অর্ডোভিশিয়ান

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
অর্ডোভিশিয়ান যুগ
৪৮.৫৪–৪৪.৩৪ কোটি বছর পূর্বে
৪৭অর্ডোভিশিয়ান.png
গড় বায়ুমন্ডলীয় O
পরিমাণ
প্রায় ১৩.৫ আয়তন %[১]
(বর্তমান মাত্রার ৬৮ %)
গড় বায়ুমন্ডলীয় CO
প্রায় ৪২০০ পিপিএম[২]
(প্রাক শিল্প স্তরের ১৫ গুণ)
ভূপৃষ্ঠের গড় তাপমাত্রা প্রায় ১৬ °সে[৩]
(বর্তমান তাপমাত্রার ২ °সে উপরে)
সমুদ্রপৃষ্ঠ (বর্তমান উচ্চতা থেকে যত উপরে) ১৮০ মিটার; কারাডকে ২২০ মিটার অবধি উঠে অন্ত্য-অর্ডোভিশীয় হিমযুগে আকস্মিকভাবে ১৪০ মিটারে পতন[৪]

অর্ডোভিশিয়ান হল পুরাজীব মহাযুগের দ্বিতীয় যুগ। এর সময়সীমা ছিল ৪৮.৫৪ ± ০.১৯ থেকে ৪৪.৩৪ ± ০.১৫ কোটি বছর আগে পর্যন্ত।[৫] এর পূর্ববর্তী যুগ ক্যাম্ব্রিয়ান এবং পরবর্তী যুগ সিলুরিয়ান। ১৮৭৯ খ্রিঃ বিজ্ঞানী অ্যাডাম সেজউইক এবং রডারিক মার্চিসন এই সময়কালের পাথরগুলিকে যথাক্রমে ক্যাম্ব্রিয়ানসিলুরিয়ান যুগের অন্তর্ভুক্ত বলে দাবি করলে বিবাদের সূচনা হয়। এই বিবাদ নিরসনের জন্য অন্যতম কেল্টীয় উপজাতি "অর্ডোভিশি"-দের নামানুসারে চার্লস ল্যাপওয়ার্থ নতুন একটি ভূতাত্ত্বিক যুগের ধারণা দেন।[৬] ল্যাপওয়ার্থ বুঝেছিলেন, বিতর্কিত পাথরের স্তরে প্রাপ্ত জীবাশ্মগুলি পূর্বোক্ত দুই যুগের কোনোটার সাথেই পুরোপুরি খাপ খায় না। যুক্তরাজ্যে চটজলদি অর্ডোভিশিয়ান যুগের স্বীকৃতি না মিললেও অবশিষ্ট বিশ্ব অবিলম্বেই এই ধারণা স্বীকার করে নেয়। ১৯৬০ খ্রিঃ অর্ডোভিশিয়ান আনুষ্ঠানিকভাবে আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি লাভ করে। সে'বছর আন্তর্জাতিক ভূতত্ত্ব কংগ্রেস এটিকে পুরাজীব মহাযুগের অন্যতম যুগ হিসেবে নথিভুক্ত করে।

ক্যাম্ব্রিয়ানের মতই অর্ডোভিশিয়ান যুগেও জীবনের অগ্রগতি অব্যাহত ছিল, যদিও এর শেষদিকে একটি বড় মাপের মহাবিলুপ্তি আসে। প্রধান দুই প্রকার অমেরুদণ্ডী: কম্বোজসন্ধিপদীরা সমুদ্রে আধিপত্য বিস্তার করে। প্রথম প্রকৃত মেরুদণ্ডী হিসেবে মাছেদের বিবর্তন অব্যাহত থাকে। সম্ভবত এই যুগেই চোয়ালযুক্ত মাছেদের প্রথম আবির্ভাব হয়। ডাঙায় জীবকুলের বিস্তার তখনও পুরোদমে আরম্ভ হয়নি।

সময়সীমা ও বিলুপ্তি ঘটনা[সম্পাদনা]

অর্ডোভিশিয়ান যুগের সূত্রপাত হয় ৪৮.৫৪ ± ০.১৯ কোটি বছর আগে একটি বিলুপ্তি ঘটনার মাধ্যমে। একে ক্যাম্ব্রিয়ান-অর্ডোভিশিয়ান বিলুপ্তি ঘটনা বলা হয়। এর স্থায়িত্ব ছিল ৪ কোটি ২০ লক্ষ বছর। যুগের শেষভাগে (৪৪.৩৪ ± ০.১৫ কোটি বছর আগে, আইসিএস, ২০০৪) আসে অর্ডোভিশিয়ান-সিলুরিয়ান বিলুপ্তি ঘটনা, যার ধাক্কায় তৎকালীন সামুদ্রিক জীবকুলের ৬০% গণ নিশ্চিহ্ন হয়ে যায়।

ব্যবহৃত তারিখগুলি তেজস্ক্রিয়মিতিক। পুরাজীব মহাযুগের এই দ্বিতীয় যুগের পাথরের স্তর থেকে বহুসংখ্যক জীবাশ্ম এবং স্থানবিশেষে পেট্রোলিয়াম ও প্রাকৃতিক গ্যাসের ভাণ্ডারও পাওয়া গেছে।

অর্ডোভিশিয়ান যুগ এবং ট্রেমাডোকিয়ান অধোযুগ—উভয়েরই সূচনাকাল নির্ণয়ের পদ্ধতিটি বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ। এই সময়কালটি বহুসংখ্যক গ্রাপ্‌টোলাইট, কনোডন্ট এবং ট্রাইলোবাইট প্রভৃতির জীবাশ্মের সাথে সমাপতিত হওয়ার ফলে ট্রেমাডোকিয়ানের সূচনাকালের সাপেক্ষে বিজ্ঞানীরা উক্ত জীবগুলিকে সমসাময়িক বলে চিহ্নিত করতে পারেন। সেইসঙ্গে অন্যান্য স্থানে যে সমস্ত জীবের অবশেষ এদের সাথে পাওয়া গেছে, তাদেরও সময়সীমা নির্ধারণের কাজে সুবিধে হয়। এর ফলে অর্ডোভিশিয়ান যুগের সূচনাকালে জীবকুলের পুঙ্খানুপুঙ্খ তালিকা নির্ণয়ের কাজ সহজ হয়ে যায়।

উপবিভাগসমূহ[সম্পাদনা]

অর্ডোভিশিয়ান যুগের প্রধান ঘটনাবলী
অর্ডোভিশিয়ান যুগের মূল ঘটনাবলী।
আইসিএস দ্বারা বিধিবদ্ধ পর্যায়সমূহ।

স্কেল: কোটি বছর আগে।[৮]

অর্ডোভিশিয়ান যুগের বিভাজনের জন্য একাধিক স্থানীয় নামকরণ পদ্ধতির প্রচলন হয়েছে। ২০০৮ এ আইসিএস একটি আন্তর্জাতিক যুগবিভাজন নির্দেশিকা প্রকাশ করে, যা ডানদিকে দেখানো হল।[৯]

ব্রিটেনে অর্ডোভিশিয়ান যুগকে প্রথাগতভাবে তিন ভাগে ভাগ করা হয়: আদি (ট্রেমাডোকিয়ানআরেনিগ), মধ্য (ল্যানভার্ন[এটি আবার অ্যাবারেইডিয়ান ও ল্যান্ডেইলিয়ানে বিভক্ত]ল্যান্ডেইলো) এবং অন্ত্য (কারাডকঅ্যাশগিল) উপযুগ। সংশ্লিষ্ট পাথরের স্তরগুলোকে নিম্ন, মধ্য ও উচ্চ অর্ডোভিশীয় প্রস্তর বলা হয়। নবীন থেকে প্রাচীন - এই ক্রমানুসারে অর্ডোভিশিয়ানের উপবিভাগগুলো হল:

অন্ত্য অর্ডোভিশিয়ান

  • হার্নানশিয়ান/গামাখ (অ্যাশগিল)
  • রথীয়ান/রিচমণ্ড (অ্যাশগিল)
  • কট্‌লেয়ান/রিচমণ্ড (অ্যাশগিল)
  • পাসগিলিয়ান/মেসভিল/রিচমণ্ড (অ্যাশগিল)

মধ্য অর্ডোভিশিয়ান

  • ট্রেন্টন (কারাডক)
  • অনিয়ান/মেসভিল/ইডেন (কারাডক)
  • অ্যাক্টোনিয়ান/ইডেন (কারাডক)
  • মার্শব্রুকিয়ান/শার্মান (কারাডক)
  • লংভিলিয়ান/শার্মান (কারাডক)
  • সুদলেয়ান/কার্কফিল্ড (কারাডক)
  • হার্নাগিয়ান/রকল্যান্ড (কারাডক)
  • কস্টোনিয়ান/ব্ল্যাক রিভার (কারাডক)
  • চেজি (ল্যান্ডেইলো)
  • ল্যান্ডেইলো (ল্যান্ডেইলো)
  • হোয়াইটরক (ল্যানভার্ন)
  • ল্যানভার্ন (ল্যানভার্ন)

আদি অর্ডোভিশিয়ান

  • ক্যাসিনিয়ান (আরেনিগ)
  • আরেনিগ/জেফারসন/কাস্‌ল্‌মান (আরেনিগ)
  • ট্রেমাডক/ডেমিং/গাকোনাডিয়ান (ট্রেমাডক)

পুরাভূগোল[সম্পাদনা]

অর্ডোভিশিয়ানে সমুদ্রতলের উচ্চতা ছিল খুব বেশি। ভূতাত্ত্বিক নিদর্শন অণুযায়ী ট্রেমাডোকিয়ান উপযুগে বিশ্বব্যাপী সমুদ্রতলের উচ্চতাবৃদ্ধি ছিল সর্বাধিক।

অর্ডোভিশিয়ান যুগে দক্ষিণের মহাদেশগুলো গণ্ডোয়ানা অতিমহাদেশ হিসেবে একত্রে ছিল। যুগের প্রারম্ভে গণ্ডোয়ানা নিরক্ষীয় অঞ্চলে থাকলেও যুগের শেষভাগে তা দক্ষিণ মেরুর কাছাকাছি সরে আসে। অর্ডোভিশিয়ানের প্রথম দিকে লরেন্‌শিয়া (বর্তমান উত্তর আমেরিকা), সাইবেরিয়া এবং বাল্টিকা (বর্তমান উত্তর ইউরোপ) আলাদা আলাদা স্বাধীন মহাদেশ থাকলেও পরবর্তীকালে বাল্টিকা লরেন্‌শিয়ার দিকে সরে আসতে থাকে, ফলে তাদের মধ্যবর্তী আয়াপেটাস মহাসাগর সঙ্কুচিত হয়। অ্যাভালোনিয়া ভূভাগ গণ্ডোয়ানা থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে উত্তরে বাল্টিকা ও লরেন্‌শিয়ার দিকে এগিয়ে আসতে থাকে। ফলে গণ্ডোয়ানা ও অ্যাভালোনিয়ার মাঝে রাইক মহাসাগর সৃষ্টি হয়।

ক্যাম্ব্রিয়ান যুগে সূচিত ট্যাকোনিক গিরিজনি অর্ডোভিশিয়ানে বজায় ছিল। অন্ত্য অর্ডোভিশিয়ানের আরম্ভে, ৪৬ থেকে ৪৫ কোটি বছর আগে, আয়াপেটাস মহাসাগরের উপকূলবর্তী আগ্নেয়গিরিগুলো বায়ুমণ্ডলে প্রচুর পরিমাণ কার্বন ডাইঅক্সাইড নিক্ষেপের ফলে সামগ্রিক বায়ুমণ্ডলীয় উষ্ণতা বেড়ে যায়। এই আগ্নেয় দ্বীপবলয় আদিম উত্তর আমেরিকার সাথে সংঘর্ষের ফলে অ্যাপালেশিয়ান পর্বতমালার জন্ম দেয়। অন্ত্য অর্ডোভিশিয়ানের শেষভাগে এই অগ্ন্যুৎপাত থেমে গিয়েছিল। ততদিনে গণ্ডোয়ানা দক্ষিণ মেরুর কাছে; তুষারাবৃত।

অর্ডোভিশিয়ান উল্কা ঘটনা[সম্পাদনা]

আনুমানিক ৪৭ কোটি বছর আগে সংঘটিত একটি সম্ভাব্য উল্কাবৃষ্টিকে অর্ডোভিশিয়ান উল্কা ঘটনা বলা হয়। এর সাথে কোনো গুরুত্বপূর্ণ বিলুপ্তি ঘটনার যোগসূত্র নেই।[১০][১১][১২]

ভূরসায়ন[সম্পাদনা]

অর্ডোভিশিয়ান বাইভালভ ঝিনুকের খোলের ছাপ; মূল অ্যারাগোনাইট খোল দ্রবীভূত হয়ে গিয়ে শুধু তার ছাপটুকু অবশিষ্ট আছে। ওয়েন্সভিল প্রস্তরক্ষেত্র, ইন্ডিয়ানা

অর্ডোভিশিয়ানে ভূরসায়ন ছিল ক্যালসাইট সাগর প্রকৃতির, অর্থাৎ ক্যালসিয়াম কার্বনেটের মূল সামুদ্রিক অজৈব অধঃক্ষেপ ছিল কম ম্যাগণেসিয়াম যুক্ত ক্যালসাইট যৌগ। ফলে এই সময়ের পাথরে কার্বনেট সমৃদ্ধ প্রস্তরীভূত সমুদ্রগহ্বর, ক্যালসাইট-ঘটিত উওয়েড এবং ক্যালসাইট সমৃদ্ধ কঙ্কালবিশিষ্ট প্রাণীকুলের জীবাশ্মের আধিক্য দেখা যায়। কম্বোজ প্রভৃতি প্রাণীর খোলকের জৈব অ্যারাগোনাইট মৃত্যুর পর দ্রুত ক্ষয় পেয়ে দ্রবীভূত হয়ে যেত।[১৩][১৪]

ক্যাম্ব্রিয়ানে ক্যালসাইটের উৎপাদন প্রধানত অণুজীব ও অজৈব উৎস কর্তৃক হলেও অর্ডোভিশিয়ানে বহুকোশী প্রাণী ও শৈবালের গোষ্ঠীরা এই প্রক্রিয়ার মূল অণুঘটক হয়ে ওঠে।[১৫]

জলবায়ু ও সমুদ্রপৃষ্ঠ[সম্পাদনা]

অর্ডোভিশিয়ান যুগে সমুদ্রপৃষ্ঠ পুরাজীব মহাযুগের মধ্যে সর্বোচ্চ ছিল। মহাদেশসমূহে সমভূমি ও নিম্নভূমির ভাগ বেশি থাকার জন্য বিস্তৃত অগভীর সমুদ্রে পলিসঞ্চয়ের সূচনা হয়।[১৫] আদি অর্ডোভিশিয়ান জুড়ে সমুদ্রপৃষ্ঠের উচ্চতা বাড়তে থাকে; মধ্য অর্ডোভিশিয়ানে এই বৃদ্ধিহার কমে যায়।[১৫] স্থানীয়ভাবে কোনো কোনো জায়গায় সমুদ্র পিছিয়ে গেলেও অন্ত্য অর্ডোভিশিয়ানের আরম্ভেও সার্বিকভাবে সমুদ্রপৃষ্ঠের উচ্চতাবৃদ্ধি বজায় ছিল। এর পর হার্নানশিয়ান হিমযুগে ৩ কোটি বছর ধরে সমুদ্রপৃষ্ঠ নীচু হতে থাকে। এই হিমযুগ চলাকালীন সমুদ্রের ওঠানামার বিস্তৃত বিবরণ এখনও নিশ্চিতভাবে বলা সম্ভব হয়নি।[১৫]

অর্ডোভিশিয়ানের আরম্ভে, ৪৮.৫৪ ± ০.১৯ কোটি বছর আগে, বায়ুমণ্ডলে CO
এর আধিক্যের জন্য জলবায়ু ছিল অতি উষ্ণ প্রকৃতির। সমুদ্রে জলের উষ্ণতা ছিল আনুমানিক ৪৫ °C (১১৩ °F)। তাপমাত্রার এই আধিক্য বহুকোশী জীবের বিবর্তনের পথে বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছিল। কিন্তু সময়ের সাথে সাথে জলবায়ু শীতল হয়ে আসে এবং আজ থেকে ৪৬ কোটি বছর আগে সাগরজলের তাপমাত্রা বর্তমান নিরক্ষীয় সমুদ্রের তুলনীয় হয়ে ওঠে।[১৬]

উত্তরের মহাদেশগুলোর মতই গণ্ডোয়ানার অধিকাংশও অর্ডোভিশিয়ানে অগভীর সমুদ্রের তলায় ছিল। মহীসোপানের অগভীর সমুদ্রের স্বচ্ছ জলে ক্যালশিয়াম কার্বনেটের বর্মধারী জীবকুলের সমৃদ্ধি ঘটে। উত্তর গোলার্ধের অধিকাংশ জুড়ে ছিল প্যান্থলসা মহাসাগর। অন্যান্য সমুদ্রের মধ্যে ছিল আদি-টেথিস, পুরা-টেথিস, আয়াপেটাস মহাসাগররাইক মহাসাগর

বর্তমান আফ্রিকাদক্ষিণ আমেরিকা মহাদেশে সমসাময়িক পাথরের স্তরে হিমবাহঘটিত ভূমিরূপের চিহ্ন পাওয়া গেছে। এ থেকে বোঝা যায় এই ভূখণ্ডগুলো তখন দক্ষিণ মেরুর কাছে অবস্থান করত।

জীবজগৎ[সম্পাদনা]

ডায়োরামার মাধ্যমে অর্ডোভিশিয়ান প্রাণী ও উদ্ভিদ জগতের রূপরেখা প্রদর্শন।

অর্ডোভিশিয়ানের অধিকাংশ সময় জুড়ে প্রাণের বিকাশ দ্রুতলয়ে ঘটেছিল, কিন্তু যুগের শেষদিকে কয়েকটি বিলুপ্তি ঘটনার ফলে বেশ কিছু প্রজাতি মুছে যায়। এদের মধ্যে ছিল বিভিন্ন প্ল্যাঙ্কটন, কনোডন্ট, গ্রাপ্‌টোলাইট এবং ট্রাইলোবাইট-দের কোনো কোনো প্রজাতি(অ্যাগ্নস্টিডাটাইকোপ্যারাইডা)। ব্র্যাকিওপড, ব্রায়োজোয়াকন্টকত্বকীরাও এই সময় ক্ষতিগ্রস্ত হয়, এবং সিলুরিয়ানে টিকে যাওয়া কিছু ব্যতিক্রমী উদাহরণ ছাড়া এন্ডোসেরিড সেফালোপডরা সম্পূর্ণভাবে বিলুপ্ত হয়ে যায়। এই অর্ডোভিশিয়ান-সিলুরিয়ান বিলুপ্তি ঘটনার কারণ ছিল এক তুষার যুগ, যার সাথে প্রথম স্থলজ উদ্ভিদের আবির্ভাবের যোগসূত্র আছে।[১৭] সব মিলিয়ে অন্ত্য অর্ডোভিশিয়ান ছিল পৃথিবীর গত ৬০ কোটি বছরের ইতিহাসে শীতলতম সময়গুলোর মধ্যে একটা।

প্রাণীকুল[সম্পাদনা]

অর্থোসেরাস প্রভৃতি নটিলয়েডরা ছিল অর্ডোভিশিয়ানের বৃহত্তম মাংসাশীদের অন্যতম।
ওহায়োর ওয়েন্সভিলের কাছে সিজার ক্রীক স্টেট পার্কের লিবার্টি প্রস্তরক্ষেত্র (উচ্চ অর্ডোভিশিয়ান) থেকে প্রাপ্ত জীবাশ্মসমৃদ্ধ চুনাপাথর।

অর্ডোভিশিয়ানে বিবর্তিত প্রাণীকুল মোটের উপর অবশিষ্ট পুরাজীব মহাযুগে প্রাণীজগতের বিবর্তনের রূপরেখা স্থির করে দেয়।[১৫] অগভীর সমুদ্রে ভাসমান প্ল্যাঙ্কটন জাতীয় জীব ও তাদের বিভিন্ন স্তরের খাদকদের ছোট ছোট খাদ্যশৃঙ্খল নিয়ে সমসাময়িক প্রাণীকুল গঠিত ছিল। অবশ্য ক্যাম্ব্রিয়ান যুগের তুলনায় অর্ডোভিশিয়ানে জীববৈচিত্র্য বহুগুণ বৃদ্ধি পায়,[১৫] যে প্রবণতা আজ অবধি বজায় আছে।

ক্যাম্ব্রিয়ান বিস্ফোরণের মত বিখ্যাত না হলেও অর্ডোভিশিয়ানে একটি অভিযোজনীয় বিকিরণ ঘটেছিল; একে অর্ডোভিশিয়ান বিকিরণ বলা হয়। সামুদ্রিক প্রাণীদের গণ সংখ্যা এর ফলে চার গুণ বৃদ্ধি পায় এবং সমগ্র ফ্যানারোজোয়িক অধিযুগে প্রাপ্ত সামুদ্রিক গণের ১২% আত্মপ্রকাশ করে।[১৮] এই সময়কার আরও একটা গুরুত্বপূর্ণ পরিবর্তন হল বিভিন্ন প্রকার ছাঁকনি খাদকের সংখ্যাবৃদ্ধি।[১৯] ক্যাম্ব্রিয়ানে প্রভাবশালী ট্রাইলোবাইট, কব্জাবিহীন ব্র্যাকিওপড, আর্কিওসায়াথিড এবং ইওক্রিনয়েড দের হঠিয়ে কব্জাবিশিষ্ট ব্র্যাকিওপড, সেফালোপড এবং ক্রিনয়েড-দের আবির্ভাব ঘটে; যারা পুরাজীব মহাযুগের বাকি সময় জুড়ে রাজত্ব চালিয়েছিল। বিশেষত কব্জাওয়ালা ব্র্যাকিওপডেরা মহীসোপান থেকে ট্রাইলোবাইটদের অধিকাংশকেই উৎখাত করে।[২০] তাদের এই সাফল্যের ফলেই ক্যাম্ব্রিয়ানের তুলনায় অর্ডোভিশিয়ান যুগে ক্যালশিয়াম কার্বনেটের খোলকওয়ালা প্রাণীদের আধিপত্য সহজ হয়।[২০]

উত্তর আমেরিকা ও ইউরোপের অধিকাংশে সমগ্র অর্ডোভিশিয়ান যুগে অগভীর মহাদেশীয় সমুদ্রের আবরণ ছিল, এবং প্রাণের স্ফুরণের পক্ষে এই পরিস্থিতি ছিল অণুকূল। বিশেষ করে ট্রাইলোবাইট বা ত্রিখণ্ডী ও ব্র্যাকিওপডরা ছিল সংখ্যায় প্রচুর ও বহু শাখা-প্রজাতিতে বিভক্ত। ক্যাম্ব্রিয়ান যুগেই একক প্রাণী হিসেবে প্রবালের আবির্ভাব হলেও প্রবাল প্রাচীর গঠনকারী প্রবাল প্রজাতিরা বিবর্তিত হয় অর্ডোভিশিয়ানে। আদি অর্ডোভিশিয়ানে সমুদ্রে কার্বনেটের স্থিতিশীলতার ফলে এই ঘটনা সম্ভব হয়েছিল। কার্বনেটের পর্যাপ্ত সরবরাহের উপর নির্ভর করে দেহে কার্বনেট সঞ্চয়কারী প্রাণীদের সমৃদ্ধি ঘটে।[১৫]

কম্বোজ-রাও প্রথম আবির্ভূত হয় ক্যাম্ব্রিয়ান বা তারও পূর্বে এডিয়াকারান যুগে, কিন্তু অর্ডোভিশিয়ানই তাদেরও বৈচিত্র্যের সূচনাকাল। বিভিন্ন কম্বোজ গোত্রের মধ্যে বাইভালভিয়া, গ্যাস্ট্রোপোডানটিলয়েড জাতীয় সেফালোপডরা সর্বাপেক্ষা উল্লেখযোগ্য।

গ্রাপ্‌টোলাইট নামক অধুনা-লুপ্ত এক প্রাণীগোষ্ঠী সমসাময়িক সমুদ্রে বাস করত। এই সময়ে কয়েকটি নতুন সিস্টয়েড ও ক্রিনয়েড প্রজাতির আবির্ভাব ঘটে।

অনেক দিন ধরে ভাবা হত প্রথম প্রকৃত মেরুদণ্ডীর (হেড়োচাম বা অস্ট্রাকোডার্ম) আবির্ভাব হয় অর্ডোভিশিয়ান যুগে। কিন্তু চীনে কৃত সাম্প্রতিক গবেষণায় জানা গেছে তাদের আবির্ভাব ঘটেছিল আদি ক্যাম্ব্রিয়ান যুগেই। প্রথম চোয়ালযুক্ত মাছ বা ন্যাথোস্টোমের বিবর্তন হয় অন্ত্য অর্ডোভিশিয়ান উপযুগে।

মধ্য অর্ডোভিশিয়ানে জৈব ক্ষয়কারী জীবকুলের প্রাচুর্য ও বৈচিত্র্য অনেক বেড়ে যায়। এই ঘটনাকে অর্ডোভিশীয় জৈবক্ষয় বিপ্লব বলা হয়।[২১] কঠিন তল-সংলগ্ন ছাপ জীবাশ্মের আকস্মিক আধিক্যের চিহ্ন এই ঘটনার প্রমাণ দেয়। এই সমস্ত ছাপ জীবাশ্মের মধ্যে ট্রাইপ্যানাইট, প্যালিওসাবেলা, পেট্রোজেস্টেস এবং অস্প্রিওনাইড-রা উল্লেখযোগ্য। এন্ডোবায়োটিক মিথোজীবীদের অনেকগুলো শাখা অর্ডোভিশিয়ানে আবির্ভূত হয়।[২২][২৩]

আদি অর্ডোভিশিয়ানে ট্রাইলোবাইটদের সাথে অন্যান্য বহু প্রজাতির আধিপত্যের সূচনা হয়। এদের মধ্যে ছিল স্তরীভূত প্রবাল, স্ট্রোফোমেনিডা, রিঙ্কোনেলিডা, নতুন প্রজাতির অর্থিড ব্র্যাকিওপড, ব্রায়োজোয়া, প্ল্যাঙ্কটনীয় গ্রাপ্‌টোলাইট এবং কনোডন্ট, ও বহু প্রজাতির কম্বোজ ও কন্টকত্বকী। এই শেষোক্ত প্রাণীদের মধ্যে পড়ে ওফিউরয়েড বা "ভঙ্গুর তারা" এবং প্রথম সাধারণ তারামাছ। ট্রাইলোবাইটদের প্রভাব গোটা আদি অর্ডোভিশিয়ান ধরেই অব্যাহত থাকে এবং তাদের মধ্যে নতুন বর্গ ফ্যাকোপিডার আবির্ভাব হয়। সেইসঙ্গে ক্যাম্ব্রিয়ানে বিবর্তিত সমস্ত গোত্রও টিঁকে থাকে। স্থলে উদ্ভিদের প্রথম চিহ্ন দেখা যায় এই সময়ে।

মধ্য অর্ডোভিশিয়ানে ট্রাইলোবাইট অধ্যুষিত জীবকুল অধিকতর বিচিত্র বাস্তুতন্ত্রের জন্ম দেয়, যেখানে ব্র্যাকিওপড, ব্রায়োজোয়া, কম্বোজ, কর্ণালিটিডা, টেন্টাকুলাইটকন্টকত্বকীরা ছিল উল্লেখযোগ্য। স্তরীভূত প্রবালরা বহু শাখায় বিভক্ত হয় এবং প্রথম কুঞ্চিত প্রবালের আবির্ভাব ঘটে। এইভাবে ট্রাইলোবাইটদের একাধিপত্য শেষ হয়। প্ল্যাঙ্কটন জাতীয় গ্রাপ্‌টোলাইটদের বৈচিত্র্য অব্যাহত থাকে; এদের এক বিশেষ শাখা ডিপ্লোগ্রাপ্টিনার বিবর্তন হয় এই সময়ে। জৈবক্ষয় একটি অতি গুরুত্বপূর্ণ আবহবিকার হিসেবে দেখা দেয়। প্রধানত প্রবাল, ব্রায়োজোয়া ও ব্র্যাকিওপডদের ক্যালসাইট নির্মিত কঙ্কাল এবং সমসাময়িক পৃথিবীতে সুলভ কার্বনেট ভূস্তরে এই প্রক্রিয়ার আধিক্য দেখা যায়। অ্যারাণ্ডাসপিস নামক অন্যতম প্রাচীনতম বর্মধারী আনাথা মেরুদণ্ডীর ("হেড়োচাম") জীবাশ্ম মধ্য অর্ডোভিশিয়ান থেকে পাওয়া।

অর্ডোভিশিয়ান যুগের ত্রিখণ্ডী বা ট্রাইলোবাইটরা তাদের পূর্ববর্তী ক্যাম্ব্রিয়ান যুগের জ্ঞাতিদের চেয়ে অনেকাংশে আলাদা ছিল। এদের বহু প্রজাতি বিচিত্র আকারের কাঁটা ও গুটি প্রভৃতি বিবর্তনের মাধ্যমে আদিম ইউরিপ্টেরিড, নটিলয়েড প্রভৃতি শিকারী প্রাণীদের আক্রমণ থেকে আত্মরক্ষার সুবিধা পায়। অ্যাগ্লিনা পিস্কা প্রভৃতি প্রজাতি সাঁতারের উপযুক্ত অঙ্গসংস্থান তৈরি করে। সমুদ্রের তলার কাদা থেকে খাদ্যসংগ্রহের জন্য কোনো কোনো ত্রিখণ্ডীর মুখে আবার বেলচা-সদৃশ তুণ্ডের আবির্ভাব ঘটে। ট্রাইনিউক্লিড নামক ত্রিখণ্ডীদের এক অল্প পরিচিত জ্ঞাতি তাদের শিরস্ত্রাণের চারদিকে এক চওড়া সীমারেখার বিবর্তন ঘটায়।[২৪] অ্যাসাফাস কোয়ালেউস্কি প্রভৃতি কিছু কিছু ত্রিখণ্ডীর মাথায় শিকারীদের শনাক্ত করার জন্য দণ্ডাকার চোখের আবির্ভাব হয়, আবার অন্যান্য কিছু প্রজাতির চোখ সম্পূর্ণ লোপ পায়।[২৫] আণবিক ঘড়ি বিশ্লেষণের মাধ্যমে জানা যায়, অর্ডোভিশিয়ানের অন্তিম লগ্নে অ্যারাকনিড জাতীয় সন্ধিপদীরা স্থলে বসবাস শুরু করে।[২৬]

উদ্ভিদকুল[সম্পাদনা]

ক্যাম্ব্রিয়ান বা তারও আগে থেকে সবুজ শৈবালের অস্তিত্ব ছিল। অর্ডোভিশিয়ানেও তারা বর্তমান থাকে। সবুজ শৈবাল থেকে স্থলজ অন্যান্য উদ্ভিদের বিবর্তন হয়, যারা দেখতে ছিল লিভারওয়ার্ট মসের মত। এদের দেহে নালিকা বাণ্ডিল ছিল না। উচ্চ অর্ডোভিশীয় পলিস্তর থেকে স্থলজ উদ্ভিদের জীবাশ্মীভূত রেণু পাওয়া গেছে।

অর্ডোভিশিয়ান যুগে ডাঙায় উদ্ভিদের বিস্তার সম্ভবত সমুদ্রোপকূলে সীমাবদ্ধ ছিল।

প্রথম স্থলজ ছত্রাক হিসেবে আত্মপ্রকাশ ঘটে আর্বাস্কুলার মাইকোরাইজার (গ্লোমেরালেস বর্গ)। মিথোজীবিতার মাধ্যমে এরা আশ্রয়দাতা উদ্ভিদের দেহে প্রয়োজনীয় খনিজ পৌষ্টিক দ্রব্য সরবরাহ করে ডাঙায় উদ্ভিদের বিস্তারে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। উইসকনসিন থেকে অর্ডোভিশিয়ান যুগের প্রায় ৪৬ কোটি বছরের পুরোনো এই গোত্রের ছত্রাকের জীবাশ্মীভূত রেণু ও হাইফা উদ্ধার করা হয়েছে। সমসাময়িক স্থলজ উদ্ভিদ বলতে খুব সম্ভবত ব্রায়োফাইটা জাতীয় উদ্ভিদদেরই বোঝাত।[২৯]

যুগের সমাপ্তি[সম্পাদনা]

একাধিক বিলুপ্তি ঘটনার মধ্য দিয়ে অর্ডোভিশিয়ান যুগ শেষ হয়, এবং এই ঘটনাগুলিকে একত্রে ধরলে তারা পৃথিবীর ইতিহাসে সংঘটিত পাঁচটি মহাবিলুপ্তির মধ্যে দ্বিতীয় বৃহত্তম হিসেবে প্রতিভাত হয়। এই অর্ডোভিশিয়ান-সিলুরিয়ান বিলুপ্তি ঘটনার চেয়েও বড় মাপের বিলুপ্তি ঘটনা একটিই ঘটেছে: পার্মিয়ানট্রায়াসিক যুগের মাঝখানে, যাকে পার্মিয়ান-ট্রায়াসিক বিলুপ্তি ঘটনা বলা হয়।

বিলুপ্তি ঘটনাগুলির সময়সীমা ছিল মোটামুটি আজ থেকে ৪৪ কোটি ৭০ লক্ষ থেকে ৪৪ কোটি ৪০ লক্ষ বছর আগে, অর্ডোভিশিয়ান ও পরবর্তী সিলুরিয়ান যুগের সীমানায়। সমসাময়িক বহুকোশী প্রাণীকুল পুরোপুরি জলচর, আর তাদের ৪৯% এই ঘটনার অভিঘাতে লোপ পেয়েছিল। ব্র্যাকিওপডব্রায়োজোয়া জাতীয় প্রাণীর সংখ্যা খুব কমে যায় এবং অনেক ট্রাইলোবাইট, কনোডন্টগ্রাপ্‌টোলাইট গোত্রও ক্ষতিগ্রস্ত হয়।

সর্বাপেক্ষা সমর্থিত যুক্তি অণুযায়ী কেটিয়ান অধোযুগ থেকে সৃষ্ট শীতল জলবায়ুই এই বিলুপ্তি ঘটনাগুলোর কারণ। এর পরবর্তী হার্নানশিয়ান অধোযুগে একটি তুষার যুগ আসে, যার ফলে গোটা অর্ডোভিশিয়ান জুড়ে বজায় থাকা স্থিতিশীল গ্রিনহাউস পরিবেশের অবসান ঘটে।

খুব সম্ভবত তুষার যুগটি ছিল ক্ষণস্থায়ী; সমসাময়িক ব্র্যাকিওপড জীবাশ্মের অক্সিজেন সমস্থানিক বিশ্লেষণ করে বোঝা যায় এটির স্থায়িত্ব ছিল ৫ লক্ষ থেকে ১৫ লক্ষ বছরের মাঝামাঝি।[৩০] অন্যান্য গবেষক (পেজ প্রমুখ) মনে করেন অন্ত্য সিলুরিয়ানের আগে আর নাতিশীতোষ্ণ জলবায়ুর পুনঃসূচনা হয়নি।

অন্ত্য অর্ডোভিশীয় হিমযুগের সূচনা হয় বায়ুমণ্ডলীয় কার্বন ডাই অক্সাইডের অবনমন (৭০০০ থেকে ৪৪০০ পিপিএম) দ্বারা।[৩১][৩২] এই অবনমনের কারণ ছিল ধারাবাহিক অগ্ন্যুৎপাত, যার ফলে প্রচুর সিলিকেট পাথর ভূপৃষ্ঠে সঞ্চিত হয়েছিল। সিলিকেট পাথর ক্ষয় পাওয়ার সময় বাতাস থেকে CO শোষণ করে নেয়।[৩২] এর ফলে তৎকালীন অধিকাংশ জীবের বাসস্থান অগভীর সমুদ্রে প্রতিকূল পরিবেশ সৃষ্টি হয়। দক্ষিণের অতিমহাদেশ গণ্ডোয়ানা কুমেরুর দিকে অগ্রসর হওয়ার ফলে তার উপরিভাগে বরফের আস্তরণ জমে ওঠে। এর প্রমাণ পাওয়া গেছে বর্তমান উত্তর আমেরিকা এবং দক্ষিণ আমেরিকার উত্তর-পূর্বাংশ থেকে। এই দুটি অঞ্চলই অর্ডোভিশিয়ানে কুমেরু-সন্নিহিত ছিল।

হিমযুগের সময় সারা পৃথিবীর সমুদ্রপৃষ্ঠ নেমে যায়, উষ্ণতর অন্তর্বর্তী হিমযুগে আবার তা পূর্ববর্তী উচ্চতা ফিরে পায়। এই প্রক্রিয়ার বারংবার পুনরাবৃত্তির ফলে অর্ডোভিশিয়ানের বিশাল আন্তর্মহাদেশীয় সমুদ্রসমূহ বার বার শুকিয়ে গিয়েছিল, সেইসঙ্গে সংশ্লিষ্ট বাস্তুতন্ত্রের জীববৈচিত্র্য ক্ষুণ্ণ হয়েছিল।[৩৩] যে সমস্ত প্রজাতি নির্দিষ্ট কিছু এলাকার মধ্যেই সীমাবদ্ধ ছিল তাদের ক্ষতির অণুপাত ছিল সবচেয়ে বেশি।[৩০] প্রথম ধাক্কায় ক্রান্তীয় জীবকুল বিপন্ন হয় সর্বাধিক, এবং দ্বিতীয় ধাক্কায় শীতল সমুদ্রের জীবকুলে সংকট আসে।[৩০]

বিলুপ্তি ঘটনাটির একটি বিকল্প তত্ত্ব অণুযায়ী সমসাময়িক দশ সেকেন্ড ব্যাপী একটি গামা রশ্মি বিস্ফোরণ পৃথিবীর স্থলচর ও জলচর জীবকুলকে মারাত্মক তেজস্ক্রিয় বিকিরণের সামনে উন্মুক্ত করে থাকতে পারে এবং একই সাথে বিশ্বব্যাপী শীতলীকরণেরও সূচনা করে থাকতে পারে।[৩৪]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Image:Sauerstoffgehalt-1000mj.svg
  2. Image:Phanerozoic Carbon Dioxide.png
  3. Image:All palaeotemps.png
  4. Haq, B. U.; Schutter, SR (২০০৮)। "A Chronology of Paleozoic Sea-Level Changes"। Science322 (5898): 64–68। doi:10.1126/science.1161648PMID 18832639বিবকোড:2008Sci...322...64H 
  5. "International Chronostratigraphic Chart v.2015/01" (PDF)International Commission on Stratigraphy। জানুয়ারি ২০১৫।  অজানা প্যারামিটার |1= উপেক্ষা করা হয়েছে (সাহায্য)
  6. Charles Lapworth (1879) "On the Tripartite Classification of the Lower Palaeozoic Rocks," Geological Magazine, new series, 6 : 1-15. From pp. 13-14: "North Wales itself — at all events the whole of the great Bala district where Sedgwick first worked out the physical succession among the rocks of the intermediate or so-called Upper Cambrian or Lower Silurian system; and in all probability much of the Shelve and the Caradoc area, whence Murchison first published its distinctive fossils — lay within the territory of the Ordovices; … Here, then, have we the hint for the appropriate title for the central system of the Lower Palaeozoics. It should be called the Ordovician System, after this old British tribe."
  7. Wellman, C.H., Gray, J. (২০০০)। "The microfossil record of early land plants"Phil. Trans. R. Soc. B355 (1398): 717–732। doi:10.1098/rstb.2000.0612PMID 10905606পিএমসি 1692785অবাধে প্রবেশযোগ্য 
  8. Gradstein, F. M., সম্পাদক (২০১২)। The Geologic Time Scale 2012। Elsevier Science Ltd। পৃষ্ঠা 504। আইএসবিএন 978-0444594259 
  9. Details on the Dapingian are available at doi:10.1111/j.1502-3931.2009.00169.x  |শিরোনাম= অনুপস্থিত বা খালি (সাহায্য)
  10. Heck, Philipp R.; Schmitz, Birger; Baur, Heinrich; Halliday, Alex N.; Wieler, Rainer (২০০৪)। "Fast delivery of meteorites to Earth after a major asteroid collision"। Nature430 (6997): 323–5। doi:10.1038/nature02736PMID 15254530বিবকোড:2004Natur.430..323H 
  11. Haack, Henning; Farinella, Paolo; Scott, Edward R. D.; Keil, Klaus (১৯৯৬)। "Meteoritic, Asteroidal, and Theoretical Constraints on the 500 MA Disruption of the L Chondrite Parent Body"। Icarus119: 182–91। doi:10.1006/icar.1996.0010বিবকোড:1996Icar..119..182H 
  12. Korochantseva, Ekaterina V.; Trieloff, Mario; Lorenz, Cyrill A.; Buykin, Alexey I.; Ivanova, Marina A.; Schwarz, Winfried H.; Hopp, Jens; Jessberger, Elmar K. (২০০৭)। "L-chondrite asteroid breakup tied to Ordovician meteorite shower by multiple isochron 40Ar-39Ar dating"। Meteoritics & Planetary Science42: 113–30। doi:10.1111/j.1945-5100.2007.tb00221.xবিবকোড:2007M&PS...42..113K 
  13. doi:10.1016/S0031-0182(98)00109-6  |শিরোনাম= অনুপস্থিত বা খালি (সাহায্য)
  14. Stanley, S. M.; Hardie, L. A. (১৯৯৯)। "Hypercalcification; paleontology links plate tectonics and geochemistry to sedimentology"। GSA Today9: 1–7। 
  15. doi:10.1016/j.palaeo.2010.08.001  |শিরোনাম= অনুপস্থিত বা খালি (সাহায্য)
  16. জলবায়ুর পরিবর্তনের মাধ্যমে সামুদ্রিক জীববৈচিত্র্য বিস্ফোরণের ব্যাখ্যা
  17. পৃথিবীর শীতলায়ন ও প্রাণের যাত্রা অব্যাহত রাখায় মসের ঐতিহাসিক ভূমিকা
  18. Dixon, Dougal; ও অন্যান্য (২০০১)। Atlas of Life on Earth। New York: Barnes & Noble Books। পৃষ্ঠা 87। আইএসবিএন 0-7607-1957-8 
  19. "প্যালিওস প্যালিওজোয়িক : অর্ডোভিশিয়ান : অর্ডোভিশিয়ান যুগ"। ২১ ডিসেম্বর ২০০৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৫ আগস্ট ২০১৫ 
  20. Cooper, John D.; Miller, Richard H.; Patterson, Jacqueline (১৯৮৬)। A Trip Through Time: Principles of Historical Geology। Columbus: Merrill Publishing Company। পৃষ্ঠা 247, 255–259। আইএসবিএন 0-675-20140-3 
  21. Wilson, M. A.; Palmer, T. J. (২০০৬)। "Patterns and processes in the Ordovician Bioerosion Revolution" (PDF)Ichnos13 (3): 109–112। doi:10.1080/10420940600850505 
  22. Vinn, O.; Mõtus, M.-A. (২০১২)। "Diverse early endobiotic coral symbiont assemblage from the Katian (Late Ordovician) of Baltica"Palaeogeography, Palaeoclimatology, Palaeoecology। 321–322: 137–141। doi:10.1016/j.palaeo.2012.01.028। সংগ্রহের তারিখ ২০১৪-০৬-১১ 
  23. Vinn, O., Wilson, M.A., Mõtus, M.-A. and Toom, U. (২০১৪)। "The earliest bryozoan parasite: Middle Ordovician (Darriwilian) of Osmussaar Island, Estonia"Palaeogeography Palaeoclimatology Palaeoecology414: 129–132। doi:10.1016/j.palaeo.2014.08.021। সংগ্রহের তারিখ ২০১৪-০১-০৯ 
  24. "Palaeos Paleozoic : Ordovician : The Ordovician Period"। এপ্রিল ১১, ২০০২। ২১ ডিসেম্বর ২০০৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  25. ট্রাইলোবাইট বর্গসমূহের নির্দেশিকা
  26. Garwood, Russell J.; Sharma, Prashant P.; Dunlop, Jason A.; Giribet, Gonzalo (২০১৪)। "A Paleozoic Stem Group to Mite Harvestmen Revealed through Integration of Phylogenetics and Development"Current Biology24 (9): 1017–1023। doi:10.1016/j.cub.2014.03.039। সংগ্রহের তারিখ এপ্রিল ১৭, ২০১৪ 
  27. Wilson, M. A.; Palmer, T. J. (২০০১)। "Domiciles, not predatory borings: a simpler explanation of the holes in Ordovician shells analyzed by Kaplan and Baumiller, 2000"। PALAIOS16 (5): 524–525। doi:10.1669/0883-1351(2001)016<0524:DNPBAS>2.0.CO;2 
  28. Wilson, M. A.; Palmer, T. J. (২০০৬)। "Patterns and processes in the Ordovician Bioerosion Revolution" (PDF)Ichnos13 (3): 109–112। doi:10.1080/10420940600850505 
  29. Redecker, D.; Kodner, R.; Graham, L. E. (২০০০)। "Glomalean fungi from the Ordovician"। Science289 (5486): 1920–1921। doi:10.1126/science.289.5486.1920PMID 10988069বিবকোড:2000Sci...289.1920R 
  30. Stanley, Steven M. (১৯৯৯)। Earth System History। New York: W.H. Freeman and Company। পৃষ্ঠা 358, 360। আইএসবিএন 0-7167-2882-6 
  31. Young, Seth A.; Saltzman, Matthew R.; Ausich, William I.; Desrochers, André; Kaljo, Dimitri (২০১০)। "Did changes in atmospheric CO2 coincide with latest Ordovician glacial–interglacial cycles?"। Palaeogeography, Palaeoclimatology, Palaeoecology296 (3–4): 376–388। doi:10.1016/j.palaeo.2010.02.033 
  32. Jeff Hecht, High-carbon ice age mystery solved, New Scientist, 8 March 2010 (retrieved 30 June 2014)
  33. Emiliani, Cesare. (1992). Planet Earth : Cosmology, Geology, & the Evolution of Life & the Environment (Cambridge University Press) p. 491
  34. Melott, Adrian; ও অন্যান্য (২০০৪)। "Did a gamma-ray burst initiate the late Ordovician mass extinction?"। International Journal of Astrobiology3: 55–61। arXiv:astro-ph/0309415অবাধে প্রবেশযোগ্যdoi:10.1017/S1473550404001910বিবকোড:2004IJAsB...3...55M 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]

প্যালিওজোয়িক মহাযুগ
ক্যাম্ব্রিয়ান অর্ডোভিশিয়ান সিলুরিয়ান ডেভোনিয়ান কার্বনিফেরাস পার্মিয়ান