মেঘালয় উপযুগ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
চতুর্থী মহাযুগ / তন্ত্রের উপবিভাগসমূহ
তন্ত্র/
মহাযুগ
ধারা/
যুগ
ধাপ/
উপযুগ
বয়স (নিযুতাব্দ/Ma)
চতুর্থী মহাযুগ পূর্ণ নবযুগ মেঘালয় উপযুগ ০.০০৪২
নর্থগ্রিপীয় উপযুগ ০.০০৪২ ০.০০৮২
গ্রিনল্যান্ডীয় উপযুগ ০.০০৮২ ০.০১১৭
নবতম যুগ সাম্প্রতিক নবতম উপযুগ ০.০১১৭ ০.১২৬
মধ্য নবতম উপযুগ ০.১২৬ ০.৭৮১
কালাব্রীয় উপযুগ ০.৭৮১ ১.৮০
গেলা উপযুগ ১.৮০ ২.৫৮
নবজনিক মহাযুগ সংখ্যাগুরু নবযুগ পিয়াচেনজীয় উপযুগ প্রাচীনতর
টীকা ও তথ্যসূত্র
আন্তর্জাতিক স্তরবিজ্ঞান সমিতি অনুমোদিত চতুর্থী মহাযুগের উপবিভাজন, ২০১৮ সালের তথ্য অনুযায়ী।[১]

পূর্ণ নবযুগের ক্ষেত্রে বয়সের তারিখগুলি ২০০০ খ্রিস্টাব্দের সাপেক্ষে নির্ধারিত হয়েছে। যেমন- গ্রিনল্যান্ডীয় উপযুগ ২০০০ খ্রিস্টাব্দের ১১,৭০০ বছর আগে শুরু হয়। নর্থগ্রিপীয় উপযুগটি ২০০০ খ্রিস্টাব্দের ৮৩২৬ বছর আগে শুরু হয় বলে নির্ধারিত হয়েছে।[২] মেঘালয় উপযুগটি ২০০০ খ্রিস্টাব্দের ৪২৫০ বছর আগে শুরু হয়েছে বলে নির্ধারিত হয়েছে।[৩]

মেঘালয় উপযুগ ভূবৈজ্ঞানিক সময় মাপনী অনুযায়ী পৃথিবীর ভূবৈজ্ঞানিক ইতিহাসের সাম্প্রতিকতম উপযুগ। এটি চতুর্থী মহাযুগের অন্তর্ভুক্ত সাম্প্রতিকতম যুগ তথা পূর্ণ নবযুগ গঠনকারী তিনটি উপযুগের মধ্যে সাম্প্রতিকতম উপযুগ।[৪][৫][৬] মেঘালয় উপযুগটির বৈশ্বিক প্রমিত সীমানানির্দেশক শিলাস্তর খণ্ড ও বিন্দুটি উত্তর-পূর্ব ভারতের মেঘালয় রাজ্যের খাসি পাহাড় অঞ্চলের মমলু গুহাতে অবস্থিত।[৭] মমলু গুহাটি ভারতের দীর্ঘতম ও গভীরতম গুহাগুলির একটি বিধায় উপযুগগুলির রূপান্তরের রাসায়নিক চিহ্নাদি এখানে সুন্দরভাবে সংরক্ষিত হয়েছে।[৮] কানাডার লোগান পর্বতের একটি বরফ মজ্জাকে এই উপযুগের বৈশ্বিক সহায়ক সীমানানির্দেশক শিলাস্তর হিসেবে নির্বাচন করা হয়েছে।[৯]

মেঘালয় উপযুগটি বর্তমান সময়ের প্রায় ৪২৫০ বছর আগে, অর্থাৎ আনুমানিক ২২৫০ খ্রিস্টপূর্বাব্দে শুরু হয়।[১০][১১] উপযুগটি প্রায় ২০০ বছর স্থায়ী একটি বিশ্বব্যাপী খরার মাধ্যমে শুরু হয়। এই খরাটি পূর্ণ নবযুগের সবচেয়ে গুরুতর জলবায়ুগত ঘটনাগুলির একটি ছিল। খরাটি প্রাচীন মিশর, প্রাচীন গ্রিস, প্রাচীন সিরিয়া, কানান, মেসোপটেমিয়া, সিন্ধুইয়াংসে নদীর সভ্যতার উপর প্রভাব ফেলে এবং সম্ভবত মিশরের প্রাচীন রাজ্য, মেসোপটেমিয়ার আক্কাদীয় সাম্রাজ্য, লিয়াংচু সভ্যতাসিন্ধু নদ সভ্যতার পতন ঘটায়।[১০] সম্ভবত এই খরার কারণেই ইন্দো-ইউরোপীয় ভাষাভাষী জাতির লোকেরা ভারতীয় উপমহাদেশে প্রবেশ করে।

আন্তর্জাতিক স্তরবিজ্ঞান কমিশন ২০১৮ সালের জুলাই মাসে মেঘালয় উপযুগটিকে আনুষ্ঠানিকভাবে স্বীকৃতি দেন।[৭]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Cohen, K.M.; Finney, S.C.; Gibbard, P.L.; Fan, J.-X.। "International Chronostratigraphic Chart"International Commission on Stratigraphy। সংগ্রহের তারিখ জুলাই ১০, ২০১৮ 
  2. "IUGS ratifies Holocene"। সংগ্রহের তারিখ ১৮ আগস্ট ২০১৮ 
  3. "announcement ICS chart v2018/07"। সংগ্রহের তারিখ ৯ আগস্ট ২০১৮ 
  4. Cohen, Kim Mikkel, David A. T. Harper, Philip Leonard Gibbard, and Junxuan Fan। "The ICS International Chronostratigraphic Chart"International Commission on Stratigraphy। সংগ্রহের তারিখ ১৫ জুলাই ২০১৮ 
  5. "Scientists call our era the Meghalayan Age. Here's what the world was like when it began" 
  6. "'Meghalayan Age': Latest phase in Earth's history named after Indian state, began 4,200 years ago" 
  7. International Commission on Stratigraphy। "ICS chart containing the Quaternary and Cambrian GSSPs and new stages (v 2018/07) is now released!"। সংগ্রহের তারিখ ১৫ জুলাই ২০১৮ 
  8. "'Meghalayan Age' makes the state a part of geologic history"https://www.hindustantimes.com/ (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৮-০৭-১৮। সংগ্রহের তারিখ ২০১৮-০৭-২৬  |কর্ম= এ বহিঃসংযোগ দেয়া (সাহায্য)
  9. Formal subdivision of the Holocene Series/Epoch
  10. Jonathan Amos (জুলাই ১৮, ২০১৮)। "Welcome to the Meghalayan Age - a new phase in history"BBC। সংগ্রহের তারিখ জুলাই ১৯, ২০১৮ 
  11. Michael Irving (জুলাই ১৯, ২০১৮)। "Time for the Meghalayan: A new geological age has officially been declared"। সংগ্রহের তারিখ জুলাই ১৯, ২০১৮