মোল্লা সদরা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে

স়দরউদ্দীন মুহ়ম্মদ শিরাজ়ী
ملا صدرا
অন্য নামমোল্লা স়দরা
ব্যক্তিগত
জন্মআনু. ১৫৭১ খ্রি. (৯৮০ হিজরি)
মৃত্যুআনু. ১৬৩৫(1635-00-00) (বয়স ৬৩–৬৪) (১০৫০ হিজরি)
ধর্মইসলাম
জাতীয়তাপারসিক
আদি নিবাসশিরাজ, পারস্য
অঞ্চলসাফাভি পারস্য
আখ্যাশিয়া
ব্যবহারশাস্ত্রজাফরি
ধর্মীয় মতবিশ্বাসইসনা আশারিয়া
প্রধান আগ্রহইসলামি দর্শন, ইশরাকি দর্শন, তুরীয় ব্রহ্মজ্ঞান, ইরফান, তাফসির
অন্য নামমোল্লা স়দরা
দর্শনইসলামি দর্শন
মুসলিম নেতা

স়দর উদ্দীন মুহ়ম্মদ শিরাজ়ী, যিনি মোল্লা স়দরা (ফার্সি: ملا صدرا‎‎, আরবি: صدر المتألهین‎‎; আনু. ১৫৭১ – ১৬৩৫) নামেও পরিচিত, ছিলেন একজন পারসিক শিয়া মুসলিম দার্শনিক, আধ্যাত্মবাদী, ধর্মতাত্ত্বিক ও আলেম যিনি ১৭শ শতকে ইরানি সাংস্কৃতিক নবজাগরণের নেতৃত্ব দিয়েছিলেন। অলিভার লিম্যানের মতে, মোল্লা সদরা হলেন বিগত চারশো বছরের ইতিহাসে মুসলিম বিশ্বের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ এবং প্রভাবশালী দার্শনিক।[১][২]

জীবনী[সম্পাদনা]

মোল্লা সদরা ১৫৭১ মতান্তরে ১৫৭২ সালে তৎকালীন সিরাজে (বর্তমান ইরান) এক বিখ্যাত পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তার বাবা খাজা ইব্রাহিম কাভামি ছিলেন একজন পণ্ডিত ব্যক্তি এবং গুণী রাজনীতিবিদ। তৎকালীন রীতি অনুযায়ী প্রচলিত বিদ্যাশিক্ষার পাশাপাশি সদরকে অশ্বচালনা, শিকার ও সমর কৌশল শিক্ষা দেয়া হয়। বাল্য বয়সেই সদরা গণিত, জ্যোতির্বিদ্যা, চিকিৎসা বিদ্যা ও আইনবিজ্ঞানে পারদর্শী হয়ে ওঠেন। তিনি মীর দামাদ ও বাহাউদ্দিন আমিলীর মতো বিখ্যাত মুসলিম দার্শনিকদের শিক্ষক হিসেবে পেয়েছিলেন। ১৬৪০ সালে তিনি বসরায় মারা যান। বর্তমান ইরাকের নাজাফে তার সমাধি রয়েছে।

গ্রন্থপঞ্জি[সম্পাদনা]

মোল্লা সদরা ইসলামী দর্শনের উপর অসংখ্য গুরুত্বপূর্ণ গ্রন্থ রচনা করেছেন। হিকমাত আল মুতালিয়াহ ফিল আসফার আল আরবা তার প্রধান কর্ম। তার অন্য গ্রন্থগুলো হলো-

  • শরহে উসুল আল কাফি
  • আল তাফসির
  • দিওয়ান শি'র
  • সি আঁচল
  • শরহে আল হেদায়া
  • আল হিকমাত আল আরশিয়া
  • আল মাবদা ওয়াল মা'দ
  • আল মাজাহির
  • হুদুস আল ইসলাম
  • ইকসির আল আরিফিন
  • আল হাশর
  • আল মাশাইর
  • আল ওয়ারিদাত আল ক্বালবিয়াহ

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]