আজমেরী হক বাঁধন[৮][৯]

অভিনয়শিল্পী[সম্পাদনা]

নির্মাণ[সম্পাদনা]

পটভূমি[সম্পাদনা]

২০১৫ সালে বাংলাদেশি লেখক মোহাম্মদ নাজিম উদ্দিনের লেখা "রবীন্দ্রনাথ এখানে কখনও খেতে আসেননি" বইটি বাংলাদেশের বাতিঘর প্রকাশনী থেকে প্রকাশিত হয়। পরবর্তীতে ভারতের অভিযান পাবলিশার্স থেকে বইটির ভারতীয় সংস্করণ প্রকাশিত হয়। প্রকাশের পরেই বইটি দুই বাংলায় ব্যপক সাড়া ফেলে। কলকাতার টিভিওয়ালা মিডিয়া ওয়েব ধারাবাহিকটি নির্মানের আগ্রহ প্রকাশ করলে ২০১৯ সালের ফেব্রুয়ারিতে লেখকের সাথে তাদের এই বিষয়ক চুক্তি হয়। এর মাধ্যমে উপন্যাসটির অডিও-ভিজ্যুয়াল স্বত্ব কিনে নেয় টিভিওয়ালা মিডিয়া।[১৩]

কিন্তু এরপরেই পশ্চিমবঙ্গের পরিচালক সৃজিত মুখার্জি এই উপন্যাসের উপর ভিত্তি করে ওয়েব ধারাবাহিক নির্মানের আগ্রহের কথা লেখককে জানান। তবে টিভিওয়ালা মিডিয়ার সাথে আগে চুক্তি হওয়ায়, টিভিওয়ালার প্রডাকসনেই সৃজিত মুখার্জির পরিচালনায় সিরিজটি নির্মানের সিদ্ধান্ত হয়।[১৪] তবে করোনা মহামারির কারণে পূর্বের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী বাংলাদেশের কলা-কৌশলীদের নিয়ে সিরিজটির নির্মান সম্ভব হয়নি। তাই পরবর্তীতে শ্রী ভেঙ্কটেশ ফিল্মস[৪] ও টিভিওয়ালা মিডিয়ার যৌথ প্রযোজনায় ভারতীয় কলা-কৌশলীদের সমন্বয়ে সিরিজটি নির্মানের সিদ্ধান্ত হয়।

চরিত্র নির্বাচন[সম্পাদনা]

শুরুতে সিরিজটিতে বাংলাদেশি অভিনয়শিল্পীদের প্রাধান্য থাকার কথা ছিল। কেন্দ্রীয় চরিত্র "মুশকান জুবেরী" হিসেবে সবার আগে জয়া আহসানের নাম আলোচনায় আসে।[১৫] উপন্যাসের লেখকই পরিচালক ও প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানকে এই প্রস্তাব দেন।[১৬] কিন্তু কিছুদিন পরেই শুনা যায় জয়া আহসানের বদলে মূল চরিত্রে থাকবেন পরীমনি[১৭][১৮] এছাড়াও, আতর আলী চরিত্রে চঞ্চল চৌধুরীর নাম ও অজানা চরিত্রে মোশাররফ করিমের নাম আলোচনায় আসে।[১৯] বিভিন্ন চরিত্র নিয়ে বিভিন্ন সময় গুঞ্জন চললেও, পরবর্তীতে সিরিজটির পরিচালক সৃজিত মুখার্জির কাছ থেকে জানা যায়,আতর আলী চরিত্রে আসলেই তিনি চঞ্চল চৌধুরীকে বেছে নিয়েছিলেন। পাশাপাশি তিনি ফজলুর রহমান বাবুর কথাও ভেবেছিলেন।[২০] কিন্তু করোনা মহামারির কারণে[২১] এসব পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করা যায়নি।[২২] তাই, শুধু ভারতের অভিনয়শিল্পীদের সমন্বয়ে সিরিজটি নির্মান করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।[২৩] অর্থাৎ, বাংলাদেশের কেউ থাকার কথা ছিলনা সিরিজে।[২৪][২৫]

ভারতের অভিনয়শিল্পীদের সমন্বয়ে নির্মানের সিদ্ধান্তের পর সবার আগে সামনে আসে আতর আলী চরিত্রে অনির্বাণ ভট্টাচার্যের নাম।[২২] মুশকান জুবেরী চরিত্রে পরিচালকের প্রথম পছন্দ ছিলেন পাওলি দাম। কিন্তু পরবর্তীতে তার সিডিউল নিয়ে সমস্যা হলে,[৪] বিস্ময়কর ভাবে বেছে নেওয়া হয় বাংলাদেশি অভিনেত্রী আজমেরী হক বাঁধনকে[২৬][২৭] এছাড়া, তদন্তকারী কর্মকর্তা নিরুপম চন্দা তথা মূল বইয়ের নূরে ছফা চরিত্রে রাহুল বোস[২৮], পুলিশ কর্মকর্তা তপন শিকদার চরিত্রে অনির্বাণ চক্রবর্তী এবং খরাজ খাসনবিশ তথা মূল বইয়ের কে এস খান বা খোদাদাদ শাহবাজ খান চরিত্রে থাকছেন অঞ্জন দত্ত[৫]

২০২০ সালের ২৬ ডিসেম্বরে এই সিরিজের চরিত্রদের প্রথম দর্শন (ফার্স্ট লুক) প্রকাশ করা হয়।[২৯]

দৃশ্যায়ন[সম্পাদনা]

করোনা মহামারির কারণে বাংলাদেশে শুটিংয়ের পরিকল্পনা বাস্তবায়িত না হলে, ভারতেই সম্পূর্ণ সিরিজ দৃশ্যায়নের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। ১৬ ডিসেম্বর থেকে[৩০] পশ্চিমবঙ্গের বর্ধমান-দুর্গাপুর অঞ্চলে সিরিজটির শুটিং শুরু হয়।[৩১][৩২] পরবর্তিতে সিকিমের জিরো পয়েন্টে বিমান দুর্ঘটনার অংশটির দৃশ্যায়ন করা হয়। ২৬ মে সিকিমেই সিরিজটির দৃশ্যায়ন শেষ হয়।[৩৩]

মুক্তি[সম্পাদনা]

টিজার ও ট্রেলার[সম্পাদনা]

২০২১ সালের ১০ জুলাই হইচইয়ের ফেসবুক পাতায় মুশকান জুবেরীর "রবীন্দ্রনাথ এখানে কখনও খেতে আসেননি" রেস্টুরেন্টের খাবারের মেন্যু প্রকাশ করা হয়। খাবারের অদ্ভুত নামের পাশাপাশি ট্রিজার প্রকাশ নিয়ে দর্শকদের মধ্যে কৌতুহল তৈরি হয়। এর পাঁচ দিন পর ১৫ জুলাই ইউটিউবে সিরিজটির ট্রিজার প্রকাশিত হয়।

প্রথম মৌসুমের মুক্তি[সম্পাদনা]

কাহিনি সংক্ষেপ[সম্পাদনা]

পর্যালোচনা[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Srijit to adapt Nazim Uddin's novel for web series"The Business Standard (ইংরেজি ভাষায়)। ২০২০-০৭-০৭। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৪-০৯ 
  2. "আসছে ২৫টি ওয়েবসিরিজ"www.prothomalo.comপ্রথম আলো। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৪-১০ 
  3. Sarkar, Roushni। "Hoichoi announces first slate of content for 2021"Cinestaan (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৫-১০ 
  4. "শ্যুটিং শেষ, প্রথম ওয়েব সিরিজের শেষ পর্যায়ের ডাবিংয়ে ব্যস্ত সৃজিত-অনির্বাণ-অঞ্জন"www.anandabazar.comআনন্দবাজার পত্রিকা। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৪-১০ 
  5. "সৃজিতের নতুন সিরিজের থাকছেন এপারের অঞ্জন-অনিবার্ণ-রাহুল, ওপার বাংলার বাঁধন"bangla.hindustantimes.comহিন্দুস্তান টাইমস। ২০২০-১২-২৫। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৪-০৯ 
  6. "সৃজিতের নির্মাণে বাংলাদেশের তিন তারকা"www.channelionline.comচ্যানেল আই (অনলাইন)। ২০২০-০৭-০৬। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৪-০৯ 
  7. "সৃজিতের 'রবীন্দ্রনাথ এখানে কখনও খেতে আসেননি', সহযোদ্ধা যারা"somoynews.tvসময় টিভি। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৪-০৯ 
  8. গ্লিটজ প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম। "মুশকান জুবেরীর লুকে বাঁধন"bangla.bdnews24.comবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৪-০৯ 
  9. "সৃজিতের নায়িকা বাঁধন"www.banglatribune.comবাংলা ট্রিবিউন। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৪-১৮ 
  10. "সৃজিতের ওয়েব সিরিজে বাঁধন"dbcnews.tv। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৪-০৯ 
  11. "নাজিম উদ্দিনের লেখা থ্রিলারে রাহুল বোস"Newsbangla24। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৪-০৯ 
  12. "সৃজিতের সিরিজ়ে রাহুল"www.anandabazar.com। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৪-১০ 
  13. "নাজিম উদ্দিনের উপন্যাস নিয়ে ভারতে ওয়েব সিরিজ"কালের কণ্ঠ। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৪-০৯ 
  14. "নাজিম উদ্দিনের থ্রিলারে সৃজিতের ওয়েব সিরিজ"independent24.com। ২০২০-০৯-২২। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৪-১১ [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  15. "রহস্যে ভরপুর! আসছে সৃজিতের নয়া ওয়েব সিরিজ় 'রবীন্দ্রনাথ এখানে কখনও খেতে আসেননি'"। ২০২০-০৭-০৬। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৪-২৭ 
  16. "সৃজিতের ওয়েব সিরিজে জয়া আহসান!"Sarabangla.net। ২০১৯-০৪-২৯। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৪-১০ 
  17. "সৃজিতের ওয়েব সিরিজে পরীমণি! থাকছেন চঞ্চল ও মোশাররফ করিমও"Dhakatimes24.com। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৪-১০ 
  18. "সৃজিতের নায়িকা পরীমনি"www.banglatribune.comবাংলা ট্রিবিউন। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৬-০৩ 
  19. গ্লিটজ প্রতিবেদক, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম। "সৃজিতের ওয়েব সিরিজে মোশাররফ, চঞ্চল ও পরীমনি"bangla.bdnews24.com। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৪-১০ 
  20. "সৃজিতের 'রাহুল দ্রাবিড়' অনির্বাণ, বাড়তি জৌলুস রাহুল, বাঁধন"www.anandabazar.com। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৪-১০ 
  21. "Covid-19 blocks Srijit's web-series adaptation of Nazim Uddin's thriller to cast Bangladeshi actors"The Business Standard (ইংরেজি ভাষায়)। ২০২০-০৯-১৯। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৪-১১ 
  22. "চঞ্চল-মোশাররফ ও পরীমনি, কেউ নেই সৃজিতের ওয়েব সিরিজে"jagonews24.com। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৪-১০ 
  23. "সৃজিতের সেই ওয়েব সিরিজে মোশাররফ-চঞ্চল-পরীরা নেই"সমকাল। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৪-১০ 
  24. "সৃজিতের ওয়েব সিরিজে থাকছে না বাংলাদেশের কেউ"এনটিভি। ২০২০-০৯-১৯। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৪-১০ 
  25. "No Bangladeshi actor in 'Rabindranath Ekhane Kokhono Khete Ashen Ni' web series"Dhaka Tribune (ইংরেজি ভাষায়)। ২০২০-০৯-১৯। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৪-১১ 
  26. "Badhon in web series Rabindranath Ekhane Kokhono Khete Aashen Ni"The New Nation (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৪-১১ 
  27. "সৃজিতের সঙ্গে এবার নায়িকা বাঁধন"প্রিয়.কম। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৪-২৭ 
  28. "সৃজিত পরিচালিত ওয়েব সিরিজে রাহুল বোস, রয়েছেন অনির্বাণ ভট্টাচার্যও"Indian Express Bangla। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৪-২৭ 
  29. "First look of 'Rabindranath Ekhane Kawkhono Khete Aashenni' revealed"The Business Standard (ইংরেজি ভাষায়)। ২০২০-১২-২৬। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৪-১১ 
  30. "সৃজিতের ওয়েব সিরিজে বাংলাদেশের বাঁধন"সিনে বার্তা। ২০২১-০৪-২৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৪-২৭ 
  31. "প্রতিটি নতুন দিন নিজের উন্নতি করার নতুন সুযোগ: বাঁধন"banglanews24.com। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৪-১৪ 
  32. "আমি চেষ্টা করছি চরিত্রের সাথে শতভাগ সৎ থাকতে: বাঁধন"চ্যানেল আই অনলাইন। ২০২০-১২-২৫। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৪-১৮ 
  33. "বাঁধনকে টুপিখোলা সম্মান জানালেন সৃজিত"Bangla Tribune। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৭-১৫ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]