ম্যাকাও রন্ধনশৈলী

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন

ম্যাকাও রন্ধনশৈলী হচ্ছে ম্যাকাওয়ের নিজস্ব রন্ধনপ্রণালী এবং যা দক্ষিণ চীনা ও পর্তুগীজ রন্ধনশৈলীর সমন্বয়ে গড়ে উঠেছে। এর উপর দক্ষিণ পূর্ব এশিয়া ও লুসোফন বিশ্বের যথেষ্ট প্রভাব রয়েছে। ইউরোপীয় খাবারের স্বাদ আনতে পর্তুগীজরা স্থানীয় খাবারের উপর বিভিন্ন ধরণের মশলা ব্যবহার শুরু করে। এর উপাদান ও মশলার পাশাপাশি ইউরোপ, ল্যাটিন আমেরিকা, আফ্রিকা, ভারত এবং দক্ষিণ পূর্ব এশিয়া, সেইসাথে স্থানীয় চীনা উপাদানের ব্যবহার খাবারকে বৈচিত্র্য দান করে।

প্রচলিত রান্নার কৌশলগুলির মধ্যে আছে বেকিং, গ্রিলিং এবং রোস্টিং। ম্যাকাও তার মিশ্র সুবাস সংস্কৃতির জন্য সুবিখ্যাত এবং আধুনিক ম্যাকাও কুউজিনকে ফিউশন কুইজিনের উদাহরণ বলা যায়।

সাধারণত, ম্যাক্যানিস খাবারগুলি হলুদ, নারকেল দুধ, দারুচিনি ও বাকলহাউসহ বিভিন্ন মশলা দিয়ে রান্না করা হয় যা বিশেষ সুগন্ধ ও স্বাদ প্রদান করে খাবারে। বিখ্যাত খাবারের মধ্যে আছে গলিনহা য়া পর্তুগিজা, গলিনহা আ আফ্রিকানা (আফ্রিকান মুরগি), বাকলহাউ (ঐতিহ্যবাহী পর্তুগিজ নোনা কড)[১], পটো ডি ক্যাবিডেলা, ম্যাক্যানিস চিলি চিংড়ি, মিনচি[২][৩][৪] ইত্যাদি। অন্যান্য খাবারে মধ্যে আছে শূকর এর কান ও পেঁপে সালাদ, খরগোশের মাংসের ঝোল মেশানো মদ, দারুচিনি । তাপাস ম্যাক্যানিস রন্ধনপ্রণালী্র একটি অবিচ্ছেদ্য অংশ।

সর্বাধিক জনপ্রিয় হাল্কা নাস্তা হলো পোর্ক চপ বান। সর্বাধিক জনপ্রিয় ডেজার্ট এর মধ্যে আছে আদা দুধ, পেস্টেরিস ডি নাতা (ডিমের টার্টর এবং বাদাম কেক।

ম্যাকাও এর বিখ্যাত রেস্তোরাঁগুলির মধ্যে আছে রেস্টুরেন্টে পোর্টো ইন্টেরিয়র, রেষ্টুরেন্টে লিতোরাল, রেষ্টুরেন্টে এস্পাও এবং রেষ্টুরেন্টে ও সান্তোস।

ম্যাকাওয়ের খাবার[সম্পাদনা]

মিঞ্চি হচ্ছে একটি ম্যাকানিজ খাবার যার মূল উপাদান হচ্ছে পেষা মাংস। এটা গরু বা শূকরের মাংস হতে পারে যাতে চিটে গুড় এবং সয়া সস এর স্বাদ দেওয়া হয়। মিঞ্চি রান্নার পরে উপরে ডিমের পোচ দিয়ে পরিবেশন করা হয়। জাপানীদের মিঞ্চির মত একটি খাবার রয়েছে যা মেঞ্চি কাটসু নামে পরিচিত।

পেস্টেরিস ডে নাতা 
পাতো দে ক্যাবিডেলা 

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. SILVA, A. J. M. (2015), The fable of the cod and the promised sea. About portuguese traditions of bacalhau, in BARATA, F. T- and ROCHA, J. M. (eds.), Heritages and Memories from the Sea, Proceedings of the 1st International Conference of the UNESCO Chair in Intangible Heritage and Traditional Know-How: Linking Heritage, 14–16 January 2015. University of Evora, Évora, pp. 130-143. PDF version
  2. "Archived copy"। ২০১১-১০-০২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১০-০৬-২২ 
  3. "Archived copy" (PDF)। ২০১০-০৫-২৯ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১০-০৬-২২ 
  4. "Archived copy"। ২০১২-০৬-৩০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১০-০৬-২২