ভিসুভিয়াস পর্বত

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
(মাউন্ট ভিসুভিয়াস থেকে পুনর্নির্দেশিত)
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
ভিসুভিয়াস পর্বত
Monte Vesuvio
Vesuvius from Pompeii (hires version 2 scaled).png
পম্পেই শহরের ধ্বংসাবশেষ থেকে দৃশ্যমান ভিসুভিয়াস পর্বত, যা ৭৯ খ্রিষ্টপূর্বাব্দের অগ্ন্যুৎপাতে ধ্বংস হয়ে যায় । বামপাশের উচু চূড়াটি সক্রিয় জ্বালামুখ; ডানপাশের নিচু চূড়াটি সোমা ক্যালডেরা দেয়ালের অংশ ।
সর্বোচ্চ সীমা
উচ্চতা১,২৮১ মিটার (৪,২০৩ ফুট)
সুপ্রত্যক্ষতাগ্রান কোনো
বিচ্ছিন্নতা[রূপান্তর: একটি সংখ্যা প্রয়োজন]
ভূগোল
ভিসুভিয়াস পর্বত ইতালি-এ অবস্থিত
ভিসুভিয়াস পর্বত
ভিসুভিয়াস পর্বত
প্রদেশIT
ভূতত্ত্ব
শিলার বয়স25,000 years before present to 1944 আগ্নেয়গিরির বয়স = বর্তমান থেকে প্রায় ১৭,০০০ বছর
পর্বতের ধরনসোমা আগ্নেয়গিরি
আগ্নেয়গিরিতুল্য চাপ/বলয়কাম্পানিয়ান আগ্নেয় চাপ
সর্বশেষ অগ্ন্যুত্পাত১৯৪৪
আরোহণ
সহজ পথহাঁটা

ভিসুভিয়াস পর্বত (ইতালীয়: Monte Vesuvio, লাতিন ভাষায়: Mons Vesuvius) ইতালির নেপলস উপসাগরীয় অঞ্চলের একটি আগ্নেয়গিরি। নেপলস থেকে ৯ কিলোমিটার পূর্বে সমুদ্রউপকূলের খুব কাছে এর অবস্থান। এটি ইউরোপের মূল ভূখন্ডের মধ্যে অবস্থিত একমাত্র আগ্নেয়গিরি যাতে বিগত কয়েক শতাব্দীর মধ্যে অগ্ন্যুৎপাত হয়েছে, যদিও বর্তমানে এটিতে কোন অগ্ন্যুৎপাত হচ্ছেনা। ইতালির অপর দুটি প্রধান সক্রিয় আগ্নেয়গিরি এতনা ও স্ট্রমবোলি এর অবস্থান যথাক্রমে সিসিলি ও স্ট্রমবোলি দ্বীপদ্বয়ে ।

ভিসুভিয়াস পর্বত বেশি পরিচিত এর খিষ্টপূর্ব ৭৯ অব্দের অগ্ন্যুৎপাতের জন্য যাতে রোমান শহর পম্পেই এবং হারকিউলানিয়াম লাভার নিচে চাপা পড়ে ধ্বংস হয়ে যায় । এ শহরদুটি পরবর্তীতে আর পুনঃর্নিমাণ করা হয়নি । যদিও শহরগুলোর বেঁচে যাওয়া অধিবাসীরা এবং সম্ভবতঃ লুটেরারা ধ্বংসাবশেষ থেকে প্রচুর জিনিষপত্র সংগ্রহ করেছিল । কালক্রমে শহরদুটির অবস্থান সবাই ভুলে গিয়েছিল; পরবর্তীতে ১৮শ শতকে ঘটনাক্রমে শহরগুলো আবার খুঁজে পাওয়া যায় ।

এই অগ্ন্যুৎপাতের ফলে সারনো নদীর গতিপথ পরিবর্তিত হয়ে গিয়েছিল এবং সমুদ্রতটও আগের থেকে উঁচু হয়ে গিয়েছিল । তাই বর্তমানে পম্পেই শহরের অবস্থান না নদীর তীরবর্তী না সমুদ্রোপকূল সংলগ্ন । ভিসুভিয়াসও সময়ের সাথে সাথে ব্যাপকভাবে পরিবর্তিত হয়েছে – এর ঢালের সবুজ জঙ্গল আর নেই এবং অগ্ন্যুৎপাতের ধাক্কায় এর চূড়া অনেকটাই বদলে গেছে । সেই সময় থেকে বর্তমান পর্যন্ত ভিসুভিয়াসে অনেকবার অগ্ন্যুৎপাত হয়েছে এবং বর্তমানে এটিকে বিশ্বের অন্যতম ভয়ংকর আগ্নেয়গিরিগুলোর মধ্যে একটি হিসাবে গণ্য করা হয় কেননা এর আশপাশের এলাকায় ৩,০০০,০০০ মানুষ বসবাস করে এবং এটির বিস্ফোরণের মত অগ্ন্যুৎপাতের প্রবণতা রয়েছে । এটি পৃথিবীর সবচেয়ে জনবহুল অগ্নুৎপাতপ্রবণ এলাকা ।[১]

পুরান[সম্পাদনা]

ভিসুভিয়াসের সুদীর্ঘ ঐতিহাসিক এবং সাহিত্যিক ঐতিহ্য রয়েছে । খ্রিস্টপূর্ব ৭৯ অব্দের অগ্ন্যুৎপাতের সময়কালে এটিকে স্বর্গীয় দৈত্যের মত বিবেচনা করা হতো । পম্পেই শহরের টিকে যাওয়া অনেক গৃহমন্দির বা lararia এর ভেতর ভিসুভিয়াস নামটি একটি সর্প হিসাবে অলঙ্করনের সাথে খোদাইকৃত অবস্থায় পাওয়া গেছে । ক্যাপুয়া থেকে প্রাপ্ত IOVI VESVVIO এর প্রতি লেখা একটি শিলালিপি[২] থেকে জানা যায় যে এটিকে তখন জুপিটারের একটি শক্তি হিসেবে উপাসনা করা হতো; অর্থাৎ জুপিটার ভিসুভিয়াস ।[৩]

ঐতিহাসিক ডিওডোরাস সিকিউলাস এ মতে হারকিউলিস তার দায়িত্বগুলো পালন করার জন্য সিসিলি যাবার পথে পার্শ্ববর্তী কিউমে দেশের মধ্য দিয়ে যাচ্ছিল এবং সেখানে সে একটি স্থানের খোঁজ পায় যার নাম "the Phlegraean Plain" (phlegraion pedion, "plain of fire"), একটি পাহাড় যা প্রাচীনকালে আগুন উগড়ে দিত–––এখন যার নাম ভিসুভিয়াস । এটি তখন দস্যুদের আস্তানা ছিল ’’পৃথিবীর মানুষ’ যারা ছিল দৈত্যাকৃতির । দেবতাদের সহায়তায়ে হারকিউলিস এই এলাকায় শান্তি প্রতিষ্ঠা করেন এবং এগিয়ে যান ।

নামের উৎস[সম্পাদনা]

রোমান প্রজাতন্ত্রের শেষদিকের এবং রোমান সাম্রাজ্যের শুরুর দিকের লেখকদের দ্বারা আগ্নেয়গিরির নাম হিসেবে ভিসুভিয়াস (Vesuvius) নামটি অনেক ব্যবহৃত হতো । এর অন্যান্য নামগুলো হচ্ছেঃ Vesaevus, Vesevus, Vesbius and Vesvius ।[৪] প্রাচীন গ্রীসের লেখকেরা Οὐεσούιον বা Οὐεσούιος নামগুলোও ব্যবহার করতো । সেই সময় থেকেই অনেক বিশেষজ্ঞ নামটির বুৎপত্তি বিশ্লেষণ করেছেন । যেহেতু রোমান লৌহযুগে বিভিন্ন জাতিগত ও ভাষার লোক ক্যামপানিয়ায় বসবাস করতো, এই নামের বুৎপত্তি অনেকটাই সেই সময়ে লোকজন কোন ভাষায় কথা বলতো সেই ধারণার ওপর ভিত্তি করে নির্ধারিত হয়েছে ।

বাহ্যিক গড়ন[সম্পাদনা]

গঠন[সম্পাদনা]

অগ্ন্যুৎপাত[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. McGuire, Bill (১৬ অক্টোবর ২০০৩)। "In the shadow of the volcano"guardian.co.uk। Guardian News and Media Limited। সংগ্রহের তারিখ ৮ মে ২০১০ 
  2. CIL x.1, 3806.
  3. Waldstein 1908, পৃ. 97
  4. Lewis, Charlton T.; Short, Charles (২০১০) [1879]। "Vesuvius"A Latin Dictionary। Medford, MA: The Perseus Project, Tufts University। 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]

  • Purcell, N., R. Talbert, T. Elliott, S. Gillies। "Places: 433189 (Vesuvius M.)"। Pleiades। সংগ্রহের তারিখ March 8, 2012 3:40 pm  এখানে তারিখের মান পরীক্ষা করুন: |সংগ্রহের-তারিখ= (সাহায্য)
  • Fraser, Christian (১০ জানুয়ারি ২০০৭)। "Vesuvius escape plan 'insufficient'"BBC News। Naples: BBC। সংগ্রহের তারিখ ১১ মে ২০১০ 
  • Garrett, Roger A.; Klenk, Hans-Peter (২০০৫)। "Vesuvius' next eruption"Geotimes। সংগ্রহের তারিখ ২০০৬-১২-০৮  অজানা প্যারামিটার |month= উপেক্ষা করা হয়েছে (সাহায্য)
  • "Vesuvius: The making of a catastrophe: Il problema ignorato"। Global Volcanic and Environmental Systems Simulation (GVES)। ১৯৯৬–২০০৩।